Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত
ছেলের বাবা যশের জন্মদিনে নুসরাতের বিশেষ ভালোবাসা

যশের জন্মদিনে নুসরাতের বিশেষ ভালোবাসা

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৪৫৩জন দেখেছেন
বিনোদন ডেস্ক

Image


বিনোদন ডেস্ক :


টালিউডের অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। ৩৬ বছর পূর্ণ করলেন তিনি। শুভেচ্ছায় ভাসছেন সোশ্যাল মিডিয়া। ভক্তরা তাকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন নানা মিষ্টি বারতায়।তবে নায়কের বিশেষ দিনে প্রেমিকা বলে খ্যাত নায়িকা নুসরাত জাহানের কি আয়োজন? সেদিকে নজর ছিল প্রায় সকলের। রাত ১২টা বাজামাত্রই অপেক্ষার অবসান হলো। প্রকাশ হলো, যশের জন্মদিনে নুসরাতের ভালবাসা।

 

যশের জন্মদিন পালনের ক্ষেত্রে যদিও কোনো আড়ম্বরের বন্দোবস্ত করেননি নুসরাত। অন্তত সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমন কোনো আভাস পাওয়া যায়নি। যশের জন্মদিনের কথা যে তিনি ভুলেননি শুধু সেটাই জানিয়ে দিলেন ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে।ইনস্টা স্টোরিতে যশের ছবি পোস্ট করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তার পাশেই লাল হৃদয়ের ইমোজি। যার পোশাকি নাম হার্ট ইমোজি।

 

প্রসঙ্গত, গেল বছর থেকেই টালিগঞ্জে আলোচিত জুটি যশ-নুসরাত। পর্দায় তেমন সাফল্য না পেলেও বাস্তব জীবনে সেই রসায়ন জমে ক্ষীর। তবে প্রকাশ্যে সম্পর্কের কথা স্বীকার করেননি তাদের দু’জনের কেউই। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের শেয়ার করা ছবি দেখে নুসরাত এবং যশের ঘনিষ্ঠতার প্রমাণ পেয়েছেন নেটিজেনরা। একসঙ্গে লাঞ্চ ডেটেও দেখা গিয়েছে তাদের।

 

এই পরিস্থিতিতে জানা যায় নুসরাত সন্তানসম্ভবা। নানা বাঁকা কথার মাঝেও অবিচল থেকেছেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ।

 

এরপর গত ২৬ আগস্ট পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। পার্ক স্ট্রিটের বেসরকারি হাসপাতালে সেই সময় প্রায় সারাক্ষণই নুসরতের সঙ্গী ছিলেন যশ। সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে কাটাছেঁড়া হয়েছে যথেষ্ট। যদিও কলকাতা পুরসভার জন্ম শংসাপত্রের নথি অনুযায়ী নুসরাতের ছেলের বাবার নাম দেবাশিস দাশগুপ্ত। যা অভিনেতা যশ দাশগুপ্তেরই আরেক নাম।

খবর প্রতিদিন / সি.বা


আরও খবর

আসছে ‘গোলমাল ৫’!

Friday ১৯ August ২০২২




দেশ বাঁচাতে এ সরকারকে হটানো দরকার: আব্দুস সালাম

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর, দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম বলেছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে বিএনপিকে ক্ষমতায় আনতে নয়, দেশকে বাঁচাতে প্রতিবাদ করা দরকার। লুটপাটকারী এ সরকারকে ক্ষমতা থেকে হটানো দরকার।

রোববার (৭ আগস্ট) বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত গণবিরোধী উল্লেখ করে তা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদী অবস্থান ও গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচির আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম)। ওই কর্মসূচিতে আব্দুস সালাম এমন মন্তব্য করেন।

আব্দুস সালাম বলেন, বর্তমান সরকারকে হঠাতে আন্দোলনে নামা ছাড়া কোনো উপায় নেই। যদি আমরা দেশকে বাঁচাতে চাই, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে চাই, মৌলিক অধিকারগুলোকে রক্ষা করতে চাই, ভোটাধিকার ফিরে পেতে চাই তাহলে এ সরকারকে ক্ষমতা থেকে হটানোর কোনো বিকল্প নেই।

বিএনপির এ নেতা বলেন, ভোলায় লোডশেডিং ও জ্বালানিখাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে করা বিক্ষোভ সমাবেশে আমাদের দুই কর্মীকে কীভাবে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে তা সবাই দেখেছেন। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের কর্মীরা জনগণের পক্ষ থেকে হরতালের দাবি তুলেছিলেন।

দেশ বাঁচাতে এ সরকারকে হটানো দরকার: আব্দুস সালাম

‘কিন্তু আমরা দেশের অর্থনীতির কথা চিন্তা করে হরতাল দিইনি। হরতাল দিলে বর্তমান পরিস্থিতিতে জনগণ আরও ক্ষতিগ্রস্ত হবে। অথচ পরের দিনই দেখলাম, সরকার অবিবেচকের মতো মাঝরাতে জ্বালানি তেলের দাম এতটাই বাড়িয়েছে যা দেশের ইতিহাসে এর আগে হয়নি।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের লোকজন জানেন, জনগণ তাদের সঙ্গে নেই। জনগণের কথা যদি তারা চিন্তা করতেন, তাহলে জ্বালানি তেলের দাম তারা বাড়াতেন না। তারা জানেন, জনগণ তাদের ভোট দেবে না, জনগণের ভোট তাদের দরকারও নেই। মাঝরাতে তারা প্রশাসন দিয়ে ভোট করাবে তারা।

জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) সভাপতি ববি হাজ্জাজের সভাপতিত্বে এ সময় আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের সাংগঠনিক সম্পাদক সাকিব আনোয়ারসহ এনডিএমের অন্যান্য নেতারা।


আরও খবর



করোনায় আক্রান্ত সায়নী ঘোষ

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

করোনা আক্রান্ত কলকাতার অভিনেত্রী ও যুব তৃণমূল পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভানেত্রী সায়নী ঘোষ। শনিবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অসুস্থতার কথা নিজেই জানিয়েছেন তিনি।

সায়নী জানিয়েছেন, ‘জ্বর, সর্দি, কাশি কোনো উপসর্গই নেই। তবু যারা যারা এই কয়েক দিনে আমার সংস্পর্শে এসেছেন, তারা দয়া করে করোনা পরীক্ষা করিয়ে নিন। ’

অসুস্থতার কারণে বেশ কিছু রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগদান থেকে দূরে থাকতে হবে সায়নীকে। কারণ এখন তিনি শুধুই অভিনেত্রী নন, নেত্রীও বটে।

আপাতত বাড়িতেই বিশ্রামে রয়েছেন তিনি। সায়নী লেখেন, ‘কিছু সাংস্কৃতিক, সামাজিক এবং রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে নিজেকে সাময়িক ভাবে সরিয়ে নেওয়ার জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আমি আশা করছি কয়েক দিনের মধ্যে দ্বিগুণ উদ্যম এবং সুস্থতা নিয়ে ফিরে আসব। সকলকে ভালোবাসা। ’

গত বিধানসভা নির্বাচনে হারলেও গুরুত্বপূর্ণ দলীয় পদ পেয়েছেন সায়নী। সিনেমার শুটিং, তার সঙ্গে দলীয় কর্মসূচিতে প্রায় প্রতিদিন অংশ নিতে হয় তাকে। আপাতত সব কিছু থেকেই দূরে থাকতে হচ্ছে এই অভিনেত্রীকে।


আরও খবর

আসছে ‘গোলমাল ৫’!

Friday ১৯ August ২০২২




অফিসার পদে চাকরি দিচ্ছে কাজী ফার্মস

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
Image

কৃষি শিল্পপ্রতিষ্ঠান কাজী ফার্মস গ্রুপে ‘অফিসার’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: কাজী ফার্মস গ্রুপ
বিভাগের নাম: ল্যান্ড

পদের নাম: অফিসার
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক
অভিজ্ঞতা: ০৩ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: ঢাকা

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা [email protected] অথবা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১০ আগস্ট ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



চট্টগ্রামে জালাল হত্যা: দুজনের মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ২

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং থানার আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকায় হাজী জালাল উদ্দীন সুলতান হত্যা মামলার চার আসামির মধ্যে দুই আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও দুজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রোববার (৩১ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রাম চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা আদালতের বিচারক শরীফুল আলম ভূঁঞা এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ে কামাল হোসেন ও মো. রাসেলকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ এবং সুরমা আকতার ও নীলু আকতার রিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

চার আসামির মধ্যে রায় ঘোষণার সময় নীলু আকতার রিয়া বাদে অন্য তিনজন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর উপস্থিত তিন আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক। জাগো নিউজকে এসব তত্য নিশ্চিত করেন আদালতের বেঞ্চ সহকারী ওমর ফুয়াদ।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২০ অক্টোবর আগ্রাবাদের সিডিএ আবাসিক এলাকার ব্যাংক কলোনি এলাকা থেকে হাত পা বাঁধা অবস্থায় হাজী জালাল উদ্দীন সাগরের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় নিহতের ছেলে ইমাজ উদ্দিন বাদি হয়ে ডবলমুরিং থানায় হত্যা মামলা করেন। ২০১৭ সালের ২৮ মে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।  ওই বছরের ৯ সেপ্টেম্বর মামলার অভিযোগ গঠন করা হয়।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ নোমান চৌধুরী  বলেন, দণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামির মধ্যে তিনজনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পলাতক আসামির বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।


আরও খবর



স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম ২ কারণ জানালো গবেষণা

প্রকাশিত:Sunday ১৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
Image

বর্তমানে স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকে অনেকেই মৃত্যুবরণ করছেন। এখন আর বয়স্কদের মধ্যেই এই দুটি মারাত্মক সমস্যা সীমাবদ্ধ নেই, কমবয়সীদের মধ্যেও দেখা দিচ্ছে স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাক। বর্তমান বিশ্বে মৃত্যুর প্রধান কারণ এই দুটি।

স্ট্রোকের আগে বাহু দুর্বলতা, মুখ ঝুলে যাওয়া ও কথা বলার অসুবিধা দেখা দেয় আর হার্ট অ্যাটাকের ক্ষেত্রে বুকে অস্বস্তি ও ব্যথা, শরীরের উপরের অংশে ব্যথা, শ্বাসকষ্ট, ঠান্ডাতেও ঘাম, বমি বমি ভাব ও মাথা ঘোরাসহ বিভিন্ন লক্ষণ প্রকাশ পায়।

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) অনুসারে, হৃদরোগ ও স্ট্রোকের প্রধান ঝুঁকির কারণগুলো হলো- উচ্চ রক্তচাপ, উচ্চ নিম্ন-ঘনত্বের লাইপোপ্রোটিন (এলডিএল) কোলেস্টেরল, ডায়াবেটিস, ধূমপান ও পরোক্ষ ধূমপান, স্থূলতা, অস্বাস্থ্যকর খাবার ও এবং শারীরিক নিষ্ক্রিয়তা।

স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাক কেন হয়?

স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাককে ‘নীরব ঘাতক’ বলা হয়। এর কারণ হলো এই দুটি রোগই সব সময় লক্ষণ বা প্রাথমিক উপসর্গ দেখায় না। ফলে এতে আক্রান্ত রোগীকে সঠিক সময়ে চিকিৎসা না দেওয়া হলে মৃত্যু ঘটতে পারে।
অনেক ক্ষেত্রে সুস্থ মানুষেরা এ দুটি রোগের লক্ষণ অবহেলা করেন কিংবা সাধারণ ভেবে এড়িয়ে যান। ফলে রোগীকে আর পরবর্তী সময়ে বাঁচানো যায় না।

স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায় যে কারণ

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের মতে, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্ব হার্ট অ্যাটাক কিংবা স্ট্রোকের ঝুঁকি ৩০ শতাংশ বাড়িয়ে দিতে পারে।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের জার্নালে প্রকাশিত গবেষণায় দেখা গেছে, এই দুটি কারণ হার্ট অ্যাটাক কিংবা স্ট্রোকের ‘উল্লেখযোগ্য’ পূর্বাভাস হতে পারে।

এই গবেষণার নেতৃত্বদানকারী লেখক কমিটির সভাপতি ক্রিস্টাল উইলি সিনে বলেছেন, ‘চার দশকেরও বেশি সময় নিয়ে করা এই গবেষণায় স্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে যে, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্ব উভয়ই স্বাস্থ্যের প্রতিকূল ফলাফলের সঙ্গে জড়িত।’

কারা বেশি ঝুঁকিতে?

গবেষকদের মতে, প্রিয়জন হারানো ও অবসর গ্রহণসহ বিভিন্ন কারণসহ বয়সের সঙ্গে সঙ্গে সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্ব বাড়ছে অনেকের মধ্যেই। সমীক্ষায় উল্লেখ করা হয়েছে যে, বয়স্করা বেশি ঝুঁকিতে থাকলেও অল্প বয়সীরাও একাকীত্বের ঝুঁকিতে ছিলেন।

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির জরিপ অনুসারে, জেনারেশন জেড-এর সদস্যদের অর্থাৎ ১৮-২২ বছরের প্রাপ্তবয়স্করা এখন নিঃসঙ্গতম প্রজন্ম হিসেবে বিবেচিত। এর কারণ হিসেবে গবেষকরা দায়ী করছেন অর্থপূর্ণ সামাজিক ক্রিয়াকলাপে কম ব্যস্ততা ও সামাজিক মিডিয়া ব্যবহার বাড়ানোকে।

সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্বের মধ্যে পার্থক্য কী?

অধ্যয়নের লেখক সিনে বলেছেন, ‘সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্ব বোধ একই বিষয় নয়। যেমন- অনেক ব্যক্তিই বিচ্ছিন্ন জীবনযাপন করলেও তারা কিন্তু একাকীত্ব বোধ করেন না, অন্যদিকে অনেকে সমাজে বিভিন্ন মানুষ কিংবা পরিবারের সঙ্গে বাস করেও নিঃসঙ্গতা কিংবা একাকীত্বে ভোগেন।’

একাকীত্ব হলো, একা থাকা ও মানুষের সঙ্গে কম যোগাযোগের কষ্টকর অনুভূতি। আর সামাজিক বিচ্ছিন্নতা হলো সামাজিক যোগাযোগের অভাব বা মানুষের সঙ্গে ব্যক্তিগত যোগাযোগ বা মিথস্ক্রিয়া না থাকা।

গবেষকদের মতে, সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্বকে আরও গুরুত্ব সহকারে নেওয়া উচিত সবারই, কারণ এগুলো স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম ঝুঁকির কারণ হতে পারে।

স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধে করণীয়

সামাজিক বিচ্ছিন্নতা ও একাকীত্বে বিষয়ে সতর্ক থাকার পাশাপাশি সঠিক জীবনযাত্রার প্রতিও গভীর মনোযোগ দিতে হবে।

হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ানোর জন্য আরও দায়ী ভুল খাদ্যাভ্যাস, শারীরচর্চার অভাব ও অস্বাস্থ্যকর কিছু অভ্যাস। এ বিষয়ে গবেষকরা পরামর্শ দেন, স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার খান। নিয়মিত ব্যায়াম করুন ও ধূমপান বা অ্যালকোহল সেবন ত্যাগ করুন। তাহলেই আপনি সুস্থ থাকবেন ও হার্ট অ্যাটাক কিংবা স্ট্রোকের ঝুঁকিও কমবে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া


আরও খবর