Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

শীতকালে হাত ও পায়ের তালুর চামড়া ওঠা বন্ধে কিছু ব্যবস্থা

প্রকাশিত:সোমবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৩৯৪জন দেখেছেন

Image

লাইফস্টাইল ডেস্ক : শীতে অনেকের হাতের চামড়া ওঠে। একই সঙ্গে হাত বেশ খসখসে হয়ে যায়। আবার অনেকের এই চামড়া দাঁত দিয়ে কাটার অভ্যাস রয়েছে। তাদেরও একইভাবে হাত খসখসে হতে দেখা যায়। শীতে এমনিই বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ কম থাকে। এই আর্দ্রতার অভাবে চামড়া শুষ্ক হয়ে যায়। অনেকের আবার হাতের সঙ্গে পায়ের চামড়াও উঠতে দেখা যায়। হঠাৎ করে হাত-পা জুড়ে এভাবে চামড়া উঠতে থাকে তাহলে বাইরের সবার সামনেও অপ্রস্তুত হতে হয়।শীতকালে মুখের যত্ন নেওয়ার পাশাপাশি হাত-পায়েরও যত্ন নেওয়া জরুরি। হাত-পায়ের চামড়া যাতে না উঠে সে ব্যাপারে কিছু ব্যবস্থা নিতে পারেন। যেমন-

গুঁড়ো দুধ, চিনি আর অলিভ অয়েল: গুঁড়ো দুধ, চিনি আর অলিভ অয়েল একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এবার মিশ্রণটি হাতের চামড়া ওঠা জায়গাগুলিতে ভাল করে লাগিয়ে ফেলুন। ২০ মিনিট পর হাত ভালো করে ঘষে ঘষে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এরপর সামান্য নারকেল তেল হাতে লাগান। এভাবে লাগিয়ে রাখলে হাতের ত্বক রম হবে। সপ্তাহে একদিন করে এই মিশ্রণ লাগালেই ভালো ফল পাবেন।


গোসলের আগে অলিভ অয়েল: গোসলের আগে প্রতিদিন হাতে ভালোভাবে অলিভ অয়েল লাগান। এর মধ্যে বিভিন্ন উপকারী ফ্যাটি অ্যাসিড ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস রয়েছে। অলিভ অয়েল না থাকলে নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। এই তেল গোসলের পর নিয়মিত হাতে মালিশ করুন। এতে কিছুদিনের মধ্যে সমস্যা কমবে।


কাঁচা দুধ ও গরম পানি: অর্ধেক কাপ কাঁচা দুধ ও সম পরিমাণ‌ গরম পানি এক সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার তুলা দিয়ে ভিজিয়ে ভালো করে হাতের চামড়া ওঠা অংশগুলিতে লাগিয়ে নিন। এতে ত্বক বেশ নরম থাকবে। নিয়মিত এটি করলে কিছুদিনের মধ্যে ভালো ফল পাবেন।


গোলাপ জল, লেবুর রস ও কাঁচা দুধ: গোলাপ জল, লেবুর রস ও কাঁচা দুধ, এই তিনটি উপাদান এক সঙ্গে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবার হাতের নির্দিষ্ট অংশে ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে যাওয়ার পর হাত ধুয়ে নিন। দিনের মধ্যে দুবার এটি করলে হাত-পায়ের চামড়া ওঠার সমস্যা কমবে।


আরও খবর

"নোবেলের ম্যাজিক শুধু প্রতারণা"

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




রাবেয়া খাতুনের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

কামরুজ্জামান ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:ঝিনাইদহ জেলা শৈলকুপা উপজেলার ভাটই রাবেয়া খাতুন মডেল মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মহীয়সী নারী রাবেয়া খাতুনের তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বালিকা বিদ্যালয়ের হল রুমে রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও আলোচনা সভা বালিকা বিদ্যালয়ের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান এস.এম আনিছুর রহমান খোকা। বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক নাহিদুজ্জামান, মাদ্রাসার অধ্যাপক তাহেরুল ইসলাম, অধ্যক্ষ কে.এফ.এম আবু বকর সিদ্দিক, শিক্ষক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.



আরও খবর



পারকিন্সের সাথে এনার্জিপ্যাকের অংশীদারিত্বের ২০ বছর পূর্তি

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৮৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সম্প্রতি বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় যুক্তরাজ্য ভিত্তিক ডিজেল ইঞ্জিন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান পারকিন্সের সাথে এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি’র ২০ বছরের অংশীদারিত্ব পূর্ণ হয়েছে। এর মাধ্যমে দুইটি ভিন্ন দেশের দুই শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানের বহু বছরের অংশীদারিত্ব নতুন উচ্চতায় উন্নীত হলো। এ উপলক্ষে এনার্জিপ্যাকের পক্ষ থেকে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজেল ইঞ্জিন ডিজাইন, উৎপাদন ও বিক্রয়ের ক্ষেত্রে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে পারকিন্স ব্যাপকভাবে সমাদৃত। এই উৎপাদক প্রতিষ্ঠানটি সেরা পণ্য ও সেবা প্রদান এবং পাওয়ার সল্যুশন নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এনার্জিপ্যাক বাংলাদেশে পারকিন্সের অনুমোদিত পরিবেশক। প্রতিষ্ঠানটি আসল পারকিন্স ইঞ্জিন এবং পারকিন্সের বিস্তৃত পণ্য সামগ্রীর সবধরনের খুচরা যন্ত্রাংশ বিক্রি করার ক্ষেত্রে অনুমোদিত পরিবেশক। দেশে থাকা ক্রেতারা দীর্ঘদিন ধরে এনার্জিপ্যাকের কাছ থেকে পারকিন্স পণ্যের বিক্রয়-পরবর্তী সেবা ও ওয়ারেন্টি গ্রহণ করে আসছে। প্রতিষ্ঠানটি গত ২০ বছর ধরে পারকিন্সের ক্রেতাদের মানসম্মত গ্রাহক-সেবা (কাস্টমার সার্ভিস) প্রদান করছে।

গত ০৯ জুলাই রাজধানীর তেজগাঁও শিল্প এলাকায় অবস্থিত এনার্জি সেন্টারে এ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি’র চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার রবিউল আলম; পরিচালক এনামুল হক চৌধুরী ও রেজওয়ানুল কবির; পারকিন্স ইঞ্জিনের আফটার মার্কেট বিজনেস ম্যানেজার সুশীল কুমার দ্বিবেদী সহ অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

অনুষ্ঠানে এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন পিএলসি’র চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার রবিউল আলম বলেন, “পারকিন্স এবং আমরা একই লক্ষ্য অর্জনে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা উভয়েই টেকসই উন্নয়নের জন্য সেরা পাওয়ার সল্যুশন নিশ্চিত করতে চাই। ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে উৎকর্ষ সাধনের এই যাত্রায় পারকিন্স গত ২০ বছর ধরে আমাদের ওপর ভরসা রেখেছে।আমাদের প্রবৃদ্ধির পেছনে অবদান রাখার জন্য আমরা পারকিন্স এবং একইসাথে আমাদের অগণিত ক্রেতাদের প্রতি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ।”

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর

রাজধানীতে তাজিয়া মিছিল শুরু

বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪




২০০ বছরের পুরোনো রোপনকৃত গাছ ভেংগে পরার ঝুঁকি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ২০২জন দেখেছেন

Image

 জহুরুল ইসলাম খোকন (নীলফামারী) প্রতিনিধি:রেলওয়ের শহর নীলফামারীর সৈয়দপুরে। প্রায় ২০০ বছরের পুরোনো গাছগুলো উপড়ে বা ভেংগে পরার ঝুঁকিতে থাকায় আতংকিত শহরবাসী। পর্যাপ্ত বৃষ্টি বা  ঝড় হলে যে কোন সময় বাড়তে পারে প্রানহানীর ঘটনা।গাছগুলো কেটে ফেলার জন্য রেলবিভাগও  বনবিভাগকে স্হানীয়রা অনুরোধ জানালেও কাটা হচ্ছে না। এর ফলে লোকজন আতংক ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ওই গাছগুলোর নিচে বসবাস ও চলাচল করছেন।

সৈয়দপুর রেলবিভাগ জানায়, ১৮৭০ সালে আসাম বেঙ্গল রেলওয়ের বিশাল কারখানা গড়ে উঠে সৈয়দপুরে। ওই সময় এ শহরে ৮০০ একর রেলওয়ের এ্যাকোয়ারকৃত জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় দুই হাজারেরও বেশি বিশাল বিশাল বৃক্ষ রোপন করা হয়। এছাড়া দেশের বৃহত্তম রেলওয়ে কারখানা সহ রেলওয়ে পুলিশ লাইন, রেলের প্রশাসনিক দপ্তর, রেলওয়ে হাসপাতাল, খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের দুটি গির্জা, রেলওয়ে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বসবাসের জন্য একাধিক বাংলো ও কোয়ার্টার নির্মাণ করা হয় এই জমিতে।

রেলবিভাগ আরো জানায় বৃটিশ আমলে সৈয়দপুর শহরের শোভা বৃদ্ধি ও শীতল ছায়া দিতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ওই সময় প্রায় দুই হাজার গাছ রোপণ করেন এ্যাকোয়ারকৃত জমিতে ।গাছ গুলোর মধ্যে রয়েছে রেইনট্রি, কড়াই, সিরিস, কৃষ্ণচূড়া, ইউক্যালিপটাস, শাল, অর্জুন, দেবদারু ইত্যাদি। ১৮৭০ সালে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা স্থাপনের সময় সৈয়দপুর শহরের রেলওয়ে অফিসার্স কলোনি, সাহেবপাড়া, মিস্ত্রিপাড়া, নতুন ও পুরাতন বাবুপাড়া, মুন্সিপাড়া, খালাসি মহল্লা, গার্ড পাড়া, হাওয়ালদার পাড়া, রোমান ক্যাথলিক ও প্রোটেস্ট্যান্ট গির্জা, পুলিশ লাইন, রেলওয়ে হাসপাতাল এমনকি রেলওয়ে কারখানায় রোপণ করা হয় ওই গাছগুলো।

১৮ জুন বেলা সারে ১১ টায় শহরের হাওয়ালদার পাড়া গিয়ে দেখা যায়, ১৭ জুন রাতে বৃষ্টি ও সামান্য বাতাসে বিশাল মাপের একটি সিরিস গাছের ডাল আলতো ভাবে ভেঙে টিনের চালে পড়ে আছে। শুকিয়ে যাওয়া ওই সিরিস গাছের বাকি ডাল গুলোও সামান্য বাতাসে ভেঙে ভেঙে পরছে। ঘুর্ণিঝড়ের মতো বাতাস বইলে ওই গাছের ডাল ভেঙে পরা সহ উপড়ে পরারও আশংকা রয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী। অতিসত্বর গাছটি কেটে না ফেললে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে অর্ধশতাধিক মানুষের প্রানহানী ঘটতে পারে বলে জানান আতংকিত এলাকাবাসী। 

সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেট বিভাগের ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম জানান, গাছগুলো বাংলাদেশ রেলওয়ের সম্পদ। ইচ্ছে করলেই এসব কেটে ফেলা সম্ভব নয়। আমরা ১৬টি ঝুঁকিপূর্ণ গাছ চিহ্নিত করেছি। সৈয়দপুর রেলওয়ের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। তিনি তদন্ত শেষে ওইসব গাছ কেটে ফেলার অনুমতি দিবেন বলে জানান। 

সৈয়দপুর সামাজিক বনায়ন ও নার্সারি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাহিকুন ইসলাম মুশকরি জানান, সৈয়দপুর শহরের অনেক গাছই ঝুঁকিপূর্ণ। এর মধ্যে রেলওয়ের অর্ধশতাধিক গাছ কেটে ফেলা দরকার।কারন এ গাছ গুলো অতি পুরাতন। যেকোনো সময় উপড়ে বা ভেংগে পরে প্রান হানি ঘটতে পারে। 

এ ব্যাপারে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক (ডিএস) সাদেকুর রহমান জানান, শিগগিরই রেলের ঝুঁকিপূর্ণ গাছগুলো কেটে ফেলার প্রক্রিয়া চলছে। উর্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি মিললে অল্প দিনের মধ্যেই ঝুকিপুর্ন সব ধরনের গাছ কাটা হবে বলে জানান তিনি।


আরও খবর



আত্রাইয়ে আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপিত

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:নওগাঁর আত্রাইয়ে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে উপজেলা আ’লীগ আয়োজিত সংগ্রাম, উন্নয়ন, অর্জন ও গৌরব দীপ্তময় পথচলার প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আ’লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে।

রোববার ২৩ জুন সকালে উপজেলা আ’লীগ কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালী শেষে সাহেবগঞ্জ আ’লীগ দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা হয়। সভায় সাধারন সম্পাদক আক্কাছ আলী, সহসভাপতি জেলা পরিষদ সদস্য চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আফছার আলী প্রামানিক, নাহিদ ইসলাম বিপ্লব, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলে রাব্বি জুয়েল, দপ্তর সম্পাদক মেহেদী হাসান লিটন, ত্রান ও সমাজকল্যান সম্পাদক হামিদ সরকার, যুবলীগ ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক রাফিউল ইসলাম, ছাত্রলীগ সভাপতি মাহদি মসনদ স্বরুপ, সম্পাদক হুমায়ন কবির সোহাগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবু উজ্জল, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সুইট দত্তসহ আ’লীগ পরিবারের সদস্যবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রত্যেক ইউনিয়ন হতে আ’লীগের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য সোভাযাত্রায় সুসজ্জিত হয়ে নেতাকর্মীরা উপজেলা দলীয় কার্যালয়ে এসে একত্রিত হন।


আরও খবর



ফুলবাড়ীতে নিমতলা মোড়ের ঐতিহ্য ধরে রাখতে নিম গাছ রোপন

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:ফুলবাড়ী উপজেলার প্রাণকেন্দ্র নিমতলা মোডের ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে নিমগাছ রোপন করলেন ফুলবাড়ী পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটন। স্থানীয় শিক্ষার্থী মোঃ শাকিল আহমেদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বৃক্ষরোপণ করেন পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটন।

মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি শহরের প্রধান সড়কের দুই পাশে অনেক বৃক্ষরোপণ করেন। বিভিন্ন প্রজাতির ফুলের গাছ এবং ঔষধি গাছ রোপন করেন শহর জুড়ে। সেই গাছগুলো এখন ধীরে ধীরে ছায়াদার হয়ে উঠছে। শহরের প্রাণকেন্দ্র নিমতলা মোড়ে এক সময় বড় বড় নিম গাছ থাকলেও তা কালের আবর্তে বিলীন হয়ে গেছে। 

বর্তমান পৌর মেয়র আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটনের পরিচ্ছন্ন, ছায়াদার, বিশুদ্ধ বায়ুর শহর গড়ার লক্ষ্যকে বাস্তবায়ন করতে শহরের প্রাণকেন্দ্র নিমতলা মোড়ে বেশ কিছু নিম গাছ রোপন করা হয়।

শুক্রবার বিকেলে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফুলবাড়ী পৌর নির্বাহী প্রকৌশলী লুৎফুল হুদা চৌধুরী লিমন, ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের সভাপতি আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী থানা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাইটিভি ফুলবাড়ী প্রতিনিধি ফিজারুল ইসলাম ভুট্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক দৈনিক জনতা প্রতিনিধি আল আমিন বিন আমজাদ, ফুলবাড়ী প্রেসক্লাবের সদস্য দৈনিক সংবাদ প্রতিনিধি আশরাফ পারভেজ ফুলবাড়ীর দোকান কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি হামিদুল হক সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


আরও খবর