Logo
আজঃ সোমবার ২০ মে ২০24
শিরোনাম

শীতে গ্যাস থেকে মুক্তি পেতে যেসব খাবার এড়িয়ে চলবেন

প্রকাশিত:শনিবার ২১ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২০ মে ২০24 | ৪৩২জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক : প্রকৃতির সঙ্গে জীবনযাপনেও শুরু হয়েছে শীতের আমেজ। বাজারে আসতে শুরু করছে শীতকালীন সবজি, সঙ্গে ফলও। ঘরে ঘরে শুরু হয়েছে শীতকালীন সুস্বাদু খাবার রান্নার আয়োজন। কিন্তু এমন কিছু খাবার আছে যা শীতকালে এড়িয়ে চলা জরুরি। বিশেষজ্ঞ এবং পুষ্টিবিদরা পরামর্শ দিচ্ছেন ভালো স্বাস্থ্য এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য শীতের মৌসুমে নির্দিষ্ট কিছু খাবার এবং খাবারের ধরনগুলো এড়িয়ে চলা ভালো।

বেগুন

এই সবজিটি মোটেও গুণহীন নয়। শরীর সুস্থ রাখতে বেগুনেরও ভূমিকা রয়েছে। অনেকেই বেগুন খেতে বড় ভালোবাসেন। এক দিনে বেগুনের ভর্তা, মাছের ঝোলে বেগুন আবার তরকারিতেও বেগুন। সারা দিন বিভিন্ন ভাবে বেগুন খেলে দেখা দিতে পারে গ্যাসের সমস্যা। গ্যাসের সমস্যা থাকলে অতিরিক্ত বেগুন এক দিনে না খাওয়াই ভালো।

মটরশুঁটি

শীতকালের তারকা সবজি বলা চলে। শীতকালীন যে কোনো রান্নাতেই মটরশুঁটি যেন আলাদা মাত্রা এনে দেয়। রান্নার স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি শরীরের যত্নও নিতে পারদর্শী। তবে একটু বেশি পরিমাণে খেলে গ্যাসের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

দুধ

শীতকাল মানেই পিঠেপুলি আর পায়েস। সকালের খাবার থেকে রাতের খাবার সবকিছুতেই মিষ্টিমুখ করা চাই-ই-চাই। এই কারণেও কিন্তু গ্যাসের সমস্যা বেড়ে যায়। অতিরিক্ত দুধের তৈরি জিনিস খেলে গ্যাসের সমস্যা বাড়ে। গ্যাসের সমস্যা থাকলে বুঝেশুনে খেতে হবে দুধের তৈরি জিনিস।

বাদাম

বিকেলে খিদে পেলেই মুঠো মুঠো বাদাম খাওয়ার অভ্যাস আছে অনেকের। চিনেবাদাম হোক কিংবা কাঠবাদাম, বেশি মাত্রায় খেলেও হতে পারে গ্যাসের সমস্যা।

ছোলার ডাল ও রাজমা

গ্যাসের সমস্যা থাকলে এই দু’টি ডালও এড়িয়ে চলা উচিত। একেবারে বন্ধ করে না দিলেও কম খাওয়া ভালো।


আরও খবর

"নোবেলের ম্যাজিক শুধু প্রতারণা"

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় গৃহবধূর মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ৭৪জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোরের নাভারণ সাতক্ষীরা সড়কে মাটিবাহী ট্রাক্টর চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী রিতা রাণী(২১) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী মিলন গোলদার ও তাদের শিশু কন্যা প্রিয়া (২) সহ মোট ৩ জন আহত হয়েছে।

আহতদের উদ্ধার করে বাগআঁচড়ার একটি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। রোববার(৫ মে) দুপুর ১ টার দিকে নাভারন-সাতক্ষীরা সড়কের জামতলা মবিল ফ্যাক্টোরীর সামনে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত রিতা রাণী সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের গড় কুমারপুর গ্রামের মিলন গোলদারের স্ত্রী এবং শার্শার গোড়পাড়া গ্রামের কিনা মন্ডলের মেয়ে।

আহতরা হলো, নিহত রিতা রাণীর স্বামী মিলন গোলদার (৩০) ও তাদের শিশু কন্যা এবং শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের গড় কুমারপুর গ্রামের রুহুল কুদ্দুছ সানার ছেলে মোটরসাইকেল চালক আসমাতুল্লা(৩৫)।

আহত মিলন গোলদার জানান, আমরা শ্যামনগর থেকে মোটরসাইকেল যোগে আমার শশুরবাড়ি শার্শার গোড়পাড়া'য় যাচ্ছিলাম। পথিমধ্যে বাগআঁচড়া জামতলা মবিল ফেক্টোরির সামনে পৌছালে মাটিবাহী একটি ট্রাক্টর আমাদের চাপা দিলে আমরা ট্রাক্টরের চাকার নিচে চাপা পড়ি। এ সময় আমার স্ত্রী মারা যায় এবং আমার ছোট মেয়ে সহ আমরা আহত হলে স্থানীয় পথচারীরা আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

প্রতাক্ষদর্শীরা জানান, মোটরসাইকেল আরোহী তিনজন নাভারণের দিকে যাচ্ছিলো হঠ্যাৎ মাটিবাহী একটি ট্রাক্টর তাদের চাপা দিলে তারা সকলে আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার সময় একজন মারা যায় এবং অন্যদের ভর্তি করা হয়।

নাভারণ হাইওয়ে থানার সাব ইন্সপেক্টর মফিজুল ইসলাম জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে ঘটনাটি জানার সাথে সাথে আমি সহ একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে  লাশ উদ্ধার করি এবং কোন্ মাটিবাহী ট্রাক্টর এর সাথে এ সংঘর্ষ হয়েছে সেটি খুজে বের করার চেষ্টা করছি। এ ব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে তিনি জানান।


আরও খবর



ইসলামপুরে চার সন্তানের জন্ম দিলেন খুকি বেগম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ৫৫জন দেখেছেন

Image

লিয়াকত হোসাইন লায়ন, জামালপুর প্রতিনিধি:জামালপুরের ইসলামপুরে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিয়েছেন খুশি বেগম নামের এক নারী। বুধবার (১৫ মে) ইসলামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে তিন পুত্র সন্তান ও এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। 

বর্তমানে চার সন্তান সুস্থ্য রয়েছে। খুশি বেগম উপজেলার চিনাডুলি ইউনিয়নের গুঠাইল বাজার এলাকার দিনমজুর শফিকুল ইসলামের স্ত্রী। 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.এ এ এম আবু তাহের জানান, নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে তিন পুত্র সন্তান ও এক কন্যা সন্তানসহ চার সন্তান প্রসব করে তিনি। বাচ্চার ওজন কম হওয়ায় তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।


আরও খবর



মধুপুরে তীব্র তাপদাহে জনজীবন অতিষ্ঠ হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ১৭৪জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা (বিশেষ প্রতিনিধি) মধুপুর টাঙ্গাইলঃসারাদেশ ব্যাপী প্রখর রোদ ও তীব্র গরমে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে জনজীবন।পাশাপাশি টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলাতেও তীব্র তাপদাহের কারণে জনজীবনে অস্বস্তি দেখা দিয়েছে। 

হাসপাতাল ও প্রাইভেট ক্লিনিক গুলোতে বাড়ছে জ্বর, সর্দিকাশি জনিত রোগীর সংখ্যা। 

রোদে পুড়ছে প্রকৃতি, বইছে তাপদাহ, স্বস্তি নেই কোথাও। দুপুরের রোদে খোলা আকাশের নিচে হাঁটলে গরম বাতাসে মুখমন্ডল পুড়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। একটু প্রশান্তি ও শরীরকে সতেজ রাখার জন্য মানুষ ছুটছেন গাছের ছায়ায়। এছাড়াও গরমের তীব্রতা সহ্য করতে না পেরে শিশুরা পুকুর কিংবা নদীর পানিতে সাতার কাটছে দিনভর। শুধু দিনের বেলাতেই নয়, রাতেও গরমে মানুষ ঘুমাতে পারছে না কারন প্রচুর লোডশেডিং আর বৈদ্যুতিক পাখাও হার মানছে এই তীব্র গরমের কাছে।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) মধুপুরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, ভ্যাপসা গরমে অল্পতেই ক্লান্ত হয়ে পড়ছে কর্মজীবী ও বিভিন্ন পেশাজীবি মানুষ। এতে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা আর এই তীব্র রোদে লোকজন ঘর থেকে কম বের হওয়ার কারণে মধুপুর পৌর শহরে রিকশা, অটোরিকশা ও সিএনজির সংখ্যাও ছিলো অনেক কম। মধুপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকা ছিলো প্রায় ফাঁকা। 

এই অতিরিক্ত গরমে মধুপুরের জনজীবন যেন গৃহবন্ধী হয়ে পড়েছে ফলে দেখা দিচ্ছে জ্বর,সর্দি-কাশির প্রাদুর্ভাব।

মধুপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, শিশু সহ বয়স্ক রোগীদের উপচে পড়া ভীড়।এদের অধিকাংশই অতিরিক্ত গরমের কারণে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত।  

এ বিষয়ে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার  ডা. মো. ইমরান হোসেন  জানান, বিগত কয়েকদিনে তীব্র  গরমের কারণে রোগীর সংখ্যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে ।

তিনি আরও জানান, আগে দেড়শো'র মতো রোগী প্রতিদিন ইমারজেন্সিতে চিকিৎসা নিতে আসতো কিন্তু এখন তীব্র তাপদাহের কারণে প্রতিদিন দু’শোর বেশি রোগী চিকিৎসার জন্য ইমারজেন্সিতে আসছে। এদের মধ্যে বেশির ভাগ রোগীই হচ্ছে শিশু। 

আমাদের হাসপাতালে জনবল কম থাকার পরেও আমরা দিনরাত রোগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি। তীব্র গরমে ঘরের বাহিরে গেলে সাদা ছাতা বা ক্যাপ, ঢিলেঢালা পাতলা সূতি কাপড়ের পোশাক পরিধান এবং শরীরে পানিশূন্যতায় খাবার স্যালাইন, ডাবের পানি সহ প্রচুর তরল খাবার গ্রহনের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি। 

এদিকে তাপদাহ বেড়ে যাওয়ার কারণে চাহিদা বেড়েছে ঠান্ডা পানীয় খাবারের। ফুটপাতে প্রচুর পরিমানে বিক্রি হচ্ছে আখেঁর রস, ডাব এবং প্রচন্ড গরমে ক্লান্তি মেটাতে পথচারীদের উপচে পড়া ভীড় দেখা যায় বিভিন্ন শরবতের দোকানে। 

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-টাংগাইল সহ দেশের বিভিন্ন জেলা, বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে যা আগামী কয়েকদিন এ তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। এ অবস্থায় আবারও ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার থেকে দেশব্যাপী ৩দিনের  সতর্কতামূলক হিট অ্যালার্ট জারি করেছে আবহাওয়া অফিস।

এতে বলা হয়- দেশের ওপর দিয়ে চলমান তাপপ্রবাহ আরও তিন দিন অব্যাহত থাকতে পারে। পাশাপাশি তাপমাত্রা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। জলীয়বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিও বাড়তে পারে বলে জানানো হয়। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



ব্যাংককের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ এপ্রিল 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী শ্রেথা থাভিসিনের আমন্ত্রণে দ্বিপক্ষীয় সফরে ব্যাংককের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন ।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) সকাল ১০টার পর বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে তিনি রওনা হন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর সহকারি প্রেস সচিব গুলশাহানা ঊর্মি।

বাসসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর স্পিচরাইটার মো. নজরুল ইসলাম জানান, প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট সকাল ১০টা ১৩ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে ব্যাংককের ডন মুয়াং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমানটির অবতরণের কথা রয়েছে।

স্রেথা থাভিসিনের আমন্ত্রণে দুই দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদার করতে প্রধানমন্ত্রীর এ সফর।

গত জানুয়ারিতে বর্তমান সরকার গঠনের পর এটিই প্রধানমন্ত্রীর প্রথম দ্বিপাক্ষিক সফর। ব্যাংককে শেখ হাসিনাকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাগত জানাবেন থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী শ্রেথা থাভিসিন। বাংলাদেশের সরকারপ্রধানকে বিমানবন্দরে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হবে। ওইদিন থাইল্যান্ডের গভর্নমেন্ট হাউসে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে দুই প্রধানমন্ত্রীর।

২৪ থেকে ২৯ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার থাইল্যান্ড সফর উপলক্ষ্যে সোমবার তার মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এটি একটি দ্বিপক্ষীয় ও বহুপক্ষীয় উভয় সফর।

তিনি বলেন, এই সফর উভয় পক্ষের জন্যই তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ, এতে দুই বন্ধুপ্রতিম দেশের (বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ড) মধ্যে সহযোগিতার নতুন জানালা উন্মোচিত হবে।

সফরকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী থাভিসিনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা করবেন এবং জাতিসংঘের এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কমিশনের (ইউএনএসক্যাপ) ৮০তম অধিবেশনে যোগ দেবেন।


আরও খবর



জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২০ মে ২০24 | ৬৮জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে বুলু মিয়া হত্যা মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়। বুধবার (১৫ মে) দুপুরে অতিরিক্ত দায়রা জজ-২য় আদালতের বিচারক নুরুল  ইসলাম এ রায় দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌশলী অ্যাডভেকেট নৃপেন্দ্রনাথ মন্ডল।দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, জয়পুরহাট সদর উপজেলার দস্তপুর গ্রামের মৃত শামসুদ্দিনের ছেলে বাচ্চু মিয়া,গনিরাজের ছেলে এমরান আলী নুহু ও আউশগাড়ার মোকছেদ আলীর ছেলে বাবু মিয়া মিয়া।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, জয়পুরহাট সদর উপজেলার চকদাদরা এলাকার আব্দুর রশিদের ছেলে বুলু মিয়া দস্তপুর গ্রামের মৃত কুদ্দুসের মেয়েকে বিয়ের পর সেখানে ঘর জামাই হিসেবে থাকতেন। ২০০৫ সালের ৩ এপ্রিল রাতে সে হাতে লাঠি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর বাড়ি ফেরেননি। সে রাতেই আসামীরা পারিবারিক বিরোধের জেড় ধরে বুলুকে গলা কেটে হত্যা করে। পরের দিন ওই গ্রামের একটি বায়োগ্যাস তৈরীর টাংকির উপর তার গলাকাটা ও জখম রক্তাক্ত লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় নিহতের ছোট ভাই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত আজ এ রায় দেন।

আরও খবর

পোরশায় ৫ মাদক সেবী আটক

রবিবার ১৯ মে ২০২৪