Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

ভোলায় ফের দেখা মিলল রাসেল ভাইপার, জনমনে আতঙ্ক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৫৩জন দেখেছেন

Image

শরীফ হোসাইন, ভোলা বিশেষ প্রতিনিধি:ভোলায় ফের দেখা মিলল রাসেল ভাইপারের। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকালে ভোলা সদর এবং তজুমদ্দিন উপজেলায় দেখা মেলে রাসেল ভাইপারের। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলে রাসেল ভাইপার গুলো। প্রতিনিয়ত ভোলার বিভিন্ন এলাকায় বিষধর রাসেল ভাইপার দেখা মেলায় স্থানীয় লোকজনের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জানা গেছে, ভোলা সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের শান্তির হা নামক এলাকার চায়না ইপিজেড সংলগ্ন এলাকায় দেখা মেলে একটি রাসেল ভাইপার। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন ওই সাপটিকে পিটিয়ে মেরে মাটিতে পুতে ফেলে।

স্থানীয় বাসিন্দা আরিফুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার সকালের দিকে শান্তির হাট এলাকার চায়না ইপিজেড সংলগ্ন নদীর তীরবর্তী এলাকায় রাসেল ভাইপারটিকে স্থানীয় লোকজন দেখতে পায়। ওই সময় স্থানীয় লোকজন সাপটিকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মেরে মাটিতে পুঁতে ফেলে।

অন্যদিকে তজুমদ্দিন উপজেলায় দেখা গেছে ভয়ঙ্কর বিষধর রাসেল ভাইপার। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের কাচারী বাড়ির দরজায় এলাকাবাসী দেখতে পায় রাসেল ভাইপারটি। এ সময় সাপটিকে পিটিয়ে মেরে মাটিচাপা দেন স্থানীয়রা। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন এলাকাবাসী।

এর আগে, বুধবার (১৯ জুন) বিকেলে চাঁদপুর ইউনিয়নের চৌমুহনী ঘাট সংলগ্ন একটি ফসলি জমির খেলার মাঠে বল খেলতে দেখা মেলে সাপটির। স্থানীয় খেলোয়াড়দের সাপটি আক্রমণ করতে আসলে নিজেদের রক্ষা করতে সাপটিকে মেরে ফেলেন। পরে পলিথিন পেঁচিয়ে সাপটিকে মাটির নিচে পুঁতে রাখেন।

রায়হান নামে এক খেলোয়াড় বলেন, বিভিন্ন সময় ফেসবুকে রাসেল ভাইপার সাপ দেখেছি। এবার বাস্তবে ফসলি জমিতে ফুটবল খেলতে গিয়ে সাপটিকে নিজ চোখে দেখলাম। পরে সাপটির ছবি তুলে ইন্টারনেটের মাধ্যমে শনাক্ত করি যে সাপটি বিষাক্ত রাসেল ভাইপার। সাপটি দেখে আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়ি।আরো জানা গেছে, বাংলাদেশে বর্তমানে যেসব সাপ দেখা যায় সেগুলোর মধ্যে রাসেল ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এই সাপের কামড়ে শরীরের দংশিত অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্ত জমাট বাঁধা, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ নষ্ট হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত ও কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন ধরনের শারীরিক উপসর্গ দেখা দেয়।

তজুমদ্দিন উপজেলার শশীগঞ্জ বনবিভাগের বিট অফিসার গাজী মোহাম্মদ আবুল বাশার বলেন, রাসেল ভাইপার সাপ লোকালয়ে সাধারণত খুব কমই দেখা যায়। বাচ্চা দেওয়ার কারণে হয়তো ওই সাপটি লোকালয়ে চলে এসেছে। তবে সবাইকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।


আরও খবর



স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চলমান এইচএসসি ও সমমানের আগামী ১৮ জুলাইয়ের (বৃহস্পতিবার) পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটি। তবে আগামী ২১ জুলাই থেকে পূর্বঘোষিত সময়সূচি অনুযায়ী পরীক্ষা যথারীতি চলবে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) রাতে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সমন্বয় কমিটির এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এদিকে, সারাদেশে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শ্রেণি কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এতে বলা হয়, অনিবার্য কারণবশত আগামী ১৮ জুলাই (বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠেয় সব শিক্ষাবোর্ডের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত করা হলো। স্থগিত হওয়া পরীক্ষার পরবর্তিত সময়সূচি পরবর্তীতে জানিয়ে দেয়া হবে। ২১ জুলাই থেকে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী পরীক্ষা যথারীতি চলবে।


আরও খবর



জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আন্দোলনের নামে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে হবে।

তিনি বলেছেন, কোটা আন্দোলন নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই, তবে জনদুর্ভোগ, ধ্বংস, ভাঙচুর বা রক্তপাতের ঘটনা ঘটলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের যে কাজ সেটা করবে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীদের উদ্দেশ্যে এমন কথা বলেন স্বরাষ্টমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ছাত্ররা কারও শেখানো বুলি বলছে। এগুলো তাদের নিজেদের বুলি নয়। তারা ভুল করছে। আমি মনে করি, আদালতে এসে তারা তাদের দাবি বলুক।

শিক্ষার্থীরা ভুল করছে’ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘আন্দোলন পরিহার করে, তারা যেন ফিরে আসে। শিক্ষার্থীরা যেন ধ্বংসাত্মক কার্যক্রমে লিপ্ত না হয়।’

প্রসঙ্গত, সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের এক দফা দাবিতে মঙ্গলবারও উত্তাল রাজধানী ঢাকা। এ দিনও সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছেন ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। রাজধানীর সায়েন্সল্যাব মোড়, গাবতলী-মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ, নতুন বাজার, মধ্যবাড্ডা থেকে শুরু করে নদ্দা/বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, কুড়িল বিশ্বরোড, মহাখালী-বনানী সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে শিক্ষার্থীরা অবস্থান নিয়ে কোটাবিরোধী আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



খাগড়াছড়িতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ অভিযানে গাঁজা সহ মাদক কারবারি গ্রেফতার

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলা গোয়েন্দা পুলিশের বিশেষ অভিযানে  খাগড়াছড়ি শান্তি কাউন্টার এর সামনে অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা সহ মো: সুলতান(৭০)নামের এক মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছেন জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) রাত ৯টার দিকে জেলা গোয়েন্দা শাখার একটি চৌকস আভিযানিক দল খাগড়াছড়ি সদর থানা এলাকায় মাদকদ্রব্য ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার অভিযান ডিউটিতে নিয়োজিত থাকা অবস্থায় শাপলা চত্তর নামক এলাকায় অবস্থানকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, খাগড়াছড়ি সদর থানাধীন  খাগড়াছড়ি পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের শান্তি কাউন্টার এর সামনে থেকে মো.সুলতান ( ৭০)এর কাছে থাকা পলিথিনে মোড়ানো  প্লাস্টিকের বস্তা  তল্লাশী ছালিয়ে বস্তার ভিতরে থাকা লাল সুতা দ্বারা বাধা ২৭টি লম্বা গাঁজার রোল যাহার প্রতিটির ওজন ৫৬০ গ্রাম করিয়া সর্ব মোট পরিমান ১৫.১২০ কেজি সহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী  মো:সুলতান(৭০) দিঘীনালা উপজেলার  মেরুং ইউপি,র ৭নং ওয়াডের মৃত.এরশাদ আলীর ছেলে।পলাতক আসামী আসাদুল হক(৪৩), দিঘীনালা উপজেলার মেরুং ইউপি,র  ছোট মেরুং বাজার এলাকার  মোঃ আফাজ মুন্সী, ছেলে।এর নিকট থেকে পাইকারী দামে ক্রয় করিয়া গ্রেফতারকৃত আসামী অবৈধ মাদক দ্রব্য (গাঁজা) ঢাকা বিত্রুয়ের উদেশ্যে নিয়ে যায়।  গ্রেফতারকৃত আসামী ও পলাতক আসামীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে এবং আসামীকে বিধি মোতাবেক বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হইবে।

আরও খবর



যশোরে যাত্রীবাহী বাস খাদে কমপক্ষে ৪০ জন আহত

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোর-নড়াইল মহাসড়কে বেপরোয়া গাড়ি চালানোর সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঢাকাগামী একটি বাস খাদে পড়ে কমপক্ষে ৪০ জন আহত হয়েছে।

স্থানীয়দের নিকট থেকে জানা যায়, সাতক্ষীরা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী ঢাকা মেট্রো-ক-১৫ ৮৩৮৩ বাস গাড়িটি বেপরোয়া গতিতে চলার সময় বেলা ১১-৫০ মি: এর সময় বাঘারপাড়ার করিমপুর ঈদগাহ ময়দানের আসলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পার্শের গভীর খাদে পড়ে যায়।

এসময় ১০ জন গুরুতরভাবে আহত সহ মোট ৪০ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহতদেরকে স্থানীয়রা যশোর ও নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। বাকীদেরকে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।দুর্ঘটনায় আহত আবদুল গফুর জানান, গাড়ির চালককের বেপরোয়া চালানোর করণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

আহত যাত্রী রহিমা বেগম জানান যে, কিভাবে যেন হঠাৎ করেই গাড়ী খাদের দিকে ধাবিত হয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। তিনি আরও জানান, এ দুর্ঘটনায় সকল যাত্রীই কমবেশি আহত হয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা ও হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ধার করে।


আরও খবর



ফুলবাড়ীতে ১০ শতক জমির শাক-সবজির গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৩২জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে রাতের অন্ধকারে ১০ শতাংশ জমিতে লাগানো পটল, ঢেড়স, করলা, বরবটি, পুুঁইশাকসহ বিভিন্ন প্রকার শাক সবজির গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে পথে বসেছেন বর্গাচাষি দিনমজুর লাল বাবু রায়।

ঘটনাটি ঘটেছে, গত বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দিবাগত রাতের কোনো এক সময়ে ফুলবাড়ী উপজেলার ৭নং শিবনগর ইউনিয়নের বহিলহারপুর গ্রামে। 

বর্গাচাষি দিনমজুর লাল বাবু রায় বলেন, খেতখামারে দিনমজুরির পাশাপাশি বাড়তি আয়ের আশায় গ্রামের মধ্যে থাকা ফুলবাড়ী পৌরশহরের শিবু দত্ত নামের এক ব্যক্তি ১০ শতাংশ জমি ১৬ হাজার টাকা বছর চুক্তিতে বর্গা নিয়েছেন। বর্গা নেওয়া ১০ শতাংশ জমিতে জমিতে লাগানো পটল, ঢেড়স, করলা, বরবটি, পুুঁইশাকসহ বিভিন্ন প্রকার শাক সবজি আবাদ করেছেন। ইতোমধ্যে গাছে পটল, বরবটি, করলা, পুঁইশাক ধরেছে। বাবু লাল রায় প্রতিদিন মজুরি দিতে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে যান। এ সময় বর্গা নেওয়া ওই জমির শাক-সবজির আবাদ দেখাশুনা করেন তার মা কল্যাণী রানী রায়। কিন্তু কারো সাথে কোনো প্রকার শত্রুতা না থাকলেও কে বা কারা গত বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দিবাগত রাতের কোনো এক সময়ে শত্রুতা করে পুরো ১০ শতাংশ জমিতে আবাদ করা শাক-সবজির গাছ কেটে দিয়েছে। এতে বর্গার জন্য দেওয়া ১৬ হাজার টাকার সঙ্গে আবাদের খরচ প্রায় ২০ হাজার টাকা পুরোটাই লোকসানে পড়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। 

বাবু লাল রায়ের মা কল্যাণী রানী রায় বলেন, এতোদিন শরীরের পরিশ্রম ধারদেনা করে টাকা জোগান দিয়ে আবাদ করা হয়েছিল। আশা ছিল আবাদ করে কিছু লাভ হলে সেই লাভের টাকা দিয়ে চাল কিনে রাখবেন পরিবারের লোকের খাবার জন্য। কিন্তু শত্রুতা করে খেতের সব গাছে কেটে দেওয়ায় বড় ধরনের ঋণদেনায় পড়ে গেছে পুরো পরিবার।

প্রতিবেশি ভাদু চন্দ্র রায় (৭০) ও কলেজ ছাত্র তনু রানী রায় (২২) বলেন, বাবু লাল রায়ের কারো সাথে কোনো শত্রুতা নেই, তারপরও যারা তার আবাদ নষ্ট করে দিয়েছে তাদের কখনো ভালো হবে না। 

শিবনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ছামেদুল ইসলাম মাস্টার বলেন, বিষয়টি তার জানা নেই, তবে ওই গ্রামে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাবু লাল রায়ের পরিবারকে কিছু সহায়তা করার চেষ্টা করবেন। 

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, শাক-সবজি নষ্ট করার ঘটনার কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পাওয়া গেছে তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 


আরও খবর