Logo
আজঃ মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

যৌতুকের টাকা না পেয়ে শাশুড়ীকে পেটালেন জামাই,থানায় অভিযোগ

প্রকাশিত:সোমবার ২২ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৩৬২জন দেখেছেন

Image

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: যৌতুকের টাকার জন্য হাতীবান্ধায় স্ত্রী,শাশুরী,শ্যালক,নানী শাশুরী সহ ৫ জন কে পেটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে সোহাগের বিরুদ্ধে। থানায় অভিযোগ দিয়েছেন ওই গৃহবধুর চাচা খাইরুল ইসলাম। প্রাপ্ত অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে, প্রায় দেড়বছর আগে উপজেলার দক্ষিন গড্ডিমারী গ্রামের সহিদার রহমানের মেয়ে মিম আক্তারের সাথে সিংগীমারাী গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে সোহাগের বিবাহ হয়। কিন্তু প্রায় সময় যৌতুকের টাকার জন্য সোহাগ তার স্ত্রী মিম আক্তার কে মারপিট করতো। শুক্রবার রাতে আবারো যৌতুকের টাকা দাবী করে সোহাগ তার স্ত্রীকে মারপিট করে। মিম আক্তার এর ছোট ভাই দেখতে গেলে তাকেও মারপিট করে।  

মোবাইল মাধ্যমে এ খবর শুনে মিম আক্তারের মা লাকী বেগম, খালা লাভলী বেগম ও দাদী ছকিনা বেগম দেখতে গেলে এক পর্যায়ে সোহাগ ও তার বাবা আবেদ আলী মা, চাচা যৌর্থ্য ভাবে পরার্মশ করে ঘড়ে দরজা বন্ধ করে সকলকেই এলো পাতারি মারপীট করেন,এতে  সকলেই আহত হয়। এ সময় মীমকে যেতে না দিলেও অপর আহতরা স্থানীয় লোকজনের সহয়তায় চলে এসে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। মিম আক্তারের চাচা খাইরুল ইসলাম বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ শনিবার রাতে মিম আক্তারকে তার স্বামী সোহাগের বাড়ী থেকে উদ্ধার করে। এ বিষয়ে সোহাগের বাবা আবেদ আলী তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তারা আমাদেরকে ফাঁসানোর জন্য যৌতুকের মিথ্যা অভিযোগ থানায় দিয়েছে। থানা অফিসার ইনর্চাজ শাহা আলম অভিযোগ পেয়েছে স্বীকার করে জানান অভিযোগের তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


আরও খবর



আত্রাই পুষ্টি বাগান স্থাপন প্রকল্পের আওতায় উঠান বৈঠক

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ মার্চ 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১৩৬জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে অনাবাদি পতিত জমি ও বসতবাড়ির আঙ্গিনায় পারিবারিক পুষ্টি বাগান স্থাপন প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের সঙ্গে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে রবিবার সকালে উপজেলার শাহাগোলা ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের ফেরদৌস হোসেনের বাড়ির আঙ্গিনায় কৃষকদের নিয়ে এ উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় সরকার ও কৃষি অধিদপ্তরের বিভিন্ন দিক নির্দেশনার প্রতি গুরুত্বারোপ করে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বক্তব্য রাখেন- উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. মোহাইমেনুল ইসলাম, আত্রাই প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হক নাহিদ, উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা জাহিদ হাসান, মারজিয়া পারভীন, পুষ্টি বাগান মালিক জাকির হোসেন, ফরিদুল ইসলাম, ফজলুর রহমান, ফারুক হোসেন, রইচ উদ্দিন, শ্রী নেপাল প্রমুখ।

উঠান বৈঠক শেষে কৃষকদের মাঝে বিভিন্ন ফলের চারা, পুষ্টি কার্ড, পুষ্টি প্লেট প্রদান করা হয়। 


আরও খবর



মেট্রোরেলের ওপরে থাকা ইন্টারনেট-ডিসের ক্যাবল অপসারণের নির্দেশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:এমআরটি লাইন-৬ এর ওপর দিয়ে ৫১টি ভবনে টানা হয়েছে ইন্টারনেট ও ডিসের তার (ক্যাবল) ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল)।

মেট্রোরেলের রুটের অ্যালাইনমেন্টের ভায়াডাক্ট ও ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেমের ওপর দিয়ে অতিক্রম করা বিভিন্ন ভবনের এসব ক্যাবল আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় ডিএমটিসিএল আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি এবং সম্পাদক বরাবর ঢাকা ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-৬) প্রকল্প পরিচালক মো. আফতাবউদ্দিন তালুকদারের সই করা এক চিঠিতে এবিষয়ে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ডিএমটিসিএলের আওতায় পরিচালিত এমআরটি লাইন ৬ এখন শুক্রবার ব্যতীত প্রতিদিন নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী সকাল ৭.১০ মিনিট থেকে রাত ১০.১৪ মিনিট পর্যন্ত বাণিজ্যিকভাবে চলাচল করছে।

ঢাকা মহানগরীর জনসাধারণ নিরাপদে, স্বাচ্ছন্দ্যে ও স্বল্প সময়ে মেট্রোরেলে যাতায়াতের সুফল ভোগ করছেন। এখন প্রতিদিন গড়ে ২ লাখ ৯০ হাজার যাত্রী মেট্রো ট্রেনে যাতায়াত করছেন।

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, এই রুটের অ্যালাইনমেন্টের ভায়াডাক্ট ও ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেমের ওপর দিয়ে বিভিন্ন ভবনে ক্যাবল টিভি লাইন (ডিস লাইন), ইন্টারনেটের ক্যাবল লাইন ইত্যাদির সংযোগ প্রদান করা হয়েছে। প্রাথমিক সার্ভেতে দেখা গিয়েছে, প্রায় ৫১টি ভবনে বর্তমানে এই ধরনের সংযোগ দেওয়া হয়েছে। এতে যে কোনো মুহূর্তে ক্যাবেল ছিঁড়ে গিয়ে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন মেট্রোরেলের ভায়াডাক্ট ও ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেমের ওপরে পড়ে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। চলমান বর্ষা মৌসুমে এই ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা আরও বেশি।

চিঠিতে ভায়াডাক্ট ও ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেমের ওপর দিয়ে অতিক্রম করা বিভিন্ন ভবনের ক্যাবল টিভি লাইন (ডিস লাইন), ইন্টারনেটের ক্যাবল ইত্যাদি আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়। অন্যথায় ডিএমটিসিএল আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলেও জানানো হয়েছে।

ক্যাবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি এ. বি. এম.সাইফুল হোসেন এবং সম্পাদক মো. ইমদাদুল হককে এ চিঠি পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



ভূমি অফিসের পরিছন্নতা কর্মীর বিরুদ্ধে জমি নামজারি করতে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১৫২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃরাজধানীর ডেমরা মাতুয়াইল এলাকায় জমি নামজারি  নামে ঘুষ নিয়েছে এসি ল্যান্ড অফিসের পরিচ্ছন্নতা কর্মী।ঐ পরিচ্ছন্নতা কর্মীর নাম সাইফুল। ডেমরা রাজস্ব সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে কর্মরত। ই নামজারি ফাইল জমা দেওয়ার পর বিভিন্ন জটিলতার ভয় দেখিয়ে সেবা গ্রহিতাদের কাছ থেকে নানাভাবে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে ভূমি অফিসের লোকজন দীর্ঘদিন এমন অভিযোগ করে আসছিলেন সকলেই। নামজারি করতে আসা ভুক্তভোগীরা জানান সরকার ডিজিটাল পদ্ধতিতে নাম জারি চালু করলেও ভূমি অফিসের দুর্নীতি এখনো কমেনি। নানা দোষ ত্রুটি ধরে ফাইল আটকে অর্থ আদায় করা নিত্যদিনের ব্যাপার। এতদিন ভূমি অফিসে নানা কর্মচারী কর্মকর্তাদের দুর্নীতির বিষয়ে জানা গেলেও এই অফিসে এবার একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মীও নামজারীর নামে টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয় এমন প্রমাণ পাওয়া গেল। মাতুয়াইল মৌজার ১৬৯৬৫/২০২৩-২৪ নামজারি মোকাদ্দমায় বাদীর কাছ থেকে নগদ ১০ হাজার টাকা ঘুষ নেন পরিছন্নতা কর্মী সাইফুল। 

এ বিষয়ে অভিযুক্ত সাইফুলের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে অকপটে ১০০০০ দশ হাজার টাকা ঘুষ নেওয়ার কথা স্বীকার করেন পরিছন্নতা কর্মী সাইফুল ইসলাম। সাইফুল ইসলাম বলেন, কামাল নামক এক ব্যক্তির কাছ থেকে নামজারির জন্য ১০ হাজার টাকা গ্রহণ করেছি, কিন্তু আমি সেই টাকা একা নেইনি সার্ভেয়ার আনোয়ার এর কাছে বেশিরভাগ টাকা দিয়েছি নামজারির কাজ করার জন্য, আমরা নামজারি করতে টাকা নিলে শতভাগ গ্যারান্টির সাথে কাজ করে দেই।

সারা জমিনে দেখা যায়, জয় কালী মন্দিরে আশেপাশে ভূমি অফিসের কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে দালাল, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সমন্বয়ে বড় একটি সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। কোন মানুষ বিনা পয়সায় সেবা পায় না এমনটি বলেছেন ভুক্তভোগীরা। শুধু কর্মকর্তা-কর্মচারী না নয় এই অফিসের দারোয়ান থেকে শুরু করে ঝাড়ুদার পর্যন্ত আপাদমস্তক দুর্নীতিতে মোড়ানো। প্রতি মাসে কোটি কোটি টাকার অনিয়ম দুর্নীতি হয় এই অফিসে। যার ভাগ নিচ থেকে উপর মহল পর্যন্ত পৌঁছে যায়। এই বিষয়ে বিস্তারিত অনুসন্ধান মূলক একটি প্রতিবেদন আসছে আগামী সংখ্যায়।


আরও খবর



উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের তফসিল ঘোষণা

প্রকাশিত:সোমবার ০১ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ১০৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

সোমবার (১ এপ্রিল) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন ইসি সচিব জাহাংগীর আলম। ইসি সচিব আলম জানান, ১৬১ উপজেলায় দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হলো। তফসিল অনুসারে এ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ২১ এপ্রিল,মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ২৩ এপ্রিল। যাচাই-বাছাইয়ে বাদ পড়লে আপিল করা যাবে ২৪ থেকে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত। আর আপিল নিষ্পত্তি করা হবে ২৭ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত।

এ নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ৩০ এপ্রিল। প্রতীক বরাদ্দ ২ মে আর ভোট গ্রহণ করা হবে ২১ মে বলেও জানান তিনি। এর আগে প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত তফসিল অনুসারে আগামী ৮ মে প্রথম ধাপে ১৫২ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর



দিনাজপুরে চপ বানাতে গিয়ে বেগুনের ভিতর আল্লাহর নাম

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ এপ্রিল ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

দিনাজপুর প্রতিনিধি ;চপ বানাতে গিয়ে দিনাজপুরে বেগুনের ভিতরে দেখা মিললো আরবি হরফে লেখা মহান আল্লাহর নাম। ইফতারির জন্য চপ বানাতে বেগুন কাটার পর অলৌকিক এ ঘটনা দেখতে পান দিনাজপুর বীরগঞ্জের এক গৃহবধু।

আল্লাহ লেখা এই বেগুনটিকে এক নজর দেখতে ভীড় করছেন শত শত মানুষ ওই বাড়ীতে।বেগুনের দুই ফালিতেই আরবিতে আল্লাহ নামের হরফ। আত্মশুদ্ধির এ পবিত্র মাহে রমজানে সারাদিন রোজা শেষে ইফতারিতে বেগুনী প্রস্তুত করতে গৃহবধু বেলী আরা বেগম বাড়িতে থাকা একটি বেগুন কাটার পর আল্লাহু লেখা দেখতে পান। পরে স্বামী ইলিয়াস আহমেদকে সাথে নিয়ে স্থানীয় একটি মাদারাসার হুজুরের শরনাপন্ন হন।

বিষয়টি জানাজানি হলে বেগুনটি দেখতে এক নজর দেখতে স্থানীয় হিন্দু-মুসলিমসহ দুর দুরান্ত থেকে ছুঁটে আসা শত শত মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন। কিছুক্ষন পর পর কেউ না কেউ আসছেন ঐ বাড়ীতে। এসে বেগুনটিকে কাছ থেকে দেখছেন, তুলছেন ছবিও। প্রথমবার এমন ঘটনার সাক্ষী হয়ে নিজেদের অনুভূতির কথাও জানান।

বর্তমানে বেগুনটি ফ্রীজে সংরক্ষন করে রাখা হয়েছে।স্থানীয়দের দাবী এটা মহান আল্লাহর কুদরতি ক্ষমতাবলের নিদর্শন, যা মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষের জন্য আল্লাহর প্রতি আনুগত্য বাড়াবে। সেই সাথে আল্লাহর এই নিদর্শন সেই পরিবারের জন্য আশীর্বাদ স্বরুপ বলে ধারনা স্থানীয়দের।

বেগুনের গায়ে মহান সৃষ্টিকর্তার নামের এই নিদর্শন স্বচোখে দেখতে চাইলে আপনাকে যেতে হবে দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর ইউনিয়নের জগদল গ্রামে। গ্রামে গিয়ে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে যে কাউকে জিজ্ঞাসা করলে বলে দিবে ওই বাড়ির ঠিকানা।


আরও খবর