Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হবে কিশোর-কিশোরী ক্লাব

প্রকাশিত:Thursday ১৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

কৈশোরকালীন পুষ্টি কার্যক্রমকে বেগবান করতে দেশের সব মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কিশোর-কিশোরী ক্লাব করা হবে। দেশব্যাপী পুষ্টিকার্যক্রমের অংশ হিসেবে এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। আগামী ৩০ জুলাইর মধ্যে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ ক্লাব গঠনের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ জন্য বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চিঠি দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর।

চিঠিতে বলা হয়, মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রতিটি শ্রেণি থেকে ছয়জন করে মোট ৩০ জন এবং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চার থেকে পাঁচজন করে মোট ৩০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে কিশোর-কিশোরী ক্লাব গঠন করতে হবে।

এক্ষেত্রে বিদ্যালয়টি কো-এডুকেশন হলে ৩০ জন সদস্যদের অর্ধেক মেয়ে এবং অর্ধেক ছেলে হতে হবে। এ কিশোর-কিশোরী ক্লাবের মাধ্যমে সব মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পর্যায়ে সব ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও অন্যান্য সেবা দেওয়া হবে। ক্লাব পরিচালনার জন্য স্টুডেন্ট ক্যাবিনেট সদস্যদের মধ্য থেকে সম্ভব হলে দুইজন (একজন মেয়ে ও একজন ছেলে) ক্লাব লিডার নির্বাচন করতে হবে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও অন্যান্য সেবামূলক কার্যক্রম বাস্তবায়নে ক্লাবের সদস্যদের সহায়তার জন্য দুইজন গাইড শিক্ষক (একজন নারী ও একজন পুরুষ) নির্বাচন করবেন প্রধান শিক্ষক। দুইজন গাইড শিক্ষক বিজ্ঞান/কৃষিশিক্ষা/শরীরচর্চা/গার্হস্থ্য বিজ্ঞান শিক্ষকদের মধ্য থেকে নির্বাচন করা যেতে পারে। গাইড শিক্ষক ক্লাবের দেখভাল করবেন।


আরও খবর



পাচারের শিকার ব্যক্তিদের সুরক্ষায় সমন্বিত কাঠামো গড়তে কর্মশালা

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
Image

পাচারের শিকার জনগোষ্ঠীর সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় সব সেবা কার্যক্রম নিশ্চিত করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে একটি আন্তঃপ্রাতিষ্ঠানিক সার্বজনীন সেবা কাঠামো গড়ে তোলার তাগিদ দিয়েছেন বিশিষ্টজনেরা।

তারা বলেন, মানবপাচার প্রতিরোধ ও ভিকটিমের সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় সব সেবা কার্যক্রম নিশ্চিত করা কোনো একক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সম্ভবপর হয়ে ওঠে না। তাই সমন্বিত সেবা কার্যক্রম নিশ্চিতকরণ ও পরিচালনার জন্য প্রয়োজন একটি আন্তঃপ্রাতিষ্ঠানিক ও সমন্বিত সেবা প্রদান কাঠামো। এ লক্ষ্যে প্রস্তাবিত জাতীয় রেফারেল ব্যবস্থায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে সংশ্লিষ্ট সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহকে একটি সমন্বিত সেবা কার্যক্রমের আওতায় এনে সুরক্ষাসেবা প্রদানের সুযোগ সৃষ্টি হতে পারে।

বুধবার (১৫ জুন) রাজধানীর একটি হোটেলের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত ‘মানবপাচারের শিকার ব্যক্তিদের সুরক্ষা প্রদানে সমন্বিত রেফারেল কাঠামো গড়ে তোলার লক্ষ্যে রোডম্যাপ’ শীর্ষক জাতীয় কর্মশালায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে ঢাকায় সুইজারল্যান্ড দূতাবাসের সহযোগিতায় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা উইনরক ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে ইনসিডিন বাংলাদেশের কারিগরি সহায়তায় এ সভার আয়োজন করা হয়। এতে অংশ নেন সরকারি-বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তাবৃন্দ, বেসরকারি খাতের শীর্ষ কর্মকর্তা ও মানবপাচার নিয়ে কাজ করা সরকারি-বেসরকারি ও আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার কর্মকর্তারা।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জননিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ কে এম মুখলেসুর রহমান। আরও অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে সুইজারল্যান্ডের দূতাবাসের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্স সুজান মুলার। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব ঈশিতা রনি। সভা সঞ্চালনা করেন ইনসিডিন বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক এ কে এম মাসুদ আলী।

আখতার হোসেন বলেন, মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন ২০১২ (বিধি ২০১৭) এবং এরই ধারাবাহিতায় মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন জাতীয় কর্মপরিকল্পনা ২০১৮-২০২২ এর আওতায় দেশব্যাপী মানবপাচার দমন ও প্রতিরোধ বিশেষ ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠা করেছে। যা পাচার প্রতিরোধে বাংলাদেশ সরকারের কয়েকটি বলিষ্ঠ পদক্ষেপের অংশ। এর স্বীকৃতি হিসেবে, যুক্তরাষ্ট্রের মানব পাচার সংক্রান্ত বিশ্ব প্রতিবেদনে এখন বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয় স্তরে উঠে এসেছে।

জাতীয় রেফারেল কাঠামোর গুরুত্ব তুলে ধরে তিনি বলেন, রেফারেল কাঠামো বহুপাক্ষিক সমন্বয় নিশ্চিত করতে পারে, যা পাচার পরবর্তী সেবাসমূহকে আরও কার্যকর করে তুলবে।

তিনি এই কার্যক্রমে এগিয়ে আসার জন্য সুইজারল্যান্ড দূতাবাসকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান।

কর্মশালায় এ কে এম মুখলেসুর রহমান বলেন, জাতীয় রেফারেল কাঠামোটি গড়ে তুলতে এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে কাজ করে চলেছে জাতীয়, আন্তর্জাতিক এবং জাতিসংঘ ভিত্তিক বিভিন্ন সংস্থা। এই কাঠামো একদিকে যেমন পাচারের শিকার ব্যক্তিকে সংশ্লিষ্ট সবার সমন্বয়ে সঠিক সেবা পৌঁছে দেবে, অন্যদিকে ২০১২ সালের আইনের সঠিক বাস্তবায়নেও ভূমিকা রাখবে।

সুজান মুলার তার বক্তব্যে মানব পাচার ভিকটিমের সুরক্ষায় জাতীয় রেফারেল কাঠামো প্রণয়নে বাংলাদেশ সরকারকে অব্যাহত সহায়তা প্রদান করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সময়োপযোগী পদক্ষেপ নেওয়ার ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি।


আরও খবর



ট্রাফিক পুলিশের ওপর হামলা

জুরাইন ট্রাফিক পুলিশ বক্সে হামলা ও ব্যাপক ভাঙচুরের ঘটনায় একজন গ্রেফতার

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১২৪জন দেখেছেন
Image

নাজমুল হাসানঃ

রাজধানীর জুরাইন ট্রাফিক পুলিশ বক্সে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে ৩ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় এ ঘটনা ঘটে।


আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- ট্রাফিক সার্জেন্ট আলী হোসেন, শ্যামপুর থানার এসআই উৎপল কুমার অপু ও কনস্টেবল মো. সিরাজুল ইসলাম।

 

জানা যায়, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নিশান নামে এক নারী ও তার স্বামী রনি মোটরসাইকেলযোগে জুরাইন রেলগেটের রাস্তার উল্টো পথে যাচ্ছিল। এ সময় কর্মরত ট্রাফিক সার্জেন্ট আলী হোসেন ও ট্রাফিক কনস্টেবল সিরাজুল ইসলাম তাদের গতিরোধ করেন। 



এ সময় নিশান নিজেকে অ্যাডভোকেট পরিচয় দিয়ে সার্জেন্ট আলী হোসেনের সঙ্গে তর্কাতর্কিতে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে রনি মোটরসাইকেল থেকে নেমে সার্জেন্ট আলী হোসেনকে ধাক্কা দেন। এ সময় অ্যাডভোকেট নিশান ডাকচিৎকার করতে থাকেন। এরপর লোকজন উপস্থিত হয়ে সার্জেন্ট আলী হোসেনের ওপর হামলা করে তাকে ছুরিকাঘাত করে। 


শ্যামপুর থানা পুলিশের এসআই উৎপলসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনা শান্ত করতে আসলে দুর্বৃত্তরা তাদের ওপর হামলা করে এবং ট্রাফিক বক্সে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে ভাঙচুর চালায়। পরে শ্যামপুর ও কদমতলী থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।


আহত পুলিশ সার্জেন্ট আলী হোসেনসহ ৩ পুলিশ সদস্যকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 


এ ঘটনায় মোটর সাইকেল চালক সোহাকুল ইসলাম রনিকে আটক করেছে শ্যামপুর থানা পুলিশ।পরে আটক রনি তার সহযোগী ইয়াসিন জাহান নিশান,ইয়াসিন আরাফাত ভুইয়া সহ অঞ্জাত ৩৫০/৪০০ জন ব্যাক্তিকে অভিযুক্ত করে শ্যামপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ওয়ারী ট্রাফিক জোনের সার্জেন্ট আলী হোসেন।এবিষয়ে শ্যামপুর থানায় মামলা দায়েরের পক্রিয়া চলছে।


ওয়ারী ট্রাফিক জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হামলা।  


এ ঘটনায় ট্রাফিক ওয়ারী বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার সাইদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, উল্টোপথে যাওয়ায় ট্রাফিক পুলিশ তাকে বাধা দেওয়ায় হামলা-ভাঙচুর করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তাকে পেটালেন বিক্ষুব্ধ মুসল্লিরা

প্রকাশিত:Friday ১০ June ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ২৫ June ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে আদমজী বিহারী ক্যাম্প এলাকায় অবস্থিত আদমজী শাহী জামে মসজিদ। শুক্রবার (১০ জুন) জুমার নামাজ শেষে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দিচ্ছিলেন ইমাম। তার বক্তব্য চলাকালে এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ভারতের ঘটনা ভারতে থাকুক; আমরা এ নিয়ে বিশৃঙ্খলা না করি।

তার এ বক্তব্যের জের ধরে হামলা চালিয়েছেন বিক্ষুব্ধ মুসল্লিরা। প্রথমে কথা-কাটাকাটি, পরে ওই পুলিশ কর্মকর্তার ওপর হামলা চালানো হয়। এ সময় আরও দুজন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে মসজিদ কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন মাস্টারের বাড়িতে নেওয়া হয়। পরে সেখানেও হামলা করে উত্তেজিত জনতা।

খবর পেয়ে স্থানীয় ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে প্রথম নগরীর সদর জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। বর্তমানে তাকে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

jagonews24

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, ভারতে মহানবী (সা.)-কে কটূক্তির প্রতিবাদে জুমার নামাজ শেষে বিক্ষোভ করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন মুসল্লিরা। এ নিয়ে মসজিদে ইমাম বক্তব্য রাখছিলেন। বক্তব্যের এক পর্যায়ে ভারতের প্রসঙ্গ এলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ আজিজুল হক বলেন, ‘ভারতের বিষয় ভারতে থাকুক, এ নিয়ে বিশৃঙ্খলা আমরা না করি’।

তার এ কথায় ক্ষুব্ধ হন মুসল্লিরা। এ নিয়ে প্রথমে কথা-কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ওই পুলিশ কর্মকর্তার ওপর হামলা করেন মুসল্লিরা। এ সময় মসজিদ কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন ও সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন রবিনও আহত হন। তারা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আদমজী জামে মসজিদের সভাপতি জয়নাল আবেদীন জানান, জুমার নামাজের পর সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই সৈয়দ আজিজুল হক মাইকে বলেন, ভারতের ইস্যু ভারতেই থাকুক; আমাদের এখানে না আনি। এর জের ধরে আমরা নিজের দেশে কোনো বিশৃঙ্খলা না করি। একথা শুনে মুসল্লিরা তার ওপর হামলা করেন। তাকে রক্ষা করতে গিয়ে মসজিদের সেক্রেটারি বিল্লাল হোসেন রবিন আহত হন। পরে তারা দুজন এসআই আজিজকে উদ্ধার করেন।

jagonews24

কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি বলেন, আমাকে এলাকার লোকজন বিষয়টি জানালে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। ওসির সহযোগিতায় আহত পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাই। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান বলেন, এটি খুবই দুঃখজনক ঘটনা। আমরা মর্মাহত। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। আহত এসআইকে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।


আরও খবর



আগের চেয়ে স্বচ্ছ নির্বাচন হবে, মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে সিইসি

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অন্যান্য নির্বাচন থেকে স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

বুধবার (৮ জুন) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হ্যাসের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে তিনি এ কথা জানান। সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন সিইসি।

তিনি বলেন, প্রথমত উনাদের (মার্কিন রাষ্ট্রদূত) কোনো বার্তা নেই। এটা ছিল সৌজন্য সাক্ষাত। তিনি আমাকে স্বাগত জানিয়েছেন নতুন সিইসি হিসেবে। সব ক্ষেত্রে সাফল্য কামনা করেছেন আমার। এছাড়া মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তার সরকারের পক্ষ থেকে কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হলে করবেন।

নির্বাচন নিয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূত কিছু বলেছেন কিনা জানতে চাইলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, নির্বাচন নিয়ে আসলে উনি তেমন কিছু আলোচনা করেননি। বলেছেন, আমি কেমন কেমন ফিল করছি। আমি বলেছি আমেরিকার মতো আমাদের নির্বাচন অতো স্মুথ (মসৃণ) নয়। একটু টার্বুলেন্স (হাঙ্গামা) হয়। ওইদিক থেকে আমরা প্রস্তুত। আশা করি সরকারি সব সংস্থা থেকে সহযোগিতা পাবো এবং নির্বাচনটা সফল হবে। ফেয়ার করার চেষ্টা করবো নির্বাচন।

সম্ভব হলে ভোট কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা দেওয়া হবে বলে জানান সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। তিনি বলেন, এতে নজরদারি সহজ হবে। সরকারও আশা করি সাহায্য করবে। আমাদের সীমাবদ্ধতার মধ্যে একটা ভালো নির্বাচন করার চেষ্টা করবো।

মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে নির্বাচনে কোনো চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা হয়নি বলে জানান কাজী হাবিবুল আউয়াল।


আরও খবর



মোটরসাইকেলের চাকায় বোরকা পেঁচিয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিহত

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে মোটরসাইকেলের চাকায় বোরকা পেঁচিয়ে সাথী আক্তার (৩০) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী নিহত হয়েছেন।

সোমবার (৬ জুন) সকালে হাজীগঞ্জ উপজেলার গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের তারালীয়া-কাঁকৈরতলা সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত সাথী আক্তার ওই ইউনিয়নের মালীগাঁও গ্রামের প্রবাসী আলমগীর হোসেনের স্ত্রী।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ব্যাংক থেকে টাকা তোলার জন্য নিকটাত্মীয় পারভেজের মোটরসাইকেলে বাড়ি থেকে শাহরাস্তি উপজেলার ওয়ারুক বাজারে রওয়ানা দেন সাথী। পথে তারালীয়া-কাঁকৈরতলা সড়কে মোটরসাইকেলের পেছনের চাকায় বোরকা পেঁচিয়ে রাস্তায় পড়ে যান তিনি। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

হাজীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইব্রাহিম খলিল দুর্ঘটনায় ওই নারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর