Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

মাগুরায় ডিবি পরিচয়ে চাঁদাবাজী চক্রের মূল হোতাসহ তিনজন গ্রেফতার

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৩৪৩জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরায় ডিবি পরিচয়ে চাঁদাবাজী চক্রের মুলহোতা জাহিদ শিকদারসহ (২৭) তিনজনকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা।গোপনসুত্রে  খবর পেয়ে রোববার ৪ মে সকালে জেলা সদরের ভিটাসাইর ইসলাম বাগ পাড়ায় অভিযান চালিয়ে ৪টি ছুরি ৭ টি তরবারি বল্লম ৫টি বল্লমসহ ৩ জনকে আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের  অফিসার্স ইনচার্জ ওসি সৈয়দ মোশারফ হোসেন বলেন মাগুরার পুলিশ সুপার মোঃ মশিউদৌলা রেজার সার্বিক তত্বাবধানে পরিচালিত, অভিযানে প্রথম আটক হওয়া জাহিদ শিকদার ভিটাশাইর গ্রামের মান্নাফ শিকদারের ছেলে। আটকের পর জাহিদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরে অভিযান চালিয়ে তার সহযোগী শিমুলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলাম এর ছেলে সাগর হোসেন(২২) ও একই গ্রামের ছোলেমান মোল্লার ছেলে রাসেল মোল্ল্যাকে (২১) আটক করা হয়।

তিনি বলেন, আটক হওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে মাগুরার একাধিক ব্যক্তির কাছে চাঁদা দাবি করা ও মাঝে মাঝে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে মানুষের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করার অভিযোগ রয়েছে।


আরও খবর



কালিয়াকৈরে আত্মহত্যার চিরকুট লিখে আত্মগোপনে ছিল সেই ছাত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে তুরাগ নদীপাড়ে জুতা ও আত্মহত্যার একটি চিরকুট লিখে আত্মগোপনে ছিল সেই কলেজ ছাত্রী। তার পরিবার, পুলিশ ও ডুবুরী দল তাকে উদ্ধারে ব্যর্থ হলে ৩৭ ঘন্টা পর বুধবার সকালে হঠাৎ নিজেই তার বাড়িতে এসে উঠে। উপজেলার কালিয়াদহ এলাকায় এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটে। এমন কান্ডজ্ঞানহীন ঘটনা নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা করছেন উপজেলাবাসী।ওই ছাত্রী হলো, কালিয়াকৈর উপজেলার কালিয়াদহ এলাকার সোহরাব সিকদারের মেয়ে সুমাইয়া আক্তার। সে এবার গুচ্ছতে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।

এলাকাবাসী, ফায়ার সার্ভিস ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সুমাইয়া গত সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কালিয়াকৈর উপজেলার কালিয়াদহ এলাকায় বাড়ির পাশে তুরাগ নদীপাড়ে তার জুতা ও আত্মহত্যার একটি চিরকুট লিখে আত্মগোপনে যায়। ‘তোমরা যেমন সন্তান চাইছো, ঐ রকম সন্তান হইতে পারি নাই। আমি তোমাগো ইজ্জত রক্ষা করতে পারলাম না। পারলে মাফ কইরো। আমি ভিতর থেকে শেষ। আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী না। নদীর পানিতে হয়তো পাইবা আমারে।

ভালো থাইকো, মাফ কইরা দিও। এমন চিরকুট লিখে সুমাইয়া নিখোঁজ হওয়ায় তুরাগ নদীতে ঝাঁপ দিয়েছে এমন সন্দেহ হলে ওইদিন রাতেই কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ ও টঙ্গী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের একদল ডুবুরী পরের দিন গত মঙ্গলবার ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ওই নদীতে উদ্ধার কাজ চালিয়েও তার খোঁজ পায়নি ডুবুরী দল।

খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শরিফা আক্তার, স্থানীয় ইউপি সদস্য আরিফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এছাড়াও ওই গ্রামসহ আশপাশের এলাকার উৎসুক জনতা তুরাগ নদীর পাড়ে ভীড় জমায়। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সুমাইয়া তার বাড়িতে চলে আসে। পরে পরিবারের লোকজন তাকে নিয়ে থানায় উপস্থিত হয়ে তার নিখোঁজের সাধারণ ডায়েরী (জিডি) প্রত্যাহার করেন। এদিকে এমন কান্ডজ্ঞানহীন ঘটনা নিয়ে নানা আলোচনা ও সমালোচনা করছেন উপজেলাবাসী। তবে কি কারণে এমন কান্ডজ্ঞানহীন ঘটনা ঘটালো? সেসব তথ্য  এড়িয়ে পরিবারের দাবী, সে তার এক বান্ধবীর বাসায় ছিল।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আরিফুল ইসলাম জানান, সকালে নিজেই বাড়ি এলে তার পরিবারের লোকজন তাকে নিয়ে থানায় গিয়ে জিডি প্রত্যাহার করেন।


আরও খবর



পরিবেশবান্ধব ডেলিভারি জোরদারে আরএফএল’র সাথে ফুডপ্যান্ডার চুক্তি

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পরিবেশবান্ধব ডেলিভারি ও রাইডারদের সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিতের লক্ষ্যে সম্প্রতি আরএফএল গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান দুরন্ত বাইসাইকেলের সাথে একটি চুক্তি সই করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ফুড ও গ্রোসারি ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম ফুডপ্যান্ডা। এ চুক্তির ফলে দুরন্ত বাইসাইকেল কিনলে ১৫ শতাংশ ছাড় পাবেন ফুডপ্যান্ডার রাইডাররা।

রাজধানীর গুলশানে ফুডপ্যান্ডার প্রধান কার্যালয়ে এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ফুডপ্যান্ডার ফাইন্যান্স ডিরেক্টর জামাল ইউসুফ জুবেরি এবং দুরন্ত’র (আরএফএল গ্রুপ) করপোরেট সেলসের জেনারেল ম্যানেজার মো. তৌহিদুল ইসলাম ভূইয়া নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন। এ সময় উভয় প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

এ চুক্তি প্রসঙ্গে ফুডপ্যান্ডা বাংলাদেশের ফাইন্যান্স ডিরেক্টর জামাল ইউসুফ জুবেরি বলেন, “এখন ফুডপ্যান্ডার ৯০ শতাংশের বেশি রাইডার সাইকেল ও ই-বাইক এর মতো পরিবেশবান্ধব বাহন ব্যবহার করে গ্রাহকের দোরগোড়ায় খাবার ও গ্রোসারি পৌঁছে দেন। এ চুক্তির ফলে সারাদেশের রাইডার পার্টনাররা আরও সহজে ছাড়কৃত মূল্যে পরিবেশবান্ধব বাহন সাইকেল কেনার সুযোগ পাবেন।”ফুডপ্যান্ডার রাইডার পার্টনাররা রাইডারশপ ওয়েবসাইট থেকে নিজেদের পছন্দের মডেলের বাইসাইকেল কিনতে পারবেন। এরপর রাইডারদের ঠিকানায় বিনামূল্যে বাইসাইকেল পৌঁছে দেবে দুরন্ত।

উল্লেখ্য, জীবিকা নির্বাহের সুযোগ তৈরির পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবা সহায়তা, বিমা ও দক্ষতা উন্নয়নে অনলাইন শিক্ষার সুযোগ তৈরির মাধ্যমে রাইডারদের কল্যাণের জন্য নিবেদিতভাবে কাজ করে আসছে ফুডপ্যান্ডা৷


আরও খবর

রাজধানীতে তাজিয়া মিছিল শুরু

বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪




মির্জাপুরের আটিয়া মামুদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিনিধি টাঙ্গাইল থেকে:টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নে অবস্থিত আটিয়া মামুদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং বর্তমান ম্যানেজিং কমিটির বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।জানা যায়, ২০২১ সালে করোনাকালীন সময়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বোর্ড কর্তৃক ফেরত দেওয়া টাকা স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুর রাজ্জাক পরীক্ষার্থীদের ফেরত না দিয়ে নিজ একাউন্টে রেখে দেন। গত কয়েক মাস পূর্বে এ নিয়ে গণমাধ্যমে লেখালেখি হলে তিনি কিছু সংখ্যক পরীক্ষার্থীকে সেই টাকা ফেরত দেন।বিদ্যালয়ের শূন্য পদের জন্য একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। সেই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে বিদ্যালয়ের নাম সহ একাধিক বানান ভুল দেখা যায়। পরবর্তীতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিষয়টি প্রকাশ পেলে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পুনরায় অনেকটা গোপনে দ্বিতীয়বার সংশোধিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। আবেদনকারীদের দরখাস্ত যাচাই বাছাই এবং পরীক্ষা গ্রহণের পূর্বেই চারজন প্রার্থীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা অগ্রিম ঘুষ নেওয়ার খবর অত্র এলাকার মানুষের মুখে মুখে এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে। ঘুষের টাকা ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে মামুদপুর বাজারে বাকবিতণ্ডার খবরও পাওয়া গেছে। অন্যদিকে বিদ্যালয়ের এক অভিভাবক সদস্য নজরুল ইসলামের ছোট ভাইকে বিদ্যালয়ের নিয়োগ দেওয়ার জন্য জমি বিক্রি করে টাকা দেন। নজরুল ইসলামের পিতা বিক্রয় করা সেই জমিতে গিয়ে হার্ট হাস্ট্রোক করে সেখানেই মারা যান। জমির শোকে মৃত্যুর খবর এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। এছাড়া বিদ্যালয়ে দাতা সদস্য নিয়োগেও অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। প্রথমে ফাহমিদা আক্তার লিজু নামে একজনকে বিদ্যালয় এর নির্ধারিত ফি ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে দাতা সদস্য করা হয়। পরবর্তীতে গত ২২ জুন তারিখে পিছনের তারিখ অর্থাৎ ১জুন তারিখ সম্বলিত ৫০ হাজার টাকা ফি ধার্য করে পুনরায় দাতা সদস্য নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিটি একদিন অর্থাৎ ২৩ জুন নোটিশ বোর্ডে দেখা গেলেও ২৪ জুন সেটা তুলে ফেলা হয়। নিয়মানুসারে অভিভাবক ভোটার তালিকা, টি আর সদস্য তালিকা এবং দাতা সদস্যর চূড়ান্ত তালিকা নোটিশ বোর্ডে কমপক্ষে তিন কর্ম দিবস পর্যন্ত প্রদর্শনের বিধান থাকলেও বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সেটা না করে শুধুমাত্র অভিভাবক ভোটার তালিকা প্রকাশ করেন, পরে সেটাও ছিঁড়ে ফেলা হয়। এ বিষয়ে ফাহমিদা আক্তার লিজু'র সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, স্কুল কর্তৃপক্ষ আমার সাথে প্রতারণা করেছে; আমি এ বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নিব। বিদ্যালয়ের এই সকল অনিয়মের বিষয়ে মামুদপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা এবং আনাই তারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা কামাল ময়নাল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঐ সমস্ত অনিয়মের বিষয়ে আমি নিজেও জানি, আমি খুব শীঘ্রই এলাকাবাসীদের সাথে আলোচনা করে পদক্ষেপ নিব। কারণ এটা আমাদের মামুদপুর গ্রামের একটি ঐতিহ্যবাহী স্কুল। আমি নিজেও এই স্কুলের ছাত্র; সামান্য কয়েকজন স্বার্থান্বেষী মানুষের কারণে এই বিদ্যালয়ের সম্মান বিনষ্ট হতে দিব না। এদের কারণেই ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ৬৫ জন পরীক্ষার্থীদের মধ্যে মাত্র ৩৫ জন পাস করেছে, তার মধ্যে একজন মাত্র এ মাইনাস এ প্লাস একজনও নেই, যা খুবই দুঃখজনক। 


আরও খবর



উপকারে অপকার দুমকিতে পরিকল্পিত ফাঁদে চেয়ারম্যান!

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৬৪১জন দেখেছেন

Image

রাসেল হোসেন নিরব (পটুয়াখালী)প্রতিনিধি:পটুয়াখালীর দুমকিতে উপকার করতে গিয়ে পরিকল্পিত ফাঁদে পড়ে হেনস্তার শিকার উপজেলার আঙ্গারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মর্তুজা শুক্কুর। 

গতকাল শনিবার সকালে উপজেলার আঙ্গারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের জেলেদের মাঝে সরকারি চাল বিতরণের লক্ষ্যে পাতাবুনিয়া সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে স্থানীয় গ্রাম পুলিশ দিয়ে চাল ছাড়িয়ে জেলেদের অনুরোধে চেয়ারম্যান বাড়ির একটি ঘরে সাড়ে ১৭ টন চাল মজুদ করেন এবং সাথে সাথে চৌকিদার দিয়ে সকল সুবিধাভোগী জেলেদের পরের দিন চাল দেয়া হবে বলে এই মর্মে দাওয়াত দেয়া হয়।

হঠাৎ করে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে চেয়ারম্যান বাড়িতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানা অফিসার ইনচার্জসহ স্থানীয় কিছু সংবাদকর্মী উপস্থিত হন। তবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিষয়টি তদন্ত করেন এবং  কেন চাল পরিষদে না নিয়ে তার বাড়িতে তুলেছেন এবিষয়ে চেয়ারম্যানকে প্রশ্ন করলে চেয়ারম্যান তার প্রশ্নের জবাব দেন এবং সাথে সাথে নিজের ভুল শিকার করে গোলাম মর্তুজা শুক্কুর বলেন, এর আগেও আমি আমার ওয়ার্ডের সুবিধাভোগীদের সুবিধার্থে ভিজিডি ও ভিজিএফের চাল আমার বাড়িতে বসে দিয়েছি। তবে এগুলো পরিষদ ছাড়া অন্য কোথাও দেয়ার আইনত নিয়ম নেই। সম্পূর্ণ বিষয়টি একটি মহল অন্য খাতে নেয়ার চেষ্টা করছেন।

আঙ্গারিয়া ইউনিয়নের সুবিধাভোগী জেলে, রাসেলসহ আরো অনেকে  বলেন, চেয়ারম্যানকে আমরা অনুরোধ করেছি যে চালগুলো তার বাড়িতে বসে দিলে আমাদের সুবিধা হয় কারণ আঙ্গারিয়া পরিষদ থেকে চাল বাড়ি পর্যন্ত নিতে আমাগো ১/২ শত টাকা খরচ হয়। এর আগেই তিনি তার বাড়িতে বসে চাল দিয়েছেন। আমাদের মনে হচ্ছে চেয়ারম্যানকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ফাঁসাতে একটি কুচক্রী মহল সবসময় তার পিছনে লেগে আছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাহীন মাহমুদ বলেন, খবর পেয়ে আমি ঘটনা স্থানে গিয়েছিলাম সেখানে জেলেদের মাঝে বিতরণের লক্ষ্যে সাড়ে ১৭ টন চাল পাওয়া গেছে  এবং আসলে তার এই চাল নিয়ে অসৎ কোন উদ্দেশ্য নেই তবে আইন নিয়ম হলো চালগুলো পরিষদে নিয়ে জেলেদের মাঝে বিতরণ করা। এবিষয়ে চেয়ারম্যান তার ভুল শিকার করেছেন। চালগুলো জব্দ করা হয়েছে।


আরও খবর



রূপগঞ্জে রাসেল ভাইপারসহ ডেঙ্গু মশার আবাসস্থল ধ্বংস কার্যক্রম উদ্বোধন

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

আবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃস্বেচ্ছাসেবী 'দেশবাংলা' সংগঠন এর উদ্যেগে রূপগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের বিরাব গ্রামে বিষাক্ত সাপ রাসেল ভাইপারসহ ডেঙ্গু মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও মশার আবাসস্থল ধ্বংস কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে।গতকাল ২৩ জুন রবিবার দেশবাংলা সংগঠনের সভাপতি, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও দৈনিক আজকালের খবর পত্রিকার রূপগঞ্জ প্রতিনিধি মোঃ আবু কাউসার এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দেশবাংলা সংগঠনের সহ সভাপতি মোঃ  দুলাল, সহ-সাধারণ সম্পাদক নূর উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ লিয়াকত প্রধান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মিঠু, প্রচার সম্পাদক মোঃ শহিদুল ইসলাম, সহ-প্রচার সম্পাদক মোঃ বাদশা মিয়া, দপ্তর সম্পাদক মোঃ রেজাউল করিম, সহ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ উজ্জল, ক্যাশিয়ার মোঃ দেলোয়ার হোসেন, সহ- ক্যাশিয়ার মাশকুর, সদস্য সুলতান মিয়া, মমিনুল ইসলাম, তোফাজ্জল প্রধান, মোঃ কাজন মিয়া, আালামিন প্রদান, রোমান মিয়া, মোস্তফা মিয়া, আজিজুল ইসলাম।

শরিফ মিয়া,  আয়নাল হোসেন, শিমুল মিয়া, নাজমুল ইসলাম, বিল্লাল হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন, মাছুম মিয়া, রাব্বি প্রধান প্রমুখ।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মোঃ আবু কাউসার বলেন, আমাদের সংগঠন একটি অ-রাজনৈতিক সংগঠন,  আমাদের সংগঠনে প্রায় ৮২ জন সক্রিয় সদস্য আছে। এ বছর আরো নতুন ১০/১৫ জন সদস্য যুক্ত হবে বলে সাংগঠনিক ভাবে আলোচনা হয়েছে। আমাদের মৎস প্রজেক্ট থেকে সদস্যদের মাছের চাহিদা পূরনকরে অতিরিক্ত অংশ বাজারজাত করা হয়। লভ্যাংশের টাকা দিয়ে সমাজের অসহায়।

দরিদ্রও সুবিধা বঞ্চিতদের সহযোগিতা করা হয়।  যারা স্বেচ্ছায় শ্রম দিতে আগ্রহী এরকম যুবকদের নিয়ে প্রতি সপ্তাহে ছুটির দিনে মাসব্যপী রাসেল ভাইপারের আবাসস্থলসহ ডেঙ্গু ও এডিস মশা আবাসস্থল ধ্বংস কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। পর্যায়ক্রমে আমাদের গ্রামের আশে পাশে যে সকল পুকুরে বা ডোবায় কচুরিপানায় বা মশার বংশ বিস্তার করতে পারে এমন আবদ্ধ জলাশয় পরিস্কারের মাধ্যমে আমাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাবো।  পরে ডোবা, নালা ও মজা পুকুর পরিস্কার করে  মাছের পোনা ছাড়া হয়। কার্যক্রম শেষে এক প্রিতি ভোজের আয়োজন করা হয়। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর