Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

শিক্ষক-ইমামের বিরুদ্ধে নৌকার প্রচারে অংশ নেওয়ার অভিযোগ সাক্কুর

প্রকাশিত:Sunday ১২ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৯৫জন দেখেছেন
Image

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে এমপিওভুক্ত শিক্ষক ও মসজিদের ইমামদের আরফানুল হক রিফাতের (নৌকা) পক্ষে প্রচারণা চালানোর নির্দেশের অভিযোগ এনে এমপি বাহারের বিরুদ্ধে রিটার্নিং অফিসারের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু (টেবিল ঘড়ি)।

শনিবার (১১ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী বরাবর এ অভিযোগ জমা দেওয়া হয়।

অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, কুমিল্লা-৬ সদর আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং মসজিদের ইমামদের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাতের পক্ষে প্রচারণা চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন। নির্দেশনার পর থেকে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে তারা নৌকার পক্ষে কাজ করছেন, যা সিটি করপোরেশন নির্বাচন আইনে সুস্পষ্ট আচরণবিধি লঙ্ঘন।

বিষয়টি যাচাইপূর্বক বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন মনিরুল হক সাক্কু।

অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী জাগো নিউজকে বলেন, আনিত অভিযোগের সত্যতা পেলে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আগামী ১৫ জুন সিটি করপোরেশনের ১০৫ কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এবার মেয়র পদে পাঁচজন, কাউন্সিলর পদে ১০৮ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৩৬ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।


আরও খবর



মহাসড়কের পাশে পড়েছিল অজ্ঞাতপরিচয় নারীর মরদেহ

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

মানিকগঞ্জে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশ থেকে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারীর (২৬) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (৩ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টার দিকে জেলার ঘিওর উপজেলার পুখুরিয়া স্টোন ব্রিকস এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিনুর রহমান মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ওই নারী ভবঘুরে ও মানসিক ভারসাম্যহীন বলে ধারণা করা হচ্ছে। রাতে কোনো যানবাহনের চাকায় পিষ্ট হয়ে তার মৃত্যু হতে পারে। স্থানীয়রা মরদেহটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন। পরে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে বলে জানান ওসি।


আরও খবর



জনগণের দাবি পূরণেই নুরে আলম জীবন দিয়েছে: হাফিজ উদ্দিন

প্রকাশিত:Friday ০৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
Image

পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত ভোলা জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলমের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে ভোলা শহরের মধ্য চরনোয়াবাদ এলাকায় আলতাজের রহমান কলেজ মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন হয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাই প্রেসিডেন্ট মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম। তিনি বলেন, জনগণের দাবি পূরণ করতে এসেই পুলিশের হাতে নুরে আলমের জীবন দিতে হয়েছে। পুলিশ বিনা উসকানিতে তাকে গুলি করে হত্যা করেছে। এটি সরকারের কলঙ্ক। এ কলঙ্ক কোনো দিনই মুছা যাবে না।

jagonews24

তিনি আরও বলেন, নুরে আলমের মৃত্যু আমরা বৃথা যেতে দেবো না। একদিন না একদিন তার হত্যাকারীদের বিচার হবে।

এর আগে রাত ৯টার দিকে অঙ্গ-সংগঠনসহ দলের কয়েক হাজার নেতাকর্মী মোটরসাইকেল ও হেঁটে মিছিল নিয়ে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমের মরদেহবাহী অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে আসেন। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন নেতাকর্মীরা। পরে তার জানাজার জন্য ভোলার চরনোয়াবাদ এলাকার আলতাজের রহমান কলেজ মাঠে নেওয়া হয়। সেখানে কয়েক হাজার নেতাকর্মী জানাজায় অংশ নেন।

jagonews24

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- ভোলা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য হাফিজ ইব্রাহীম, জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।

বিদ্যুতের লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতের অব্যবস্থাপনার অভিযোগ তুলে ৩১ জুলাই বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভোলা জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি মিছিল নিয়ে সদর রোডে যাওয়ার সময় পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এতে আব্দুর রহিম নামে স্বেচ্ছাসেবক দলের এক নেতা নিহত  হন।

jagonews24

এছাড়া জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমসহ প্রায় অর্ধশতাধিক বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী এবং ১০ পুলিশ সদস্য আহত হন। বুধবার (৩ আগস্ট) বিকেল সোয়া ৩টার দিকে ঢাকার গ্রিনরোড কমফোর্ট হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নুরে আলমও


আরও খবর



স্বাধীন-শক্তিশালী বিচার বিভাগের স্বপ্ন ছিল বঙ্গবন্ধুর: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৭২জন দেখেছেন
Image

আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্বপ্ন দেখেছিলেন, একটি স্বাধীন ও শক্তিশালী বিচার বিভাগের, যেখানে বিচারপ্রার্থী জনগণ ভোগান্তিহীনভাবে দ্রুত ন্যায়বিচার পাবেন।’

তিনি বলেন, ‘তার এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বেশকিছু সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে বিচার বিভাগের জন্য অত্যাধুনিক অবকাঠামো নির্মাণও করছে। যার অন্যতম উদাহরণ ৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত রাঙ্গামাটি সিজেএম আদালত ভবন। এ ভবনের নির্মাণ ব্যয়, নির্মাণশৈলী, আয়তন ও সুযোগ-সুবিধা বিবেচনা করলে নিশ্চয়ই বলা যায়, এটি একটি অত্যাধুনিক স্থাপনা। এ স্থাপনা অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি রাঙ্গামাটিকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলবে।’

রোববার (২৪ জুলাই) ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে রাঙ্গামাটিতে নবনির্মিত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) আদালত ভবন উদ্বোধন করেন আইনমন্ত্রী। পরে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন তিনি।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘রাঙ্গামাটিতে যে আদালত ভবন উদ্বোধন করা হলো, তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়নের একটি খণ্ডচিত্র। বর্তমানে দেশের এমন কোনো সেক্টর খুঁজে পাওয়া যাবে না, যেখানে সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি।’

তিনি বলেন, ‘ব্রিটিশ আমল, পাকিস্তান আমল, জিয়াউর রহমান, এরশাদ ও খালেদা জিয়ার আমলে বিচার বিভাগের যে উন্নয়ন হয়েছে, তার সবগুলো যোগ করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সময়কালের উন্নয়নের সমান হবে না। এটি নিছক মুখের কথা না। উন্নয়নের তথ্য-পরিসংখ্যান সেটাই বলে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসির স্থান সংকুলানের জন্য সরকার সব জেলা শহরে ৮ বা ১০তলা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। প্রথম পর্যায়ে দুই হাজার ৪৬৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪২ জেলায় সিজেএম আদালত ভবন নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষপর্যায়ে রয়েছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে ৩৩ জেলায় নির্মিত সিজেএম আদালত ভবন এরই মধ্যে উদ্বোধন করা হয়েছে। বাকি জেলাগুলোতে ভবন নির্মাণের লক্ষ্যে দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে।’

আনিসুল হক বলেন, ‘বিশ্বায়নের যুগে আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রাপ্তির অধিকারকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিচার বিভাগের আধুনিকায়ন অপরিহার্য। এ বিশ্বাসকে ধারণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিচার বিভাগের ডিজিটাইজেশনে আইনি পদক্ষেপসহ বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। এসব পদক্ষেপের সুফল জনগণ পেতে শুরু করেছে।’

আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী, আইন ও বিচার বিভাগের যুগ্ম সচিব ও প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক বিকাশ কুমার সাহা, রাঙ্গামাটির জেলা ও দায়রা জজ মো. নুরুল ইসলাম, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ফারুক প্রমুখ বক্তৃতা করেন।


আরও খবর



দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে শাবিপ্রবি ছাত্র নিহত

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে বুলবুল আহমেদ নামের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র নিহত হয়েছেন।

সোমবার (২৫ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গাজীকালুর টিলায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত বুলবুলের বাড়ি নরসিংদী জেলায়। তিনি শাবিপ্রবির লোকপ্রশাসন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ফজলুল করিম বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের গাজীকালুর টিলায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ছুরিকাঘাতে আহত হন বুলবুল। তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আবু হেনা পহিল জাগো নিউজকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের টিলায় এক ছাত্রকে ছুরি দিয়ে আঘাত করা হয়। প্রথমে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেলে অজ্ঞান অবস্থায় নেওয়া হয়। পরে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেলে নেওয়া হলে সেখানে সে মারা যায়। কে বা কারা মেরেছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।


আরও খবর



মাদরাসায় পড়ানো হবে ইঞ্জিনিয়ারিং, আবশ্যিক বিষয় ১০টি

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে চালু হচ্ছে নতুন শিক্ষাক্রম। শিক্ষাব্যবস্থায় নানা পরিবর্তন এনে এ শিক্ষাক্রম সাজানো হয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রম অনুযায়ী মাদরাসায় শিক্ষার্থীদের আবশ্যিক ১০টি বিষয় পড়ানো হবে। পাশাপাশি দেশের সব মাদরাসায় প্রযুক্তি প্রকৌশল (ইঞ্জিনিয়ারিং) বিষয় চালু করা হবে।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের তথ্য কর্মকর্তা জাহিদ হাসান এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘মাদরাসায় বাধ্যতামূলকভাবে ১০ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠ নিতে হবে। পাশাপাশি প্রযুক্তি প্রকৌশল বিষয়টি যুক্ত করা হয়েছে। শিক্ষার্থীরা এ বিষয়ে পাঠ নেবে। এতে তাদের কারিগরি দক্ষতা বাড়বে।’

জানা গেছে, মাধ্যমিকে বিভাগ তুলে দিয়ে একমুখী শিক্ষা চালু করার পরিকল্পনা গ্রহণ করে সরকার, যা আগামী বছর থেকে কার্যকর হতে যাচ্ছে। এটি বাস্তবায়নে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দিতে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদদের নিয়ে ২০১৬ সালে একটি কমিটি গঠন করা হয়। শিক্ষাবিদরা বেশ কিছু সুপারিশও করেন।

সুপারিশ অনুযায়ী, ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষাক্রমের বিষয়বস্তু গুরুত্ব অনুসারে তিন গুচ্ছে ভাগ করার কথা বলা হয়েছে। ‘ক’ গুচ্ছে বাংলা, ইংরেজি ও গণিত। ‘খ’ গুচ্ছে বিজ্ঞান, সমাজ পাঠ (ইতিহাস, পৌরনীতি ও ভূগোল)। ‘ক’ ও ‘খ’ গুচ্ছ বাধ্যতামূলক।

‘গ’ গুচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি, চারু ও কারুকলা, শরীরচর্চা ও খেলা, ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, কৃষি ও গার্হস্থ্য, নৃগোষ্ঠীর ভাষা ও সংস্কৃতি। এই গুচ্ছে প্রকৌশল প্রযুক্তি (বিদ্যুৎ, যন্ত্র, কাঠ, ধাতু ইত্যাদির ব্যবহারিক জ্ঞান ও প্রয়োগ) যুক্ত করার মত দিয়েছেন শিক্ষাবিদরা।

অষ্টম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষায় চারু ও কারুকলা, ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, কৃষি, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান, শরীরচর্চা ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়গুলো বিদ্যালয়ভিত্তিক মূল্যায়নের সুপারিশ করা হয়েছে। সুপারিশ বাস্তবায়ন হলে বর্তমানে অষ্টম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষায় ১০টি বিষয় থেকে ৩টি কমে যাবে। তখন ৭ বিষয়ে পরীক্ষা হবে।


আরও খবর