Logo
আজঃ Tuesday ০৭ February ২০২৩
শিরোনাম

দুর্দান্ত জয়ে গ্রুপ সেরা আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত:Thursday ০১ December ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

স্পোর্টস ডেস্ক; কাতার বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে নিজেদের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে ২-০ গোলের দুর্দান্ত জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। আর এ জয়ে ‘সি’ গ্রুপের সেরা হয়েই শেষ ষোলো পর্বে পা রেখেছে আলবিসেলেস্তারা। হেরে যাওয়া পোলিশরাও নকআউট পর্বে উঠেছে।

গ্রুপের অপর ম্যাচে মেক্সিকো সৌদি আরবকে ২-১ ব্যবধানে হারায়। তবে এক গোলের পার্থক্যের কারণে তৃতীয় হয়ে শেষ করতে হয় মেক্সিকোকে। ম্যাচের দীর্ঘ সময় মেক্সিকো ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকলেও সৌদি যোগ করা সময়ে এক গোল শোধ করেন। আর্জেন্টিনা ৩ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে। সমান ম্যাচে ৪ পয়েন্ট করে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় পোল্যান্ড ও মেক্সিকো। সৌদি ৩ পয়েন্ট নিয়ে তলানি থেকে শেষ করেছে।

গ্রুপ সি’তে চ্যাম্পিয়ন হওয়া আর্জেন্টিনা আগামী শনিবার রাত একটায় ‘ডি’ গ্রুপের রানার্সআপ অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে। আর রোববার রাত ৯টায় ‘ডি’র চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে পোল্যান্ড। 

প্রথমার্ধে লিওনেল মেসির পেনাল্টি মিসে এগিয়ে যাওয়া হয়নি আলবিসেলেস্তাদের। সমতা নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুদল। তবে বিরতির পর প্রথম গোলটি করেন অ্যালেক্সিস ম্যাক আলিস্তার। আরদ্বিতীয় গোলটি আসে হুলিয়ান আলভাসেরে পা থেকে।

বুধবার রাতে দোহার স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ ‘সি’ গ্রুপের শেষ রাউন্ডে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে পোল্যান্ডের মুখোমুখি হয় আর্জেন্টিনা। তবে প্রথমার্ধে আর্জেন্টিনা আক্রমণের পসরা সাজিয়ে বসলেও পোল্যান্ড গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি দেয়ালের কাছে বার বার থামতে হয় স্কালোনির শিষ্যরাদের। এমনকি মেসির পেনাল্টিও দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন তিনি।

পুরো ম্যাচে যদিও আর্জেন্টিনারই একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল। বল দখলে তারা ৭৪ শতাংশ এগিয়ে ছিল। আর ম্যাচে মোট ২৩টি শট নেয়। যার ১২টিই ছিল গোলমুখে। যেখান থেকে ২টি গোল আদায় করে নেয়। অপরদিকে রক্ষণ নিয়ে ব্যস্ত থাকা পোল্যান্ড মাত্র ৪টি শট নিতে পারে। এর কোনোটিই লক্ষ্যে ছিল না।

এদিন ম্যাচের সপ্তম মিনিটেই ভালো সুযোগ পায় আর্জেন্টিনা। মেসি শট নিলেও তেমন জোর ছিল না, অনায়াসে ঠেকান স্ট্যাসনি। তিন মিনিট পরেই মেসির দুররূহ কোণ থেকে নেওয়া শট রুখে দেন।

আর্জেন্টিনা ২৮তম মিনিটে পরপর দুটি ভালো সুযোগ তৈরি করে। প্রথমে হুলিয়ান আলভারেসের শট রক্ষণে প্রতিহত হওয়ার পর আকুনিয়ার বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া জোরাল শট পোস্টের একটু বাইরে দিয়ে যায়। এরপর ৩২তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিল তারা, আনহেল দি মারিয়ার কর্নারে বাঁক খেযে বল দূরের পোস্টে যাচ্ছিল, কর্নারের বিনিময়েই ঠেকান স্ট্যাসনি।

৩৭তম মিনিট মেসির পেনাল্টি মিসে আর্জেন্টিনা শিবিরে হতাশা যোগ হয়।  দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের একটি আক্রমণ রুখতে গিয়ে দুর্ঘটনাবশত মেসির মুখে আঘাত করে বসেন স্ট্যাসনি। ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টি দেয় রেফারি। কিন্তু মেসির শট অসাধারণ নৈপুণ্যে ঠেকিয়ে দেন স্ট্যাসনি।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম মিনিটেই গোলের দেখা পেয়ে যায় আর্জেন্টিনা। ৪৬তম মিনিটে মলিনার ক্রসে বাঁদিকে শট করে গোলটি করেন আলিস্তার। ঝাপ দিলেও বলের নাগাল পাননি পোলিশ গোলরক্ষক।

আর্জেন্টিনার ব্যবধান দ্বিগুণ করেন হুলিয়ান আলভারেস। ম্যাচের ৬৭তম মিনিটে ফের্নান্দেসের থেকে বল পেয়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরাল কোনাকুনি শটে গোলটি করেন ম্যানচেস্টার সিটি তারকা। এবার বল ধরার জন্য লাফ দিয়ে কোনো আটকাতে পারেননি স্ট্যাসনি।

ম্যাচের বাকি সময় আর্জেন্টিনা গোলের জন্য আরও বেশ কয়েকটি চেষ্টা চালায়। তবে গোল আদায় করে নিতে ব্যর্থ হয়। তবে ২-০ গোলের দারুণ জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে স্কালোনির শিষ্যরা।


আরও খবর