Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

গাংনীতে শসা চাষিদের জন্য আশির্বাদ রমজান মাস

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ১৫৭জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃমেহেরপুরের গাংনী উপজেলার শসা চাষিদের জন্য আশির্বাদ হয়ে এসেছে রমজান মাস। বাজার দর বৃদ্ধি পেয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ায় হাঁসি ফুটেছে এসব শসা চাষিদের মুখে। ১০ টাকা দরের শসা এখন বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে। এমন দামে ভোক্তারা অসন্তোষ প্রকাশ করলেও চাষি আর ব্যবসায়ীরা বেশ খুশি।

গাংনী বামন্দি কাঁচা বাজারের আড়ৎদার আব্দুল হালিম জানান, রমজানের দশদিন আগে প্রতি কেজি শসা বিক্রি হয়েছে ১০ থেকে ১২ টাকা দরে। শসা কেনার লোকও পাওয়া যায়নি। ফলে শসা পচে গেছে। কিন্তু রমজানের শুরু থেকেই শসার চাহিদা বেড়েছে আশংকাজনক হারে। সেই সাথে বেড়েছে দামও।

শাহারবাটি গ্রামের সবজি চাষি মকসেদ আলী জানান, শসা বর্তমানে গাংনীর চাষিদের কাছে একটি জনিপ্রয় চাষ রমজানের আগে শসা কম দামে বিক্রি করে লেবার খরচ হয়নি। রমজান মাস আসায় শসা চাষিদের কপাল খুলেছে। শসা এখন আড়তে বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা থেকে ৬৫ টাকা কেজি দরে। আর খুচরা বাজারে প্রতি কেজি শসা ৭০ টাকা থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

জোড়পুকুর গ্রামের শসা চাষি ইমারুল জানান, যে ব্যবসায়ীরা শসা কেনা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল তার্ধাসঢ়;ই এখন শসা কিনতে ভিড় জমাচ্ছে চাষিদের কাছে। বাজার চড়া হওয়ায় এখন একই সাথে চাষি এবং ব্যবসায়ীরা লাভবান হচ্ছে। একই কথা জানালেন শসা চাষি কুঞ্জনগরের আব্দুল হাকিম।

ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম জানান, রমজানের আগে শসা কিনে মোটা অংকের লোকসান গুণেছি। কিন্তু রমজান মাস আসায় চাহিদা বেড়ে গেছে। ফলে বাজার দরও বেড়ে গেছে। এখন আগের লোকসান অনেকটায় কাটিয়ে উঠেছি।

ক্রেতা সাধারণ জানান, রমজানে দ্রব্য মুল্যের স্থীতিশীল রাখা দরকার। ১২ টাকার শসা বিক্রি হচ্ছে ৭০/৮০ টাকায়। এটা চাষি ও ব্যবসায়িদের স্বেচ্ছাচারিতা। সাধারণত ৫/১০ টাকা দাম বাড়লেও ক্রেতা সাধারনের নাগালের মধ্যে থাকে কিন্তু ৫/৬গুন মুল্য বৃদ্ধি যেন মরার উপর খাড়ার ঘাঁ। গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রীতম সাহা জানান, তিনি দ্রব্য মুল্য স্থিতিশীল রাখতে বিভিন্ন বাজারে আড়তদার ব্যবসায়ি এবং চাষিদের সাথে কথা বলছেন। ইতোমধ্যে আশানুরুপ সাড়া মিলেছে। কেউ সরকারী নির্দেশনা অমান্য করলে প্রয়োজনে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর



৬৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী

মনিরুজ্জামান মনির মাস্টারের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৭৭জন দেখেছেন

Image

 সোহরাওয়ার্দীঃ

পবিত্র ঈদ উল ফিতর উপলক্ষে রাজধানী ডেমরা থানা ৬৫ নাম্বার ওয়ার্ড এলাকায় শনিবার সকালে আলহাজ্ব মনিরুজ্জামান মনির মাস্টারের উদ্যোগে ৩ শতাধিক গরীব অসহায় ও দুঃস্থের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে ।

বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ ইউনিট কমিটির সভাপতি ও ৬৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী আলহাজ্ব মনিরুজ্জামান মনির মাস্টার আগত নারী,পুরুষ ও শিশুদের হাতে নতুন শাড়ি, পাঞ্জাবি, পায়জামা ও কামিজ তুলে দেন।


এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খান মাসুদ।



বিশিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা, সমাজসেবক সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ ইউনিট কমিটির সভাপতি ৬৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী আলহাজ্ব মনিরুজ্জামান মনির মাস্টার বলেন, আমি সব সময়ই গরীব, অসহায় ও দুঃস্থদের পাশে থাকতে চাই। আলহাজ্ব মনিরুজ্জামান মনির মাস্টার এলাকায় সাধারণ মানুষের জন্য সব সময় এই ধরনের সহযোগিতার হাত প্রসারিত করে রাখেন। তার এই সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।


আরও খবর



মানবতায়-"৯৪" গ্রুপের দোয়া ও ইফতার মাহফিল

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৩০৩জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃ 

রাজধানীর ডেমরা ছোট পাইটি আমবাগান 'মদিনাতুল উলুম দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এতিমখানা মাদ্রাসা'য় মানবতায়-"৯৪" গ্রুপের পক্ষ থেকে "মৃত ও জীবিত সকল ৯৪" বন্ধুদের জন্য দোয়া কামনায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ও এতিম শিশুদের সাথে নিয়ে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।শনিবার ২৩ মার্চ এই ইফতার মাহফিলের কর্মসূচি পালিত হয়। এই কর্মসূচির আওতায় ১৫৫ জন এতিম দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ইফতার এবং ভালো খাবার সরবরাহ করা হয়।দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এতিমখানা মাদ্রাসায় পড়াশোনা করা এসব শিক্ষার্থীদের কারও বাবা নেই, কারও মা নেই; আবার কারও বাবা-মা কেউই নেই। সব সময় ভালো খাবার জোটেও না। ২৩ মার্চ এই শিক্ষার্থীরা রমজানের ইফতার পেয়ে উচ্ছ্বসিত এতিম ও সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীরা। সবাই আনন্দ-উৎসবের সঙ্গে ইফতার করেন। ছিল মৌসুমী ফল তরমুজ, আপেল,মালটা,কলা, খেজুর এবং সুস্বাদু মোরগ পোলাও।


মানবতায়-"৯৪" গ্রুপের এই আয়োজনের প্রশংসা করে মদিনাতুল উলুম দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এতিমখানা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘এটি খুব ভালো একটি উদ্যোগ। ছোট্ট অসহায় শিশুদের নিয়ে ইফতার করা এক ভিন্ন অভিজ্ঞতা। সারা দিন অনাহার যাপন শেষে যখন ইফতার সামনে আসে, তখন এমনিতেই মন ভালো হয়ে যায়। আর আজ মানবতায়-"৯৪" গ্রুপের কল্যাণে এই এতিম শিশুদের হাসিমুখ দেখে মন ভরে গেল। মানবতায়-"৯৪" গ্রুপের এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।’

সংগঠনটি দীর্ঘ বছর ধরে অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে।



আরও খবর



কালিয়াকৈরে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচনে আচরণ বিধি লঙ্গণ

প্রকাশিত:সোমবার ০১ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪ | ১০৫জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য পদ নির্বাচনে আচরণ বিধি লঙ্গণের অভিযোগ উঠেছে। এরই মধ্যে ছাত্রীদের নিয়ে এক প্রার্থীর অশ্লীল নৃত্যের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল। এসব বিষয় তদন্ত করছেন নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মিজানুর রহমান।

এলাকাবাসী, বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার গোসাত্রা এলাকায় গোসাত্রা ডাঃ জলিলুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয় একটি সুনামধন্য শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান। পূর্বের ধারাবাহিকতায় আগামী ৬ই এপ্রিল ওই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য পদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে পাড়া মহল্লায়, আশপাশের বাজার ও চা দোকানগুলোতে জমে উঠেছে ওই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক সদস্য নির্বাচন। নির্ধারিত চারটি অভিভাবক সদস্য পদের জন্য প্রার্থী হয়েছেন ১৩ জন। হঠাৎ করে ওই এলাকায় ঢুকলে মুহুর্তের মধ্যে মনে হবে এটা কোনো জাতীয় বা স্থানীয় সরকার নির্বাচন। কিন্তু এসব প্রার্থীদের মধ্যে সোহেল চৌধুরী, স্বপন, বেলাল হোসেন বিল্লাল, জাহাঙ্গীর আলম ও বজলুর রহমান নামে অভিভাবক সদস্য পদ প্রার্থীরা নিয়ম বহিঃভূত দেয়ালে স্টিকার লাগানোসহ নানাভাবে নির্বাচনের আচরণ বিধি লঙ্গণ করছেন।

এরই মধ্যে ছাত্রীদের নিয়ে এক প্রার্থীর অশ্লীল নৃত্যের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল। তিনি নির্বাচিত হলে ছাত্রীরা অনিরাপত্তায় থাকবে বলেও মন্তব্য করেছেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। এসব ঘটনায় অভিভাবক সদস্য প্রার্থী ফিরোজ কবীর বাদী হয়ে ওই পাঁচ অভিভাবক সদস্য পদ প্রার্থীর নামে নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসারের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত সোমবার থেকে সরেজমিনে তদন্ত শুরু করেছেন নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মিজানুর রহমান।

অভিযুক্তদের মধ্যে বজলুর রহমান জানান, ওই স্ট্রিকারগুলো আমি লাগাইনি। আমার শত্রুপক্ষরা স্টিকারগুলো লাগিয়েছে। এ বিষয়ে আমাদের সমাজসেবা অফিসে ডেকেছে, সেখানে এ নিয়ে আলোচনা হবে। আর ছাত্রীদের নিয়ে অশ্লীল ভিডিও বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে গিয়ে বলেন, এ বিষয়ে আপনাদের সামনে গিয়ে কথা বলবো।

ওই নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মিজানুর রহমান জানান, আচরণ বিধি লঙ্গণের বিষয়ে পাঁচজন প্রার্থীর নামে একটি অভিযোগ পেয়েছি। ওই অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত সাপেক্ষে বিষয়টি প্রমাণিত হলে নির্বাচন বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



দেশজুড়ে পাওয়া যাচ্ছে ইনফিনিক্স নোট ৪০ সিরিজ

প্রকাশিত:সোমবার ০১ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ১৭০জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:সম্প্রতি দেশের বাজারে নতুন স্মার্টফোন সিরিজ নোট ৪০ নিয়ে এসেছে তরুণদের প্রিয় প্রযুক্তি ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স। এই সিরিজের দুটি স্মার্টফোন নোট ৪০ ও নোট ৪০ প্রো এখন দেশজুড়ে পাওয়া যাচ্ছে।

আধুনিক চার্জিং প্রযুক্তি, চমৎকার পারফরম্যান্স এবং শক্তিশালী গড়নের এই স্মার্টফোনগুলোতে আছে সফটওয়্যার আপডেটের প্রতিশ্রুতি। নোট ৪০ সিরিজের ফোনগুলোতে অ্যান্ড্রয়েড ১৪ অপারেটিং সিস্টেম থাকছে। তবে আপগ্রেড পাওয়া যাবে অ্যান্ড্রয়েড ১৬ পর্যন্ত।

নোট ৪০ সিরিজের এই প্রতিশ্রুতি মিড-রেঞ্জের বাজারে নতুন চমক নিয়ে এসেছে। ২ বছরের অ্যান্ড্রয়েড আপডেটসহ ৩৬ মাসের সিকিউরিটি প্যাচ পাবেন গ্রাহকরা। ফলে ব্যবহারকারীরা কোনো সমস্যা ছাড়াই আপডেটগুলো পাবেন যথাসময়ে।

অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের বাজারে যুগান্তকারী ফিচার নিয়ে এসেছে ইনফিনিক্স নোট ৪০ সিরিজ। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো অ্যান্ড্রয়েড ফোনে যুক্ত হয়েছে ওয়্যারলেস ম্যাগনেটিক চার্জিং প্রযুক্তি ‘ম্যাগচার্জ’। সাথে আরও আছে অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ ২.০। এই উদ্ভাবনটি সব পরিস্থিতিতে চার্জিংকে সুবিধাজনক করে তুলবে।

সিরিজের দুটি ফোনেই আছে ২০ ওয়াটের ওয়্যারলেস ম্যাগচার্জ এবং রিভার্স চার্জিংয়ের সুবিধা। ফলে ব্যবহারকারীরা ঘরে ও বাইরে যেকোনো সময় ফোনে চার্জ দিতে পারবেন। ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতা উন্নত করতে নোট ৪০ সিরিজে যুক্ত করা হয়েছে ম্যাগনেটিক ফোন কেস (ম্যাগকেস), ম্যাগনেটিক চার্জিং প্যাড (ম্যাগপ্যাড) এবং ম্যাগনেটিক পাওয়ার ব্যাংকের (ম্যাগপাওয়ার) মতো অ্যাক্সেসরিজ।

দুর্দান্ত ব্যাটারি পারফরম্যান্সের জন্য সিরিজটিতে যুক্ত করা হয়েছে পাওয়ার ম্যানেজমেন্ট চিপ- চিতা এক্স১। সঙ্গে রয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯ আল্টিমেট প্রসেসর। ফলে ফোনের কার্যকারিতা আরও বাড়বে। দিনজুড়ে ব্যাকআপ দিতে রয়েছে শক্তিশালী ৫০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি।

দ্রুত চার্জিংয়ের জন্য নোট ৪০ প্রো-তে আছে ৭০ ওয়াটের মাল্টি-স্পিড ফাস্ট চার্জার এবং নোট ৪০-তে আছে ৪৫ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার। ডিভাইসগুলোতে আরও রয়েছে ৬.৭৮ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ১২০ হার্টজের অ্যামোলেড ডিসপ্লে। প্রধান ক্যামেরা হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের সুপার-জুম ক্যামেরা এবং আছে ৩২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। জেবিএল-এর টিউন করা ডুয়েল স্পিকার আছে নোট ৪০ সিরিজে।

নোট ৪০ প্রো-এর ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি ধারণক্ষমতা এবং ১২ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি ধারণক্ষমতার সংস্করণ দুটির বাজারমূল্য যথাক্রমে ৩০,৯৯৯ টাকা এবং ৩৪,৯৯৯ টাকা। ভিনটেজ গ্রিন ও টাইটান গোল্ড এই দুটি স্টাইলিশ রঙে পাওয়া যাচ্ছে ফোনটি। অন্যাদিকে, ৮ জিবি র‍্যাম ও ২৫৬ জিবি ধারণক্ষমতার নোট ৪০ ফোনটির বাজারমূল্য ২৬,৯৯৯ টাকা। পাওয়া যাচ্ছে টাইটান গোল্ড ও অবসিডিয়ান ব্ল্যাক এই দুটি রঙে।

সিরিজটির সাথে ক্রেতারা পাবেন একটি ম্যাগকেস, নোট ৪০-এর সঙ্গে ম্যাগপ্যাড এবং নোট ৪০ প্রো-এর সাথে ২,৯৯৯ টাকা সমমূল্যের একটি ম্যাগপাওয়ার।   


আরও খবর



কিশোর গ্যাং মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নির্দেশনা

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪ | ৬০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিশোর গ্যাং মোকাবিলায় স্বরাষ্ট্র এবং সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়কে বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন । সোমবার (৮ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণে অভিভাবক, শিক্ষকদেরকে সম্পৃক্ত করে, তাদেরকে সংশোধনের পরিবেশ তৈরি করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি জানান, কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যদেরকে দাগি আসামির সঙ্গে না রেখে, তাদের সংশোধনাগারে আলাদা রেখেই কাউন্সিলিং করতে হবে- যাতে করে তারা দীর্ঘমেয়াদিভাবে অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে না পড়ে। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী দেশে সংশোধনাগারের সংখ্যা বাড়ানোর নির্দেশনাও দিয়েছেন।

এর আগে রোববার (৩ মার্চ) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে আয়োজিত জেলা প্রশাসক সম্মেলনে-২০২৪ অনুষ্ঠানে কিশোর গ্যাং বন্ধে জেলা প্রশাসক ও কমিশনারদের কাজ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।


আরও খবর