Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

তানোর পৌর যুবদলের আহবায়ক গ্রেফতার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৫৫জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর প্রতিনিধি:রাজশাহীর তানোর পৌরসভা যুবদলের আহবায়ক সাইদুর রহমান কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ  বলে নিশ্চিত করেন থানার ওসি আব্দুর রহিম । গত বৃহস্পতিবার শেষ বিকেলের দিকে পৌর এলাকার চাপড়া বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।  গ্রেফতার কৃত সাইদুর রহমানের বাড়ি চাপড়া গ্রামে। সে আব্দুস সাত্তারের পুত্র। 

ওসি আব্দুর রহিম বলেন, গত অক্টোবর মাসের ২৮ তারিখে দিবাগত রাতে নাশকতার পরিকল্পনার দায়ে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছিল। সে মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে শুক্রবার সকালের দিকে  আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর



ডোমারে ফেন্সিডিলসহ মাদক কারবারি গ্রেফতার

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬২জন দেখেছেন

Image

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ৮৯ বোতল কথিত আমদানি নিষিদ্ধ ভাতীয় ফেন্সিডিলসহ মাদক কারবারি আঃ রহিম (৩৩) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে ডোমার থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ আবু সাঈদ চৌধুরী’র নের্তৃত্বে এসআই শাকিল মাহমুদ, লুলু মিয়া, এবি সিদ্দিক ও সঙ্গীয় ফোর্স সদর ইউনিয়নের পূর্ব চিকনমাটি সরকারপাড়া এলাকা থেকে মাদক কারবারি আঃ রহিম (৩৩) কে গ্রেফতার কারে। এ সময় তার কাছ থেকে ৮৯ বোতল ইনটেক ফেন্সিডিল ও লাল রঙের হোন্ড ইউনিকন্ধসঢ়; মোটরসাইকেল যাহার রেজিঃ নম্বর- লালমনিরহাট-ল-১১-৯৭০৩ জব্দ করে পুলিশ। সে সময় তার এক সহযোগি পালিয়ে যায়।

গ্রেফতারকৃত আঃ রহিম লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা থানার মধ্য গড্ডিমারী এলাকার হিরণ আলীর ছেলে বলে যানাজায়। ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ আবু সাঈদ চৌধুরী গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আঃ রহিম একজন চিহিৃত মাদক কারবারি। তার নামে বিভিন্ন থানায় একাধীক মাদক মামলা রয়েছে। আঃ রহিমের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব আইন ২০১৮ এর ৩৬ (১) সারণিক ১৪ (গ)/৩৮/৪১ ধারা মোতাবেক ডোমার থানার মামলা নং-০৯, তারিখ-১৭/০২/২০২৪ দায়ের করে নীলফামারী জেলার বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়। ডোমার উপজেলাকে মাদক মুক্ত করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।


আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




এমবাপে রেকর্ড করে ম্যাচ জিতালেন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:কিলিয়ান এমবাপে গতকাল আবারও গোল করেন। ম্যাচে ধারাবাহিক গোল করে রেকর্ডও করলেন তিনি। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে টানা ১০ ম্যাচে গোল করে রেকর্ড করলেন ফরাসি বিশ্বকাপজয়ী তারকা এমবাপে।

এমবাপের গোল-রেকর্ডের দিনে জিতেছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। গতকাল বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম লেগে রিয়াল সোসিয়েদাদকে ২-০ গোলে হারিয়েছে এমবাপের পিএসজি।

সোসিয়েদাদ এই আসরে দারুণ ফর্মে ছিল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ-ডি থেকে অপরাজিত থেকেই শেষ ষোলোতে জায়গা করেন তারা। গ্রুপসেরাও হয়েছিল। গতকাল অ্যাওয়ে ম্যাচে খেলতে নেমে প্রথমার্ধে নিজেদের জালকে অক্ষত রেখেছিলো তারা। দ্বিতীয়ার্ধে তরুণ এমবাপেকে আর থামাতে পারেনি স্প্যানিশ ক্লাবটি।

ম্যাচের ৫৮ মিনিটে মারকুইনেসের কর্নার থেকে বল পেয়ে সুযোগ হাত ছাড়া করেনি এমবাপে। এতে ১-০ গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্সের ক্লাবটি।

৭০ মিনিটে পুরো ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় পিএসজি। গোল করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাডলি বারকোলা। শট করে সোসিয়েদাদের গোলরক্ষক অ্যালেক্স রেমিরোর পায়ের মাঝখান দিয়ে জালে বল জমা করেন তিনি।


আরও খবর



ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২১৪জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃট্রাফিক পুলিশের ওয়ারী বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনারের সার্বিক নির্দেশনায় ও উর্ধতন কর্মকর্তাগনের তত্ত্বাবধানে অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালিত হয়েছে। রবিবার ৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৯ টা থেকে ডেমরা ষ্টাফ কোয়াটার এলাকায় এবং দুপুর সাড়ে ১২ টা থেকে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের মাতুইয়াল ইউলুপের সামনে এসব অভিযান পরিচালিত হয়।ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের সকল জোনের মধ্যে এ অভিযান ধারাবাহিক ভাবে চলবে বলে জানা গেছে। এসব অবৈধ ত্রুটিপূর্ণ যানবাহনের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক ভাবে অভিযান পরিচালিত হওয়াতে বদলে যাচ্ছে সড়কের পরিবেশ। ট্রাফিক পুলিশের এ ধরনের ধারাবাহিক অভিযানে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনাসহ সড়ক দুর্ঘটনা অনেকটাই কমে আসবে।

জানা যায় যে, ওয়ারী বিভাগ এর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়কে অবৈধ ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ও কাগজপত্র ত্রুটি নিয়ে বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করার চেষ্টা করে।এ কারণে সড়ক মহাসড়কে যানজট তৈরি সহ দুর্ঘটনার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই এসব অবৈধ ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ও ত্রুটি পুর্ণ যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার লক্ষ্যে ডিসি ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগ একজন পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) এর নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করেছে।তারাই বিশেষ এই অভিযান পরিচালিত করছেন । এই অভিযানিক টিম প্রতিদিন  ৫০ টির অধিক গাড়ির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকে ।

এ বিষয়ে অভিযান ডিউটিতে নিয়োজিত ওয়ারী বিভাগের ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) বিপ্লব ভৌমিক সংবাদ কর্মীদের বলেন,এ ধরনের অভিযান পরিচালনার ফলে অবৈধ যানবাহনের চলাচল অনেকাংশে নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে, এবং এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ বিষয়ে রাজধানী মার্কেটের ব্যবসায়ী কোনাপাড়ার বাসিন্দা শরিফ উল্লাহ বাবলু বলেন, সড়কের শৃঙ্খলা রক্ষা ও দুর্ঘটনায় ক্ষয় ক্ষতি কমাতে ট্রাফিক পুলিশের এ ধরনের পদক্ষেপ সত্যি প্রশংসনীয়।



আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সিদ্ধিরগঞ্জে ভাসুরের বটির কুপে কব্জি হারালেন সাবিনা, গ্রেফতার-২

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৩৬জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার:(০৯’ফেব্রুয়ারি ২৪’ইং শুক্রবার):নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ভাই বোনদের সংঘর্ষে ৩’জন গুরুতর আহত, গ্রেফতার-২। ভাসুর মানিক মিয়ার ধারালো বটির কুপে সাবিনা নামে এক নারীর হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। গ্যাস ও জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গতকাল শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে থানার মধ্য সানারপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটস্থল পরিদর্শন করে। কব্জি বিচ্ছিন্ন সাবিনাকে দ্রুত উদ্ধার করে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, পরে পুঙ্গ হাসপতালে নিয়ে গেলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সেখানে ভর্তি না করায় পরে মোহাম্মদপুর লাল মাটিয়া সিটি হাসতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে বলে পারিবারিক সূত্র জানায়। আহতরা হলেন, ওমর মিয়ার স্ত্রী সাবিনা, চাঁদনী ও তার বোন ইতি। গ্রেফতারকৃত আসামিরা হলেন, মানিক মিয়া(৪০) ও তার ছোট ভাই সুমন মিয়ার স্ত্রী ফাতেমা(৩২)।

জানা যায়, নাসিক ৩নং ওয়ার্ড মধ্যসানারপাড় এলাকার মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে মানিক মিয়া, সুমন মিয়া, ওমর মিয়া, জুবায়ের মিয়া, সুজন মিয়া, বোন চাঁদনী, সুনিয়া ও ইতির মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। পৈতৃক বাড়ি থেকে ৩’ভাই ও ৩’বোনকে বঞ্চিত করে ভোগদখল করতে চায় মানিক ও সুমন। এনিয়েই মূলত বিরোধ শুরু। তবে ভাইদের মধ্যে বিরোধ চরম রূপ নেয় অবিবাহিত বোন ইতিকে নিয়ে। কেউ তার ভরণ পোষনের দায়িত্ব নিতে চায়না। তবে সৌদি প্রবাসী জুবায়ের মিয়ার দেওয়া অর্থ ও টিউশনি করে ভরণ পোশন ও পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন ইতি। ইতিকে নিয়েই সংঘর্ষের সূত্রপাত।

ইতির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বড় ভাই মানিক মিয়া ও সুমন মিয়া আমাকে কোনভাবেই সহ্য করতে পারেনা। চলার কিছু খরচ দেয় সৌদি প্রবাসী ভাই জুবায়ের। মাঝে মাঝে ভাই ওমর মিয়া খোঁজ খবর নেয়। তবে তার অর্থিক অবস্থা ভালনা। গতকাল শুক্রবার দুপুরে গ্যাসের চুলায় সাবিনা ভাবী আমার জন্য খাবার রান্না করতে গেলে বড় ভাবী ফাতেমা গালাগালি শুরু করেন। তখন আমি ও বোন চাঁদনী প্রতিবাদ করলে বড় ভাই মানিক, সুমন ও ভাবী ফাতেমা আমাদের দুই বোনকে মারধর শুরু করেন। এক পর্যায় মানিক ভাই ধরালো বটি দিয়ে আমাকে লক্ষ করে কুপ দেয়। তখন সাবিনা ভাবী কুপ প্রতিহত করতে গিয়ে তার বাম হাতের কব্জি পর্যন্ত কেটে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক হুমায়ূন কবির(২) বলেন, তাদের ভাই বোনদের মধ্যে আগে থেকেই জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। তার জের ধরে গ্যাসের চুলা জ্বালানোকে কেন্দ্র করে মারামারি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দু’জনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসি।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক বলেন, এ ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



প্রতারণার মামলায় যুব-মহিলালীগ নেত্রী ও তার স্বামী রিমান্ডে

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭২জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে পাবনা জেলা যুব মহিলা লীগের সদস্য মিম খাতুন ওরফে আফসানা মিম ও তার স্বামী ওবায়দুল্লাহর একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।বাদী পক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মেজবা উদ্দীন শরীফ।

বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিনা হকের আদালত শুনানি শেষে জামিন নামঞ্জুর করে তাদের রিমান্ডে পাঠান।

এদিন গ্রেফতার আসামিদের আদালতে হাজির করা হয়। এসময় মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও গুলশান থানার উপপরিদর্শক মো. রোমেন মিয়া রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন।অন্যদিকে আসামিপক্ষ আইজীবী এ্যাড.সুমন মিয়া রিমান্ড বাতিল ও জামিন চেয়ে আবেদন করেন।

জানা গেছে, ওবায়দুল্লাহ নামে এক ব্যক্তিকে দুলাভাই হিসেবে মামলার বাদী মনিরুজ্জামানের সঙ্গে পরিচয় করে দেন মিম। পরে বিভিন্ন সময়ে ব্যবসার কথা বলে ১৩ লাখ ১৭ হাজার টাকা নেন মিম ও ওবায়দুল্লাহ। বিশ্বাস করে দলিল ছাড়া লেনদেন হলেও পরে দলিল করতে চাইলে তারা টালবাহানা শুরু করেন। পাওনা টাকা ফেরত দেবেন না বলে হুঁশিয়ারি দেন এবং তাকে বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি ও হুমকি দেখান।

এ ঘটনায় আটঘড়িয়া উপজেলার যুবলীগ নেতা ও ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান বাবু বাদী হয়ে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলার পর গতকাল বুধবার সকালে এ দম্পতিকে পাবনা সদর এলাকা থেকে গ্রেফতার করে গুলশান থানা পুলিশ।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪