Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে চাষীের মাঝে বীজ ও সার

প্রকাশিত:Saturday ১৬ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২০৫জন দেখেছেন
Image

আবুল হোসেন আকাশ, ধনবাড়ী প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীর ধান চাষীদের মাঝে ধান উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। 


কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলা হলরুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা শেষে চাষীদের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়।


অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আসলাম হোসাইন। এ সময় বক্তব্য দেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হারুনার রশীদ হীরা, ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শামছুল হুদা, কৃষি কর্মকর্তা মাজেদুল ইসলাম, প্রেসক্লাব সভাপতি স. ম. জাহাঙ্গীর আলম, সম্পাদক আনছার আলী প্রমূখ।


উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ২০২১-২২ অর্থ বছরের খরিপ-১ মৌসুমে প্রণোদনা কর্মসূচীর আওতায় উফসী আউশ ধান উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক উপজেলার ৫ শত ধান চাষীদের মাঝে  বিনামূল্যে এ বীজ ও সার বিতরণ হয়।


আরও খবর



সন্তানসহ প্রেমিকের হাত ধরে উধাও দুই সন্তানের জননী

প্রকাশিত:Thursday ০২ June 2০২2 | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছেন সাজেদা আক্তার (২৮) নামের এক প্রবাসীর স্ত্রী। ওই নারীর দুই সন্তান রয়েছে। পালানোর সময় সঙ্গে করে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও ১২ ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছেন বলে অভিযোগ স্বামীর।

মীরসরাইয়ের ওয়াহেদপুরে পরকীয়ার টানে রাতের আধাঁরে যুবকের হাত ধরে সাজেদা আক্তার (২৮) নামে দুই সন্তানের জননী উধাও হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (১ জুন) দিনগত গভীর রাতে উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ ওয়াহেদপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সাজেদা আক্তার ওই গ্রামের দুবাই প্রবাসী মিজানুল ইসলামের স্ত্রী এবং পার্শ্ববর্তী খৈয়াছরা ইউনিয়নের পূর্ব মসজিদিয়া গ্রামের সাবেক ইউপি মেম্বার সিরাজ উদ্দৌলার একমাত্র মেয়ে।

ভুক্তভোগী মিজানুল ইসলাম ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ ওয়াহেদপুর গ্রামের মৃত দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় মিরসরাই থানায় তিনি একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ৯ বছর আগে মিজানুল ইসলামের সঙ্গে সাজেদা আক্তারের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে সাত বছরের একটি ছেলে ও দেড় বছর বয়সী একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। তিন মাস আগে মিজানুল ইসলাম ছুটিতে দেশে আসেন। তিনি বিদেশে থাকা অবস্থায় গৃহবধূ সাজেদার দূর সম্পর্কের চাচাতো ভাই ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের খাজুরিয়া গ্রামের নুরুল হুদার ছেলে মো. আকবর তাদের ঘরে আসা-যাওয়া করতেন।

এক পর্যায়ে সাজেদার সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ নিয়ে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন সাজেদাকে বারবার নিষেধ করলেও তিনি আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। মঙ্গলবার রাতে স্বামী ও দুই সন্তানসহ তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। গভীর রাতে দেড় বছরের শিশু সন্তানসহ ১২ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে প্রেমিক আকবরের হাত ধরে পালিয়ে যান সাজেদা আক্তার।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে স্বামী মিজানুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘পারিবারিকভাবে বিয়ে হলেও আমি তাকে কম ভালোবাসা দিইনি। প্রবাস জীবনে থেকে অনেক শ্রম দিয়ে অর্থ উপার্জন করে স্ত্রী ও পরিবারকে পাঠিয়েছি সুখে থাকবো বলে। সেই সুখের ঘরে আগুন লাগিয়ে পালিয়েছে সাজেদা। সে আমাদের দুই সন্তানের কথাও চিন্তা করেনি। যাওয়ার সময় ১২ ভরি স্বর্ণালংকার ও ৫০ হাজার টাকা নিয়ে গেছে। আমি তার উপযুক্ত বিচার ও আমার মেয়ে এবং অর্থ-সম্পদ ফিরে পেতে চাই।’

গৃহবধূ সাজেদার বাবা সিরাজউদ্দৌলা জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমার একমাত্র মেয়ে সুখের ঠিকানা ছেড়ে বখাটে আকবরের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ায় খুব কষ্ট পেয়েছি। আমি আমার মেয়েকে চাই না; নাতনিকে ফেরত পেতে চাই।’

এ বিষয়ে ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজলুল কবির ফিরোজ বলেন, পরকীয়ার টানে গৃহবধূর পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা খুবই দুঃখজনক। একটা পরিবারের তিলে তিলে গড়া সম্মান ও স্বপ্ন ধুলায় মিশে যায়; যা কাম্য নয়।

মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কবির হোসেন বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। খুব শিগগির এর রহস্য উদ্ঘাটন করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



স্বাস্থ্য সুরক্ষাসামগ্রীর দাম কমবে

প্রকাশিত:Thursday ০৯ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
Image

২০২২-২৩ অর্থবছরে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিরাপত্তাসামগ্রীর উৎপাদন ও ব্যবসায়ীপর্যায়ে ভ্যাট অব্যাহতি প্রত্যাহারের প্রস্তাব করা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে করোনা টেস্ট কিট, পিপিই, নিরাপত্তাপোশাক, প্লাস্টিক ফেইস শিল্ড, মেডিকেল নিরাপত্তাসামগ্রী, হাসপাতালে ব্যবহারের জন্য প্রতিরক্ষামূলক চশমা, গগলস ও মাস্ক।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপনকালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ কথা জানান।

প্রস্তাবিত বাজেটে বেশকিছু পণ্যের ওপর শুল্ককর প্রত্যাহারের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া বিদেশ থেকে আমদানি করা হুইল চেয়ারের ওপর কর বিলোপের প্রস্তাব করা হয়। ফলে দেশের বাজারে এসব স্বাস্থ্য নিরাপত্তাসামগ্রীর সহজলভ্যতা হবে এবং দাম কমতে পারে।

এছাড়া দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের পড়ার উপকরণ ব্রেইল মুদ্রণের ওপর ভ্যাট অব্যাহতির প্রস্তাব করা হয়েছে। শ্রবণপ্রতিবন্ধীদের জন্য কানে শোনার যন্ত্র ও এই যন্ত্রে ব্যবহৃত ব্যাটারি আমদানিতে শুল্ককর ২৫ শতাংশ কমিয়ে ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। ফলে ব্রেইল মুদ্রণ ও কানে কম শোনার যন্ত্রের দাম কমতে পারে।

করোনাভাইরাসের অভিঘাত পেরিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় প্রত্যাবর্তনের লক্ষ্য নিয়ে প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটের আকার হচ্ছে ছয় লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। এবারের বাজেটের আকার যেমন বড়, তেমনি এ বাজেটে ঘাটতিও ধরা হয়েছে বড়।

অনুদান বাদে এ বাজেটের ঘাটতি দুই লাখ ৪৫ হাজার ৬৪ কোটি টাকা, যা জিডিপির সাড়ে ৫ শতাংশের সমান। আর অনুদানসহ বাজেট ঘাটতির পরিমাণ দুই লাখ ৪১ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৫ দশমিক ৪০ শতাংশের সমান।

এটি বর্তমান সরকারের ২৩তম এবং বাংলাদেশের ৫১তম ও বর্তমান অর্থমন্ত্রীর চতুর্থ বাজেট। বাজেটে সঙ্গত কারণেই মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, কৃষিখাত, স্বাস্থ্য, মানবসম্পদ, কর্মসংস্থান ও শিক্ষাসহ বেশকিছু খাতকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



ব্রাজিল অনুশীলনে হাতাহাতি নয়, ভিনি-রিচার্লিসনরা মজা করছিলেন

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
Image

ব্রাজিল ফুটবল দলের অনুশীলনের দুটি ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। দুই ছবিতে দেখা যাচ্ছে নেইমার, ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, দানি আলভেজ, রিচার্লিসন এবং লুকাস পাকুয়েতাকে। যেখানে ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের জার্সি টেনে ধরেছেন রিচার্লিসন। তাদেরকে ছাড়ানোর চেষ্টা করছেন আলভেজ, নেইমার এবং পাকুয়েতা।

এই দুটি স্থির ছবি দেখে অনেকেই বিচার করে ফেলেছেন, এখানে নিশ্চয়ই কোনো ঝামেলা হয়েছে। হাতাহাতি হয়েছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারদের মধ্যে। বাংলাদেশের অনেক মিডিয়ায়ই এ নিয়ে লিখে দিয়েছে, ভিনিসিয়ুস এবং রিচার্লিসনের মধ্যে মারামারি পর্যন্ত হয়ে গেছে। এর জের ধরে ব্রাজিল ফুটবল দলে অভ্যন্তরে দ্বন্দ্বটা প্রকাশ্যে চলে এসেছে- এমন অনেক কিছু।

ছবিটা দেখলে আসলেই মনে হবে, তারা মারামারিতে জড়িয়ে পড়েছেন। খুবই সিরিয়াস মুখভঙ্গি দেখা গেছে রিচার্লিসন আর ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের মধ্যে।

কিন্তু শুধু ছবি দেখলেই তো সব কিছু বিচার-বিবেচনা করা যায় না। বর্তমান সময়ে শুধু ছবি নয়, প্রায় সব ঘটনারই ভিডিও পাওয়া যায়। সেই ভিডিও দেখেই ঘটনার প্রকৃত অবস্থা বিচার-বিশ্লেষণ করা সম্ভব।

মূলতঃ তাদের মধ্যে হাতাহাতি কিংবা মারামারির কোনো ঘটনাই ঘটেনি। জাপানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে অনুশীলনেই মজা করছিলেন ব্রাজিলিয়ান ফুটবলাররা। অনেকটা অভিনয় করেই নিজেদের মধ্যে মারামারি করার মত এই ঘটনা ঘটিয়েছেন তিনি। কিন্তু পুরো ঘটনাটাই ছিল হাস্যরসাত্মক।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রিচার্লিসনের সঙ্গে প্রথমে জার্সি টানাটানি করেছেন দানি আলভেজ। এরপর সেখানে যোগ দেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র। এরপর সেখানে যোগ দেন নেইমার এবং লুকাস পাকুয়েতা। শেষে হাসতেও দেখা গেছে ভিনিসিয়ুসকে।

ব্রাজিল ফুটবল নামে একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকেও বিষয়টি পরিস্কার করে দেয়া হয়। সেখানে বলা হয়, ‘বিষয়টি পরিস্কার করার জন্য বলছি, ভিনিসিয়ুস জুনিয়র এবং রিচার্লিসনের মধ্যে আসলে কোনো মারামারি হয়নি। অনেক মানুষই চিন্তা-ভাবনা না করে ছবিটাকে সিরিয়াসলি গ্রহণ করে নেবে। অনেকেই চিন্তা করবে না, আসলে এখানে কিছুই ঘটেনি।’

দক্ষিণ কোরিয়াকে ৫-১ গোলে হারানোর পর আজ রাতে জাপানের মুখোমুখি হবে ব্রাজিল।


আরও খবর



কোনো গাফিলতি পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডে যাদেরই গাফিলতি পাওয়া যাবে তাদের শাস্তি পেতে হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, তদন্তের ফলাফল পাওয়ার পর আমরা সেটি নির্ধারণ করবো।

মঙ্গলবার (৭ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর পুরান ঢাকার ফুলবাড়ীয়ায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরে নিহত ফায়ার ফাইটার শাকিল তালুকদারের জানাজা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, দুটি উচ্চপর্যায়ের অতন্ত দল দুর্ঘটনাস্থলে কাজ করছে। তদন্তের ফল প্রকাশ না পাওয়া পর্যন্ত কার গাফিলতি কিংবা নাশকতা বা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ঘটনা কি না তা বলতে পারছি না। কিছু একটা ঘটেছে, তা না হলে এত প্রাণ যায় না, এটাও আমি বিশ্বাস করি।

কোনো গাফিলতি পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

তিনি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা যে অকুতোভয় সৈনিক, তারা সবসময় এটার প্রমাণ দিয়েছে। এফআর টাওয়ারসহ বিভিন্ন সময় আপনারা দেখেছেন। এখানেও তারা সেই সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। এক মুহূর্ত তারা দেরি করেননি, ছুটে গিয়েছেন। তারা যথাযথ প্রচেষ্টাই নিয়েছিলেন। দুর্ভাগ্য এতে তাদের ৯ জন নিহত হয়েছেন, তিনজনের মৃতদেহ শনাক্ত হয়নি। সিএমএইচসহ বিভিন্ন হাসপাতালে গুরুতর আহত হয়ে ১৫ জন চিকিৎসা নিচ্ছেন।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রভাবশালীদের হাত থাকলে সেক্ষেত্রে নমনীয় হবেন কি না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আপনারা দেখেছেন, প্রধানমন্ত্রী কাউকে ছাড় দিয়েছেন? উনি সংসদ সদস্যদেরও ছাড়েন না। কাজেই বার্তাটা স্পষ্ট, যদি কারও সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়, যদি কারও গাফিলতি দেখা যায়, যদি কেউ কোনোভাবে নাশকতা করে থাকে, তার শাস্তি তাকে পেতেই হবে। তারপর আমরা সেটি নির্ধারণ করবো।

কোনো গাফিলতি পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা ঘণ্টা বাজানো ফায়ার সার্ভিস থেকে আধুনিক ফায়ার সার্ভিস নিয়ে আসছি। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই উপস্থিত হযন। আগে আমরা দেখতাম ঘটনা শেষ হয়ে গেছে, আগুন নিভে গেছে, তখন ফায়ার সার্ভিস গিয়ে উপস্থিত হতো। পার্থক্যটা এখন এখানেই। প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় আমরা ফায়ার সার্ভিসকে একটি সক্ষম বাহিনীতে পরিণত করতে পেরেছি এবং ক্রমাগতভাবে আমরা তাদের আরও সক্ষমতা বৃদ্ধি করবো। সর্বাত্মকভাবে তারা যেন অগ্নিনির্বাপণে তারা ভূমিকা রাখতে পারে।

এর আগে নিহত ফায়ার ফাইটার শাকিল তরফদারের মরদেহে শ্রদ্ধা জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। পরে তার জানাজায় অংশ নেন তিনি।


আরও খবর



মহানবী (সাঃ) ও উনার স্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি, মাধবপুরে গুনিয়াউক দরবার শরীফের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১২৭জন দেখেছেন
Image

মোঃ আব্দুল হান্নানঃ মাধবপুর থেকে ফিরেঃ-


ভারতীয় টেলিভিশন বিতর্কে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি সাল্লাম এবং উনার স্ত্রী মা আয়েশা সিদ্দিকা(রাঃ) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপীর মুখপাত্র নুপুর শর্মার কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য ও তাকে সমর্থন করে তার সহকর্মী নবীন কুমার জিন্দালের টুইট গুনিয়াউক দরবার শরীফের গদিনিশিন পীর মাওলানা সৈয়দ আব্দুল আওয়াল শিস্তি আল কাদরী বুলবুলের  নজরে আসলে দরবার শরীফের সভাপতি, সুলায়মান খান এর নেতৃত্বে সাধারণ সম্পাদক শফিক উদ্দিন খানের সঞ্চালনায় এক প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করেন। 


মঙ্গলবার বিকালে হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলা চত্বরে প্রতিবাদ অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপীর মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দালের সাময়ীক বরখাস্ত করা  সমাধান নয়, তাদের দুইজন কে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ফাসি   দিতে হবে, যাতে করে  বিশ্ব মানবতার মুক্তির দূত প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে কটুক্তির মত এমন দুর সাহস আর কেউ না করে।


এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গুনিয়াউক দরবার শরীফের গদিনিশিন পীর মাওলানা সৈয়দ আব্দুল আওয়াল শিস্তি আল কাদরী  বুলবুল সাহেব,সৈয়দ আব্দুল মুকিত বকুল,মাওলানা মুস্তাকিম বিল্লাহ নুরী,এম,জাকির রহমান আল কাদরী, গুনিয়াউক দরবার শরীফ এর খাদেম নাসির উদ্দীন খান সিস্তি, মাওলানা শিহাব উদ্দিন সিস্তি, নিজাম উদ্দিন আল তাবি, মাসুদুর রহমান মাসুদ প্রমুখ।


আরও খবর