Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

যশোরে ৬ চোরা মোটরসাইকেল সহ আন্ত:জেলা চোর চক্রের পাঁচ সদস্য আটক

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৪৩জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি :যশোরে ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে আন্ত: জেলা মোটরসাইকেল চোর চক্রের পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে। এসময় তাদের কাছ থেকে ৬টি চোরাই মোটরসাইকেল ও একটি মাস্টার চাবি উদ্ধার করেছে ডিবি পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার চিংড়ি খালি গ্রামের মজিদ সরকারের ছেলে ও উপশহর এ ব্লক এলাকার বাসিন্দা আল আমিন সরদার ওরফে আলমগীর, চুয়াডাঙ্গা জেলার দামড়হুদা ইব্রাহিমপুর গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে সাগর আহম্মেদ নিলু ওরফে রাসেল, আলমডাঙ্গা উপজেলার গৌড়িহাদ গ্রামের মৃত আলউদ্দিন বাবুলের ছেলে শুভ, কান্তপুর গ্রামের মইনুল হকের ছেলে সেলিম রেজা ও কুষ্টিয়া দৌলতপুর জোয়াদ্দারপাড়ার মৃত জাকের মালিখার ছেলে আইয়ুব আলী
মালিখা।

ডিবির ওসি রুপন কুমার সরকার জানান, গত পহেলা আগস্ট যশোর সদর ‍উপজেলার গাজীর দরগাহ তেঘরিয়া গ্রামের জাহিদুল ইসলামের বাড়ি থেকে একটি পালসার মোটরসাইকেল চুরি হয়। যার একটি অভিযোগ আসে ডিবির কাছে। পরে বিষয়টি নিয়ে কাজ শুরু করে এলআইসি টিম। তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় পুলিশ এ ঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে উপশহর এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রথমে আল আমিনকে আটক করে। পরে তার কাছেথেকে একটি মোটরসাইকেল ও চুরির কাজে ব্যবহৃত মাস্টার চাবি উদ্ধার করা হয়। পরে আল আমিনের দেয়া তথ্যে কুষ্টিয়া ও চুয়াডাঙ্গা জেলায় অভিযান চালায় ডিবির টিম।  পরবর্তিতে ওই চারজনকে আটক করা হয় একই সাথে আরও পাঁচটি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। অভিযানে অংশ নেন এসআই আরিফ হোসেন এসআই রাজেশ দাশ দ্বয়, আব্দুল বাতেন সহঅন্যরা।

ডিবি আরও জানায়, আসামিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে। তারা চিহ্নিত চোর। এ ঘটনা মামলা হয়েছে।


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মাগুরায় সাকিব এর সহযোগীতায় সটপিস ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৭জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা-১ আসনের  সংসদ সদস্য  সাকিব আল হাসানের সার্বিক সহযোগিতায় ঐতিহাসিক নোমানী ময়দানে "অমর একুশে শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট" এর আয়োজন করা হয়। ব্যক্তিক্রমধর্মী এ আয়োজনে জেলার বিভিন্ন প্রান্তের ক্রিকেটপ্রেমীরা অংশগ্রহণ করে। ২৩ ফেব্রুয়ারী রাতে অনুষ্ঠিত  এ খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক  মোহাম্মদ আবু নাসের বেগ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার  মশিউদ্দৌলা রেজা, পিপিএম(বার), মাগুরা, পৌরসভা মেয়র  খুরশীদ হায়দার টুটুল।   এ সময় জেলার বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের প্রধানগণ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

এ শর্টপিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সর্বমোট ১৩টি দল খেলায় অংশগ্রহণ করে। চরম প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত এ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেন জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসন একাদশ দল। ৪ নং ওয়ার্ডের সাথে অনুষ্ঠিত খেলায় জেলা প্রশাসন একাদশ স্বল্প ব্যবধানে পরাজয় বরণ করে। পরবর্তীতে একই টুর্নামেন্টে ৮ নং ওয়ার্ডের সাথে অনুষ্ঠিত সেমিফাইনাল খেলায় জেলা প্রশাসন একাদশ পরাজয় বরণ করে। উল্লেখ্য এ টুর্নামেন্টে ৮ নং ওয়ার্ড চ্যাম্পিয়ন ও ৬ নং ওয়ার্ড রানার্স আপ হওয়ার গৌরব অর্জন করে। 

সমাপনী বক্তব্যে প্রধান অতিথি বলেন যে, সুস্থ বিনোদনের অন্যতম প্রধান মাধ্যম হলো খেলাধুলা। যুব সমাজকে মাদকের কুফল থেকে দূরে রাখতে ও তাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়ন ঘটাতে এ ধরনের উদ্যোগ বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। খেলোয়াড়দের মনোবল বৃদ্ধি ও খেলাধুলার স্বাভাবিক চর্চাকে অব্যাহত রাখতে তিনি এ উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন। এ ধরনের চর্চা সামনের দিনগুলোতে চলমান থাকবে বলে তিনি আশাবাদ প্রকাশ করেন।

আরও খবর



উলিপুরে ২৮ তম বইমেলার শুভ উদ্বোধন

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image
কুড়িগ্রাম ব্যুরো চিফ :"উলিপুর বইমেলা হোক উত্তরাঞ্চলের সাহিত্য সংস্কৃতির মিলন মেলা।"এ স্লোগানকে আদলে নিয়ে আজ ১০ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল ১১ টায় উলিপুর বিজয় মঞ্চ চত্বরে শুভ উদ্বোধন হলো ২৮তম উলিপুর বই মেলা। উলিপুর ফ্রেন্ডস ফেয়ারের আয়োজনে কুড়িগ্রাম-৩ উলিপুর আসনের নব-নির্বাচিত এমপি সৌমেন্দ্র প্রসাদ পান্ডে গবা ৭ দিনব্যাপি ২৮তম উলিপুর বই মেলার ফিতা কেটে শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।এরপর আনুষ্ঠানিক জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের পর উদ্ভোধনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় উদ্ভোধনী আলোচনা সভায় ফ্রেন্ডস ফেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য নাট্যকার জাহিদুল ইসলাম জাহিদের সভাপতিত্বে সূচনা বক্তব্য রাখেন, ফ্রেন্ডস ফেয়ারের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ জুলফিকার আলী (সেনা )।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উলিপুর সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ আবু যোবায়ের আল মুকুল, বি,এম,এ, কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা: লোকমান হাকীম, উলিপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, উলিপুর শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক স,ম আল মামুন সবুজ। 

উলিপুর বই মেলায় জাতীয় পর্যায়ের কয়েকটি প্রকাশনীর স্টলসহ প্রায় ২৮ টি স্টল রয়েছে। 
রংপুর বিভাগের ঐতিহ্যবাহী ৭ দিনব্যাপি উলিপুর বই মেলার দৈনন্দিনের আয়োজনে থাকছে, স্কুল ও কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের বিষয় ভিত্তিক প্রতিযোগিতা ও প্রতিদিনের রাতের আয়োজনে থাকছে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নাটক ও মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। 

"তোমাদের রক্তসিক্ত মাটিতে প্রতিনিয়ত জন্মে বিবর্তনের অংকুর" এমন বাক্যকে অন্তরে লালন ও ধারণ করে মেলা চত্বরে প্রতিদিনের আয়োজনে থাকছে, বাঙালীর মুক্তি সংগ্রামের চলচিত্র প্রদর্শনী। 
২৮তম উলিপুর বই মেলা পরিচালনা কমিটি'র সমন্বয়কারী জিয়ন রায়হান উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী ঢুকছে বাংলাদেশে, সতর্ক বিজিবি-র‌্যাব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:তুমুল সংঘর্ষ চলছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ও সশস্ত্র বিদ্রোহীদের মধ্যে সোমবার সন্ধ্যার পর থেকে। এ অবস্থায় বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করছে দেশটির বর্ডার গার্ড। সীমান্তে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সদস্যরা।

ঘুমধুম সীমান্ত এলাকা থেকে মিয়ানমার সীমান্ত কাছে। তাই কিছুক্ষণ পরপরই গুলি আর মর্টারের শব্দ শোনা যাচ্ছে। এ কারণেই সীমান্ত এলাকায় কঠোর অবস্থানে রয়েছে র‍্যাব। সীমান্তের পাশে যে বিজিবি চেকপোস্ট রয়েছে সেটি বাঁশ দিয়ে বন্ধ করে রাখা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে মিয়ানমার থেকে ছোঁড়া আরেকটি মর্টারশেল ঘুমধুম সীমান্তবর্তী এলাকায় পড়েছে। সেটি একটি বাড়ির বাগানে পড়ে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এর আগে, সোমবার মিয়ানমারের ছোঁড়া মর্টারশেলের আঘাতে ঘুমধুমে দুইজনের প্রাণহানি ঘটে।

প্রসঙ্গত, ঘুমধুম বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার অন্তর্গত নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার একটি ইউনিয়ন। ঘুমধুম সীমান্ত এলাকা থেকে মিয়ানমার সীমান্ত খুব কাছে। ২০১৭ সালে এ সীমান্ত দিয়ে রোহিঙ্গাদের একটি দল বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।


আরও খবর



পুলিশ সুপার মুক্তাধর কানে পরিয়ে দিলেন শ্রবণশক্তি বৃদ্ধি যন্ত্র “হিয়ারিং এইড”

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৯জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল :প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) এর সভাপতি ওখাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) এর মানবিক সহযোগিতায় রহিমা বেগম (৫১),নামের এক ভিক্ষুক নারীকে নিজ হাতে তার কানে পরিয়ে দিলেন শ্রবণশক্তি বৃদ্ধি সহায়ক যন্ত্র “হিয়ারিং এইড”।

সোমবার (২৯ জানুয়ারি)বিকালের দিকে খাগড়াছড়ি পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি পুনাক 
উদ্যােগে পুনাক সভাপতি ওখাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) খাগড়াছড়ি জেলার শাপলা চত্তরে অবস্থিত মানবতার দেয়াল খ্যাত মুক্ত মঞ্চে রহিমা বেগম (৫১) কে নিজ হাতে তার কানে পরিয়ে দিলেন শ্রবণশক্তি বৃদ্ধি সহায়ক যন্ত্র “হিয়ারিং এইড”।

জানা গেছে গত ১৭ডিসেম্বর  চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছিলেন রহিমা বেগম (৫১), পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক), খাগড়াছড়ি এর উদ্যােগে  খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার  পুলিশ সুপার মুক্তাধর পিপিএম (বার)  সভাপতিত্বে খাগড়াছড়ি জেলার শাপলা চত্তরে অবস্থিত মুক্ত মঞ্চে দিনব্যপি ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। পুনাকের এই সেবামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে প্রায় চার শতাধিক অসহায় মানুষ বিভিন্ন রোগের অভিজ্ঞ ডাক্তারদের নিকট থেকে ফ্রি চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেছিলেন। সেখান চিকিৎসা সেবা নিতে এসেছিলেন রহিমা বেগম (৫১)তিনি মূলত একজন শ্রবণ শক্তিহীন বধির হতদরিদ্র মহিলা। পেশায় তিনি একজন ভিক্ষুক। তিনি কারও কথা কানে শুনতে পান না। বিষয়টি নজরে আসে খাগড়াছড়ি জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মুক্তাধর পিপিএম (বার) মহোদয়ের। পুলিশ সুপার মহোদয় সেদিন রহিমা বেগম (৫১) কে কথা দিয়েছিলেন তাকে একটি “হিয়ারিং এইড” শ্রবনশক্তি বৃদ্ধি সহায়ক যন্ত্র কিনে দিবেন। 

তিনি মূলত একজন শ্রবণ শক্তিহীন বধির হতদরিদ্র মহিলা। পেশায় তিনি একজন ভিক্ষুক। তিনি কারও কথা কানে শুনতে পান না। বিষয়টি নজরে আসে খাগড়াছড়ি জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মুক্তাধর পিপিএম (বার) মহোদয়ের। পুলিশ সুপার মহোদয় সেদিন রহিমা বেগম (৫১) কে কথা দিয়েছিলেন তাকে একটি “হিয়ারিং এইড” শ্রবনশক্তি বৃদ্ধি সহায়ক যন্ত্র কিনে দিবেন। 

পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট থেকে রহিমা বেগম (৫১) “হিয়ারিং এইড” যন্ত্রটি পেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। এসময় তিনি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার)কে জড়িয়ে ধরে কান্না করেন। তিনি বলেন যে, “সমাজে অনেক বিত্তশালী মানুষ আছেন কিন্তু কেউ তাকে এভাবে সাহায্য করেন নাই। কিন্তু আমার এই দুর্দশা দেখে পুলিশ আমার পাশে দাড়িয়েছেন”। তিনি পুলিশ সুপার  মুক্তাধর পিপিএম (বার)  সহ বাংলাদেশ পুলিশের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার)এর দীর্ঘায়ু কামন করেন। এসময় তিনি দুহাত তুলে দোয়া করেন যে, “স্যারের মত প্রতিটি জেলায় এরকমের অফিসার জন্ম নেন”।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




দেশের সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে যে রায় দিলেন আপিল বিভাগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আপিল বিভাগ রায় দিয়েছেন দেশের সব বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে ১৫ শতাংশ আয়কর দিতেই হবে বলে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি বোরহান উদ্দিনের নেতৃত্বাধীন ৪ সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ রায় দেন।আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন।

২০০৭ সালের ২৮ জুন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অনুমোদিত প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় এবং অপরাপর বিশ্ববিদ্যালয়, যারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় নয়, তাদের উদ্ভূত আয়ের ওপর ১৫ শতাংশ হারে আয়কর পুনঃনির্ধারণ করা হলো। ১ জুলাই থেকে এটা কার্যকর হবে।

২০১০ সালের ১ জুলাই এনবিআরের আরেক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ, বেসরকারি ডেন্টাল কলেজ, বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বা শুধু তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে শিক্ষাদানে নিয়োজিত বেসরকারি কলেজও উদ্ভূত আয়ের ওপর প্রদেয় আয়করের হার হ্রাস করে ১৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হলো।

পরে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর রিট আবেদন করলে উচ্চ আদালত ২০১৬ সালের ৫ সেপ্টেম্বর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর কর ধার্য করাকে অবৈধ ঘোষণা করেন। এর বিরুদ্ধে সরকারের আপিলের পর আপিল বিভাগ ২০২১ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি এক আদেশের মাধ্যমে সরকারের আপিল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর কর আরোপ না করার আদেশ দিয়েছিলেন।

২০২৩ সালের ৬ এপ্রিল বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়কে আয়কর দিতে হবে না বলে হাইকোর্টের দেওয়া রায় বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ, ব্যারিস্টার ওমর সাদাত।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন- অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ। একইসঙ্গে এ সংক্রান্ত রিট আবেদনগুলোর হাইকোর্টে চূড়ান্ত শুনানির আদেশও বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।


আরও খবর