Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা
অর্থনৈতিক মন্দায় বিপর্যস্ত শ্রীলংকা সরকারের নতুন নয় মন্ত্রীর শপথ গ্রহণ

শ্রীলঙ্কার মন্ত্রিসভায় নতুন নয় জন মন্ত্রী শপথ নিয়েছেন

প্রকাশিত:Friday ২০ May ২০22 | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৪০জন দেখেছেন
Image

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

শ্রীলঙ্কার নতুন সরকারের মন্ত্রিসভায় নিয়োগ পেয়েছেন  ৯ জন। 


শুক্রবার (২০ মে) নতুন মন্ত্রীদের শপথ বাক্য পড়িয়েছেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে।


এদিকে, শপথ নিয়েই ২১তম সংশোধনী নিয়ে কথা বলেছেন বিচার, কারা বিষয়ক ও সাংবিধানিক সংস্কার বিষয়ক নতুন মন্ত্রী ডা. বিজয়দাসা রাজাপক্ষে। 


আগামী সোমবার (২৩ মে) দেশটির মন্ত্রিসভায় এ সংক্রান্ত খসড়া উপস্থাপন করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।


লঙ্কান সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর ও নিউজ ফার্স্ট’র প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনগুলোয় বলা হয়, শুক্রবার নতুন ৯ মন্ত্রী নিয়োগ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট।



বিজয়দাসা রাজাপক্ষসহ নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত মন্ত্রীরা হলেন- বন্দর, নৌ ও বিমানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন নিমাল সিরিপালা ডি সিলভা, শিক্ষামন্ত্রী হয়েছেন সুশীল প্রেমজয়ন্ত।


স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়েছেন কেহেলিয়া রামবুকওয়েলা, হারিন ফার্নান্দো পর্যটন ও ভূমিমন্ত্রী, রমেশ পাথিরানা প্ল্যান্টেশন শিল্পমন্ত্রী, মানুশা নানায়াক্কারা শ্রম ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী, নালিন ফার্নান্দো বাণিজ্য ও খাদ্য নিরাপত্তা মন্ত্রী এবং তিরান আলেস জননিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন।


নিউজ ফার্স্ট জানিয়েছে, ২১তম সংশোধনী নিয়ে আলোচনা হচ্ছে মন্ত্রিসভায়। শপথ পড়েই বিষয়টি আলোচনায় তুলে আনেন বিচার, কারা বিষয়ক ও সাংবিধানিক সংস্কার বিষয়ক নতুন মন্ত্রী বিজয়দাসা রাজাপক্ষে।


তিনি বলেন, বর্তমান রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা দূর করাই আমার প্রথম দায়িত্ব। যে কারণে সংবিধানের ২১তম সংশোধনী আনতে হবে। 


প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মন্ত্রিত্ব নিতে চাননি বিজয়দাসা। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী জোরালো অনুরোধের কারণে তিনি বিকল্প খুঁজে পাননি। তবে, স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়ার শর্তে তিনি পদটি গ্রহণ করেন।



আরও খবর



বিমানের প্রথম ফ্লাইটে জেদ্দা যাচ্ছেন ৪১৯ হজযাত্রী

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৩জন দেখেছেন
Image

হজযাত্রী নিয়ে আজ রোববার (৫ জুন) সকাল ৯টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সৌদি আরবের জেদ্দায় যাবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট।

জেদ্দায় পৌঁছাবে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় এই ফ্লাইটে ৪১৯ জন যাত্রী যাবেন। ইতোমধ্যে ইমিগ্রেশনসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করেছেন হজযাত্রীরা।

রোববার (৫ জুন) সকালে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জনসংযোগ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিস্তারিত আসছে...


আরও খবর



সিলেটে চলন্ত প্রাইভেটকারে আগুন

প্রকাশিত:Thursday ০২ June 2০২2 | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

সিলেটে একটি চলন্ত প্রাইভেটকারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে এ ঘটনায় হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দক্ষিণ সুরমার আলমপুর স্টেশনের একটি টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

বৃহস্পতিবার (২ জুন) বেলা আড়াইটার দিকে নগরের হুমায়ুন রশিদ চত্বর এলাকায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রাইভেটকারের মালিক সিলেট নগরের শাহজালাল উপশহরের বাসিন্দা রাসেল আহমদ জানান, তিনি দুপুর ২টার দিকে দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুল যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হন। গাড়িতে তিনি একাই ছিলেন। গাড়িটি নিজে চালিয়ে শাহজালাল সেতু পার হয়ে ওভারব্রিজের কাছে হুমায়ুন রশিদ চত্বর এলাকায় আসামাত্র গাড়ির ইঞ্জিনে ধোঁয়া দেখতে পান। তাৎক্ষণিকভাবে গাড়ি থেকে নেমে যান রাসেল। এর পরেই ইঞ্জিনে আগুন ধরে যায়।

jagonews24

আগুন দেখে পথচারী ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা পানি এবং বালু দিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। পরে আলমপুরে অবস্থিত দক্ষিণ সুরমা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে খবর দিলে দমকলকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ফায়ার সার্ভিস এসে ১০ মিনিটের মাথায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এর আগেই গাড়িটি পুড়ে যায়।

আলমপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ আলা উদ্দিন মনির বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ইঞ্জিনে শর্টসার্কিট থেকে আগুন লেগেছে। এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে গাড়ির ইঞ্জিনটি পুরোপুরি পুড়ে নষ্ট হয়ে গেছে।


আরও খবর



বৃক্ষরোপণ অভিযান উদ্বোধন করলেন সেনাপ্রধান

প্রকাশিত:Thursday ১৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

‘বৃক্ষপ্রাণে প্রকৃতি-প্রতিবেশ আগামী প্রজন্মের টেকসই বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বৃক্ষরোপণ অভিযান-২০২২ এর উদ্বোধন করেছেন সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) ঢাকা সেনানিবাসের নির্ঝর এলাকায় তিনি এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কর্মসূচি উপলক্ষে সেনাপ্রধান একটি বকুল গাছের চারা রোপণের মাধ্যমে ঢাকা সেনানিবাসসহ দেশের সব সেনানিবাস, ডিওএইচএস ও জলসিঁড়ি আবাসন প্রকল্পে ভিডিও-টেলিকনফারেন্স (ভিটিসি)-এর মাধ্যমে একযোগে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এ বছর প্রায় দুই লাখ পঞ্চাশ হাজার গাছের চারা রোপণ করা হবে।

সব সেনানিবাস, নোয়াখালীর স্বর্ণদ্বীপসহ সব প্রশিক্ষণ এলাকা, ফায়ারিং রেঞ্জ, ডিওএইচএস এবং জলসিঁড়ি আবাসন প্রকল্পে এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে।

এসময় সেনাসদর ও সেনাবাহিনীর ঢাকা অঞ্চলের ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তাসহ সেনাসদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

একই সঙ্গে সব সেনা অঞ্চলে এরিয়া কমান্ডাররা নিজ নিজ জনবলসহ উপস্থিত থেকে বৃক্ষরোপণ কার্যক্রমের শুভ সূচনা করেন।


আরও খবর



‘ডিউটি শেষ করে ঘুমাতে যাচ্ছিলাম’

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
Image

ডিউটি শেষ করে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমাতে যাবেন সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে কর্মরত করণ কারণ। তবে ডিপোতে আগুন লাগার খবর এখনো পৌঁছায়নি তার কাছে। এমন সময় তার কক্ষের অন্য একজনের বাড়ি থেকে ফোন করে জানায়, দেখা যাচ্ছে অগ্নিকাণ্ডের খবর।

করণ কারণ জাগো নিউজকে বলেন, আমার ডিউটি শেষ হয়েছিল রাত ৮টায়। ডিপোতে আগুন লাগার খবর শুনে দেখতে বের হয়েছিলাম। এমন সময় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের স্থান থেকে প্রায় ১০০ গজ দূরে ছিলাম। বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গেই পাশের পুকুরে লাফ দেই। ফলে বিস্ফোরণের প্রভাব থেকে অনেকটাই বেঁচে যাই।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের বেডে শুয়ে এভাবেই বিস্ফোরণের সময়কার ঘটনা জানাচ্ছিলেন করণ কারণ। বিভীষিকাময় সময়টাকে বোঝাতে কখনওবা উঠে বসছিলেন তিনি। তবে চোখ মেলে রাখতে পারছিলেন না বেশিক্ষণ। বিস্ফোরণের রাসায়নিকের প্রভাবে এখনও চোখ থেকে পানি ঝরছে তার।

করণ কারণের ছেলে প্রান্ত কারণ বলেন, অ্যাম্বুলেন্স থেকেই বাবা অন্য একজনের ফোন থেকে আমাকে কল করে। তখনকার পরিস্থিতি ছিল ভয়াবহ। এতো দূর থেকেও কেমিক্যালের প্রভাবে বাবার চোখে সমস্যা হয়েছে। অন্যদের তুলনায় আমার বাবা কমই আহত হয়েছেন।

সারি সারি বেডিগুলোতে শুয়ে এরকম অনেকেই এখন চিকিৎসা নিচ্ছেন চমেক হাসপাতালে। কারো পুড়ে গেছে শরীরের অর্ধেকটা, কারো বেশি, কারো বা একটু কম।

এর আগে শনিবার রাত ৯টার দিকে সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নে বিএম কনটেইনার ডিপোর লোডিং পয়েন্টের ভেতরে আগুন লাগে। কুমিরা ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। রাত পৌনে ১১টার দিকে এক কনটেইনার থেকে অন্য কনটেইনারে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। একটি কনটেইনারে রাসায়নিক থাকায় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে।

বিস্ফোরণে ঘটনাস্থল থেকে অন্তত চার কিলোমিটার এলাকা কেঁপে ওঠে। আশপাশের বাড়িঘরের জানালার কাচ ভেঙে পড়ে।


আরও খবর



বাংলাদেশের মর্যাদা বাড়ালো পদ্মা সেতু

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২২জন দেখেছেন
Image

পাহাড় পর্বত ভেঙে অবিরামভাবে পদ্মা বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে চলেছে যুগ যুগ ধরে। তাকে নিয়ন্ত্রণে কখনও আমরা চেষ্টা করিনি, বরং তার অত্যাচার অবিচার সহ্য করে নিজেদের সামলে নিয়ে বসবাস করে চলছি। সে নদীর একূল ভেঙেছে ওকূল গড়েছে ঠিকই তবে আমাদের স্থায়িত্বকে বারবার হরণ করেছে।

তবে, সে আমাদের দিয়েছে প্রচুর সে কথা আমরা ভুলিনি ভুলবো না। পদ্মা অবশ্যই শক্তিশালী নদী। এতযুগ পর তার পিঠে সেতু তৈরি করা হয়েছে। পদ্মার ওপর দিয়ে চলাফেরা অনেকটা বাঘের পিঠে বসে শিকার করার মতো সাহস বাংলাদেশের বাঙালি জাতি পাবে, এটাই মূলত কারণ আমার লেখা কবিতা ‘ওগো সুন্দরী আমি তোমার কথা বলছি’ সেখানে অনেক কথা তুলে ধরেছি।

শুধু পদ্মা নদী নয় আমি পদ্মা সেতুকে নিয়ে আমার মনের ভাব প্রকাশ করেছি। একই সাথে ইঙ্গিত দিয়েছি এটা যখন সম্ভব তখন বাকি সব সমস্যারও সমাধান হবে। আমরা মানুষ জাতি স্রষ্টার সৃষ্টির সেরা জীব ভুলে গেলে চলবে কি? গদ্যাকারে না লিখে কবিতার ভাষায় লিখেছি তাতে যদি কেউ মনে করে আমি একজন কবিতে পরিণত হয়েছি! সমস্যা কোথায়? তবে আমি সেই আগের মতই দূরপরবাসী বাংলাদেশের রহমান মৃধাই আছি।

অনেকের ধারণা বিশ্বের কিছু উন্নত, স্বাধীন, গণতান্ত্রিক দেশ যেমন জার্মান, জাপান প্রাক-আধুনিক যুগের সবচেয়ে হিংস্র জাতিগুলোর মধ্যে দুটি। তারা মনে করে এই দেশগুলোতে গণতন্ত্র রয়েছে কারণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চায় তারা গণতান্ত্রিক হোক এবং মার্কিন সেনা ঘাটি শৃঙ্খলের মাধ্যমে এই দেশগুলোতে গণতন্ত্র অটুট রেখেছে।

আমাকে প্রশ্ন করা হয়েছে আপনি বাংলাদেশে গণতন্ত্রের জন্য আকুল। আপনি কি জানেন কেন বাংলাদেশে গণতন্ত্র নেই? সেই সঙ্গে তাদের বর্ণনায় ফুটে উঠেছে যেমন: বাংলাদেশে ইউএস বেস নেই, তেমনি গণতন্ত্রও নেই! গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে এবং সেইসাথে এটিকে রক্ষা করতে, আমাদের শিগগিরই বঙ্গোপসাগরে একটি মার্কিন সেনা ঘাঁটি দরকার। এটা ছাড়া আমাদের দেশে গণতন্ত্র টেকসই হবে না। কারণ, ভারত হস্তক্ষেপ করবে, পাকিস্তান, চীন করবে ইত্যাদি।

ইদানীং সবাই লক্ষ্য করছেন সুইডেন, ফিনল্যান্ডের মতো দেশও শেষ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বন্দি হতে চলেছে পাশের দেশ রাশিয়ার হুমকি-ধামকি থেকে রেহাই পেতে। জানি না প্রকৃতপক্ষে যুক্তরাষ্ট্র নিজেই কি গণতন্ত্রের বেস্ট প্র্যাক্টিস করছে! প্রতি বছরে কী পরিমাণ স্কুল শিক্ষার্থী হত্যা হচ্ছে সেখানে? বিশ্বের কোথায় তারা নাক গলাতে বাদ রেখেছে? তবে হ্যাঁ অন্যান্য দেশের তুলনায় হয়তো কিছুটা ভালো, তবে সেটা যথেষ্ট নয়।

আমি বাংলাদেশি এবং সুইডিশ সেক্ষেত্রে যেটা দুই দেশের মানুষের জন্য ভালো সেটা নিশ্চয় গোটা বিশ্বের জন্যও ভালো হবে বলে মনে প্রাণে বিশ্বাস করি। সুইডেন সব সময় বিশ্বকে নিয়ে ভাবে, বিশ্বের মানুষের পাশে দাঁড়ায় বিপদে আপদে। বাংলাদেশের যে সমস্যা আমাকে বেশি কষ্ট দিচ্ছে সেটা হচ্ছে দেশের সম্পদ লুটপাট করে যারা বিদেশে পাঠাচ্ছে এবং যারা এটাতে সক্রিয় অংশগ্রহণসহ সব রকম সাহায্য করছে। এটা বন্ধ করতেই হবে।

দেশকে ভালো না লাগলে, দেশ ছাড়ো, সমস্যা নেই। কিন্তু দেশের বারোটা বাজিয়ে লুটপাট করে নিয়ে যারা চলে যাচ্ছে সেটা হতে দেওয়া যাবে না। সব সহ্য করা যেতে পারে তবে বেঈমান বা নেমোখারামদের সহ্য করা ঠিক হবে না। আমাকে এমনও প্রশ্ন করা হয়েছে, ‘আপনি জানেন কেন বাংলাদেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পছন্দের পুতুল?’ পুতুল কে না পছন্দ করে?! রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নিজেই বলেছেন ‘সকল দেশের রানি সে যে আমার জন্মভূমি।’

বাংলাদেশ সত্যিই একটি পছন্দের জায়গা। তার প্রতি যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেকেরই লোভ রয়েছে, লোভ নেই শুধু রাজাকারের বাচ্চাদের যারা দেশটাকে লুটপাট করে দেশের সম্পদ বিদেশে পাচার করছে, আমি তাদের ঘৃণা করি। এদের এখন শায়েস্তা করতে হবে। তার জন্য আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে কারণ আমরা সোনার বাংলাদেশ গড়তে চাই, আমরা গর্বিত বাংলাদেশি নাগরিক হয়ে পৃথিবীর দায়িত্ব পালন করতে চাই।

আমাকে আরও প্রশ্ন করা হয়েছে আমি গণতন্ত্রের বাণী সারাক্ষণ লিখে চলেছি কই পেরেছি কী পরিবর্তন আনতে? একটি গল্প মনে পড়ে গেলো এ প্রশ্নের কারণে। গত কয়েক বছর আগের হবে, বাংলাদেশের র্যাব প্রশাসন জঙ্গলে ঢুকেছে হাতি ধরতে এ খবরে ভয়ে মহিষ দৌড়ে পালাচ্ছে। সিংহ মহিষকে বললো র্যাব তো হাতি ধরতে জঙ্গলে নেমেছে তুমি কেন দৌড়াচ্ছো? উত্তরে মহিষ বলেছিল আমি যে হাতি না সেটা প্রমাণিত হতে কমপক্ষে বিশ বছর লাগবে মানে ততদিন আমারে আটকে রাখবে প্রশাসন।

ঘটনাটি হাস্যকর ঠিকই তবুও ভাবনার বিষয়। দুঃখের বিষয় হলো বাংলাদেশের ক্ষমতাবান প্রশাসনকে সহজে জাগানো যাবে না, সময় লাগবে। কারণ তারা যেটা করার সেটাই করবে। তারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে বলে মনে হয় না। তারপর লক্ষ্য করুণ সব সমস্যার জন্য বৈদেশিক সাহায্য নেওয়া হয় শুধু প্রশাসন ছাড়া।

চোখে ময়লা না ঢুকলে কী কেউ কখনও বলে চোখে সমস্যা? যে প্রশাসন অন্যের চোখে ময়লা ঢুকলে অনুভব করতে শেখেনি সেই ব্যথা কী জ্বালা! সে প্রশাসন দেশের মানুষের দুঃখ কষ্ট বুঝবে বলে মনে হয় না!

যাইহোক পরিবর্তনে দরকার সময়ের, দেশ স্বাধীনের পঞ্চাশ বছর পর যেমন পদ্মা নদীর ওপর সেতু তৈরি হয়েছে নিজেদের অর্থে, ভাবুন যদি এত টাকা সত্যি সত্যিই বিশ্ব ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে সেতু করা হতো কী পরিমাণ সুদ-মূলসহ পরবর্তী প্রজন্মকে সেটা আজীবন কলুর বলদের মতো টানতে হতো!

বাংলাদেশের মানুষ অতীতে প্রমাণ করেছে বঙ্গবন্ধুর নেত্রীত্বে দেশ স্বাধীন করে আর এবার প্রমাণ করলো বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে পদ্মা সেতু করে। আমার বিশ্বাস বাংলার মানুষ আস্তে আস্তে নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হবে। সচেতন জাতি তখন অজুহাত নয় খুঁজবে সততা, খুঁজবে সমাধান, আমি সেদিনের আশায়।

রহমান মৃধা, সাবেক পরিচালক (প্রোডাকশন অ্যান্ড সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট) ফাইজার, সুইডেন। [email protected]


আরও খবর