Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

টিকিট কালোবাজারি আর থাকবে না : র‌্যাব

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৬৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:টিকিট কালোবাজারি চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি রয়েছে। এ বছরের পর কালোবাজারি আর থাকবে না, বলেছেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার আরাফাত ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (১২ জুন) সকালে ঈদযাত্রা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের অংশ হিসেবে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

র‍্যাবের কর্মকর্তা আরাফাত বলেন, এ বছর দূরপাল্লার (আন্তঃনগর) ট্রেনের শতভাগ টিকিট অনলাইনে বিক্রি হয়েছে। এছাড়া যাত্রার দিন ২৫ ভাগ আসনবিহীন টিকিট বিক্রি চলছে।

তিনি বলেন, ঈদযাত্রা নিরাপদ করতে প্রতিটি স্টেশনে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। মোবাইল ট্র্যাকিং চালু রাখা হয়েছে। বাস টার্মিনাল, লঞ্চ টার্মিনাল ও রেলস্টেশনে কাজ করছে র‍্যাব।

র‍্যাব জনগণের পাশে আছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রতিটি বাস টার্মিনাল, লঞ্চ টার্মিনাল, রেলস্টেশনে আমাদের ওয়াচ টাওয়ার, কন্ট্রোল রুম, মোবাইল টিম রয়েছে। যেকোনো ধরনের অভিযোগ পেলে সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যাত্রীদের অনুরোধ করবো আপনাদের যেকোনো অভিযোগ থাকলে জানান, র‌্যাব আপনার পাশেই আছে।

র‍্যাবের এ কর্মকর্তা আরও বলেন, রেল কর্তৃপক্ষ আমাদের সঙ্গে আছেন। যাত্রীদের হয়রানি বিশেষ করে নারী হয়রানি যেন না হয় সে বিষয়ে র‌্যাব কাজ করে যাবে।

বিভিন্ন অজ্ঞানপার্টি, মলম পার্টির বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান চলছে জানিয়ে যাত্রাকালে অপরিচিত কারও সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তুলতে যাত্রীদের সতর্কও করেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক।


আরও খবর



বোটানিক্যাল গার্ডেনে প্রবেশ ফি ১০০ টাকা অযৌক্তিক: পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পরিবেশ, বন ও জলবায়ু বিষয়কমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী মন্তব্য করেছেন,রাজধানীর মিরপুরের জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান বা বোটানিক্যাল গার্ডেনে প্রবেশ ফি একলাফে ২০ টাকা থেকে ১০০ টাকা করাকে অযৌক্তিক বলে।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয় সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।পরিবেশমন্ত্রী বলেন, এখানে একটা রাজস্ব চাহিদা আছে। তবে এতো বাড়ানো উচিত না বলে আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি। এটা অযৌক্তিক।

এর আগে, এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের বন অধিশাখা-১ থেকে গত ২১ এপ্রিল একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এছাড়া দৈনিক পত্রিকায় এ বিষয়ে বিজ্ঞাপনও দেওয়া হয়েছে। গার্ডেনে প্রবেশের গেটেও এ নিয়ে নির্দেশনামূলক ব্যানার টানানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ১২ বছরের বেশি বয়সিদের ক্ষেত্রে জনপ্রতি ১০০ টাকা প্রবেশ ফি দিতে হবে। আর এর চেয়ে কম বয়সিদের জন্য প্রবেশে ফি দিতে হবে ৫০ টাকা। তবে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে অগ্রিম অনুমতি নিয়ে বোটানিক্যাল গার্ডেনে গেলে ১০০ জনের একটি দলের জন্য ১ হাজার টাকা ফি দিতে হবে। এর চেয়ে বেশিজনের দল হলে দেওয়া লাগবে দেড় হাজার টাকা। গবেষকেরাও এই ফির আওতায় থাকবেন।

প্রজ্ঞাপনে বিদেশি পর্যটক ও শরীরচর্চার জন্য উদ্যানে যারা নিয়মিত হাঁটতে যান, তাদের জন্যও আলাদা ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রত্যেক বিদেশি পর্যটকের জন্য দিতে হবে ১ হাজার টাকা বা সমমূল্যের ইউএস ডলার। আর উদ্যানে হাঁটতে যাওয়া ব্যক্তিদের একটি বার্ষিক কার্ড করাতে হবে। এর জন্য ফি দেওয়া লাগবে ৫০০ টাকা। তবে অবস্থান করা যাবে মাত্র ১ ঘণ্টা। অথচ শরীরচর্চার জন্য আগে উদ্যানে গেলে কোনোরকম ফি লাগত না।

বোটানিক্যাল গার্ডেনে প্রবেশ ফি বাড়ানোর বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। ব্যবহারকারীদের মতে, ঢাকায় সাধারণ মানুষের যাওয়ার জায়গা কম। শিশুরা গাছপালা তথা সবুজ দেখতে পায় না। এত অধিক হারে ফি বাড়ানো অনুচিত ও অযৌক্তিক মনে করছেন তারা।


আরও খবর



মহাদেবপুর সড়কে আরসিসি ঢালাই কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৬৭জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা,নওগাঁ প্রতিনিধি:নওগাঁর মহাদেবপুরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের সড়কের প্রশস্তকরণ কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা সদরের বক চত্বর এলাকায় পুর্বের পিচঢালা পাকা সড়কের ওপর আর আরসিসি ঢালায়ের সড়কের নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। গত কয়েকদিন আগে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওই এলাকায় পাকা সড়কের ওপর আর আরসিসি ঢালাই সড়ক নির্মাণ কাজ শুরু করে দেন।

সারাদেশের মতো সড়ক ও জনপথ বিভাগ এ উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক পূণ:নির্মাণসহ প্রশস্তকরণ এবং আর আরসিসি সড়কের নির্মাণ কাজ চলমান রেখেছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ নওগাঁ জেলা সদর থেকে আত্রাই, বদলগাছী ও মহাদেবপুর এবং মান্দা থেকে নিয়ামতপুর উপজেলার ছয়টি সড়কে মোট ১৪টি প্যাকেজে ১ হাজার ১শ’ ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। মহাদেবপুর অংশে ব্যয় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১শ’ ২০ কোটি টাকা। এর মধ্যে রয়েছে নওগাঁ-মহাদেবপুর-পত্নীতলা সড়কের চৌমাসিয়া নওহাটা মোড় থেকে আখেড়া পর্যন্ত, আখেড়া থেকে কালুশহর মোড় পর্যন্ত এবং কালুশহর মোড় থেকে পত্নীতলা বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত প্রতি প্যাকেজে ৯ থেকে ১০ কিলোমিটার। এছাড়া মহাদেবপুর উপজেলা সদরের মাছের মোড় থেকে ছাতুনতলী নতুনহাট পর্যন্ত ০ থেকে ৯ কিলোমিটার।

ইতিমধ্যে এসব প্রকল্পের অধিকাংশ কাজ শেষ করা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বশেষ প্যাকেজ মাছের মোড় থেকে ছাতুনতলী নতুন হাট পর্যন্ত সড়ক হবে ১৮ ফুট চওড়া এবং বাজার এলাকায় হবে ২৪ ফুট আরসিসি ঢালাই। এসব সড়কে প্রয়োজনীয় স্থানে নতুন ব্রিজ ও কালভার্টও নির্মাণ করা হবে। এ প্যাকেজের বিভিন্ন অংশে পুর্বের পাকা সড়ক উঠিয়ে সেখানে মাটি ভরাট, বালি খোয়ার সোলিং দিয়ে কম্প্যাক করার পরে তার উপর আরসিসি ঢালাই দেওয়া হলেও উপজেলা শহরের বক চত্বর এলাকায় পুর্বের পাকা সড়কের ওপর আরসিসি ঢালাই দেওয়া শুরু করেছে। বক চত্বর এলাকায় পুর্বের পাকা সড়ক না উঠিয়ে তার উপর আরসিসি ঢালাই দেওয়া নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে উপজেলা শহরের এ স্থানে পানি নিস্কাশনের তেমন কোন ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই সড়কের উপর পানি জমা হয়ে থাকে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় মাছের মোড় থেকে বকের মোড় হয়ে নতুন ব্রিজ পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দকের সৃষ্টি হয়েছে।স্থানীয় সচেতন মহলের অভিযোগ, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ পানি নিষ্কাশনের বিষয়টি আমলে না নিয়ে নানা অনিয়মের মধ্য দিয়ে পুরোনো পাকা সড়কের ওপর আরসিসি ঢালাই কাজে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে সহযোগিতা করছেন। এসব নিয়ে সচেতন মহলে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সিডিউল মেনেই এ সড়কের সিসি ঢালাই কাজ করা হচ্ছে দাবি করে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নওগাঁর পত্নীতলা উপ-কার্যালয়ের উপ-সহকারি প্রকৌশলী নুর আহমেদ বলেন, ওই এলাকার সড়কের থিকনেস ভালো থাকাসহ পানি নিস্কাশনের চেম্বার থাকায় পুরোনো পাকা সড়ক উঠানোর প্রয়োজন হচ্ছেনা। তবে একই প্যাকেজের সিডিউলে দুই ধরনের কাজ হতে পারে কি এমন প্রশ্নে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য শাকিব খানের ‘আপনজন’

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৪জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিনিধি:একঝাঁক নায়িকা নিয়ে  ঢালিউড মেগাস্টার শাকিব খান উন্মোচন করলেন ‘আপনজনের’ লোগো  । শনিবার (১৩ জুলাই) এক সংবাদ সম্মেলনে এ লোগো উন্মোচন করেন অভিনেতা।‘রিমার্ক আপনজন’ শিরোনামের বিশেষ অনুষ্ঠানে এ সময় অথেনটিক কসমেটিকসের রিটেইল আউটলেট রিমার্কের পরিচালক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাকিব।

শাকিবের পাশাপাশি এ অনুষ্ঠানে দ্যুতি ছড়ান চিত্রনায়িকা দীঘি, পরীমণি, বিদ্যা সিনহা মিম, পূজা চেরির মতো তারকারা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন চিত্রনায়ক ইমন।

তিনি বলেন, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশে রিমার্ক নিয়ে এসেছে ‘আপনজন’। এটি এমন এক ব্যবসায়িক উদ্যোগ যার সদস্য হলেই লাভবান হবেন ব্যবসায়ীরা। যেমন ‘আপনজন’-র সদস্যরা রিমার্ক থেকে যত টাকা মূল্যের পণ্য কিনবেন ঠিক তত পরিমাণ অর্থই আর্থিক সহায়তা হিসেবে পাবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, ‘আপনজন’-র সঙ্গে যেসব ব্যবসায়ী যুক্ত হবেন তারা সবাই পরিবারের বিপদের সময় আর্থিক সহায়তা পাবেন। ‘আপনজন’র সদস্যদের মৃত্যু হলে এক বছরে সে সদস্য যত টাকার পণ্য কিনেছেন তার পুরোটাই আর্থিক সহায়তা হিসেবে পাবেন এবং সদস্যের বকেয়া টাকাও মওকুফ করে দেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে শাকিব বলেন, একটি দেশের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের বাদ দিয়ে উন্নয়নের দিকে পৌঁছানো যায় না। কারণ, প্রান্তিক পর্যায়ে কোনো পণ্য পৌঁছে দেন তারাই। তাই তাদের মৃত্যু মানে শুধু একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়া নয়, বিশাল একটি ইন্ডাস্ট্রির স্বপ্ন পূরণের মাঝপথে মৃত্যুও। তাই ‘আপনজন’ একটি ভালোবাসার উদ্যোগ। এ ‘আপনজন’-র মাধ্যমেই ছোট, ক্ষুদ্র, মাঝারি ব্যবসায়ীদের পাশে সব সময় থাকবে রিমার্ক। এভাবেই একজন আরেকজনের ভরসার হাত হয়ে একসঙ্গে সামনের দিনগুলোতে এগিয়ে যাব আশা করছি।ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য শাকিব খানের ‘আপনজন’


আরও খবর



বাংলাদেশকে সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা দিল বিশ্বব্যাংক

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে ৯০ কোটি ডলার বা প্রায় সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকার ঋণ অনুমোদন দিয়েছে। সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক বোর্ড এ অনুমোদন দিয়েছে। টেকসই জলবায়ু-সহনশীল প্রবৃদ্ধি নিশ্চিত করতে বাংলাদেশকে রাজস্ব ও আর্থিক খাতের নীতি শক্তিশালী করণ এবং শহরের অবকাঠামো ও ব্যবস্থাপনার উন্নতি করতে ঋণের এ অর্থ ব্যয় করা হবে।

শনিবার (২২ জুন) বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিস থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় সংস্থাটি।

বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ও ভুটানে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর আবদুলায়ে সেক বলেন, প্রয়োজনীয় সংস্কারগুলো বাংলাদেশকে প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে এবং জলবায়ু পরিবর্তন ও অন্যান্য সংকট মোকাবিলায় সহায়তা করবে। নতুন অর্থায়ন বাংলাদেশকে দুইটি গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে সহায়তা করবে একটি হচ্ছে আর্থিক খাত ও নগর ব্যবস্থাপনা এবং অন্যটি উচ্চ মধ্যম-আয়ের দেশের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন।

এতে আরও বলা হয়, দুই কিস্তি ঋণের শেষ কিস্তি হিসেবে ৫০০ মিলিয়ন ডলার দেওয়া হচ্ছে। এটি বাংলাদেশের আর্থিক খাতে সংষ্কারের পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের গতি বাড়াবে। এ ছাড়াও জলবায়ু পরিবর্তনসহ ভবিষ্যতে যেকোনো দুযোর্গ মোকাবিলায় সহায়তা করবে

বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ইকোনমিস্ট এবং এই প্রোগ্রামের টাস্ক টিম লিডার বার্নার্ড হ্যাভেন বার্তায় বলেন, বিনিয়োগ বাড়াতে এবং আনুষ্ঠানিক ব্যাংকিং ব্যবস্থা থেকে বাদ পড়াদের জন্য অর্থের অ্যাক্সেস উন্নত করতে বাংলাদেশের জন্য একটি ভালো কার্যকরী আর্থিক খাত গুরুত্বপূর্ণ।

সরকার বাহ্যিক ভারসাম্যহীনতা মোকাবিলায় শক্তিশালী সামষ্টিক অর্থনৈতিক সংস্কার এবং আর্থিক খাতকে শক্তিশালী করার জন্য একটি নতুন আইনি কাঠামো গ্রহণ করেছে। যা ব্যাংক পুনরুদ্ধার কাঠামোকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করবে। কম মূলধনী ব্যাংকগুলোকে সমস্যা মোকাবিলা করার জন্য একটি দ্রুত সংশোধনমূলক কর্মকাঠামো বাস্তবায়ন করতে সহায়তা করবে। এটি অর্থনৈতিক মন্দা এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণদের রক্ষা করে সামাজিক সুরক্ষা কর্মসূচিকেও শক্তিশালী করবে বলে জানান তিনি।


আরও খবর

রিজার্ভ কমল ১৩২ কোটি ডলার

বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪

বাড়ল স্বর্ণের দাম

রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪




অবরোধ প্রত্যাহার করে শিক্ষার্থীদের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চতুর্থদিনের মতো কোটা বাতিলের দাবিতে শাহবাগ অবরোধ করে কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। অবরোধ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি ঘোষণা দিয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে অবরোধ কর্মসূচিরও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (৬ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৫টায় শাহবাগ মোড়ে,রোববার (৭ জুলাই) বিকেল ৩টায় সারাদেশের সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ‘ব্লকেড’ কর্মসূচি শুরু হবে বলে অবরোধ শেষে এই ঘোষণা দেন কোটা আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক নাহিদ ইসলাম।

শনিবার (৬ জুলাই) বিকেল ৩টায় শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি হল থেকে আলাদা ব্যানারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্ট্রাল লাইব্রেরির সামনে জড়ো হন। পরে সেখান থেকে বিশাল মিছিল নিয়ে হলপাড়া-ভিসি চত্বর-টিএসসি-বকশিবাজার-বুয়েট-ইডেন কলেজ-হোম ইকোনমিকস-নীলক্ষেত-টিএসসি হয়ে বিকেল ৫টায় শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।


আরও খবর