Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে দেওয়ার অভিযোগে স্ত্রী আটক

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

ফরিদপুরের মধুখালীতে স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে দেওয়ার অভিযোগ এক নারীকে আটক করেছে পুলিশ। গুরুতর আহত ওই ব্যক্তিকে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (বিএসএমএমসি) ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) রাত পৌনে ১১টার দিকে উপজেলার পৌরসদরের চার নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম গাড়াখোলা মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ব্যক্তির নাম রাসেল বিশ্বাস (৫৫)। তিনি পৌরসভার গাড়াখোলা মহল্লার মৃত আ. সাত্তার বিশ্বাসের ছেলে। পেশায় একজন ইলেকট্রিশিয়ান।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, অভাবের কারণে আগের দুই স্ত্রী রাসেল বিশ্বাসকে ত্যাগ করেন। এরপর তিনি তার চেয়ে বয়সে পাঁচ বছর বড় একই উপজেলার কামালদিয়া গ্রামের টুটু খাতুনকে (৬০) বিয়ে করেন। তারা নিঃসন্তান দম্পতি ছিলেন।

রাসেলের ছোট ভাই তোফাজ্জেল বিশ্বাস তোতা (৪০) জাগো নিউজকে বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে তার ভাইয়ের ঘর থেকে চিৎকার ও গোঙানোর আওয়াজ পেয়ে তিনি ছুটে যান। পরে দেখেন তার ভাইয়ের গোপনাঙ্গ থেকে রক্ত বের হচ্ছে। এরপর তারা স্থানীয় কাউন্সিলরকে খবর দেন।

মধুখালী পৌরসভার চার নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিসুর রহমান লিটন জাগো নিউজকে বলেন, খবর পেয়ে রাত ২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত রাসেলকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করি। তিনি আরও বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে টুটু খাতুন স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে ফেলার কথা স্বীকার করেন। কারণ হিসেবে তিনি স্বামীর শারীরিক অসুস্থতার কথা বলেছেন। পরে পুলিশের কাছে তাকে সোপর্দ করা হয়।

এ বিষয়ে মধুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, অভিযুক্ত নারীকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত বিষয় প্রক্রিয়াধীন।


আরও খবর



বার্সেলোনায় ৮-২’র কথা কেউ মনে রাখেনি: লেওয়ানডস্কি

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

২০২০ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে নিজেদের ইতিহাসের অন্যতম বিব্রতকর পরাজয়ের সম্মুখীন হয়েছিল স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখের কাছে তারা হেরেছিল ৮-২ গোলের বড় ব্যবধানে। যা নিয়ে এখনও টিপ্পনী শুনতে হয় ক্লাবটিকে।

তবে বার্সেলোনার খেলোয়াড় বা দলের অন্যান্য সদস্যদের কেউই সেই ৮-২’র কথা মনে রাখেনি বলে জানালেন রবার্ট লেওয়ানডস্কি। যিনি বায়ার্ন মিউনিখ থেকেই এবার যোগ দিয়েছেন বার্সেলোনায়। বার্সাকে ৮-২ গোলে হারানো সেই ম্যাচে লেওয়ানডস্কিও করেছিলেন একটি গোল।

সেবারই প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোনো ম্যাচে পাঁচ বা তার বেশি গোল হজম করেছিল স্প্যানিশ জায়ান্টরা। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সেটি এখন বার্সার অতীত হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন লেওয়ানডস্কি। অতীতকে না টেনে দলকে সামনের দিকে এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয় তার কণ্ঠেও।

সংবাদমাধ্যমে এ পোলিশ তারকা বলেছেন, ‘আপনি অতীতে কী করেছেন, সেটি ফুটবল নয়। আপনি বর্তমানে কী করছেন সেটিই আসল। রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে চার গোল করেছি অনেক আগে। তারাও সেটি ভুলে এগিয়ে গেছে। বার্সেলোনাও অভিন্ন। এখানে কেউই সেই কথা (৮-২) মনে রাখেনি।’

বায়ার্নে থাকতে পেপ গার্দিওলার অধীনে খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন লেওয়ানডস্কি। এবার বার্সায় এসে তিনি কোচ হিসেবে পাচ্ছেন জাভি হার্নান্দেজকে। দুজনের খেলানোর ধরনের মধ্যে মিল থাকায় নতুন ঠিকানায় মানিয়ে নিতে তেমন সমস্যা হচ্ছে না সময়ের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকারের।

তার ভাষ্য, ‘বার্সার খেলার ধরন বোঝা আমার জন্য বেশ সহজ। কারণ একই সিস্টেমে পেপ গার্দিওলার সঙ্গে অনেকদিন কাজ করেছি আমি। তারা দুজনই ট্যাক্টিক্যাল দিক থেকে অনেক সমৃদ্ধ কোচ। এখন সে (জাভি) আমার কাছে কী চায়, তা বুঝতে কোনো সমস্যা হয় না আমার।’

বার্সার হয়ে শিরোপা জেতার লক্ষ্যের কথা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘একদম শুরু থেকেই আমার অনেক ভালো লাগছে। সবাই দারুণভাবে স্বাগত জানিয়েছে। আমি এখানে শিরোপা জিততে এসেছি, বিশেষ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। যা খুব স্পেশাল। তবে আমাদের ধাপে ধাপে এগোতে হবে।’


আরও খবর



দেশ ক্রমেই উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে: হানিফ

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে দেশ ক্রমেই উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল আত্মমর্যাদাশীল একটি দেশ। তা পূরণ করার আগেই একাত্তরের পরাজিত শত্রুরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছে। জিয়াউর রহমানও এই ষড়যন্ত্রে সম্পৃক্ত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) কক্সবাজারের উখিয়া বহুমুখী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে হানিফ এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমাদের দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। দেশে খাদ্যের কোনো অভাব নেই। দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ ক্রমেই উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। শত বাধার মুখেও পদ্মা সেতু হয়ে গেছে। দেশের উন্নয়ন বিএনপি দেখতে পান না।

দলকে শক্তিশালী করতে ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সম্পাদক বলেন, বর্তমান সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে। এজন্য দলকে শক্তিশালী করতে সব ভেদাভেদ ভুলে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

হানিফ বলেন, স্বাধীনতার ঘোষণা নিয়ে অনেকে অনেক সময় বিতর্কের চেষ্টা করেছে। বঙ্গবন্ধুর পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা পাঠকারি হিসেবে জিয়াউর রহমান ছিলেন চতুর্থ নম্বর। জিয়াউর রহমান রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী সব কমর্কাণ্ড করে গেছেন। ১৯৭১ সালের রাজাকার, আল-বদর, জামায়াতে ইসলামীকে রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়েছিল বিএনপি।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বলীয়ান একটি সংগঠন। বিভিন্ন চড়াই-উতরাই পার করে আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের পাশে থেকেছে। বিভিন্ন সময় ষড়যন্ত্র করেও আওয়ামী লীগকে দমানো যায়নি, যাবেও না।

দীর্ঘ সাত বছর পর উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করে হানিফ বলেন, উখিয়া একটি ঐতিহ্যবাহী উপজেলা। দলকে এগিয়ে নিতে উখিয়া উপজেলা বরাবরই উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে। ভবিষ্যতেও রাখবে। তবে, গত ২০ বছরে এত কম, ছোট্ট পরিসরে ও স্বল্প সংখ্যক উপস্থিতি নিয়ে উখিয়া আওয়ামী লীগের সম্মেলন আর দেখিনি। মনে রাখতে হবে- আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ব্যবস্থাকে অধিকতর গণতান্ত্রিক ও আধুনিক করার লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ কাজ করছে।


আরও খবর



চবির ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে শাবিপ্রবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৩ August ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীরা। রোববার (২৪ জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সাত্বিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে নৃবিজ্ঞান বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী সজল কুণ্ড, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের সামিরা ফারজানা, মেহরাব সাদাত, গণিত বিভাগের ওমর ফারুক ও রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী আসাদুল্লাহ আল গালিব বক্তব্য রাখেন।

এসময় শিক্ষার্থীরা বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান আন্দোলনে শিক্ষার্থীদের চার দফা দাবির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করছি। অবিলম্বে এ চার দফা দাবি মেনে নিতে হবে। অপরাধের সুষ্ঠু বিচার না হওয়ায় দেশে নৈরাজ্য বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা বারবার হেনস্থার শিকার হচ্ছেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনো জোরালো পদক্ষেপ নেওয়া হয় না। এতে অপরাধ প্রবণতা আরও বেড়ে যাচ্ছে।

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, প্রায় প্রতিটি ক্যাম্পাসে যৌন নিপীড়ন সেল থাকে। তবে সেগুলো নামমাত্র। যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে তাদের কোনো কার্যকর পদক্ষেপ দেখা করা যায় না। এ অকার্যকর সেলগুলোকে ভেঙে নতুন করে গঠন করতে হবে। যৌন হয়রানির সঙ্গে সম্পৃক্ত অপরাধীদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

গত ১৭ জুলাই রাতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একজন ছাত্রী ও তার বন্ধুকে কয়েকজন মিলে মারধর করে। এরপর জোরপূর্বক বোটানিক্যাল গার্ডেনের ভেতর নিয়ে ছাত্রীকে উলঙ্গ করে ভিডিও ধারণ করে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে এভাবে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে ২০ জুলাই থেকে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা চার দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করে।


আরও খবর



বাংলাদেশের জয় নিয়ে একটি লেখা পড়েই বদলে যায় রাজার ভাবনা

প্রকাশিত:Saturday ০৬ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

ইনিংসের মাঝপথে চোটে কাবু মনে হচ্ছিল। কিন্তু বারবার শুশ্রুষা নিয়ে ব্যাটিংটা চালিয়ে গেলেন সিকান্দার রাজা। জিম্বাবুইয়ান এই ব্যাটার দলকে জিতিয়েই তবে থামলেন। খেললেন ১৩৫ রানের হার না মানা ইনিংস।

দীর্ঘ ৯ বছর আর ১৯ ম্যাচ পর ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে হারানোর সুযোগটা কিছুতেই হাতছাড়া করতে চাননি রাজা। জানালেন, ম্যাচের আগে একটি আর্টিকেল (লেখা) পড়েই ভাবনা বদলে গিয়েছিল। মনে মনে পণ করেছিলেন, এবার জিততেই হবে।

রাজা বলেন, ‘আপনারা জানেন, আমি এমন একজন মানুষ যে কিনা পরিসংখ্যান দেখতে পছন্দ করি। গতকাল একটি পরিসংখ্যান চোখে পড়ে। আমি একটি আর্টিকেল পড়ছিলাম, যেখানে বলা হয়েছে সম্ভবত বাংলাদেশের বিপক্ষে আমরা ২০ ম্যাচ (প্রকৃতপক্ষে ১৯ ম্যাচ) জয় পাইনি। আমি এটা দেখলাম। মনে হচ্ছিল যদি ম্যাচটা জিততে পারি দারুণ হবে।’

৩০৪ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করে জিততে পারবেন, ইনিংস বিরতির সময়ও কি এমনটা ভেবেছিলেন? রাজা জানালেন, তার বিশ্বাস ছিল ৩ ওভার হাতে রেখেই জিততে পারবেন।

জিম্বাবুইয়ান এই অলরাউন্ডার বলেন, ‘আমরা চেঞ্জিং রুমে একসাথে হলাম। ব্যাটারদের একসঙ্গে দাঁড় করিয়ে বললাম, ইনশাআল্লাহ আমরা এই ম্যাচটা তিন ওভার রেখেই জিতব।’


আরও খবর



তীব্র গরমে নারীদের ঝুঁকি বেশি: গবেষণা

প্রকাশিত:Wednesday ২০ July ২০22 | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৫৬জন দেখেছেন
Image

তীব্র দাবদাহে পুরুষদের তুলনায় নারীদের ঝুঁকি বেশি বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সম্প্রতি ইংল্যান্ডের দাবদাহ মোকাবিলা পরিকল্পনায় ৭৫ বছর বয়সোর্ধ্ব, শিশু, কিশোর-কিশোরী, শারীরিক ও মানসিকভাবে গুরুতর অসুস্থ এবং নারীদের উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

অবশ্য কী কারণে নারীদের বেশি ঝুঁকিপূর্ণ বলা হয়েছে, তা ব্যাখ্যা করা হয়নি ওই নথিতে। তবে এ বিষয়ে নেদারল্যান্ডসে সাম্প্রতিক এক গবেষণার দিকে ইঙ্গিত করেছে যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা সংস্থা। ওই গবেষণায় একাধিক দাবদাহ ও সেসময় মৃত্যুর তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এ ধরনের বিরূপ আবহাওয়ায় পুরুষদের চেয়ে বয়স্ক নারীরাই বেশি ঝুঁকিতে থাকেন।

তবে শুধু বয়সই এর একমাত্র কারণ নয়। ২০০৩ সালে ফ্রান্সে দাবদাহের তথ্য বিশ্লেষ করে গবেষকরা জানান, যখন সমান বয়স বিবেচনা করা হয়, তখনও নারীদের মৃত্যুহার ১৫ শতাংশ বেশি ছিল।

ডাচ ও জার্মান গবেষকদের আরেকটি গবেষণায় নেদারল্যান্ডসে ২৩ বছরের তাপমাত্রার তথ্য ও মৃত্যুর সংখ্যা বিশ্লেষণ করা হয়। এতেও লিঙ্গভিত্তিক ঝুঁকির পার্থক্য উঠে আসে। গবেষকদের জানান, তাপ-সম্পর্কিত মৃত্যুহার পুরুষদের তুলনায় নারীদের মধ্যে বেশি ছিল, বিশেষ করে সবচেয়ে বয়স্ক গ্রুপে (৮০ বছর বয়সোর্ধ্ব)।


আরও খবর