Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

যাত্রাবাড়ী কাঁচামালের আড়তে দুই পক্ষের মারামারি নিহত ১

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৪ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৭২জন দেখেছেন

Image

ঢামেক প্রতিবেদক: রাজধানীর দক্ষিণ যাত্রাবাড়ীতে দুই পক্ষের মারামারিতে ছুরিকাঘাতে ইমরান (২৬) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় শাহাদাত (২০) ও সিদ্দিক (২৫) নামের আরও দুজন আহত হয়েছেন।

গতকাল সোমবার রাতে কাঁচামালের আড়তে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হতাহত তিন জনই লাইনম্যানের কাজ করতেন।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মফিজুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সোমবার রাতে দক্ষিণ যাত্রাবাড়ী বড়বাজার কাঁচামালের আড়তে দুই পক্ষের মারামারি হয়। সেখানে ডিউটিতে থাকা অবস্থায় বেশ কয়েক জন ওই তিন জনের ওপর হামলা চালায়। এতে তারা ছুরিকাঘাতে আহত হন। 

পরে তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে রাত পৌনে ১২টার দিকে ইমরানকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। বাকি দুজন এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



বিশ্বের সবচেয়ে পছন্দনীয় প্রতিষ্ঠানের তালিকায় মেটলাইফ

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৩৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:[ঢাকা, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২৪] ফরচুন ম্যাগাজিনের ২০২৪ সালের বিশ্বের সবচেয়ে পছন্দনীয় প্রতিষ্ঠানের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে মেটলাইফ।যুক্তরাষ্ট্র-ভিত্তিক স্বনামধন্য ম্যানেজমেন্ট কনসালটেন্ট প্রতিষ্ঠান কর্ন ফেরির সাথে যৌথভাবে বিভিন্ন শিল্পখাতের পছন্দনীয় প্রতিষ্ঠানের তালিকা তৈরি করে ফরচুন ম্যাগাজিন। শিল্পখাতে বিনিয়োগ মূল্য, ব্যবস্থাপনার মান, আর্থিক সক্ষমতা, সামাজিক দায়বদ্ধতা এবং গ্রাহক আকৃষ্ট করার সক্ষমতাসহ নয়টি বিভাগে নির্বাচিত প্রতিষ্ঠানকে রেটিং করেন ঐ শিল্পের পেশাজীবীরা এবং বিশ্লেষকবৃন্দ এবং তার ভিত্তিতেই এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়।

 এ স্বীকৃতি সম্পর্কে মেটলাইফের প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মিশেল খালাফ বলেন, “আমাদের ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য যেন সবার জন্য ভালো ফলাফল বয়ে আনে সেই লক্ষেই আমরা কাজ করি। এই স্বীকৃতি পাওয়া সম্ভব হয়েছে আমাদের সব কর্মীদের জন্যে, যারা গ্রাহক ও সমাজের জন্যে একটি নিরাপদ ভবিষ্যৎ গড়ার লক্ষ্যে অক্লান্ত পরিশ্রম করেন।” 

 এ তালিকা সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে ভিজিট করুন: Fortune.com


আরও খবর

তিন পদে লোক নিচ্ছে হুয়াওয়ে বাংলাদেশ

রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জনগনের ভোগান্তি চরমে: গাংনীতে সেতু নির্মাণ হলেও হয়নি সংযোগ সড়ক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃমেহেরপুরের গাংনী উপজেলায় মাথাভাঙ্গা নদীর ওপর গার্ডার সেতু নির্মাণের তিন বছর পেরিয়ে গেলেও এক অংশের সংযোগ সড়ক নির্মান হয়নি। এখনো জমি অধিগ্রহণ না হওয়ায় আটকে আছে সড়কের কাজ। ফলে ৯ কিলোমিটার পথ ঘুরে যাতায়াত করতে হচ্ছে গাংনী ও কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বাসিন্দাদের। তবে বিষয়টি সমাধানে জোর চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন স্খানীয় নির্বাহী প্রকৌশলী।

জানা গেছে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে বামন্দী এইচডি থেকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের প্রাগপুর জিসি ভায়া মধুগাড়ি ঘাট সড়কের মাথাভাঙা নদীর ওপর গার্ডার সেতু নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০২০সালের ২ ফেব্রুয়ারী । সেতুর ব্যয় ধরা হয় ৭ কোটি ২৯ লাখ ৩২ হাজার ৯৭৯ টাকা। সেতুটি নির্মাণের ফলে মেহেরপুর ও কুষ্টিয়ার বাসিন্দারা ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ও শিক্ষাসহ নানা সুবিধা পাবে। ২০২৩ সালের মার্চ মাসে সেতুটির নির্মান কাজ সম্পন্ন হলেও আজো সংযোগ সড়ক নির্মান করা হয়নি। সেতুটি নির্মানের আগে স্থানীয়রা সংযোগ সড়কের জন্য জমি দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেতু নির্মাণের পরস্থানীয়রা বেঁকে বসেছেন। স্থানীয়দের দাবি, জমি সেতুর জন্য লাগলে দেবেন, তবে এর জন্য ন্যায্যমূল্য দিতে হবে। তবে এলজিইডি বলছে, বিষয়টি সমাধানের জন্য জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করা হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, মাথাভাঙ্গা নদীর ওপর দুই জেলার মানুষের জন্য তৈরি (মধুগাড়ি-বেতবাড়িয়া) সংযোগ সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। সেতুর দৌলতপুর উপজেলার পাশে সংযোগ সড়ক তৈরি হলেও গাংনী উপজেলার অংশে এখনো হয়নি। সেতু নির্মিত হলেও এখনো ভোগান্তি দূর হয়নি দুপাড়ের লক্ষাধিক মানুষের। ফলে চিকিৎসাসেবা কিংবা ফসলাদি নিয়ে এপারের মানুষকে ওপারে যেতে হলে ৯ কিলোমিটার ঘুরতে হচ্ছে।

মেহেরপুর গাংনী ভবানীপুর গ্রামের ইটভাটা ব্যবসায়ি ওয়াহিদুল হক লিটন জানান, তিনি নদী পার হয়ে মধুগাড়িতে যান ইটের ভাটায়। বছর দশেক ধরেই তিনি যাতায়াত করেন। সেসময় ঘাট ইজারা নিতেন স্থানীয়রা। তখন নৌকা ও ফরাস পাতা ছিল। প্রতদিন ১০ টাকার বিনিমযাতায়াত করতে পারতেন। সেতু নির্মানের পর ইজারদারী প্রথা আর নেই। এখন ৯ কিলোমিটার ঘুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যেতে হয়। গাংনী এলাকার অংশে সংযোগ সড়কটি হলে সকলেরই উপকার হতো বলে তিনি জানান।

মধুগাড়ির কোম্পানীর বিক্রয় প্রতিনিধি মাইনুল হক জানান, বছর দশেক যাবত তিনি নদী পার হয়ে যাতায়াত করেন। নদীর উপর সেতু নির্মানের খবরে এলাকাবাসীর মধ্যে আনন্দের বন্যা বয়ে গেলেও সেতু নির্মানের পর আর সেটি নেই। সংযোগ সড়ক না থাকায় কোন সুবিধা পাচ্ছেন না তারা। একই কথা জানালেন, গরু ব্যবসায়ী মুল্লুক মালিথা। তিনি আরো জানান, ৩০ বছর ধরে গরু বেচা কেনা করেন তিনি। আগে নৌকা ছিল কিন্তু সেতু নির্মাণেন পর আর নৌকা চলে না। এখন গাংনী এলাকায় আসতে হলে ৮/৯ মাইল ঘুরে আসতে হয়।

সবজি ব্যবসায়ি মধুগাড়ির রবিউল ইসলাম জানান, নদী পার হয়ে সবজি আনতে হয়। সংযোগ সড়ক সংযোগ না থাকায় সবজি বহনকারী ভ্যান রেখে মাথায় করে সবজি আনতে হয়। অতিদ্রুত সংযোগ সড়ক নির্মানের দাবী জানান তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দা আমিরুল ইসলাম জানান, সেতুর নিচ দিয়ে তাদের প্রায় ৩৫ বিঘা জমি আছে। সেতু হলে মানুষের ভোগান্তি কমে যাওয়ার পাশাপাশি জায়গাগুলোর দামও বেড়ে যাবে। তাই ন্যায্যমূল্য পেলে সেতুর সড়কের জন্য জমি দিতে আপত্তি নেই তাদের।

গাংনী উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী ফয়সাল আহমেদ বলেন, সেতু নির্মাণের আগে স্থানীয়দের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেই কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়। তবে বর্তমান সেতুর কাজ শেষ করে সংযোগ সড়ক নির্মাণ করতে গেলে যারা জমি দিতে চেয়েছিলেন তারা বর্তমানে আপত্তি জানাচ্ছেন। তারা বাজারমূল্যের চেয়ে দ্বিগুণ দাম চাচ্ছেন। তাই ভূমি অধিগ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করা হয়েছে। অতি স্বল্প সময়ের মধ্যে অধিগ্রহনের কার্যকলাপ শুরু হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠকের পর জেলেনস্কির টুইট

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডিন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতার প্রতি বাংলাদেশের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি।

শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় সকালে জার্মানিতে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনের সাইড লাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন জেলেনস্কি। পরে এক্স হ্যান্ডলে এক পোস্টে বৈঠকের ভিডিও শেয়ার করেন তিনি।

পোস্টে জেলেনস্কি লিখেছেন, আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি। ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও ভৌগোলিক অখণ্ডতার প্রতি সমর্থন দেওয়ায় বাংলাদেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমরা ইউক্রেনের শান্তির ফর্মুলা ছাড়াও বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করেছি। সেই ফর্মুলা বাস্তবায়নে অংশগ্রহণ এবং বৈশ্বিক শান্তি সম্মেলনে যোগ দিতে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি।


আরও খবর



মাতৃভাষা দিবসে ইবি সিআরসির উদ্যোগে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৩২জন দেখেছেন

Image
সাব্বির খান,ইবি প্রতিনিধি:ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কাম ফর রোড চাইল্ড (সি আর সি) বিশ্ববিদ্যালয় শাখা স্কুলের উদ্যোগে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার বেদিতে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানটি সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের ইমদাদুল হকের সঞ্চালনায় প্রথমে জাতীয় সংগীত তারপর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা শুরু হয়। 

এই সময় উপস্থিত ছিলেন সিআরসি স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, সাব্বির খান, নবীন শিক্ষক সাঈফুদ্দিনসহ সংগঠনটির  সদস্য আখি আলমগীর, লাময়া, কেয়া প্রমুখ।

নবীন সদস্য আখি আলমগীর তার বক্তব্যে  শিশুদের সাসনে ভাষা আন্দোলনের গুরুত্ব ও তাৎপর্য তুলে ধরেন। নবীন শিক্ষক সাঈফুদ্দিন ভাষা আন্দোলনের গুরুত্ব বুঝাতে গিয়ে বলেন পৃথিবীর বুকে একমাত্র দেশ! যে দেশটি ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে সেটা হচ্ছে আমাদের বাংলাদেশ, তাই আমাদের উচিত ভাষাকে রক্ষা করা।

সংগঠনটির সভাপতি শাহীদ কাওসার তার বক্তব্য বলেন, 'একুশে ফেব্রুয়ারি আমাদের অনুপ্রেরণা। এই অনুপ্রেরণা আগামী প্রজন্মের মাঝে বাঁচিয়ে রাখার জন্য সি আর সি সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মাঝে এই দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরার জন্যই চিত্রাঙ্গন প্রতিযোগিতার আয়োজন। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শিশুরা ভাষা আন্দোলনের গুরুত্ব হাতে কলমে শিখতে পারবে। তিনি আশাবাদী বাংলাদেশের  সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য সি আর সি ইবি শাখা  অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

আরও খবর



লাখো মুসল্লি তুরাগতীরে জুমার নামাজ আদায় করলেন

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:লাখো মুসল্লি একসঙ্গে জুমার নামাজ আদায় করেছেন,টঙ্গীর তুরাগতীরে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে। তাবলিগ জামাতের ছাড়াও ঢাকা-গাজীপুরসহ আশপাশের কয়েক লাখ মুসল্লি জুমার নামাজে অংশ নিয়েছেন।শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

খুতবা পাঠ শুরু হয় দুপুর দেড়টায় ইজতেমা ময়দানে দেশের সর্ববৃহৎ জুমার নামাজে। খুতবা শেষে নামাজ শুরু হয়। রাজধানীর কাকরাইল মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ জুবায়ের ইমামতি করেন। এর আগে, শুক্রবার বাদ ফজর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের ইজতেমার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়।

ইজতেমায় যোগদানকারী মুসল্লি ছাড়াও জুমার নামাজে অংশ নিতে ঢাকা-গাজীপুরসহ আশপাশের এলাকার লাখ লাখ মুসল্লি ইজতেমাস্থলে হাজির হন। দুপুর ১২টার মধ্যে ইজতেমার পুরো ময়দান পূর্ণ হয়ে যায়। মাঠে স্থান না পেয়ে মুসল্লিরা মহাসড়ক, অলিগলিসহ যে যেখানে পেরেছেন পাটি, চটের বস্তা ও খবরের কাগজ বিছিয়ে জুমার নামাজ আদায় করেছেন।


আরও খবর