Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

সোহেল খান কে ৬৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দেখতে চায় নেতা-কর্মীরা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৮০জন দেখেছেন

Image

আর হানিফ: যাত্রাবাড়ী থানা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ঘিরে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। এবারের সম্মেলনে তৃণমূল তাদের পছন্দের নেতা হিসেবে ৬৪ নং ওয়ার্ডে সোহেল খান কে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করতে তৃণমূলের ব্যাপক তোড়জোড় লক্ষ্য করা গেছে।বিভিন্ন গনমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই নেতার ভূয়সী প্রসংশা করে অনেক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।তার নেতৃত্ব গুনের কারনেই তিনি ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর ৬৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবেন এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীদের। সোহেল খান জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অকুতোভয় বীর যোদ্ধা।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ত্যাগী নেতা কর্মীদের মূল্যায়ন করতে চায় আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।দুর্দিনে যারা অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা স্বীকার করে দলে কাজ করেছিলেন সেইসব নেতাদের এবারে ওয়ার্ড কমিটিতে গুরুত্বপুর্ন পদে অন্তর্ভুক্ত করতে চান।যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামীলীগের এি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন এর ৬৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জনপ্রিয়তা শীর্ষে সাবেক তুঁখোড় সাহসী ছাএনেতা বৃহত্তর মাতুয়াইল ইউনিয়ন ছাএলীগের তৎকালীন ২০০২ হতে ২০১৩ পর্যন্ত সফল দায়িত্ব প্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জননেতা সোহেল খানঁ।গত ২০১৭ সালে বৃহত্তর মাতুয়াইল ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে সফলতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন। ঢাকা-০৫ আসন উপ-নির্বাচনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ৬৪ নং ওয়ার্ড নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির যুগ্ন-সদস্য সচিব এর দায়িত্ব পালন করেন।সর্বশেষ ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মেয়র নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী ব্যারিস্টার ফজলে নুর তাপসকে বিজয়ী করতে সর্বাত্মক ভুমিকা পালন করেন।এছাড়াও ,তিনি করোনা মহামারী দুর্যোগ এর সময় ৬৪ নং ওয়ার্ড এলাকায় নিরীহ মানুষ ব্যাপক সাহায্যে সহযোগিতা করেছেন।তিনি বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত আছেন।

ডিএসিসির ৬৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক সফল ছাএনেতা সোহেল খাঁন এর এলাকায় ব্যাপক সুনাম রয়েছে।দলের দুঃসময়ে যখন কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি, তখন নির্যাতিত নেতা-কর্মীরা সোহেল খান এর  কাছে আশ্রয় পেয়েছিলেন।সাবেক ছাএনেতা সোহেল খাঁন ২০০৪ সালে তৎকালীন বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে মিথ্যা হত্যা মামলার শিকার হয়ে দীর্ঘ তিন মাস কারাবরণ করেছিলেন।যার মামলা নং-৪৪১/২০০৪।এছাড়াও তৎকালীন সময়ে মাতুয়াইল ইউনিয়ন ছাএলীগ সংগঠন ছিলো বৃহওর ডেমরা থানা শক্তিশালী সংগঠন।তিনি জোট সরকারের বিরুদ্ধে রাজপথে আন্দোলনরত অবস্থায় একাধিকবার জেল-জুলুম নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন।সাবেক আওয়ামী লীগের নেতা শরীফ মোজাম্মেল হত্যার প্রতিবাদ সমাবেশে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেএী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে রাজধানী জুরাইনে সমাবেশ সফল করে বাড়ী ফিরে আসার সময়ে পথিমধ্যে তৎকালীন সরকারী পেটোয়া বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয়ে দীর্ঘদিন কারাবন্দী ছিলেন।

গত ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচন পরবর্তী সময়ে স্বাধীনতা বিরোধীদে বিএনপি-জামাতের আগুন সন্ত্রাস,গাড়িতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপসহ  জ্বালাও পোড়াঁও আন্দোলনে কোনাপাড়া কাঠের পুল এলাকায় নিরীহ বাস যাএীদের উপর পেট্রোল বোমা নিক্ষেপে গুরুতর আহত যাএীদের দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া সু চিকিৎসা নিশ্চিত করতে গিয়ে সেচ্ছাসেবীর ভূমিকা পালন করেন তিনি। 

এবং ব্যাক্তিগত ভাবে দূস্কৃতিকারীদের প্রতিহত করতে গিয়ে গুরুতরভাবে আহত হন। সরকার বিরোধী সড়যন্ত্র প্রতিহত করতে বিএনপি-জামাত কর্তৃক জ্বালাও পোড়াও কর্মসূচি প্রতিবাদ করতে গিয়ে রাজপথে বহু বার শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।ডিএসসিসির ৬৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগকে বর্তমানে সুসংগঠিত রেখেছেন সোহেল খাঁন।তার নেতৃত্ব এই অঞ্চলের আওয়ামীলীগ নেতা--কর্মীদের মাঝে প্রানচাঞ্চল্য ফিরে  এসেছে।দলের জন্য সদা-সর্বদা নিবেদিত সক্রিয় নেতার ভুমিকা পালন করে আসছেন তিনি।সোহেল  খান আওয়ামী লীগের একজন দক্ষ রাজনৈতিক নেতা,তার চৌকস নেতৃত্বের কারনে বিএনপি-জামাত এই অঞ্চলে নাশকতামুলক কর্মকান্ড করার আগে অন্তত দশবার চিন্তা করে।

ডিএসসিসি ৬৪ নং ওয়ার্ড জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি নয়ন মোল্লা বলেন,স্থানীয় আওয়ামীলীগকে সংগঠিত করতে সোহেল খান যে গুরুত্বপুর্ন ভূমিকা পালন করে আসছেন তা অতুলনীয়,তার মতো যোগ্য ব্যাক্তি ৬৪ নং ওয়ার্ড  আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হলে দল আগামীতে আরো গতিশীল হবে।

সর্বোপরি সবদিক বিবেচনায় ডিএসসিসির ৬৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক পদে ত্যাগী নেতা হিসেবে যোগ্যতার মুল্যায়ন হিসেবে সোহেল খান কে নির্বাচিত করলে নেতা-কর্মীদের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটবে।


আরও খবর



নাসিরনগরের মাদক সম্রাজ্ঞী ঋতু নিয়ন্ত্রন করছে কুন্ডা ও ভলাকুটের মাদকের হাট

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নান:ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ও ভলাকুট ইউনিয়নের মাদকের হাট নিয়ন্ত্রনে রয়েছে কাহেতুরা গ্রামের কুখ্যাত মাদক সম্রাজ্ঞী ঋতু (৩০) ও তার মা হেনা বেগম (৫৫) এর হাতে। তাছাড়া কুন্ডা মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করছেন তরিব হোসেনের ছেলে রাজিব হোসেন। এক অনুসন্ধানে জানাগেছে প্রতিদিন তাদের বাড়ি থেকে কয়েক হাজার টাকার মরণ নেশা ইয়াবা, গাঁজা ও চোরাই মোবাইল বেচাকেনা হচ্ছে।

আর এ সমস্ত মরণ নেশা হাতের কাছে পেয়ে যুব সমাজ নষ্টের দিকে দাবিত হচ্ছে। মাঝে মাঝে পুলিশ তাদের বাড়িতে হানা দিলেও তারা থেকে যায় ধরা ছোয়ার বাহিরে। হেনার স্বামী কুখ্যাক ডাকাত পলাশ মিয়া হলেও বর্তমানে হেনা ঘর সংসার করছে ডাকাত বাবুলের সাথে। ঋতুর স্বামী সুমন মিয়া ও তার ছোট ভাই নয়ন মিয়া (২৫) কুখ্যাত ডাকাত নামে এলাকায় ব্যাপক পরিচিত। ঋতু ও হেনা ছাড়াও আলী নোয়াজ, লফু মিয়ার ছেলে শফিকুল, বেরুইন গ্রামের হুমায়ুন মিয়া ও তার ভাই আলামিন, মাজার সংলগ্ন ব্যবসায়ী আলামিন, ভলাকুটের রুবেল চেয়ারম্যানের চাচাত ভাই বাক্কি মিয়া, জালাল মিয়া, সারফান মিয়ার ছেলে আলামিন, বেরুইন গ্রামের অমরচান দাসের ছেলে নিত্যলাল দাস প্রতিনিয়তই চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসা ও চুরি ডাকাতি।

তাদের অত্যাচারে অত্র এলাকার লোকজন শান্তিতে চলাফেরা করতে পারছে না। স্থানীয় ভূক্ত ভোগিরা জানায়, ঋতুর বাড়িতে মাদক, চোরাই মোবাইল ক্রয় বিক্রয় করতে পার্শ্ববর্তী বেরুইন, ভলাকুট, বাঘী, কান্দি, বিটুই, আন্দ্রাবহ, তুল্লাপাড়া, কুন্ডা, গুচ্ছগ্রাম সহ বিভিন্ন গ্রাম থেকে প্রতিদিন শত শত লোক যাতায়াত করছে। এলকার স্থানীয় ও ভোক্ত ভোগিরা এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে। 

 -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



সেবার মানোন্নয়ন ও অবৈধ সংযোগ অপসারণে সফল মশিউর রহমান

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৯৩জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃতিতাস গ্যাসের গ্রাহক সেবার মানোন্নয়ন, বকেয়া বিল আদায়, অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড জোবিঅ-ফতুল্লা অফিসের ম্যানেজার প্রকৌশলী মশিউর রহমান।মহসিন ভিউ, হোল্ডিং নং-৪০২, ওয়ার্ড-০৭, ব্লক-এ, কায়েমপুর, ফতুল্লা, (ঢাকা-নারায়নগঞ্জ লিংক রোড), নারায়নগঞ্জে অবস্থিত জোবিঅ-ফতুল্লা অফিসে ব্যাবস্থাপক হিসেবে প্রকৌ.মো. মশিউর রহমান যোগদান করার পর সংস্থাটিতে দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসা অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতি গ্রহণের কারণে কাজে গতি ফিরে এসেছে এই জোনাল অফিসে। অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন এবং বকেয়া বিল আদায়ে মাঠ পর্যায়ে কর্মকর্তাদের জোড়ালো ভূমিকা রাখতে উদ্ধুদ্ধ করেন নারায়ণগঞ্জ তিতাস গ্যাসের আঞ্চলিক অফিসের ম্যানেজার প্রকৌশলী মশিউর রহমান। দ্বায়িত্ব গ্রহণের পর তার অধীনস্থ বিভিন্ন স্থানে শিল্প কলকারখানা,আবাসিক বাসাবাড়ি, হোটেল রেস্তোরাঁর শত শত অবৈধ সংযোগ চিহ্নিত করে অভিযান পরিচালনা করে সংযোগ বিচ্ছিন্নর মাধ্যমে সংস্থাকে লোকসানের হাত থেকে রক্ষা করে আসছে। এছাড়াও এই অফিসের প্রতিটি সেক্টরে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনে নিরবচ্ছিন্ন গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করতে সক্ষম হয়েছেন।

ফতুল্লা থানাধীন জালকুড়ি কড়ইতলা ঢাল সংলগ্ন মাঠের পশ্চিম পাশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর আব্দুর রহমানের বাড়িতে জালাল উদ্দিনের পিতলের কারখানায় ব্যবহৃত অবৈধ গ্যাসের সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করেন। এছাড়াও একই এলাকায় একটি ছয় তলা বাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

সিদ্ধিরগঞ্জের ১৬টি চুনা ফ্যাক্টরি ও প্রায় ২০টির বেশি মশার কয়েল ফ্যাক্টরি ছিল যা নিয়ে তিতাস কর্তৃপক্ষ অনেকটাই বিব্রত ছিল। এগুলোর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।গত কয়েক মাসে বেশ কয়েকটি মশার কয়েল ফ্যাক্টরি সিলগালা করা হয়েছে ।

অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিয়ে ১০ বছর যাবত সিদ্ধিরগঞ্জে হাউজিং এলাকায় কয়েক হাজার বাসা-বাড়িতে চুলা ব্যাবহার হতো যা বর্তমান ম্যানেজার প্রকৌশলী মশিউর রহমানের হস্তক্ষেপে সংযোগগুলো বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। মশিউর রহমানের ব্যাক্তিগত নিষ্ঠা,আর সততার কারনে শক্ত হাতে দমন করতে সক্ষম হয়েছেন নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি।


আরও খবর



ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে ১ দফা দাবিতে উপজেলা বিএনপির গণসংযোগ ও লিফলেট অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৮১জন দেখেছেন

Image

মো:রুবেল মিয়াঃ- বিএনপির কেন্দ্রীয় ঘোষিত কর্মসূচি অংশ হিসেবে সরাইল উপজেলায় এক দফা দাবিতে  গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করেছেন উপজেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা। 


এ উপলক্ষ্যে রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকালে সরাইল  সদর ইউনিয়নের বিকাল বাজার ও প্রাতঃবাজার এলাকায় উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক এড. নুরুজ্জামান লস্কর তপুর নেতৃত্বে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করা হয়। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা বিএনপির সভাপতি আনিছুল ইসলাম ঠাকুর, সাংগঠনিক সম্পাদক দুলাল মাহমুদ আলী, উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান সিদ্দিকী, সদস্য সচিব মো. নুর আলম মিয়া সহ অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে ৪৫ তম, বিজ্ঞান মেলা ও ৮ ম বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড এর উদ্বোধন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:"বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, উদ্ভাবনেই সমৃদ্ধি " এই পতিপাদ্যকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ ( ৪৫ তম, বিজ্ঞান মেলা) ৮ম বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড এবং ৮ম বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার ( ৩০ জানুয়ারি ২০২৪) সকাল ১০ টায় পৌর শহরের ভিক্টোরিয়া হাই স্কুল মাঠে  ৩০ থেকে ৩১ জানুয়ারি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়এর পৃষ্ঠপোষকতায় ও জাতীয় বিগান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এর তত্ত্বাবধানে উপজেলা প্রশাসন, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার আয়োজনে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ ( ৪৫ তম,  মেলা) অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠানের সভাপতি সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মনোয়ার হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলাে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এলিজা সুলতানা, অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত বিজ্ঞান থেকে দুইদিন ব্যাপী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার বেলুন উড়িয়ে এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান তিনি বলেন, শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতি ও দেশ দারিদ্র্যমুক্ত হতে পারে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ স্মার্ট বাংলাদেশে পরিণত হবে। প্রতিটি শিক্ষার্থীদের নতুন প্রজন্মের প্রতি পড়ালেখার পাশাপাশি বিজ্ঞানের ওপর আরো বেশি চর্চা ও গবেষণার আহবান জানান। বর্তমানে বিজ্ঞান প্রযুক্তির বিশ্বে টিকে থাকতে হলে শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানের ওপর আরো বেশি লেখাপড়া, চর্চা ও গবেষণা করতে হবে। কেননা ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে বিজ্ঞানের ওপর ব্যাপক গবেষণার প্রয়োজন।

বর্তমান সরকার শিক্ষা বিস্তারে ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করেছে। আমাদের প্রযুক্তি নির্ভর ও উন্নয়নমনষ্ক হতে হবে। আগামী বাংলাদেশ গড়ার সংগ্রামে এই শিক্ষার্থীরাই নেতৃত্ব দিবে। তার এই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতে হলে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের সহযোগিতার প্রয়োজন।  এই মেলা থেকে শিক্ষার্থীরা স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে নিজেদেরকে তৈরি করতে সক্ষম হবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মনোয়ার হোসেন তিনি তার বক্তব্য বলেন, 
তরুণদের উদ্ভাবনে পালটে যাবে দেশ। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জগতে পরিবর্তন আনবে এই মেলা। বিশেষ করে তরুণ সমাজকে জ্ঞানচর্চায় উদ্বুদ্ধ এবং তাদের উদ্ভাবনী ক্ষমতা বিকশিত করার অপূর্ব সূযোগ এই মেলা। তরুণ সমাজকে অশ্লীলতা, মাদকাশক্তি, মোবাইল আসক্তিসহ সব ধরনের সামাজিক অপরাধ থেকে ফিরিয়ে এনে বিজ্ঞানচর্চায় মগ্ন রাখলে তাদের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটবে এবং উদ্ভাবনের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে। আজকে সিরাজগঞ্জে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ ( ৪৫ তম, বিজ্ঞান মেলা) ,  অলিম্পিয়াড এবং ৮ম বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সফল মন্ডিত করার জন্য এই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি  জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান মহোদয়কে ও সকল অতিথি বৃন্দকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,  সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা  সহকারী কমিশনার ভূমি এসএম রকিবুল হাসান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ রিয়াজ উদ্দীন, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এস এম  নাসিম রেজা নূর দিপু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা হাসনা হেনা, কৃষি অফিসার আনোয়ার সাহাদত, ভিক্টোরিয়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. সাজেদুল ইসলাম,  

উল্লেখ্য ঃ দুইদিব্যাপী এই মেলার উদ্বোধনী শেষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে  কুইজ, প্রতিযোগিতার মধ্যেদিয়ে বিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের আয়োজন করা হয়।বিজ্ঞানমেলায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২০ টি স্টল মেলায় স্থান পায়। 

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ভিক্টোরিয়া হাই স্কুলে সহকারী শিক্ষক মো. রাশেদুল হাসান।

আরও খবর



ভারত থেকে রোজার আগে পেঁয়াজ-চিনি আসবে

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৩১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু ,জানিয়েছেন রোজার আগে ভারত থেকে পেঁয়াজ ও চিনি এনে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মাধ্যমে বিপণন করা হবে বলে ।

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারতের নিষেধাজ্ঞা ছিল চিনি ও পেঁয়াজ কোনো পার্শ্ববর্তী দেশকে দেবে না। সেটা তারা শিথিল করেছে। আবেদনটা তারা সহানুভূতি নিয়ে দেখছে।

আশাবাদ ব্যক্ত করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রমজানের আগেই আমরা একটা ইতিবাচক সাড়া পাব। সেই চিনি ও পেঁয়াজ আমরা টিসিবির মাধ্যমে বিপণন করতে পারব।

তিনি বলেন, ২০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ ও ৫০ হাজার মেট্রিক টন চিনি ভারত দিতে পারবে বলে জানিয়েছে। আমরা বলেছি, আমাদের চাহিদা আরেকটু বেশি। আমরা ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ ও এক লাখ টন চিনি চেয়েছি। তারা বিষয়টি বিবেচনা করবেন। সামনে তাদের নির্বাচন, তাদের ভোক্তাদের কষ্ট দিয়ে তো আমাদের দেবে না। যতটুকু সহনীয়, ততটুকুই তারা দেবে।

পেঁয়াজ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাজারে এই মুহূর্তে কাটা পেঁয়াজগুলো আছে। মূল পেঁয়াজটা উঠতে মাসখানেক সময় লাগবে। পুরোপুরি ফসল তোলা শেষ হবে এপ্রিলের মাঝামাঝিতে। আমরাও উদ্যোগ নিয়েছি, টিসিবির মাধ্যমে আমরা যেন বাইরে থেকে পেঁয়াজ এনে বিক্রি করতে পারি।


আরও খবর