Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

সরকারি পাঠ্যপুস্তক সময় মত শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছে মহানগরী পাঠ্যপুস্তক বাধাই শ্রমিক ইউনিয়ন

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১২৯জন দেখেছেন
Image

বজলুর রহমানঃ

নতুন বছরের শুরুতে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের হাতে সরকারি পাঠ্যপুস্তক পৌঁছে দিতে অঙ্গীকার করেছেন প্রধানমন্ত্রী।


বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার বাস্তবায়নে বছরের প্রথম দিন শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিতে বদ্ধপরিকর  মহানগরী পুস্তক বাধাই শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্যরা। 


সরেজমিনে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানা এলাকার মাতুয়াইল দক্ষিণপাড়ায় বিভিন্ন পুস্তক বাধাই কারখানাগুলোতে ঘুরে দেখা গেছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। পাঠ্য পুস্তক বাঁধাইয়ের কাজ আসার আগেই চলছে জোড় প্রস্ততি।


বছরের প্রথম দিনেই, শিক্ষার্থীদের হাতে বই পৌঁছে দিতে আশাবাদী, মহানগরী পাঠ্যপুস্তক বাধাই শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজু লাল রাউত।


রাজু লাল রাউত সংবাদকর্মীদের জানায় নতুন বছরের পাঠ্যপুস্তক পেতে শিক্ষার্থীদের যাতে বিলম্ব না হয় সেই বিষয়টি খেয়াল রেখেই বাঁধাইয়ের কাজের প্রস্ততি চলছে। মাতুয়াইল দক্ষিণ পাড়ার বেশকিছু কারখানায় আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছে  পুস্তক বাধাই শ্রমিকেরা।


মহানগরী পাঠ্যপুস্তক বাধাই শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিস্ট্রেশন নম্বর ৩৫০৯ বাংলাদেশ শ্রম পরিদপ্তর থেকে নিবন্ধিত একটি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাজু লাল রাউত একজন পরিশ্রমী কর্মবীর মানুষ। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগেরও একজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মী ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতিকে মনে প্রানে লালন করেন তিনি।


সময় মত সরকারি পাঠ্যপুস্তক বিতরণে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন রাজু লাল রাউত।


শ্রমিকদের কাজের গতি চাঙ্গা রাখতে প্রতিটি কারখানায় ঘুরে ঘুরে কাজের প্রতি উৎসাহিত করছেন তিনি।


বর্তমানে যেভাবে পাঠ্যপুস্তক বাধাই কার্যক্রমের প্রস্তুতি চলেছে সেভাবে কাজ বাস্তবায়ন হলে সময় মত শিক্ষার্থীরা বছরের শুরুতেই নতুন বই হাতে পাবেন এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না।


আরও খবর



১০৫ কিমি গতিতে বাইক চালাচ্ছিলেন পদ্মা সেতুতে নিহত ২ ‍যুবক

প্রকাশিত:Monday ২৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৩২জন দেখেছেন
Image

পদ্মা সেতুতে যান চলাচল শুরুর দিনে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন দুই যুবক। তাদের একজন মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন, অন্যজন পেছনে বসে ভিডিও করছিলেন। ওই সময় তাদের মোটরসাইকেলের গতি ছিল ঘণ্টায় প্রায় ১০৫ কিলোমিটার। হঠাৎ একটি ট্রাকের সামনে ডানে গিয়ে মোটরসাইকেলের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাকের সামনে পড়ে যান।

এতে গুরুতর আহত হন চালক ও আরোহী। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে আনা হয়। রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতরা হলেন- মো. আলমগীর হোসেন (২২) ও মো. ফজলু (২১)। তারা ঢাকার দোহার-নবাবগগঞ্জের বাসিন্দা। নিহত আলমগীর মোটরসাইকেল মেরামতের কাজ করতেন। আর ফজলু প্রবাসী। একমাস আগে তিনি দেশে এসেছেন।

jagonews24

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা। ছবি: সংগৃহীত

দুর্ঘটনার পর আলমগীর ও ফজলুকে যারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে এনেছিলেন, তাদের একজন জয়দেব রায়। তিনি বলেন, ‘ছয়জন বন্ধু মিলে তিনটি মোটরসাইকেলে পদ্মা সেতু দেখতে গিয়েছিলাম। সেতুর জাজিরা প্রান্ত ঘুরে ফেরার সময় মাওয়া প্রান্তে দুর্ঘটনার শিকার হয় আলমগীর ও ফজলু।’

এদিকে, দুর্ঘটনার আগে মোটরসাইকেল থেকে ভিডিও করছিলেন পেছনে বসা মো. ফজলু। জাগো নিউজের হাতে আসা ভিডিওতে দেখা যায়, অতিরিক্ত গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে সব গাড়িকে ওভারটেক করেন তারা। সেতুর ওপর ৬০ কিলোমিটার বেগে মোটরসাইকেল চালানোর নির্দেশনা থাকলেও তারা তা ভঙ্গ করে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন।

এরপর ধীরে ধীরে মোটরসাইকেলের গতি ৯০, ৯৫, ১০০ থেকে ১০৫ পর্যন্ত উঠতে দেখা যায়। কিছু সময় পর সেই গতি কমে নেমে আসে ৭০-এ। এরপরই হঠাৎ ডানে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি ট্রাকের সামনে গিয়ে পড়ে।

অন্যদিকে সোমবার ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করেছে সরকার। রোববার (২৬ জুন) রাতে এ সংক্রান্ত একটি নোটিশ জারি করেছে সেতু বিভাগ।

তথ্য অধিদপ্তরের এক তথ্য বিবরণীতে সেতু বিভাগের এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়।

রোববার ভোর থেকেই সব ধরনের যানবাহনের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে পদ্মা সেতু। এরপর থেকে অনেকেই মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকার নিয়ে সেতু পার হচ্ছেন। সেই সঙ্গে ট্রাক, বাসসহ বিভিন্ন ধরনের যান চলাচল করছে সেতু দিয়ে। তবে মোটরসাইকেলের উপস্থিতি দেখা গেছে সবচেয়ে বেশি।

সেতু ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রথমদিন দুপুর পর্যন্ত যেসব গাড়ি সেতু পার হয়েছে, তার মধ্যে ৬০ শতাংশ ছিল মোটরসাইকেল।

দক্ষিণবঙ্গের ২১ জেলার স্বপ্নের দুয়ার খুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (২৫ জুন) উদ্বোধন হয়েছে পদ্মা সেতুর। ওইদিন প্রথম যাত্রী হিসেবে টোল দিয়ে পদ্মা সেতু পাড়ি দেন প্রধানমন্ত্রী। বেলা ১১টা ৪৮ মিনিটে পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে প্রধানমন্ত্রী নিজ হাতে টোল দেন।

এরপর তার গাড়িবহর সেতু উদ্বোধনের জন্য ফলকের স্থানে যায়। প্রধানমন্ত্রীসহ অতিথিরা গাড়ি থেকে নামেন। সেখানে প্রথমে মোনাজাত করা হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম মোনাজাত পরিচালনা করেন।

পরে দুপুর ১২টার একটু আগে সুইচ টিপে সেতুর ফলক উন্মোচন করেন তিনি। এর মাধ্যমেই খুলে যায় দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে ঢাকার যোগাযোগের সড়ক পথের দ্বার।


আরও খবর



ঢাবির ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আজ, আসনপ্রতি লড়বেন ৩৩ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আজ। গত বছরের মতো এবারও দেশের আট বিভাগে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে একযোগে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে৷

শুক্রবার (৩ জুন) বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়ে দেড় ঘণ্টার এ পরীক্ষা চলবে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত।

এবারও ঢাকা বিভাগের পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র থাকছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে৷ পরীক্ষা শুরুর পরপরই বেলা সোয়া ১১টায় ক্যাম্পাসের বাণিজ্য অনুষদ ভবনে পরীক্ষাকেন্দ্র পরিদর্শন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান৷

ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষার মধ্য দিয়েই শুরু হচ্ছে এবারের ভর্তিযুদ্ধ। এ বছর ইউনিটটিতে ৯৩০টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ৩০ হাজার ৭০৪ জন ভর্তিচ্ছু৷ সে হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়ছেন ৩৩ জন শিক্ষার্থী৷ গত বছর আসনপ্রতি গড়ে পরীক্ষার্থী ছিল ২১ জন।

গত বছরের মতো এবারও ‘গ’ ইউনিটে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষায় ৬০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। এমসিকিউ পরীক্ষা ৪৫ মিনিট আর লিখিত পরীক্ষা হবে ৪৫ মিনিট। এ পরীক্ষায় প্রাপ্ত ফলাফলের সঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের ফলাফলের (জিপিএ) ওপর ২০ নম্বর যোগ করে মেধাতালিকা প্রস্তুত করা হবে।

আগামীকাল শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিট, ১০ জুন বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিট, ১১ জুন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিট আর ১৭ জুন চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে৷ ‘চ’ ইউনিট ছাড়া অন্য সব পরীক্ষা হবে বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত৷ তবে ‘চ’ ইউনিটে চারুকলার সাধারণ জ্ঞান পরীক্ষাটি হবে বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত৷

এ বছর ঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আবেদন করেছেন ২ লাখ ৯০ হাজার ৩৪০ শিক্ষার্থী। যেখানে মোট আসন সংখ্যা ৬ হাজার ৩৫টি। এর মধ্যে ‘ক’ ইউনিটের ১ হাজার ৮৫১ আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ১ লাখ ১৫ হাজার ৭১০ জন। এছাড়া ‘খ’ ইউনিটের ১ হাজার ৭৮৮ আসনের বিপরীতে ৫৮ হাজার ৫৫১ জন, ‘গ’ ইউনিটে ৯৩০ আসনের বিপরীতে ৩০ হাজার ৬৯৩ জন, ‘ঘ’ ইউনিটে ১ হাজার ৩৩৬ আসনের বিপরীতে ৭৮ হাজার ২৯ জন এবং ‘চ’ ইউনিটে ১৩০ আসনের বিপরীতে ৭ হাজার ৩৫৭ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন।


আরও খবর



পরিবেশ সূচকে ১৮০ দেশের মধ্যে ১৭৭তম বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Monday ১৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
Image

পরিবেশগত পারফরম্যান্স সূচকে বিশ্বের ১৮০টি দেশের মধ্যে ১৭৭তম হয়েছে বাংলাদেশ। এ তালিকায় সবার তলানিতে রয়েছে প্রতিবেশী ভারত। আরেক প্রতিবেশী পাকিস্তানের অবস্থান বাংলাদেশের চেয়ে একধাপ ওপরে। সম্প্রতি প্রকাশিত পরিবেশগত পারফরম্যান্স সূচকের (ইপিআই) দ্বিবার্ষিক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এ তথ্য।

বিশ্বের ১৮০টি দেশের পরিবেশগত পারফরম্যান্স তুলনা ও বিশ্লেষণের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে ইপিআই-২০২২। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিভিন্ন দেশের পরিবেশগত পারফরম্যান্সের ওপর নম্বর দিয়ে এই র‌্যাংকিং নির্ধারণ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েল ইউনিভার্সিটি ও কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি। গত এক দশকে এসব দেশের পরিবেশগত অবস্থান কীভাবে পরিবর্তিত হয়েছে, সেই চিত্রও তুলে ধরা হয়েছে এই প্রতিবেদনে।

এবারের র‌্যাংকিংয়ে পরিবেশগত পারফরম্যান্সে সবার শীর্ষে রয়েছে ডেনমার্ক। তাদের ইপিআই স্কোর ৭৭ দশমিক ৯০। গত এক দশকে স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশটির ইপিআই স্কোর বেড়েছে ১৪ দশমিক ৯০। ৭৭ দশমিক ৭০ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাজ্য। এক দশকে তাদের উন্নতি হয়েছে ২৩ পয়েন্ট।

jagonews24

শীর্ষ দশে থাকা বাকি দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে যথাক্রমে ফিনল্যান্ড, মাল্টা, সুইডেন, লুক্সেমবার্গ, স্লোভেনিয়া, অস্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড ও আইসল্যান্ড। তাদের পয়েন্ট ৭৬ দশমিক ৫০, ৭৫ দশমিক ২০, ৭২ দশমিক ৭০, ৭২ দশমিক ৩০, ৬৭ দশমিক ৩০, ৬৬ দশমিক ৫০, ৬৫ দশমিক ৯০ এবং ৬২ দশমিক ৮০।

এছাড়া ফ্রান্স ১২তম, জার্মানি ১৩তম, অস্ট্রেলিয়া ১৭তম, ইতালি ২৩তম, নিউজিল্যান্ড ২৬তম, সংযুক্ত আরব আমিরাত ৩৯তম এবং যুক্তরাষ্ট্র রয়েছে ৪৩তম স্থানে।

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবার ওপরে রয়েছে জাপান। ৫৭ দশমিক ২০ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান ২৫তম। ৫০ দশমিক ৯০ পয়েন্ট নিয়ে ৪৪তম স্থানে সিঙ্গাপুর।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবার ওপরে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান। ৪৩ দশমিক ৬০ পয়েন্ট নিয়ে ব্রাজিল ও জর্ডানের সঙ্গে যৌথভাবে ৮১তম অবস্থানে রয়েছে তারা। গত এক দশকে আফগানিস্তানের পরিবেশগত পয়েন্ট বেড়েছে ২৩ দশমিক ৯০।

এক দশকে ৭ দশমিক ৯০ পয়েন্ট হারিয়ে ৮৫তম স্থানে ঠাঁই পেয়েছে ভুটান। তাদের বর্তমান পয়েন্ট ৪২ দশমিক ৫০। সমুদ্রবেষ্টিত দেশ মালদ্বীপ রয়েছে তালিকার ১১৩তম স্থানে। এছাড়া শ্রীলঙ্কা ১৩২তম, নেপাল ১৬২তম, পাকিস্তান ১৭৬তম, বাংলাদেশ ১৭৭তম এবং ভারত রয়েছে ১৮০তম স্থানে।

jagonews24

পরিবেশগত পারফরম্যান্সে বাংলাদেশের পয়েন্ট ২৩ দশমিক ১০। গত এক দশকে দেশটির পয়েন্ট কমেছে ১ দশমিক ৯০। এক্ষেত্রে পাকিস্তান পেয়েছে ২৪ দশমিক ৬০। এক দশকে তাদের পয়েন্ট বেড়েছে ১ দশমিক ৪০। তবে প্রতিবেশী ভারতের পয়েন্ট ০.৬০ কমে দাঁড়িয়েছে সর্বনিম্ন ১৮ দশমিক ৯০।

বাস্তুতন্ত্রের প্রাণশক্তিতে গত এক দশকে ৪ দশমিক ৪০ পয়েন্ট কমেছে বাংলাদেশের। এ বিষয়ে দেশটির সংগ্রহ ২৯ দশমিক ৪০ পয়েন্ট এবং অবস্থান ১৫৯তম।

বাস্তুতন্ত্র পরিষেবায় গত এক দশকে বাংলাদেশ পয়েন্ট হারিয়েছে ১৮ দশমিক ৭০। এ বিষয়ে তাদের সংগ্রহ ১৪ দশমিক ৯০ পয়েন্ট, অবস্থান ১৫৫তম। ফিশারিজে এক দশকে ১০ পয়েন্ট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৫ দশমিক ১০, অবস্থান ২০তম। অ্যাসিডিফিকেশনে গত এক দশকে ১৪ দশমিক ৭০ পয়েন্ট হারিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ১৬৯তম স্থানে, সংগ্রহ ২৫ দশমিক ৮০ পয়েন্ট।

স্বাস্থ্যে গত এক দশকে বাংলাদেশের পয়েন্ট ২ দশমিক ৬০ বেড়ে হয়েছে ১৮ দশমিক ১০, অবস্থান ১৬৬তম। বাতাসের মানের হিসাবে গত এক দশকে বাংলাদেশের পয়েন্ট বেড়েছে ০.২০। ১৪ দশমিক ৪০ পয়েন্ট নিয়ে এক্ষেত্রে তাদের অবস্থান ১৭৩তম। বিশুদ্ধ পানি পানের ক্ষেত্রে গত এক দেশকে ৫ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বেড়েছে বাংলাদেশের। ২৭ দশমিক ৪০ পয়েন্ট নিয়ে দেশটি এ তালিকায় রয়েছে ১২৯তম স্থানে।

jagonews24

পরিবেশে ভারী ধাতুর উপস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গত এক দশকে বাংলাদেশের পয়েন্ট ৯ দশমিক ৪০ বেড়ে ২২ দশমিক ৮০ হয়েছে, অবস্থান দাঁড়িয়েছে ১৭২তম। বর্জ্য ব্যবস্থাপনায়ও উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশের। এতে গত এক দশকে এক পয়েন্ট বেড়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১০ দশমিক ৫০, অবস্থান ১৬০তম।

জলবায়ু নীতির ক্ষেত্রে কিছুটা অবনতি হয়েছে। এ বিষয়ে গত এক দশকে বাংলাদেশ ১ দশমিক ৬০ পয়েন্ট হারিয়েছে। ১৮ দশমিক ৮০ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান এখন ১৭১তম।


আরও খবর



নিজে স্কুটি চালান, অন্যদেরও প্রশিক্ষণ দেন স্কুলশিক্ষিকা পাপড়ি

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

ভোরে ঘুম থেকে উঠে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই শেষ করেন ঘরের কাজ। এরপর স্কুটিতে করে সন্তানদের নিয়ে যান স্কুলে। সন্তানদের স্কুলে পাঠিয়ে চলে যান নিজের কর্মস্থলে। সেখান থেকে ফিরে মেয়েদের প্রশিক্ষণ দেন স্কুটি চালানোর। এভাবেই ঘরে-বাইরে সব সমানতালে সামলাচ্ছেন পটুয়াখালীর লেডি বাইকার অহিদা পাপড়ি।

jagonews24

পটুয়াখালী শহরের থানা পাড়া এলাকার বাসিন্দা অহিদা পাপড়ি। স্বামী-স্ত্রী দুজনই পেশায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। তবে পাপড়ি তার কর্মজীবনকে সহজ করতে ব্যবহার করছেন স্কুটি।

jagonews24

প্রতিদিন সকালে সংসারের কাজ শেষ করে সন্তানদের স্কুলে নিয়ে যান নিজের স্কুটিতে করে। সেখান থেকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পৌঁছে যান শহরের অদূরে নিজ কর্মস্থলে। সারাদিন ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠদান শেষে বাড়ি ফিরে আবারও বেরিয়ে পড়েন স্কুটি চালাতে আগ্রহী নারীদের প্রশিক্ষণ দিতে।

পাপড়ির কাছ থেকে এরই মধ্যে ২০ জনেরও বেশি নারী প্রশিক্ষণ নিয়ে স্কুটি চালাচ্ছেন।

jagonews24

অহিদা পাপড়ির কাছ থেকে স্কুটি চালানো শিখছেন ফরিদা পারভীন রিপা। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি একজন সিঙ্গেল মাদার। ঘরে-বাইরে সব কাজ আমাকে একাই করতে হয়। প্রতিদিন বিভিন্ন কাজে ৩-৪ বার বাইরে বের হতে হয়। সবসময় রিকশা কিংবা অটোরিকশা পাওয়া যায় না। ভাড়া দিতে গিয়ে অনেক টাকা খরচ হয়। এ কারণে আমি স্কুটি চালানো শিখছি। কিছুদিনের মধ্যে স্কুটি কিনবো।’

স্কুলশিক্ষক শানজিদা এশা বলেন, ‘অনেক সময় রিকশা পাওয়া যায় না। আবার অটোরিকশায় অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করে চড়তে হয়; যেটা মেয়েদের জন্য সেফ না। এ কারণেই আমি স্কুটি চালানোর প্রশিক্ষণ নিচ্ছি।’

jagonews24

চর জৈনকাঠী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ওহিদা পাপড়ি জাগো নিউজকে বলেন, ‘মোটরসাইকেল বা স্কুটি চালাতে পারলে নির্ধারিত সময়ে যেমন সব কাজ শেষ করা যায় তেমনি অর্থও সাশ্রয় হয়। নারীদের জন্য এটি নিরাপদ। আমার এ বাস্তব অভিজ্ঞতার সুবিধাগুলো যাতে অন্য নারীরাও লুফে নিতে পারেন সেজন্য আমি স্কুটি চালানোর প্রশিক্ষণ দিচ্ছি।’

jagonews24

ওহিদা পাপড়ির স্বামী ফরহাদ হোসাইন খান জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমিই আমার স্ত্রীকে স্কুটি চালানো শিখিয়েছি। এরপর সে নিজেই এখন অনেক কাজ করতে পারছে। বিশেষ করে সকালে আগে আমাকে ছেলেদের স্কুলে নিয়ে যেতে হতো। এরপর পাপড়িকে তার স্কুলে নামিয়ে আমার স্কুলে যেতে হতো। কিন্তু এখন পাপড়ি নিজেই ছেলেকে স্কুলে নামিয়ে তার স্কুলে যেতে পারছে।’


আরও খবর



‘বন্যায় মানুষের দুর্ভোগেও পদ্মা সেতু নিয়ে ফুর্তিতে সরকার’

প্রকাশিত:Friday ২৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়া বলেছেন, দেশে যখন ভয়াবহ বন্যার কারণে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে সরকার তখন পদ্মা সেতু উদ্বোধন নিয়ে আমোদ-ফুর্তিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। পদ্মা সেতু নির্মাণে সরকার অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করেছে। পাশের দেশ ভারতে পদ্মার চেয়ে গভীর ও লম্বা সেতু নির্মাণ হয়েছে ১০ ভাগের এক ভাগ খরচে।

শুক্রবার (১৪ জুন) হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে ইনাতগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র ও বান্দের বাজারে বন্যার্ত চার শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতরণ শেষে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় গণ অধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর বলেন, সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি স্থানে বন্যায় মানুষ মানবেতর জীবনযাপন করছে। তখন এক পদ্মা সেতু উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে সরকার সব রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে বদ্ধ করে রেখেছে।

এ সময় গণ অধিকার পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক শহিদুল ইসলাম ফাহিম, মাহফুজুর রহমান, চৌধুরী আশরাফুল বারী নোমান, সহকারী সদস্য সচিব শেখ খায়রুল কবির, শাহ আজাদ আলী সুমন, কেন্দ্রীয় সদস্য আবু হোসেন জীবন, যুব অধিকার পরিষদের সভাপতি মনজুর মোরশেদ মামুন, শ্রমিক অধিকার পরিষদের সভাপতি আব্দুর রহমান, ছাত্র অধিকার পরিষদের সাধারণ আরিফুল ইসলাম আদিব, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া জাবেদ মায়া, তামান্না ফেরদৌস শিখা, গণ অধিকার পরিষদের নবীগঞ্জ উপজেলা সমন্বয়ক নুরুল আমিন পাঠান, শাহাবুদ্দিন শুভ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর