Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে লিটন

প্রকাশিত:Saturday ০৬ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

জিম্বাবুয়ের কাছে ৩০৩ রান করেও লজ্জাজনক পরাজয়ের পর আরও একটি দুঃসংবাদ পেলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। অনফর্ম ব্যাটার লিটন কুমার দাসকে সিরিজের বাকি দুই ওয়ানডে ম্যাচের জন্য হারিয়েছে টাইগাররা। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ে তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে পড়তে হলো তাকে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুর্দান্ত ব্যাটিং করছিলেন লিটন। ৮১ রানও করে ফেলেছিলেন তিনি। ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছিলেন সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু ৮১ রান করার পরই ডান পায়ের পেশিতে টান লাগে তার। এরপরই স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নিয়ে যেতে হয় তাকে।

তখনই বোঝা গিয়েছিল, হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে হয়তো বা লিটনের চলতি সিরিজে আর খেলা হবে না। শেষ পর্যন্ত তাই হলো। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়ে দিয়েছে এ তথ্য।

আজ রাতে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি লিখেছে, ‘ব্যাটার লিটন দাস হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে আক্রান্ত। যে কারণে তাকে অন্তত তিন সপ্তাহ বিশ্রামে থাকতে হবে। এই তিন সপ্তাহ তিনি কোনো ধরনের ক্রিকেটীয় কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে পারবেন না।’

বাংলাদেশ দলের ফিজিও মুজাদ্দেক আলফেসানির উদ্বৃতি দিয়ে বিসিবি জানিয়েছে, ‘আমরা লিটনের ডান পায়ের হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির জায়গাটা স্ক্যান করে দেখেছি। রিপোর্টে নিশ্চিত হওয়া গেছে, গ্রেড-২ মাসল স্ট্রেইনে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।’

এ ধরনের ইনজুরি থেকে সেরে উঠতে অন্তত তিন থেকে চার সপ্তাহ সময় লাগে। আগামীকাল কিংবা পরশু আরও পরীক্ষা-নীরিক্ষা করা হবে এবং তার রিহ্যাবের জন্য পরিকল্পনা নেয়া হবে।


আরও খবর



সরাইলে কবির আহমেদ ভূঁইয়ার ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Tuesday ১২ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ২০০জন দেখেছেন
Image

মোঃ রুবেল মিয়াঃ 


সরাইল উপজেলা বিএনপির আয়োজনে আনুষ্ঠানিকভাবে আলহাজ্ব কবির আহমেদ ভূঁইয়ার ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় ও এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।এ সময় পবিত্র কুরআন তেলওয়াত করেন উপজেলার  চুন্টা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মোঃ সেলিম মিয়া ।


১১ জুলাই, সোমবার বিকালে

সরাইল উপজেলা বিএনপির  সাধারণ সম্পাদক এড. নুরুজ্জামান লস্কর তপুর সৌজন্যে সরাইল উপজেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয় মাঠ প্রাঙ্গণে এ ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়  সভা অনুষ্ঠিত হয়। 


অনুষ্ঠিত ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়  সভায় সভাপতিত্ব করেন সরাইল উপজেলা বিএনপির সভাপতি আনিছুল ইসলাম ঠাকুর।অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় করেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড. নুরুজ্জামান লস্কর তপু।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব কবির আহমেদ ভূঁইয়া। 


বিএনপির কেন্দ্রীয়, জেলা, ও জেলার বিভিন্ন উপজেলার   নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান  অনুষ্ঠিত হয়।এ সময় বক্তারা সরাইল উপজেলা বিএনপির বর্তমান কমিটির প্রশংসা করেন  ঈদ শুভেচ্ছার বিশাল আয়োজন করায় সরাইল উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুরুজ্জামান লস্কর তপুকে ধন্যবাদ জানান।


এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে  বিএনপি ও এর সহযোগি সংগঠণ  যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, কৃষক দল ও শ্রমিক দলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 


দলের সিনিয়র নেতারা দলীয় বিভিন্ন ইতিহাস তুলে ধরেন।এবং আগামী দিনে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বিএনপিকে ক্ষমতায় আনতে সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান। 


প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব কবির আহমেদ ভূঁইয়া সকলকে ঈদের শুভেচ্ছা জানান


তিনি বলেন, আমি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির একজন কর্মী মাত্র।  নিজের সবটুকু দিয়ে চেষ্টা করছি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপিকে শক্ত করার মধ্য দিয়ে তারেক রহমানের হাতকে শক্তিশালী করতে। 


তিনি বলেন, দলের জন্যে কাজ করতে হলে বড়সড় পদ পদবি থাকা জরুরি নয়। কর্মীরাও ইচ্ছাশক্তি থাকলে দলের জন্যে কাজ করতে পারে। আমি সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। 


এছাড়াও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা নিয়ে আগামী দিনে নানান স্বপ্নের কথা সকলের উদ্দেশ্যে ব্যক্ত করেন তিনি। এবং সকলের নিকট বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের জন্য দোয়া কামনা করেন কবির আহমেদ ভূঁইয়া। এ সময়  কারাগার থেকে সদ্য মুক্তি পাওয়া ২ জন ছাত্রদল নেতাকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করেন। মুক্তি পাওয়া ছাত্রদল নেতারা নিজেদের বক্তব্যে তাদের জামিনের ব্যবস্থা করায় আলহাজ্ব কবির আহমেদ ভূঁইয়া ও এড. নুরুজ্জামান লস্কর তপুর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 


অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি আনিছুল ইসলাম ঠাকুর।


আরও খবর



এবার চট্টগ্রাম বন্দরে মদের কনটেইনার জব্দ

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রাম বন্দরে এক কনটেইনার মদ জব্দ করেছে কাস্টমস। রোববার (২৪ জুলাই) সকালে বন্দরের ৫ নম্বর ইয়ার্ডে এসব মদ জব্দ করে চট্টগ্রাম কাস্টমসের নিরীক্ষা, অনুসন্ধান ও গবেষণা (এআইআর) টিম।

কাস্টমসের এআইআর শাখার ডেপুটি কমিশনার মো. সাইফুল হক জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, গত ১৬ জুলাই চীন থেকে এসব মদ চট্টগ্রাম বন্দরে আসে। পলিয়েস্টার সুতা ঘোষণা দিয়ে আইপি জালিয়াতির মাধ্যমে নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেডের ডং জিন ইন্ডাস্ট্রিয়াল কোম্পানি লিমিটেডের নামে এসব মদ আনা হয়। এটির সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট চট্টগ্রামের ডবলমুরিংয়ের ৬৯৯ কেবি দোভাষ লেনের জাফর আহমেদ।

মদের চালানটি খালাসের জন্য ২০ জুলাই এসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমে বিল অব অ্যান্ট্রি দাখিল করে সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠানটি। এতে শুল্কায়নের জন্য শতভাগ পলিয়েস্টার সুতা ঘোষণা দেওয়া হয়।

গত শুক্রবার (২২ জুলাই) দিনগত রাতে মেশিনারি ও ববিন ঘোষণা দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের মাধ্যমে নিয়ে আসা দুই কনটেইনার মদ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থেকে জব্দ করা হয়। র্যাব, গোয়েন্দা সংস্থা ও হাইওয়ে পুলিশের সহায়তায় দুই লরিতে থাকা ৪০ ফুটের মদের কনটেইনার দুটি জব্দ করেন চট্টগ্রাম কাস্টমসের কর্মকর্তারা।

জব্দ হওয়া ওই দুই কন্টেইনার মদের চালানে ২৪ কোটি ৭০ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দেওয়া হয় বলে জানিয়েছে কাস্টমস।

কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে কাস্টমসের কাছে মদ ভর্তি দুটি কনটেইনার খালাস হওয়ার গোপন খবর আসে বে। এরপর চালানটি আটকের দ্রুত পদক্ষেপ নেয় কাস্টমস। কিন্তু ততক্ষণে জালিয়াত চক্রটি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকেই মদ ভর্তি লরি দুটি খালাস করে বন্দর থেকে বের করে নেয় বলে জানতে পারে কাস্টমসের এআইআর শাখা। এরপর কাস্টমসের পক্ষ থেকে মদবাহী লরি দুটি আটকে র্যাব, হাইওয়ে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার সংযোগিতা চাওয়া হয়। রাতেই র্যাব উন্নত প্রযুক্তির সহায়তায় গাড়ি দুটির অবস্থান শনাক্ত করে। এরপর কাস্টমসের এআইআর শাখার টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে লরিতে থাকা মদের চালানের সত্যতা পান।

কাস্টমস সূত্র আরও জানিয়েছে, কুমিল্লা ও ঈশ্বরদী ইপিজেডের দুই প্রতিষ্ঠানের নামে টেক্সটাইলের মেশিন ও সুতা ঘোষণায় আমদানি হওয়া মদের চালান দুটির আমদানিকারক পৃথক দেখানো হলেও খালাসের দায়িত্বে ছিল একই সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠান। চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানাধীন কেভি দোভাষ লেনের সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠান মেসার্স জাফর আহমদ মদের চালান দুটির খালাস নেন। গত ২০ জুলাই সন্ধ্যার পর পৃথক দুই প্রতিষ্ঠানের নামে আসা কন্টেইনার দুটির পণ্য খালাসের জন্য শুল্কায়ন করা হয়।

কুমিল্লা ইপিজেডের হেশি টাইগার কোম্পানি লিমিটেডের টেক্সটাইল সুতা এবং ঈশ্বরদী ইপিজেডের বিএইচকে টেক্সটাইল লিমিটেডের নামে রোবিং মেশিং ঘোষণা দিয়ে মদের চালান দুটি আমদানি করে জালিয়াত চক্র। তবে যে দুটি আইপি দেখিয়ে মদের চালান খালাস হয়, সেসব আইপি দিয়ে আগেই পণ্য আমদানি ও খালাস নেয় প্রকৃত আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান দুটি।

এদিকে মদ ভর্তি কনটেইনার দুটিতে পাসপোর্ট স্কচ হুইস্কি, ভ্যালান্টাইনস স্কচ হুইস্কি, ম্যাটেউস দ্য অরিজিনাল ওয়াইন, চিভাস রিগাল স্কচ হুইস্কি, জনি ওয়াকার রেড লেবেল/ব্ল্যাক লেবেল স্কচ হুইস্কি, টিচার্স হাইল্যান্ড স্কচ হুইস্কি, স্মারনফ ভদকা ও রেড রোজ ব্র্যান্ডের মদ পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে কাস্টমস।


আরও খবর



জেএসসি পাসে চাকরি দিচ্ছে শপআপ

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

অনলাইন শপিং মার্কেট প্লেস শপআপে ‘সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ১৯ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: শপআপ
বিভাগের নাম: ফিল্ড সেলস পারসন

পদের নাম: সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: জেএসসি
অভিজ্ঞতা: অভিজ্ঞদের অগ্রাধিকার
বেতন: ১২,৫০০-১৩,৫০০ টাকা

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: সর্বনিম্ন ১৮ বছর
কর্মস্থল: ঢাকা, গাজিপুর, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা (চকবাজার, ধানমন্ডি, গুলশান, কামরাঙ্গীচর, লালবাগ, মিরপুর, মোহাম্মদপুর, মতিঝিল, রামপুরা, উত্তরা) গাজিপুর (টুঙ্গী)

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ১৯ আগস্ট ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



মদনে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার কিশোরী, গ্রেফতার ২

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৩ August ২০২২ | ৩৬জন দেখেছেন
Image

নেত্রকোনার মদনে আত্মীয় বাড়ি থেকে ফেরার পথে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী (১৪)। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা মঙ্গলবার রাতে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মদন থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলার পর রাতেই অভিযান চালিয়ে রাব্বি মিয়া (২৫) ও অন্তর মিয়া (২৩) নামের দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে মদন থানার পুলিশ।

গ্রেফতার রাব্বি মিয়া বাশরী (বাফলা) গ্রামের নূর মিয়ার ছেলে ও অন্তর (২৩) একই গ্রামের মঞ্জিল হকের ছেলে। বাকি আসামিরা হলো- একই গ্রামের মৃত আব্দুল কুদ্দুছের ছেলে সারু মিয়া (২৫), কাঞ্চন বাবুর্চির ছেলে বাছির মিয়া (২৭) ও শাহানুর মিয়া (৩৮)। এর আগে বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) রাতে কাইটাইল বাজারের পাশে মদন-কেন্দুয়া সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই কিশোরী তার মায়ের সঙ্গে আত্মীয় বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে রওনা হয়। ওই উপজেলার তিয়শ্রী বাজারে আসলে অন্ধকার ঘনিয়ে আসে। সেখান থেকে একটি অটোরিকশায় করে কাইটাইল বাজারের পাশে এসে তারা নেমে যায়। কিশোরীকে রাস্তার এক পাশে রেখে অন্য পাশে অটোচালককে ভাড়া দিতে যায় তার মা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই আরেকটি অটোরিকশায় ৫ যুবক উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্স বাজিয়ে কিশোরীকে তুলে নিয়ে যায়। ভাড়া দিয়ে রাস্তার পাশে মেয়েকে না পেয়ে ডাক চিৎকার শুরু করে কিশোরীর মা। মেয়েকে না পেয়ে বাড়ির লোকজন নিয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে।

এদিকে ৫ বখাটে ওই কিশোরীকে চেতনানাশক ঔষধ খাইয়ে বাররী গ্রামের সেলিম মিয়া ঘরে আটকে রাখে। পরে রাতভর ওই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। পরদিন সকালে হত্যার ভয় দেখিয়ে আরেক দফা ধর্ষণ করার সময় প্রতিবেশীরা বিষয়টি জানতে পারে। এ সময় বখাটেরা পালিয়ে গেলে কিশোরীর পরিবারের লোকজনকে খবর দেয় প্রতিবেশীরা। পরে তাকে উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদি হয়ে মঙ্গলবার রাতে থানায় একটি মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই দুইজনকে গ্রেফতার করেন।

মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ফেরদৌস আলম জাগো নিউজকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। ওই ঘটনায় অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। গ্রেফতারদের বুধবার নেত্রকোনা আদালতে পাঠানো হবে। এর সঙ্গে ভুক্তভোগী কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন করার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।


আরও খবর



স্বাধীনতা দিবসে প্রোফাইলে জাতীয় পতাকার ছবি ব্যবহারের আহ্বান মোদীর

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
Image

ভারতের ৭৫তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রোফাইল পিকচার হিসেবে জাতীয় পতাকার ছবি ব্যবহারে নাগরিকদের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

রোববার (৩১ জুলাই) নরেন্দ্র মোদী ‘মান কী বাত’ বেতার অনুষ্ঠানে এই আহ্বান জানান। সেখানে তিনি নাগরিকদের আগামী ২ আগস্ট থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত নিজেদের প্রোফাইল পিকচারে জাতীয় পতাকার ছবি রাখার কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে তিনি ‘হার ঘার তিরাঙ্গা’ বা ‘ঘরে ঘরে ত্রিবর্ণ’ নামের একটি সামাজিক প্রচারণা চালাতে চান। ঘরে ঘরে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে এই আন্দোলনকে এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, ১৮৭৬ সালের ২ আগস্ট জন্ম নিয়েছিলেন ভারতের জাতীয় পতাকার নকশাকারী পিঙ্গালি ভেনকায়া। এ কারণেই হার ঘার তিরাঙ্গা মুভমেন্টের তারিখ হিসেবে ২ আগস্টকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

jagonews24

ভারতের প্রধানমন্ত্রী আরও জানান, এরইমধ্যে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার জাতীয় পতাকাসংক্রান্ত নতুন আইন প্রনয়ণ করেছে। নতুন আইনে সেলাই মেশিনের মাধ্যমে জাতীয় পতাকা তৈরি করা যাবে ও এতে পলেস্টার, সুতি, উল, সিল্ক কিংবা খাদি কাপড় ব্যবহার করা যাবে। এমনকি, এবার জাতীয় পতাকার আকার ও টাঙিয়ে রাখার সময়সীমার ওপরও থাকছে না কোনো বিধিনিষেধ।

এর আগে, দেশটিতে জাতীয় পতাকা তৈরিতে সেলাই মেশিন ও পলেস্টার কাপড় ব্যবহার নিষিদ্ধ ছিল। টাঙিয়ে রাখতে হতো সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত।

১৯২১ সালের ৩১ মার্চ কংগ্রেসের সম্মেলনে প্রথমবার ভারতের ত্রিবর্ণ পতাকার বিষয়টি প্রস্তাব করেছিলেন ভেনকায়া। তার এ নকশা দেখে মুগ্ধ হয়ে মহাত্মা গান্ধি এটি মঞ্জুর করেন। ১৯৩১ সালে ভেঙ্কাইয়ার নকশা চূড়ান্তভাবে গৃহীত হয়। তখন অশোক চক্রের জায়গায় ছিল শুধু চক্র।

প্রায় ৩০টি দেশের জাতীয় পতাকা সম্পর্কে পড়াশুনা করে ভারতের জাতীয় পতাকার নকশা ভাবেন পিঙ্গালি ভেনকায়া। সব ধর্মের মানুষের কথা মাথায় রেখে পতাকায় গেরুয়া, সবুজ ও সাদা রঙের ছোঁয়া দিয়েছিলেন তিনি।

১৯৪৭ সালের ২২ জুলাই সংবিধান সভায় ভারতের জাতীয় পতাকা প্রকাশ্যে আসে। এ দিন চক্রের পরিবর্তে যোগ হয় অশোক চক্র।

সূত্র: এনডিটিভি


আরও খবর