Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

স্বামী বিদেশে হলেও স্ত্রী সাত মাসের অন্তঃসত্তা

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৩৬জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরে স্বামী তিন বছর যাবৎ  প্রবাসে থাকলেও  স্ত্রী সাত মাসের অন্তঃসত্তা হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।এ বিষয়ে এলাকায় ব্যপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।সরেজমিন  এলাকায় গিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিগর্ব সহ উভয় পক্ষের লোকজনের সাথে কথা বলে পাওয়া গেছে এমনই তথ্য। 

জানা গেছে ২০১৯ সালের ১৮ ডিসেম্ভর জেলার নাসিরনগর উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের ভূবন গ্রামের গেদু মিয়ার মেয়ে আছমা আক্তারের সাথে প্রতিবেশী আলী মিয়ার ছেলে  মোঃ আজিজ মিয়ার আড়াই লক্ষ টাকার কাবিন মুলে বিয়ে হয়।

বিয়ের পর আছমা ও আজিজের ঘরে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম হয়।

বিগত তিন বছর পূর্বে জীবিকার সন্ধানে আজিজ চলে যায় প্রবাসে।প্রায় একমাস পূর্বে ছুটি নিয়ে আসে দেশে।বাড়িতে ফেরার পর বৌকে দেখে আজিজের সন্দেহ হয়।পরে উভয় পক্ষের লোকজনকে দিয়ে পাঠানো হয় ডাক্তারের কাছে।

ডাক্তার পরীক্ষা নিরিক্ষা করে সাত মাসের অন্তঃসত্তা বলে ঘোষনা দেন।এর পর আজিজ তার বৌকে পিত্রালয়ে রেখে চলে যান আবারো প্রবাসে।

সরেজমিন এলাকায় গিয়ে কথা হয় আছমার স্বামী আজিজের মা, বাবা,ভাই,বোন,আত্মীয় স্বজন আর আছমা,তার মা রফিজা বেগম,বাবা গেদু মিয়ার সাথে।আছমার বাবা মা জানান,তাদের মেয়ে স্বামীর  অর্বতমানে  পাশের বাড়ির ট্রাক চালক একটা ছেলের সাথে দুর্ঘটনা করে ফেলেছে। এ জন্য তারা  তাদের মেয়ে আছমাকে তাদের বাড়িতেই এনে রেখে দিয়ে।এ বিষয়ে স্বামী আজিজের ও তার পরিবারের কারো বিরোদ্ধে কোন অভিযোগ নেই তাদের।

আছমা জানান একদিন তার শ্বশুর শ্বাশুরী বাড়িতে ছিল না।রাতে প্রতিবেশী ট্রাক চালক  নুরুদ্দিনের ছেলে মোঃ মনির মিয়া হাতে ধারালো ছুড়ি নিয়ে আমার ঘরে প্রবেশ করে আমার ধর্ষনের চেষ্টা চালায়।তার কথা রাজি না হলে আমার মেয়েকে গলা কেটে ফেলে দেয়ার ভয় দেথায়।তাই মেয়ের জীবণ বাঁচাতে আমি মনিরের কথা রাজি হই।পরে ভয়ে ও লজ্জায় আমি কাউকে কিছু বলিনি।

এলাকার সর্দার মোঃ দুর্বাজ মিয়া ও সামসুদ্দিন মিয়া সহ আরো অনেকেই বলেন,আমরা বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মীমাংসা করার জন্য কয়েক দফা বসেছি কিন্তু সমাধান করতে পারিনি।

আছমার মা বাবা বলেন আমরা বিচারের আশায় মনিরের বিরোদ্ধে আদালতে মামলা করেছি।মামলা কপি কোথায় জানতে চাইলে,আছমার মা বলেন আমার ভাইয়ের কাছে চাপড়তলা।কাউকে না জানাতে আর কপি দিতে আমার ভাই নিষেধ করেছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জয়পুরহাটে আবু হোসন হত্যা মামলার ত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৩জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধি:জয়পুরহাটে আবু হােসেন হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি আমিনা বেগমকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। বুধবার ২১ (ফেব্রুয়ারী)  দুপুরে জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্প থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে ভোররাতে সদর উপজেলার পুরানাপৈল এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আমিনা বেগম জেলার পাঁচবিবি উপজেলার দরগাপাড়া গ্রামের আবু রায়হানের স্ত্রী।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১০ সালের ২৫ মার্চ সকালে পাঁচবিবি উপজেলার দরগাপাড়া গ্রামের আবু হোসাইনের বাবা আবু তাহের নিজের খড়ের পালায় কাজ করছিলেন। সেসময় আসামিরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সেখানে এসে আবু তাহেরকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারপিট করেন। তখন তার ছেলে আবু হোসাইন বাবাকে বাঁচাতে এগিয়ে এলে তাকেও এলোপাতাড়ি মারপিট করে আসামিরা। এসময় মুমূর্ষ অবস্থায় আবু হোসাইনকে প্রথমে পাঁচবিবি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

সেখানে তার অবস্থার আরও অবনতি হলে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপর ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের বাবা বাদী হয়ে পাঁচবিবি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মো. শেখ সাদিক জানান, এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি জয়পুরহাটের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-২ আদালতের বিচারক নুরুল ইসলাম ৫ জনের ফাঁসির রায় দেন।

একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। এ মামলার আসামি আমিনা বেগম পলাতক ছিলেন। এরপর সদর উপজেলার পুরানাপৈল এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে তাকে পাঁচবিবি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিশ্ব ইজতেমায় চলছে দ্বিতীয় দিনের বয়ান

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বিশ্ব ইজতেমা গাজীপুরের টঙ্গীতে শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দ্বিতীয় দিনের আম বয়ান চলছে। আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের জন্য নিজের ঈমান, আমল ও আখলাককে পরিপূর্ণ শুদ্ধরূপে গড়ে তুলতে বয়ান শুনছেন ইজতেমার শীর্ষ আলেম ও মুরুব্বিরা।

আগামীকাল রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে মুসলিম বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। রোববার সকাল ১০টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে বলে ইজতেমা সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে হেদায়েতি বয়ান করা হবে। তাবলীগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বিদের পরামর্শের ভিত্তিতে বিশ্ব তাবলিগ জামায়াতের শীর্ষ মুরুব্বি বাংলাদেশের হাফেজ মাওলানা জুবায়ের আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

আখেরি মোনাজাতে প্রায় ৩৫-৪০ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নেবেন বলে আয়োজকদের ধারণা। ইজতেমার প্রথম পর্বে শিল্প নগরী টঙ্গী ইতোমধ্যেই ধর্মীয় নগরীতে পরিণত হয়েছে। শনিবার সকালেই টঙ্গী শহর এবং ইজতেমাস্থল ও এর আশপাশ এলাকা যেন জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে।

যারা বয়ান করছেন

বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিনের শুরুতে শনিবার বাদ ফজর মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুর রহমান, তার বয়ান বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন।

বাদ জোহর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা ইসমাইল গোদরা। বাদ আসর বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা জুহাইরুল হাসান। বাদ আসর যৌতুকবিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত হবে। বাদ মাগরিব বয়ান করবেন ভারতের মাওলানা ইব্রাহিম দেওলা।

সকালে বয়ানে ওলামায়ে কেরাম বলেন, পরকালের চিরস্থায়ী সুখ শান্তির জন্য আমাদের প্রত্যককে দুনিয়াতে জীবিত থাকা অবস্থায় দ্বীনের দাওয়াতের কাজে জানমাল দিয়ে মেহনত করতে হবে। ঈমান আমলের মেহনত ছাড়া কেউ হাশরের ময়দানে কামিয়াব হতে পারবে না।


আরও খবর



নাসিরনগর ধরমন্ডলের ইয়াবা সম্রাট কামরুল নিয়ন্ত্রন করছে মাদকের বিশাল সিন্ডকেট

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৮০জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নানঃব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ধরমন্ডল ইউনিয়নের নাম কারো অজানা নয়।চুরি,ডাকাতি,নারী চেইন চুরি আর মাদকের জন্য বিখ্যাত ধরমন্ডল।ওই গ্রামের আনোয়ার আলীর ছেলে ইয়াবা সম্রাট কামরুল( ৩৮)।তাকে অনেকেই  ইয়াব কামরুল নামে চেনে।কামরুলের  নিয়ন্ত্রনে রয়েছে ধরমন্ডল সহ পার্শবর্তী এলাকার বিশাল মাদকের সিন্ডিকেট।কামরুল ধরমন্ডল ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন এমনকি পার্শ্ববর্তী লাখাই,মাধবপুর,অষ্টগ্রাম উপজেলা, রাজধানী ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে  ইয়াবা,গাঁজা,হিরোইন,ফেনসিডিল সহ বিভিন্ন মাদক পাচার করে থাকে বলে বিভিন্ন সুত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, কামরুলের বিরোদ্ধে নাসিরনগর,লাখাই,নরসিংদি শিবপুর মডেল থানা সহ বিভিন্ন থানায় রয়েছে,মাদক,চুরি ও ধর্ষনের মত ছয়টি মামলা।কোন কোন মামলায় একবার জেলহাজতে গেলেও পরবর্তীতে জামিনে এসে পরোদমে শুরু করে তার পুরোনো ব্যবসা।জানা গেছে বর্তমানে কামরুল পুলিশের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে বীরদর্পে চালিয়ে যাচ্ছে তার মাদক ব্যবসা।আর সেই সর্বনাশা মাদক সহজেই হাতের কাছে পেয়ে ধ্বংস হচ্ছে যুবসমাজ।বাড়ছে চুরি ডাকাতির মত নানা অপরাধ প্রবনতা।

বর্তমানে কামরুল আবারো নতুন করে গড়ে তুলেছে তার মাদক বানিজ্য।তার ব্যবসার যোগান দিচ্ছে আরো বেশ কয়েকজন।কামরুল ছাড়াও ধরমন্ডলে আরো বেশ কয়েকজন নামকরা মাদক ব্যবসায়ী রয়েছে।যা থানা পুলিশের অজানা নয়।তাদের এখনই প্রতিরোধ করা প্রয়োজন বলে মনে করছে এলাকার ভুক্তভোগী,সচেতন আর বিজ্ঞ মহল।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সিরাজগঞ্জে অপহৃত ৫ শিশু উদ্ধার, দুই অপহরণকারী গ্রেফতার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬২জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:সিরাজগঞ্জে অপহরণের ৩ ঘন্টার মধ্যে অপহৃত ৫ শিশুকে উদ্ধার করেছে সদর থানা পুলিশ, এই ঘটনায় জড়িত দুই অপহরণকারীকে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রেজওয়ানুল ইসলাম জানান, বুধবার রাতে সিরাজগঞ্জ পৌরসভার নিউমার্কেট এলাকায় একটি পিকনিক শেষে রাত সাড়ে ১০ টার দিকে পিকনিকে আসা কয়েকজন শিশু তাদের অভিবাবকের কাছে রিক্সায় চড়ে ঘোরার আবদার করলে অভিভাবকেরা একটি রিক্সা ডাকলে ৫ শিশু সেই রিক্সায় উঠে বসে। এসময় তাদের অভিভাবক সেই রিক্সাকে দাঁড়িয়ে থাকতে বলে আরেকটি রিক্সার জন্য অপেক্ষা করে। কিন্তু আচমকা ৫ শিশু সহ সেই রিক্সাচালক রিক্সাটি টেনে বেরিয়ে যায়। এ সময় অভিভাবকেরা চিৎকার চেচামেচি করেও রিক্সাটি দাড় করাতে না পেরে দ্রুত থানায় এসে বিষয়টি জানান।

বিষয়টি অবগত হওয়ার পর পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় সাড়াশি অভিযান শুরু করে। পরে রাত ২টার দিকে সদর উপজেলার কান্দাপাড়া এলাকা হতে রিক্সাসহ অপহৃত ৫ শিশু ও অপহরণকারী রিক্সাচালক ও তার সহযোগীকে আটক করে পুলিশ। আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা অপহরণের দায় স্বীকার করে। 

আটককৃতরা হলো সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার তেতুলিয়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে আমিনুল ইসলাম (৩৬) ও একই গ্রামের মালেক শেখের ছেলে বাবলা শেখ (২০)।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল),রেজওয়ানুল ইসলাম, জানান, এ ঘটনায় উদ্ধারকৃত ৫ শিশুকে তাদের অভিভাবকের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে এবং অপহরণকারীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




‘সিঙ্গেল ক্লিক রিটার্ন পলিসি’ চালু করলো ইভ্যালি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৫২জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার : দেশের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে এবার চালু করলো ‘সিঙ্গেল ক্লিক রিটার্ন পলিসি’। ফলে গ্রাহকরা এখন আগের চেয়ে দ্রুত এবং সহজে যে কোনো পণ্য রিটার্ন করতে পারবেন। পণ্য রিটার্ন করার ক্ষেত্রে গ্রাহকের কোনো খরচ বহন করতে হবে না। মঙ্গলবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রতিষ্ঠানটি এ তথ্য জানিয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ইভ্যালি থেকে পণ্য অর্ডার দিয়ে তা হাতে পাওয়ার পর কোনো ভুল বা নষ্ট পণ্য আসলে গ্রাহক ৭ দিনের মধ্যে বিনা খরচে একটি সিঙ্গেল ক্লিকে ফেরত দিতে পারবেন। এ জন্য অ্যাপস বা ওয়েবসাইটে অর্ডার অপশনে রিটার্ন বাটনে ক্লিক করলেই ইকুরিয়ার গ্রাহকের ঠিকানা থেকে পণ্যটি ফেরত নিয়ে আসবে। রিটার্ন করা পণ্যের রিফান্ডও তিনি ফেরত পাবেন। রিটার্ন পলিসি ছাড়াও গ্রাহককে দ্রুত পণ্য দেয়ার জন্য দেশজুড়ে ৯৬টি ডেলিভারি হাব তৈরি করেছে ইভ্যালি। এই হাব থেকে পণ্য সংগ্রহ করলে গ্রাহকের ডেলিভারি চার্জ আরো কমে যাবে। এ জন্য পণ্য অর্ডার করার সময় ‘হাব কালেকশন’ অপশনটি সিলেক্ট করে দিতে হবে। উল্লেখিত ডেলিভারি হাবে পণ্য পৌঁছালে উপযুক্ত প্রমাণ দিয়ে তা সংগ্রহ করা যাবে। নতুন রিটার্ন পলিসি সম্পর্কে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মোহাম্মাদ রাসেল বলেন, আমরা সব সময় গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে চাই। কিন্তু কোনো কোনো সময় দেখেছি গ্রাহক পণ্য অর্ডার করার পর ভুল পণ্য বা নষ্ট পণ্য পেলে তা ফেরত দিতে অনেক জটিলতায় পড়তে হয়। এছাড়া যে কোনো প্রয়োজনেই গ্রাহক তার পণ্য বুঝে পাওয়ার পর সেটা ফেরত দিতে পারেন। ফেরত দেয়ার প্রক্রিয়াকে অত্যন্ত সহজ করতে নতুন পলিসি চালু করেছি। ফলে এখন গ্রাহক চাইলে বিনামূল্যে একটি সিঙ্গেল ক্লিকের মাধ্যমে পণ্য ফেরত দিয়ে রিফান্ড নিতে পারবেন।

আরও খবর