Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

বাবুলকে গ্রেপ্তার দেখানো হলো পিবিআইয়ের মামলায়

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ২৭২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক; চট্টগ্রামে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) করা মামলায় সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত চিফ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল হালিম শুনানি নিয়ে এই আদেশ দেন।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) কামরুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, নগরের খুলসী থানায় করা এই মামলায় বাবুলকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে আদালত তা মঞ্জুর করেন। বাবুল আগে থেকেই কারাগারে।

এর আগে শুনানি উপলক্ষে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আজ বাবুলকে চট্টগ্রামের আদালত হাজির করা হয়। পরে তাকে আবার কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

বাবুলের আইনজীবী গোলাম মাওলা মুরাদ বলেন, তার মক্কেল জামিন চেয়ে আদালতে আবেদন করেছেন। এ ছাড়া আইনজীবীর সঙ্গে এক ঘণ্টা কথা বলার জন্যও আবেদন করা হয়েছে। দুটি আবেদনই পরবর্তী সময়ে শুনানির জন্য রেখেছেন আদালত।

গত ১৯ অক্টোবর নগরের খুলশী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি করেন পিবিআই চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ সুপার নাইমা সুলতানা। মামলায় বাবুল ছাড়াও ইলিয়াস হোসাইন, বাবুলের ভাই হাবিবুর রহমান ও বাবা ওয়াদুদ মিয়াকে আসামি করা হয়। মামলায় বাবুলের স্ত্রী মাহমুদা খানম হত্যা মামলা নিয়ে মিথ্যা-অসত্য তথ্য সরবরাহ-প্রচারের অভিযোগ আনা হয়।

একই অভিযোগে এই আসামিদের বিরুদ্ধে গত ১৭ সেপ্টেম্বর ঢাকার ধানমন্ডি থানায় মামলা করেন পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদার। পিবিআই বলছে, মাহমুদা হত্যা মামলা নিয়ে আসামিরা ফেসবুক-ইউটিউবে মিথ্যা তথ্য প্রচার করে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছেন। এতে পিবিআই ও সংস্থাটির প্রধানের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুণ্ন হয়েছে। বাবুল, হাবিবুর ও ওয়াদুদের যোগসাজশে বিদেশে থাকা ইলিয়াস মিথ্যা তথ্য প্রচার করেন।

ইলিয়াসের ভিডিও প্রকাশের পর পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদারসহ ছয় পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলার আবেদন করেছিলেন বাবুল। তবে তার আবেদন খারিজ করে দেন আদালত।

২০১৬ সালের ৫ জুন চট্টগ্রাম নগরের জিইসি মোড় এলাকায় ছেলেকে স্কুল বাসে তুলে দিতে গিয়ে গুলি ও ছুরিকাঘাতে নিহত হন বাবুলের স্ত্রী মাহমুদা। পরে হত্যা মামলায় বাবুলসহ সাতজনকে আসামি করে ১৩ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পিবিআই। বাবুল ছিলেন এই মামলার বাদী। বাদী থেকে তিনি হয়েছেন প্রধান আসামি।


আরও খবর



নোয়াখালীতে পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্সের ব্যবসা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধি:পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের নোয়াখালী অঞ্চলের উন্নয়ন কর্মকর্তাদের নিয়ে ব্যবসা পর্যালোচনা সভা  অনুষ্ঠিত হয়েছে।শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি ) সকালে নোয়াখালীতে কোম্পানীর নিজস্ব ভবনের অফিস রুমে  এ ব্যবসা পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের ইসলামী বীমা তাকাফুল  প্রকল্পের মহা-ব্যবস্থাপক ও জেলা সমন্বয়কারী আহসানুল ইসলামের সভাপতিত্বে ব্যবসা পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স ফোরামের প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য  বি এম ইউসুফ আলী। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বি এম শওকত আলী, একক বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ব্রাঞ্চ কন্ট্রোল) সৈয়দ মোতাহার হোসেন, আল আমীন বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন  উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু তাদের, ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক খলিলুর রহমান সিকদার।

এ সময়ে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আল বারাকাহ ইসলামী একক বীমা প্রকল্পের উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক এনামুল হক, ইসলামী বীমা তাকাফুল প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক সাজ্জাদ মাহমুদ কিশোর, ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও জেলা সমন্বয়কারী সোলাইমান হোসেন সোহাগ ।


আরও খবর



দুর্নীতির অভিযোগ এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৯জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টারঃপ্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্যোগে ২০১৩ সালে গঠিত চতুর্থ প্রজন্মের এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক প্রতিষ্ঠার পর থেকেই নানা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। খোদ ব্যাংকের চেয়ারম্যান পারভেজ তমালের বিরুদ্ধেই বিভি- ন্ন উপায়ে অর্থ আত্মসাৎ, স্বোচ্ছাচয়িতা ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এবার এ তালিকায় যুক্ত করেকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন ব্যাংকের ৭ উদ্যোক্তা। মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) এসব কর্মকর্তার নানা 'অপকর্ম' তুলে ধরে ব্যবস্থাপনা পরিচালক অ্যান্ড সিইও গোলাম আউলিয়াকে চিঠি দিয়েছেন তারা।

এরমধ্যে রয়েছেন ৫ জন উদ্যোক্তা শেয়ারহোল্ডার এবং ২ জন উদ্যোক্তা পরিচালক। তারা হলেন- উদ্যোক্তা শেয়ারহোল্ডার তোহেল আহমেদ, সোনাওর আলী, মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, এস এম গোলাম রব্বানী চৌধুরী, সাখাওয়াত আলী। উদ্যোক্তা পরিচালক মো. এনায়েত হোসেন ও সরোয়ার জামান চৌধুরী। চিঠিতে ৭ দিনের মধ্যে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে সকল স্পন্সর শেয়ারহোল্ডারদের জানানোর ভান্য বলা হয়েছে। চিঠির অনুলিপি দেওয়া হয়েছে অর্থমন্ত্রী, মুখ্যসচিব, মন্ত্রী পরিষদ সচিব, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর, দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান, অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব, হেড অব বিএফআইইউ ও পরিচালক, বিআরপিডি পরিচালককে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, একটি চক্র প্রতিষ্ঠাকালীন পর্ষদকে সুকৌশলে নানা অনিয়মের অভিযোগে বিতর্কিত করেছে। ফলশ্রুতিতে ২০১৭ সালে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশে ব্যাংকের বর্তমান পরিচালনা পর্ষদ পুনর্গঠিত হয়। পর্যদে প্রতিষ্ঠাকালীন অভিজ্ঞ পরিচালকদের অনুপস্থিতিতে বর্তমান চেয়ারম্যান পারভেজ তমাল, ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মিয়া ও এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান আদনান ইমামের অধীনে ব্যাংকটি বিগত কয়েক বছরে অব্যবস্থাপনা ও অনিয়মের প্রতীকে পরিণত হয়েছে। সংঘবদ্ধ চক্রের নিয়ন্ত্রণে ব্যাংক পরিচালনায় সেচ্ছাচারিতা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং প্রতিনিয়তই বিভিন্ন নেতিবাচক ঘটনায় দেশ-বিদেশের সংবাদ মাধ্যমের শিরোনাম হচ্ছে, যা প্রবাসীদের ব্যাংক হিসেবে অগ্রহণযোগ্য ও প্রবাসীদের সম্মানহানির শামিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টিগ্রিটি এন্ড কাস্টমার সার্ভিসেস ডিভিশন কর্তৃক ২০১৬ সালের ১৪ নভেম্বর হতে পরিচালিত বিশেষ পরিদর্শন রিপোর্ট অনুসারে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৭ উদ্যোক্তার চিঠি পূর্ববর্তী ব্যবস্থাপনা পরিচালকের ন্যায় আপনার বিরুদ্ধেও যথাযথ বিধি মোতাবেক ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৪, ৪৫ ও ৪৬ ধারা আরোপসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণর অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

চেয়ারম্যান শহীদুল আহসান কর্তৃক তার আত্মীয় এবিএম আব্দুল মান্নানের ছদ্মাবরণে ক্রয়কৃত সকল শেয়ার লক-ইন অবস্থায় ২০২৩ সালের ৩১ অক্টোবর ব্যাংকের চেয়ারম্যান পারভেজ তমালের ব্যবসায়িক পার্টনার ও রিলায়েবল বিল্ডার্সের কর্ণধার শফিকুল আলম মিথুনের অনুকূলে ১.৬৫,৭২,৯৯২টি, এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান আদনান ইমামের স্ত্রী সাদিয়া মোমিন ইমামের অনুকূলে ১,৩৮,৪৫,৯০৪টি ও মার্কেন্টাইল ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান শহীদুল আহসানের মেয়ে রেহনুমা আহসানের অনুকূলে ১,৪৫,৮০,৬১৫টি শেয়ার ব্লক মার্কেটে বিক্রয়সূত্রে হস্তান্তর করা হয়েছে। কোন প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক ঘোষিত বাজেয়াপ্তযোগ্য শেয়ার ক্রয়- বিক্রিয়ের প্রস্তাব পর্ষদ সভায় উত্থাপিত করা হয়েছে সেটাও জানতে চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি শফিকুল আলমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রিলায়েবল বিল্ডার্সের অনুকূলে এনআরবিসি ব্যাংকের হাতিরপুল শাখা থেকে ব্যাংকের ক্রেডিট পলিসির কোন ধারার ভিত্তিতে বরিশালের আলেকান্দা মৌজায় অবস্থিত মাত্র ৩.০৬ কোটি টাকা (বিক্রয় মূল্য ২.৪৫ কোটি ঢাকা) মূল্যের ৯.৩০ শতাংশ জমিকে সহায়ক জামানত রেখে প্রায় ৪৫০.০০ কোটি টাকার ঋণ ব্যাংক কর্তৃক অনুমোদন করা হয়েছে এবং এই ঋণ বিতরণে পর্ষদ কর্তৃক প্রভাবিত হয়েছেন কিনা যে বিষয়ে ব্যাখ্যা জানতে চাওয়া হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালককে উদ্দেশ্যে করে আরও বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে আপনার ওপর যে পবিত্র দায়িত্ব অর্পন করা করা হয়েছে, তার ভিত্তিতে ব্যাংক কোম্পানি আইন, বাংলাদেশ ব্যাংকের নীতিমালা ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সংশ্লিষ্ট সিকিউবিটিজ ল' মোতাবেক ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ কার্যক্রমে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা করা, দুর্নীতিগ্রস্থ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ, ঋণ ও অগ্রীম অনুমোদন-বিতরণে সচ্ছতা আনয়ন ও নিয়ম পরিপালনে নিরপেক্ষ ও নিয়মতান্ত্রিক পদক্ষেপ গ্রহণ করে দায়ি পর্যদ সদস্য ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সবিনয় অনুরোধ করছি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



শেষ হলো বাণিজ্য মেলা, বিক্রি হয়েছে ৪০০ কোটি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:২৮তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শেষ হয়েছে । এবারের মেলায় বেড়েছে রপ্তানি আদেশ ও নগদ বিক্রি দুটোই। রপ্তানি আদেশ পাওয়া গেছে প্রায় ৩ কোটি ৫৬ লাখ ডলার (৩৯১ কোটি ৮২ লাখ টাকা) আর নগদ বেচাকেনা হয়েছে প্রায় ৪০০ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে ২৮তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা-২০২৪ সমাপনী অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন প্রতিষ্ঠান ইপিবি আয়োজিত এ সমাপনি অনুষ্ঠানে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম, এফবিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম ও ইপিবির ভাইস চেয়ারম্যান এ এইচ এম আহসান প্রমুখ।

২০২৩ সালে বাণিজ্যমেলায় রপ্তানি আদেশ পাওয়া গিয়েছিল প্রায় ৩ কোটি ডলার। এ ছাড়া নগদ কেনাবেচা হয় প্রায় ১০০ কোটি টাকা। সেই হিসাবে গত বছরের তুলনায় এবার রপ্তানি আদেশ ১৭ দশমিক ২৫ ও নগদ বেচাকেনা প্রায় ১৫ শতাংশ বেড়েছে।

ইপিবি জানিয়েছে, এ বছর মেলায় মোট ৩০৪টি দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে। বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, হংকং, তুরস্ক, ইন্দোনেশিয়া ও সিঙ্গাপুর এ পাঁচ দেশের ৯টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। এবারের বাণিজ্যমেলায় বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাঁ ও স্টলের মোট সংখ্যা ছিল ৩৫১টি, যা গত বছরে ছিল ৩৩১টি।


আরও খবর



পররাষ্ট্রমন্ত্রী তিন দিনের সফরে দিল্লি গিয়েছেন

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:তিন দিনের সফরে দিল্লি গিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্করের আমন্ত্রণে সেখানে গেলেন তিনি।মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে দিল্লিতে পৌঁছেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

আজ সন্ধ্যায় এস জয়শঙ্করের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন হাছান মাহমুদ। সেখানে দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা বাণিজ্য, তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন ছাড়াও মিয়ানমারের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন তারা। অভিন্ন স্বার্থসংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক এবং বহুপাক্ষিক বিষয়েও মতবিনিময় করা হবে।

সফরকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর। এছাড়া, দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল, বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গয়াল ছাড়াও বিজেপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাত করবেন।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) কলকাতা হয়ে ঢাকা ফিরবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।


আরও খবর



'গ্যাসের জোগান দিতে পারলে ভর্তুকি ৭০ শতাংশ কমে আসত'

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ করতে না পারলে বিতরণ কোম্পানিগুলোর জরিমানা দিতে হবে, বলেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) পেট্রোবাংলায় আয়োজিত গ্যাস চাহিদা ও যোগান বিষয়ক এক সেমিনারে এ কথা বলেন তিনি। প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলোকে জবাবদিহিতায় আনতে হবে। বিদ্যুতের চাহিদা অনুযায়ী গ্যাসের জোগান দিতে পারলে ভর্তুকি ৭০ শতাংশ কমে আসত।

তিনি বলেন, শক্তিশালী নিয়ন্ত্রক সংস্থা নিয়ে বসব। গ্রাহককে গ্যাস সরবরাহ করতে না পারলে বিতরণ কোম্পানিগুলোর জরিমানা দিতে হবে। যারা ব্যর্থ হবেন, তাদের বিদায় নিতে হবে। আর সহ্য করার সময় নেই। পুরো অর্থনীতি জ্বালানি খাতের ওপর নির্ভরশীল। কাজেই যথাযথ সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে। এসময় পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান জনেন্দ্র নাথ সরকার বলেন, জ্বালানি সরবরাহ বাড়াতে ২০২৮ সালের মধ্যে আরও ১০০টি কূপ খননের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে পেট্রোবাংলা।

এছাড়া নিজস্ব উৎপাদন না বাড়িয়ে এলএনজির (তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস) ওপর নির্ভরতা বাড়লে গ্যাসের দাম কোনো পর্যায়ে গিয়ে ঠেকবে, সেটি ভাবার সময় এসেছে বলে মন্তব্য করেন জ্বালানি সচিব মো. নূরুল আলম।


আরও খবর