Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

স্বামীর সফলতা নির্ভর করে স্ত্রী উপর, বলছে গবেষণা

প্রকাশিত:Friday ০৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

স্বামী-স্ত্রী দুজনের সফতাই একে অন্যের উপর নির্ভর করে। সংসারে সুখী হতে চাইলে যেমন একে অন্যের বিশ্বাস, ভালোবাসা ও ভরসার প্রয়োজন হয় ঠিক তেমনই জীবনের সফলতাও নাকি জীবনসঙ্গীর উপরই নির্ভর করছে। এমনটিই বলছে এক সমীক্ষা।

বিশ্বের সব নামকরা ব্যক্তিবর্গরাই তাদের জীবনের সফলতার পেছনে জীবনসঙ্গীর সহযোগিতার কথা স্বীকার করেছেন। তাদের মধ্যেই একজন হলেন বারাক ওবামা। সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বরাবরই তার সফলতার পেছনে স্ত্রী সহযোগিতার কথা বুক ফুলিয়ে বলেছেন।

কথায় আছে ‘প্রতিটি সফল পুরুষের পেছনে একজন নারী থাকেন’। এ কথা কিন্তু বিজ্ঞানও বিশ্বাস করে। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক বিজ্ঞান ও গবেষণা এ বিষয়ে কী বলছে-

যুক্তরাষ্ট্রের কার্নেগি মেলন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশিত এক গবেষণা এটিকে বৈজ্ঞানিক পর্যায়ে নিয়ে আসেন। ওই গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, যে স্ত্রী তার স্বামীর সহযোগী, ওই স্বামী জীবনের বেশি সফলতা পান (স্ত্রীদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য)।

গবেষণা দেখা গেছে, একজন পুরুষের সাফল্য নির্ভর করে তিনি কেমন নারীকে বিয়ে করেছেন তার উপর। ১৬৩ দম্পতির উপর করা এক সমীক্ষায় এমন তথ্য উঠে আসে।

এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদেরকে একটি সহজ ধাঁধা সমাধান করতে দেন, যারা জিতবেন তাদেরকে পুরস্কার দেওয়ারও ঘোষণা দেন গবেষকরা।

গবেষণায় অংশগ্রহণকারী পুরুষদের ক্ষেত্রে দেখা যায়, যেসব স্ত্রীরা পুরস্কার জেতার আশায় তাদের স্বামীকে পরামর্শ ও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন সেসব স্বামীরা ধাঁধার সমাধান করতে পেরেছেন।

অন্যদিকে যেসব স্ত্রীরা পুরস্কারের বিষয়ে নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্ড়ি রেখেছেন কিংবা স্বামীকে এ বিষয়ে কোনো সহযোগিতা করেননি তারা পিছিয়ে পড়েছেন।

গবেষকরা ৬ মাস পরে একই দম্পতিদের পরীক্ষা করে দেখেন, যারা পুরস্কারের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার চ্যালেঞ্জ যারা প্রত্যাখ্যান করেছেন তাদের তুলনায় যারা অংশগ্রহণ করেছেন তারা বেশি সফলতা অর্জন করেছেন। তারা অন্যদের চেয়ে সুখী ও সুস্থ বলে দাবি করেন গবেষকরা।

সেন্ট লুইসের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটির গবেষকরাও গবেষণা চালিয়ে প্রমাণ করেন যে, একজন ব্যক্তির সাফল্য কেবল নিজের উপর নির্ভর করে না, তার জীবনসঙ্গীও এক্ষেত্রে বিশাল ভূমিকা পালন করেন।

সেলিব্রিটি ও মহান নেতাদের মধ্যে এমন অনেক উদাহরণ আছে যারা প্রকাশ্যে স্বীকার করেছেন যে তাদের জীবনসঙ্গী তাদের সাফল্যে প্রধান ভূমিকা পালন করেছে।

২০১৭ সালে হার্ভার্ডের সূচনা বক্তৃতায় মার্ক জুকারবার্গ জানান, স্ত্রী প্রিসিলা সামাজিক বিভিন্ন কাজে তার সঙ্গে স্বেচ্ছায় কাজ করেন ও তাকে সব সময় অনুপ্রাণিত করেন। তার জীবনের সফলতার পেছনে বিরাট অবদান আছে স্ত্রীর বলেও জানান সবাইকে।

সূত্র: ব্রাইট সাইড


আরও খবর



সংকট থেকে মানুষের দৃষ্টি সরাতে ভোলার হত্যাকাণ্ড: ফখরুল

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ১৩জন দেখেছেন
Image

দেশের চলমান সংকট থেকে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি অন্যদিকে সরাতে ভোলায় পুলিশের মাধ্যমে হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (৩ আগস্ট) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ দাবি করেন। বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিদ্যুৎ-জ্বালানি ও সারসহ ভয়াবহ আর্থিক সংকটকে ধামাচাপা দিতে এ হত্যাকাণ্ড।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল দাবি করেন, ৩১ জুলাই ভোলায় আব্দুর রহিম এবং আহত নুরে আলমের আজকে মৃত্যু এ দুটি ঘটনাই সুপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

তিনি বলেন, বিরোধীদলের গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে স্তব্ধ করে দিতেই বিএনপির দুজন বলিষ্ঠ নেতাকে হত্যা করা হলো। জনস্বার্থে বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে এ ধরনের বর্বরোচিত হামলা বিশ্ব বিবেককে নাড়া দিয়েছে।

জনগণের প্রতিবাদ-বিক্ষোভে দিশেহারা হয়ে মানুষ হত্যার মতো সিদ্ধান্ত নিয়ে সরকার পুরো দেশে এক ভয়ের সংস্কৃতি চালু করেছে বলে মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ভোট ডাকাতির মাধ্যমে আওয়ামী সরকার রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে এক ভয়ঙ্কর দুঃশাসন প্রতিষ্ঠা করেছে। মানুষের কথা বলা, মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে হরণ করে এক নির্বাক রাষ্ট্র সমাজ গঠনের আয়োজন করেছে। এর দায়-দায়িত্ব সম্পূর্ণভাবে সরকারকেই বহন করতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ভোলায় বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গুলি করে হত্যা সরকারের এক অশুভ পরিকল্পনার অংশ।

এদিকে বিবৃতিতে ভোলা জেলা জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমের মৃত্যুর ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম।

৩১ জুলাই বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম নিহত হন। এ ঘটনায় আহত জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলম বুধবার (৩ আগস্ট) ঢাকার গ্রিনরোড কমফোর্ট হাসপাতালে মারা যান।


আরও খবর



সংকটের সমাধান হবে রাজপথে: দুদু

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Sunday ৩১ July ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

দেশের চলমান রাজনৈতিক সংকটসহ সব সমস্যার সমাধান রাজপথে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

তিনি বলেছেন, এই দেশ, এই ভূমি, এই দেশের মানুষ সব সময় গণতন্ত্রের পক্ষে। সুতরাং রাজপথে আন্দোলন হবে না এমনটা ভাবার কোনো সুযোগ নেই।

শুক্রবার (২২ জুলাই) দুপুরে বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদের কনফারেন্স রুমে এক স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাকা কলেজের সাবেক জিএস ও বিএনপির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খানের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এ স্মরণসভার আয়োজন করে অপরাজেয় বাংলাদেশ নামের একটি সংগঠন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, আব্দুল আউয়াল খান ছিলেন একজন ধর্মপ্রাণ জাতীয়তাবাদী নেতা। তিনি আসলে আমাদের ছেড়ে যাননি। তিনি আমাদের মাঝে ছিলেন, আছেন এবং থাকবেন। তবে সেটি সশরীরে না হলেও কর্মগুণে। আল্লাহ তায়ালা তাকে জান্নাত নসিব করুন এ দোয়া করি।

তিনি বলেন, দেশের যে সংকট সেটা আমরা ফয়সালা করবো রাজপথে। এটাই আমাদের লক্ষ্য। আমাদের নেতা এরইমধ্যে সে ঘোষণা দিয়েছেন। এরশাদের পতন হয়েছিলো রাস্তায়। শ্রীলঙ্কার পরিবর্তন হলো রাস্তায়। দেশের অনেক ইস্যুর সমাধান হয়েছে রাস্তায়। দেশে এখন সংসদ নেই, সঙ রয়েছে।

দুদু বলেন, আওয়ামী লীগ জানে তাদের ক্ষমতা ছাড়তে হবে। তারা এখন পতনের দ্বারপ্রান্তে। ক্ষমতা এমন জিনিস যা সহজে কেউ ছাড়তে চায় না। কারণ, এখানে থেকে অনায়াসে আরাম-আয়েশ ও লাগামহীন দুর্নীতি করা যায়।

তিনি আরও বলেন, রাজপথে আন্দোলন হবে না এমনটা ভাবার কোনো কারণ নেই। কারণ, শ্রীলঙ্কার পরিবর্তন কিন্তু রাজপথের বিপ্লবের মাধ্যমে হয়েছে। এই মাটি, এই দেশ সবসময় গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার পক্ষে। যদি কেউ ভাবেন যে মানুষ সব সময় একইরকম থাকবে তাহলে তা ভুল সিদ্ধান্ত।

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ বলেন, আওয়ামী লীগ দেড়যুগ ধরে জোর করে দেশ শাসন করছে। তারা দেশকে বহু পেছনে ঠেলে দিয়েছে। রাজনৈতিক সংস্কৃতি ধ্বংস করে দিয়েছে। এখন দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নাজুক। তারা হাতিরঝিলে শতভাগ বিদ্যুতায়নের দেশ উপলক্ষে উৎসব করেছে। এখন সেই আওয়ামী লীগই কেন এলাকাভিত্তিক রুটিনমাফিক লোডশেডিং করছে? কারণ, তারা কুইক রেন্টালের নামে নিজেদের দলীয় লোকদের অবাধে লুটের সুযোগ দিয়েছে। দুই বছর পর শুরু হবে বিদেশি ঋণের কিস্তি পরিশোধ। তখন দেশের পরিস্থিতি কী হবে?

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- তাঁতীদলের কাজী মনিরুজ্জামান মনির, জিয়া নাগরিক ফোরামের মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, কৃষক দলের রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি একেএম ওয়াজেদ আলী ও সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন সিরাজী প্রমুখ।


আরও খবর



জ্বালানি সাশ্রয়ী আইসিটি অবকাঠামো তৈরিতে হুয়াওয়ের নতুন সল্যুশন

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Sunday ৩১ July ২০২২ | ১০জন দেখেছেন
Image

হুয়াওয়ে আয়োজিত ‘উইন-উইন হুয়াওয়ে ইনোভেশন উইক’ শীর্ষক চলমান এক অনলাইন অনুষ্ঠানে গ্রিন ডেভেলপমেন্ট সল্যুশনের নতুন একটি স্যুট উন্মোচন করেছে হুয়াওয়ের ক্যারিয়ার বিজনেস গ্রুপের চিফ মার্কেটিং অফিসার ফিলিপ সং।

আইসিটি অবকাঠামো ফাইভজি ও এফফাইভজি থেকে ৫.৫জি ও এফ৫.৫জি, গ্রিন নেটওয়ার্কের দিকে যাচ্ছে। নেটওয়ার্ক কার্বন ইনটেনসিটি (এনসিআইই) ইনডেক্সের বিপরীতে নেটওয়ার্ক পর্যালোচনা করা হচ্ছে এবং ভবিষ্যতের টার্গেট নেটওয়ার্কের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হবে এই ইনডেক্স।

এমতাবস্থায়, এই সল্যুশনের লক্ষ্য নেটওয়ার্কের জ্বালানির কার্যকারিতা উন্নয়নে অপারেটরদের পদ্ধতিগতভাবে সহায়তা করা, যা অপারেটরের গ্রিন নেটওয়ার্ক গড়ে তুলতে এবং একইসঙ্গে ট্র্যাফিকের প্রবৃদ্ধির বিষয় শনাক্ত করতে ও কার্বন নিঃসরণ হ্রাসে ভূমিকা রাখবে।

সং -এর মতে, তিনটি পর্যায়ে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন প্রয়োজন।
১. সাইটগুলোকে আউটডোরে নিয়ে যাওয়া, ইক্যুইপমেন্ট এনার্জি অ্যাফিশিয়েন্সি ও পুনঃনবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহারের কার্যকারিতা বাড়ানো।
২. সর্বোচ্চ জ্বালানি কার্যকারিতা নিশ্চিত করা এবং নেটওয়ার্ককে অল-অপটিক্যাল, সিমপ্লিফায়েড ও ইনটেলিজেন্ট করা।
৩. সহজে গ্রিন ওঅ্যান্ডএম ও নিউ ওঅ্যান্ডএম অর্জন করা। একই সঙ্গে জ্বালানি-সাশ্রয়ী নীতিমালা তৈরি।

সং এই তিন পর্যায়ে হুয়াওয়ের উদ্ভাবনী গ্রিন ডেভেলপমেন্ট সল্যুশন ও এনসিআই ইইন্ডিকেটর সিস্টেম উন্মোচন করেন। যা গ্রিন সাইট, গ্রিন নেটওয়ার্ক ও গ্রিন অপারেশন এ তিনটি পর্যায়কে সমর্থন করবে।

বক্তব্যের শেষে সং এভারগ্রিন ল্যান্ড এনগেজমেন্ট রুম চালুর ঘোষণা দেয়। এই রুমে হুয়াওয়ে গ্রিন ডেভেলপমেন্ট এবং কীভাবে জ্বালানি-সাশ্রয়ী আইসিটি অবকাঠামো নির্মাণ করা যায় তা নিয়ে বৈশ্বিক অপারেটরদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করবে।

তিনি বলেন, ‘আইসিটি অবকাঠামোর জ্বালানি সাশ্রয়ী সক্ষমতা উন্নয়নে গ্রিন আইসিটি প্রযুক্তি ব্যবহার করে নতুন ভ্যালু তৈরিতে অপারেটরদের সঙ্গে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হুয়াওয়ে।’

সাইট লেয়ারে এসব সল্যুশন তিনটি ক্ষেত্রে উদ্ভাবনে জোর দিবে। যার মধ্যে রয়েছে-সম্পূর্ণভাবে আউটডোর ডেপ্লয়মেন্ট, এই সল্যুশনের মাধ্যমে ব্লেড পাওয়ার মডিউল নিয়ে কাজ করা হচ্ছে, একটি সাইটের মধ্যেই যা টুজি, থ্রিজি, ফোরজি ও ফাইভজি সমর্থন করে। এ সল্যুশনে ৯৭ শতাংশ সাইট এনার্জি অ্যাফিশিয়েন্সির (এসইই) সক্ষমতা রয়েছে।


আরও খবর



বাকৃবি লেকচারার অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর’স ফোরামের নতুন কমিটি

প্রকাশিত:Monday ০১ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষকদের সংগঠন লেকচারার অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর’স ফোরামের নতুন কমিটি গঠিত হয়েছে। কমিটিতে ফিজিওলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক খালেদ মাহমুদ সুজন সভাপতি ও ফসল উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. আশিক মিয়া সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন।

রোববার (৩১ জুলাই) সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়।

নবগঠিত কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আনজুয়ারা খাতুন সহ-সভাপতি, পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বিপুল চন্দ্র রায় কোষাধ্যক্ষ, ফিশারিজ টেকনোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মোবারক হোসেন যুগ্ম-সম্পাদক, কৃষি ও ফলিত পরিসংখ্যান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফজলে এলাহি সাংগঠনিক সম্পাদক, মাইক্রোবায়োলজি অ্যান্ড হাইজিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাদিয়া আফরিন পুনম তথ্য-প্রযুক্তি ও প্রচার সম্পাদক, কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শিরিন আক্তার শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, কৃষি ব্যবসা ও বিপণন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ইসরাত জাহান মাহফুজা সাংস্কৃতিক সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন।

এছাড়া সদস্যরা হলেন- সেচ ও পানি ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তানভীর আহমেদ, একোয়াকালচার বিভাগ সহকারী অধ্যাপক, মো. ফজলে রোহানী, কৃষি অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আর এ জুইস, পশু প্রজনন ও কৌলিবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. রফিকুল ইসলাম, সার্জারি ও অবস্টেট্রিক্স বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাজমুন নাহার, কীটতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তারিকুল ইসলাম, কৃষিতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সুরাইয়া পারভিন, কৃষি অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফারজানা ইয়াসমিন নিঝুম, পশু পুষ্টি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল সুফিয়ান শুভ।


আরও খবর



তুর্কি থেকে গ্রিসে যাওয়ার পথে সাবেক ইউপি সদস্য নিহত

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image

তুর্কি থেকে গ্রিসে যাওয়ার সময় সড়ক দুর্ঘটনায় কাওছার উদ্দিন নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। গ্রিসের আলেকজান্দ্রোপলি দিয়ে প্রাইভেটকারে অবৈধ অভিবাসী পরিবহনের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গত ২১ জুলাই (বৃহস্পতিবার) গ্রিসের অ্যারিস্টিনো-আন্থিয়া প্রাদেশিক সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত কাওছার সিলেটের সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুরের রাণীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক সদস্য বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় আহত আরও দুই বাংলাদেশি পুলিশি হেফাজতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

jagonews24

জানা যায়, অবৈধভাবে চার বাংলাদেশিকে নিয়ে যাওয়ার সময় অ্যারিস্টিনো-আন্থিয়া প্রাদেশিক সড়কে দুর্ঘটনাকবলিত হয় গাড়িটি। দ্রুত গতির প্রাইভেটকারেটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মুহূর্তেই সড়ক থেকে ছিঁটকে পাশের একটি খালে পড়ে পানিতে ডুবে যায়। এর ফলে গাড়িতে থাকা এক যাত্রী মারাত্মকভাবে আহত হন। এছাড়া চালক ও বাকি তিন যাত্রীও এ সময় আহত হন।

পরে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে আহতদের আলেকজান্দ্রোপলির জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে পুলিশ আহত বাকি অভিবাসীদের গ্রেফতার দেখিয়েছে। এদের মধ্যে গাড়িচালককে মানবপাচারকারী হিসেবে গ্রেফতার করেছে দেশটির পুলিশ।

jagonews24

দুর্ঘটনার দিন (২১ জুলাই) থেকে নিখোঁজ ছিলেন কাওছার উদ্দিন। পরে ওই দুর্ঘটনার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে কাওছারের মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হন স্বজনরা।

এ ব্যাপারে গ্রিসের এথেন্সে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে যোগাযোগ করা হলে কাওছারের নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) বিশ্বজিত কুমার পাল।

তিনি বলেন, পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে মরদেহ দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।


আরও খবর