Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

যুক্তরাজ্যের নগরমন্ত্রী হলেন টিউলিপ সিদ্দিক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৬জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক:বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক ব্রিটেনের নগরমন্ত্রী হয়েছেন । উত্তর-পশ্চিম লন্ডনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড হাইগেট আসনে টানা চতুর্থবারের মতো বিজয়ী হন টিউলিপ সিদ্দিক।

বিবিসির প্রতিবেদন মতে, গত ৫ জুলাই বাকিংহাম প্যালেস থেকে ফিরেই মন্ত্রিসভা গঠনের কাজ শুরু করেন নতুন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী কিয়ার স্টারমার। এরই মধ্যে বেশ কয়েকজনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। লেবার এমপি অ্যাঞ্জেলা রেনারকে উপপ্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। সে ধারাবাহিকতায় ব্রিটেনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড হাইগেট আসন থেকে নির্বাচিত এমপি টিউলিপকে নগরমন্ত্রী করা হলো।

গত শুক্রবার (৫ জুলাই) সকালে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, টিউলিপ সিদ্দিক নির্বাচনে তিনি ৪৮ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট পেয়েছেন। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পেয়েছেন ১৭ দশমিক ৪ শতাংশ। এ ছাড়া নির্বাচনে মোট ৬০ দশমিক ৭ শতাংশ ভোটগ্রহণ হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে ১৪ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ পার্টিকে বিশাল ব্যবধানে হারায় টিউলিপের দল লেবার পার্টি। নির্বাচনে টানা চতুর্থবারের মতো জয় পান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক। জয়ের পর টিউলিপ সিদ্দিক বলেছিলেন, সবাইকে শুভেচ্ছা জানাই। আপনাদের দোয়ায় চতুর্থবারের মতো আমি নির্বাচিত হলাম। বাংলাদেশি কমিউনিটি সব সময় আমাকে সমর্থন করে। আমি তাদের প্রতি খুবই কৃতজ্ঞ যে, তারা এবারও আমাকে সমর্থন দিয়েছেন।

মেয়ের জয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানাও। তিনি বলেছিলেন, আমার মেয়ে আবার এমপি নির্বাচিত হলো। মানুষের সেবায় সে নিষ্ঠার সঙ্গে তার দায়িত্ব পালন করবে। শুধু নির্বাচনের সময় নয়, সারা বছরই সে এলাকায় কাজ করে। সবার কাছে দোয়া চাই, সে যেন তার কাজ নিষ্ঠার সঙ্গে করতে পারে।

এবার নির্বাচনে টিউলিপসহ ৩৪ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক ভোটে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এর মধ্যে লেবার পার্টির প্রার্থী হয়েছিলেন আটজন। তাদের মধ্যে টিউলিপসহ জয় পেয়েছেন চারজন। অন্য তিনজন হলেন রুশনারা আলী, রূপা হক এবং আফসানা বেগম।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ভোলার মেঘনায় ড্রেজার ডুবি : ২ জনের মরদেহ উদ্ধার, এখনও নিখোঁজ-৩

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

শরীফ হোসাইন, ভোলা বিশেষ প্রতিনিধি:ভোলার মেঘনা নদীতে ডুবে যাওয়া ড্রেজার থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তারা হলেন, মো. আরিফুর ইসলাম ও নুরে আলম। নুরে আলম ডুবে যাওয়া ড্রেজারটির মালিক ছিলেন। ডুবুরি টিম ড্রেজারটির কেবিন থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে। তবে এখনো অপর ৩ শ্রমিকের সন্ধান পাওয়া যায়নি। তারা হলেন, মো. হারুন (৫৫), সিয়াম আহমেদ (২৩) ও তানজিল আহমেদ (২৩)। তাদের সবার বাড়ি ভোলা সদর উপজেলার ৩নং পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের পাঙ্গাশিয়া গ্রামে। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) ভোররাত ৩টার দিকে মালিকপক্ষের ভাড়াটে ডুবুরি টিম ওই দু'জনের মরদেহ উদ্ধার করে। লিশা নৌ-থানার ইন্সপেক্টর বিদুুৎ কুমার বড়ুয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

দিনভর অভিযানের পর সোমবার বিকেলে নৌ-পুলিশ, কোষ্টগার্ড ও ফায়ারসার্ভিসের যৌথ অভিযানে ডুবে যাওয়া ড্রেজারটির সন্ধান পায় তারা। আজ সকাল থেকে নিখোঁজ ৩ শ্রমিককে উদ্ধারে সরকারি ও বেসরকারি ডুবুরি টিম কাজ করে যাচ্ছে। 

ভোলা ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক মো. লিটন জানান, গতকাল বিকেলে ফায়ার সার্ভিস, নৌ-পুলিশ ও কোষ্টগার্ডের যৌথ অভিযানে ডুবে যাওয়া ড্রেজারটির অবস্থান শনাক্ত করা হয়। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে পুনরায় উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। এর আগেই মালিকপক্ষের ভাড়াটে ডুবুরি টিম ভোররাতে দু’জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে। এখন ভাড়াটে ডুবুরি টিম ও সরকারি ডুবুরি টিম যৌথভাবে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। বাকি ৩ জনের মরদেহ খোঁজা হচ্ছে। 

কোষ্টগার্ড দক্ষিণ জোনের লেফটেন্যান্ট কমান্ডার এইচ এম হারুন অর রশিদ বিএন জানান, ড্রেজারটির দুটি কেবিন ভিতর থেকে আটকানো। মেঘনায় পানির তীব্র স্রোত। যাঁর কারনে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা ব্যাহত হচ্ছে। ডুবুরি টিম চেষ্টা করছে ড্রেজারটি নদীর তলদেশ থেকে ভাসমান অবস্থায় নিয়ে আসার জন্য।

এদিকে নিখোঁজ শ্রমিকদের স্বজনরা ট্রলারযোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহাজারি করছেন। তারাও নদীতে ঘুরে নিখোঁজদের সন্ধান করছে। ভোলা জেলা প্রশাসক মো. আরিফুজ্জামান জানান, নিখোঁজ শ্রমিকদের লাশ উদ্ধারে ডুবুরি টিম তৎপর রয়েছে। জেলা প্রশাসকের একটি টিম বিষয়টি মনিটরিং করছে।

উল্লেখ্য, রোববার গভীর রাতে ভোলার মেঘনা নদীর গাজীপুর চর নামক এলাকা থেকে বালু উত্তোলনের সময় আফসানা-১ নামের ড্রেজারটি ৫ শ্রমিক নিয়ে ডুবে যায়।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



পত্নীতলায় আদিবাসী পরিবারের উপর হামলা-ভাংচুর, আহতরা হাসপাতালে ভর্তি

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬২জন দেখেছেন

Image

দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় এক আদিবাসী পরিবারের উপর দফায় দফায় হামলা চালিয়ে বাড়ী-ঘর ভাংচুর ও নারী-পুরুষকে মারপিট করে লুঠতরাজ চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় আহতরা পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে।

জানাগেছে পত্নীতলায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে এক আদিবাসী পরিবারের ঘরবাড়ি ভাংচুর সহ খড়ের পালায় আগুন দিয়ে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে দুর্বৃত্তরা। এব্যাপারে থানায় গত মঙ্গলবার অভিযোগ হলে পুলিশি তদন্ত চলাকালীন সময়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আবারও দুর্বৃত্তরা লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ঐ পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর, দোকানঘর ভাংচুর করে লুটতরাজ করে এবং নারী সহ বৃদ্ধদের জখম করলে ঐ পরিবারের লোকজন দুর্বৃত্তদের হাত থেকে বাঁচার জন্য থানা ও ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উষ্টি গ্রামের আদিবাসী হরেন এর ছেলে শনিরাম (৪৩) তার পরিবারকে নিয়ে উষ্টি গ্রামে বসবাসরত অবস্থায় বাড়ির পাশে উষ্টি তকিপুর পুরাতন জামে মসজিদের জায়গা লীজ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত সেখানে টিনের চালা দিয়ে মুদি দোকানের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল।

এমতাবস্থায় প্রায় ছয় মাস পূর্বে তকিপুর হাটপুকুর এলাকার মৃত সানচ্চার ছেলে বিষ্ণু তিগ্যা সহ তার সঙ্গীরা শনিরামের ঐ জায়গা দখলের চেষ্টা করে ও শনিরাম সহ তার পরিবারকে বেধে মধ্যযুগিয় কায়দায় মারপিট, ভাংচুর ও লুটতরাজ চালায়। এ ব্যাপারে মামলা চলমান অবস্থায় গত মঙ্গলবার আবারো বিষ্ণু তিগ্যা (৪৪), একই এলাকার মৃত মংলুর ছেলে দিনেশ তিগ্যা (৩৫), মৃত শুকা তিগ্যার ছেলে রবীন্দ্রনাথ তিগ্যা (৪৮), রবীন্দ্রনাথের ছেলে সুজন তিগ্যা (২২), মৃত নবীন তিগ্যার ছেলে লিটন তিগ্যা (৩২), মৃত সুরেন তিগ্যার ছেলে দুলাল তিগ্যা (৫০), মৃত নবানুরের ছেলে মহাদেব (৩৬), মৃত সৃনাচ্চার ছেলে নরেশ তিগ্যা (৫১), মৃত সাঞ্চার ছেলে কালু তিগ্যা (৪১), বিষ্ণু তিগ্যার ছেলে রাজ কুমার (২০), মালেক হোসেন (৪৫), মৃত মানছা তির্গার ছেলে নকুল তিগ্যা (৩২), গবরা তিগ্যার ছেলে কালিপদ তিগ্যা (৫৫), মৃত হাকিম উদ্দিনের ছেলে সামসুল হক (৫৬), নেওয়ার ছেলে মালেক (৪৫) লাঠিসোটা, লোহার রড, হাসুয়া নিয়ে জোর পূর্বক ঐ জায়গা-জমি দখলের উদ্দেশ্যে শনিরামের উপর হামলা চালায়। শনিরামের চিৎকারে তার স্ত্রী মিনা সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা ছুটে আসলে তাদেরকেও আঘাত সহ শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে দুর্বৃত্তরা। একপর্যায়ে তাদের চিৎকার-চেঁচামেচিতে গ্রামের লোকজন ছুটে আসলে দুর্বৃত্ত বিষ্ণু সহ তার সঙ্গীরা দ্রুত সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

এসময় দুর্বৃত্তরা শনিরামের বসতবাড়ি, দোকানের ফ্রিজ সহ অন্যান্য জিনিসপত্র ভাংচুর করে, খড়ের পালায় আগুন ধরিয়ে দেয়, ৩০টি আমের গাছ উপরে ফেলে এবং তার জমির চারপাশের বাঁশের বেড়া ভেঙ্গে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে মালামাল লুটতরাজ করে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় শনিরাম পত্নীতলা থানায় উক্ত দুর্বৃত্তদের নামে অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশের তদন্ত চলমান থাকা অবস্থাতেই আবারও বিষ্ণু তিগ্যা সহ তার সঙ্গীয়রা বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় শনিরামের পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে গুরত্বর আহত করে, ভাংচুর ও লুটতরাজ চালিয়ে নারী ও বৃদ্ধদের জখম করে। আহতরা হলো, বক্স এর স্ত্রী আরতি (৩০), হরেন (৫৮), হরেন এর স্ত্রী মালতি (৫০) ও শনিরামের স্ত্রী মিনা (৩৫)।

এ ঘটনায় উষ্টির তকিপুর পুরাতন জামে মসজিদ কমিটির সহিদুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে, দুর্বৃত্তদের দ্রুত বিচার দাবি করেন।

এ ব্যাপারে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আসামীদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



কৃষকের ৪ বিঘা জমির পেঁপে গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৯জন দেখেছেন

Image

কামরুজ্জামান ঝিনাইদহ:ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলায় মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল সাড়ে ৭ ঘটিকার দিকে মথুরাপুর গ্রামে কৃষক মোঃ মতিয়ার রহমান এর ৪ বিঘা জমির পেঁপে গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। এতে উক্ত কৃষকের প্রায় ১৫/১৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক থানায় অভিযোগ দেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছেন। 



আরও খবর



স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে বাংলাদেশ স্কাউটস পাঞ্জেরির ন্যায় আলোর পথ দেখাবে: প্রতিমন্ত্রি আব্দুল ওয়াদুদ (দারা)

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৫৮জন দেখেছেন

Image
সাজেদুর রহমান পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃস্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ, রাজশাহী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ (দারা) এম.পি বলেছেন, স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে বাংলাদেশ স্কাউটস হবে আলোকবর্তিকা, যে সবাইকে পাঞ্জেরির ন্যায় আলোর পথ দেখাবে।

আজ (১৩ই জুলাই) সকালে পুঠিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে পুঠিয়া উপজেলা স্কাউটসের আয়োজনে ‘বাংলাদেশ স্কাউটস থেকে প্রাপ্ত কাব স্কাউট ইউনিটে ড্রাম সেট বিতরণ  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দর্শনপ্রসূত ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলতে স্কাউটিং-এর বিকল্প নেই। ছোটবেলা থেকেই শিশু, কিশোর-কিশোরীদের শারীরিক, মানসিক, নৈতিক, বুদ্ধিবৃত্তিক এবং সামাজিক গুণাবলী উন্নয়নের মাধ্যমে তাদেরকে পরিবার, সমাজ দেশ তথা বিশ্বের স্মার্ট সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বাংলাদেশ স্কাউটস এক অনন্যসাধারণ নাম। স্মার্ট নাগরিক হতে হলে হাতেকলমে কাজ শেখা,  ছোট-দল পদ্ধতিতে কাজ করা, ব্যাজ পদ্ধতির মাধ্যমে কাজের স্বীকৃতি প্রদান, মুক্তাঙ্গনে কাজ সম্পদান, তিন আঙ্গুলে সালাম ও ডান হাত করমর্দন, স্কাউট পোশাক, স্কার্ফ ও ব্যাজ পরিধান এবং সর্বদা স্কাউট আইন ও প্রতিজ্ঞা মেনে চলে কাব স্কাউটদের আগামীর বিশ্বের জন্য নেতা হয়ে গড়ে উঠতে হবে ।
 তিনি আরও বলেন, “১৯৭২ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এদেশে স্কাউটিং আন্দোলন প্রতিষ্ঠা করেছেন যেন এই আন্দোলনে যুক্ত হয়ে আনন্দের মাধ্যমে শিশু-কিশোররা শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে এবং স্বাবলম্বী হয়ে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠে। স্কাউটদেরকে আত্মমর্যাদা সম্পন্ন, সৎ, চরিত্রবান, কর্মোদ্যোগী, সেবাপরায়ণ, সর্বোপরি সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বাংলাদেশ স্কাউটস অবিসংবাদী ভূমিকা গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক অবস্থা ও মূল্যবোধ অবক্ষয়ের প্রেক্ষাপটে দেশ ও জাতি গঠনে স্কাউট আন্দোলনের প্রয়োজনীয়তা ও গুরুত্ব অপরিহার্য।“

আব্দুল ওয়াদুদ এ সময় বলেন, সমাজের ও দেশের উন্নয়নের জন্য বৃক্ষরোপন, টিকাদান, স্যানিটেশন ও পরিবেশ সংরক্ষণ, জ্বালানি-সাশ্রয়ী চুলা এবং বন্যা ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় স্কাউটদের সেবাদান কর্মসূচি প্রশংসার দাবিদার। তবে কাব স্কাউটদের (৬ থেকে ১০+ বছর বয়সী) বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির নিত্যনতুন আবিষ্কারের পাশাপাশি দেশের সঠিক ইতিহাস সম্পর্কে জানতে হবে। তিনি বলেন, পড়ার সময় পড়া, খেলার সময় খেলা এবং কাজের সময় কাজ। কাব স্কাউটদের উদ্যোক্তা হতে হবে।

পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, এ, কে, এম নূর হোসেন নির্ঝরের সভাপতিত্বে 
উক্ত অনুষ্ঠানে  অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন উপজেলা চেয়ারম্যান   আব্দুস সামাদ মোল্লা  উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম। এছাড়া অনুষ্ঠানে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ, পুঠিয়া উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



শ্রীলঙ্কার মতো ভুল যাতে না হয়, সতর্ক থাকতে হবে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মন্ত্রী, সচিব ও কর্মকর্তারা সৎ থাকলে দুর্নীতি হওয়ার কোনো সুযোগ থাকবে না। দুর্নীতি এখন বেপরোয়া গতিতে বিস্তার লাভ করছে। কিন্তু ধরা পড়ে অনেক পরে, বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ।

রোববার (৭ জুলাই) সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শুদ্ধাচার পুরস্কার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, দুর্নীতির জন্য যে মূল্য দিতে হয়, সেটা আমাদের জন্য সত্যিই দুঃখজনক ও দুর্ভাগ্যজনক। দেশের অর্থনৈতিক সম্পদ মাথায় রেখে সমস্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের পরিকল্পনা নিতে হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনো অবস্থাতেই শ্রীলংকার দৃষ্টান্তের পুনরাবৃত্তি কিংবা শ্রীলংকার ভুলের পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে। ভালো কাজের যেমন পুরস্কার, সেভাবে খারাপ কাজের জন্য নিন্দা ও শাস্তির ব্যবস্থা থাকা দরকার।

কোটা নিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন আর পেনশন স্কিম নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমরা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। সময়মতো সমাধান হয়ে যাবে বলে আমি বিশ্বাস করি। শিক্ষার্থীরা যে ইস্যুতে আন্দোলন করছে এটাতো সরকারের সিদ্ধান্ত না, আদালত রায় দিয়েছে। এটা আদালতের এখতিয়ার।

সরকারি কর্মচারীদের সম্পদের হিসাব ইস্যুতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সম্পদের হিসাব দিতে পারে, এটা দেওয়া উচিত। এখানে আপত্তি কোথায়? আমি যদি সৎভাবে কাজ করি দিতে আপত্তি কী।


আরও খবর