Logo
আজঃ বুধবার ২২ মে ২০২৪
শিরোনাম

সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণ: কারখানার মালিকসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৩৭৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সীমা অক্সিজেন প্ল্যান্টে বিস্ফোরণের ঘটনার ৫৫ ঘণ্টা পর থানায় মামলা হয়েছে। গতকাল সোমবার দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে সীতাকুণ্ড মডেল থানায় মামলাটি রেকর্ড হয়।

মামলায় সীমা অক্সিজেন প্ল্যান্ট লিমিটেডের মালিক ও শীর্ষ কর্মকর্তাসহ ১৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোফায়েল আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আসামিরা হলেন- সীমা অক্সিজেন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মামুন উদ্দিন (৫৫), পরিচালক পারভেজ উদ্দিন (৪৮), আশরাফ উদ্দিন বাপ্পী, ব্যবস্থাপক আবদুল আলীম, প্ল্যান্ট অপারেটর ইনচার্জ শামসুজ্জামান শিকদার, প্ল্যান্ট অপারেটর- খুরশিদ আলম, সেলিম জাহান, নির্বাহী পরিচালক অ্যাডভোকেট কামাল উদ্দিন। কর্মকর্তা গোলাম কিবরিয়া এবং কর্মকর্তা সামিউল, সান্তনু রায়, ইদ্রিস আলী, সানা উল্লাহ, রকিবুল ও রাজিব।

সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণে আহত আরও একজনের মৃত্যু

ওসি তোফায়েল আহমেদ জানান, বিস্ফোরণে নিহত কাদের মিয়ার স্ত্রী রোকেয়া বেগম বাদী হয়ে সোমবার রাতে সীতাকুণ্ড থানায় মামলাটি করেন। এতে দায়িত্ব ও কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগ আনা হয়েছে।

পরিদর্শক (তদন্ত) আবু সাঈদ মামলাটি তদন্ত করবেন বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

নিহত কাদের মিয়া সীমা অক্সিজেন কারখানায় গ্যাস রিফিলের কাজে কর্মরত ছিলেন। তিনি নোয়াখালীর সুধারামপুরের ওলিপুর এলাকার মৃত মকবুল আহমদের ছেলে। স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে থাকতেন সীতাকুণ্ডের শীতলপুরে।

সীতাকুণ্ডের আগুন নিয়ন্ত্রণে, তদন্ত কমিটি গঠন

উল্লেখ্য, শনিবার বিকেলে কদমরসুল কেশবপুর এলাকায় সীমা স্টিলের অক্সিজেন প্ল্যান্টে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ভয়াবহ এ বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে কয়েক কিলোমিটার এলাকা। ঘটনাস্থলের আশপাশের প্রায় আধা কিলোমিটার এলাকায় ছিটকে পড়ে বিস্ফোরিত ইস্পাতের টুকরো। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

বিস্ফোরণে নিহত অন্যরা হলেন- লক্ষীপুরের কমলনগর থানার চরলরেন্স গ্রামের মহিজল হকের ছেলে মো. সালাউদ্দিন (৩৩), নেত্রকোনার কলমাকান্দা থানার ছোট মনগড়া গ্রামের খিতিশ রংদীর ছেলে রতন লকরেট (৫০), নেত্রকোনার দুর্গাপুর থানার বিজয়পুর গ্রামের মৃত বিম রুগার ছেলে সেলিম রিছিল (৩৯), সীতাকুণ্ডের মধ্যম-সলিমপুর গ্রামের মৃত আবুল বশরের ছেলে মো. ফরিদ (৩২) ও ভাটিয়ারি ইউনিয়নের জাহানাবাদ গ্রামের মৃত ইসমাইলের ছেলে শামসুল আলম (৬৫)। সর্বশেষ রোববার রাতে প্রবেশ লাল শর্মা (৫৫) নামের একজন চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে কাভার্ডভ্যান ভর্তি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারীকে আটক করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৭৬জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ থেকে:তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব ১২,সদর কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়াড্রন লীডার মোহাম্মদ ইলিয়াস খান এর নেতৃত্বে ঢাকা- রাজশাহী মহাসড়কে একটি অস্হায়ী চেক পোস্ট স্হাপন করা হয়। চেকপোষ্ট চলাকালে ১৭ মে রোজ শুক্রবার ০৫.৫০ ঘটিকায়  সিরাজগঞ্জ  জেলার  তাড়াশ থানাধীন মহাসড়কের চরহামকুড়িয়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয় বলে র‌্যাব-১২-এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মারুফ হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

আটকরা হলো, কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার রাজাকাচর গ্রামের আল আমিন (২২) ও বাঙ্গরাবাজার উপজেলার চাবিতলা গ্রামের এরশাদ ওরফে হৃদয় (২৭)।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে কাভার্ডভ্যানে অবৈধ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা বহন করা হচ্ছে ২১৬কেজি ও ২টি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করায় জানা যায় তাদের  বিরুদ্ধে দুটি করে মাদক মামলা তথ্য পাওয়া গেছে ও গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনানগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও খবর



সুন্দরবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে:ফায়ার সার্ভিস পরিচালক

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image
শেফালী আক্তার রাখি,মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি:পূর্ব সুন্দরবনের লতিফের সিলা এলাকায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। সোমবার বেলা ১০.৪০ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক অপারেশন ও মেইনটেনেন্স লে. কর্নেল তাজুল ইসলাম আনুষ্ঠানিকভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণের কথা ঘোষণা করেন। তিনি বরেন, '১০.৩৫ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। 

নৌবাহিনীর কর্মকর্তা কমান্ডার মো. বাশারুল ইসলাম, চাঁদপাই রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক(এসিএফ) রানা দেব, মোরেলগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো৷ আশিকুর রহমান,  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম তারেক সুলতান, থানার ওসি মোহাম্মদ সামসুদ্দীন, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম হাওলাদার এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক আরও বলেন, আগুন এখন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে। কোথাও আগুনোর ফুলকি বা ধোঁয়া নেই। তবে, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আরও ২ দিন কাজ করবে কালো ছাই সাদা করার জন্যে। এর পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বন ত্যাগ করবে

তিনি বলেন, ১০.৩৫ টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে। রবিবার থেকে টানা ৪৩ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস, নৌবাহিনী, বনবিভাগ, বিমানবাহিনী ও স্থানীয় শতশত স্বেচ্ছাসেবক। 

গত শনিবার(৪ মে) দুপুরে আমরবুনিয়া ফরেস্ট ক্যাম্পের অধীন লতিফের সিলা এলাকায় অগ্নিকান্ডের খবর পান বন বিভাগের কর্মকর্তারা।

আরও খবর



পত্নীতলায় কারিতাসের অ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের বাস্তবায়নে সমাজ পরিচালিত স্বায়িত্বশিল জীবিকায়ন ও সহনশীলতা কর্মসূচি (সিএমএলআরপি-২) প্রকল্পের স্থানীয় পর্যায়ে সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় প্রাপ্ত সেবাসমূহ স্বাস্থ্য সম্মত স্যানিটেশন, ভূমি সমস্যা সমাধান, খাস জমি বন্দোবস্ত ও জলবায়ু পরিবর্তনে আমাদের করনীয় শীর্ষক অ্যাডভোকেসি সভা মঙ্গলবার আকবরপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।    

কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের প্রকল্প কর্মসূচি (সিএমএলআরপি - ২) এর কর্মকর্তা একরামূল হকের সঞ্চালনায় ও আকবরপুর ইউপি চেয়ারম্যান ওবাইদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মনোরঞ্জন পাল। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পত্নীতলা প্রেসক্লাব ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরী, ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, ইসহাক আলী, আব্দুল খালেক উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্যবৃন্দ সহ এলাকার গণ্যমান্য বক্তিবর্গ ও উপকারভোগীগণ।

আরও খবর



গাজায় নিহত ৫৬ শতাংশ নারী ও শিশু: জাতিসংঘ

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ইসরায়েল অবিরাম হামলা চালিয়ে যাচ্ছে ফিলিস্তিনের গাজা ভূখণ্ডে।টানা সাত মাসেরও বেশি সময় ধরে চালানো এই হামলায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন প্রায় ৩৫ হাজার ফিলিস্তিনি। এই আগ্রাসনে নিহতদের বেশিরভাগই নারী ও শিশু।

এবার জাতিসংঘও এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। সংস্থাটি বলছে, গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসনে নিহত ফিলিস্তিনিদের অন্তত ৫৬ শতাংশই নারী ও শিশু। বুধবার (১৫ মে) এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

জাতিসংঘ বলছে, গাজা যুদ্ধে নিহত হাজার হাজার মানুষের মধ্যে অন্তত ৫৬ শতাংশ নারী ও শিশু। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে চলা ইসরায়েলের নিরলস আগ্রাসনে অন্তত ৩৫ হাজার ১৭৩ জন নিহত হয়েছেন।

মূলত গাজা কর্তৃপক্ষ ক্রমাগত বলেছে, উপত্যকায় ইসরায়েলি হামলায় নিহতদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছে, গত ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত গাজায় নিহতদের মধ্যে প্রায় ২৫ হাজার জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৪০ শতাংশ পুরুষ, ২০ শতাংশ নারী এবং ৩২ শতাংশ শিশু এবং ৮ শতাংশ বয়স্ক মানুষ রয়েছেন।

মঙ্গলবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মুখপাত্র ক্রিশ্চিয়ান লিন্ডমেয়ার বলেছেন, নতুন এই পরিসংখ্যাটি এখন পর্যন্ত সরবরাহ করা তথ্যগুলোর মধ্যে ‘সবচেয়ে ব্যাপক’।

তিনি জেনেভায় সাংবাদিকদের বলেন, অজ্ঞাত পরিচয়ের ক্ষেত্রে একই অনুপাত প্রয়োগ করলে এবং নিহত বয়স্ক নাগরিকদের অর্ধেক নারী হলে এটা আশা করা যেতেই পারে যে, নিহত ৩৫ হাজারেরও বেশি মানুষের মধ্যে অন্তত ‘৫৬ শতাংশ নারী ও শিশু’ রয়েছে। তারপরও এটি বিবেচনায় নেওয়া হচ্ছে না, কারণ হাজার হাজার মানুষ এখনও সম্ভবত ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকে রয়েছে বলে বিশ্বাস করা হয়। এছাড়া তাদের মধ্যে আরও বেশি সংখ্যক নারী এবং শিশু থাকার সম্ভাবনা অনেক বেশি। কারণ নারী ও শিশুরাই সাধারণত বাড়িতে অবস্থান করে থাকেন। সুতরাং ‘ন্যূনতম পরিসংখ্যানগত গণনা’ থেকে বলা যায়, গাজায় নিহতদের ৬০ শতাংশ নারী এবং শিশু হতে পারে।

এদিকে জাতিসংঘের শিশু নিরাপত্তা ও অধিকার বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফের প্রধান বলেছেন, গত বছরের ৭ অক্টোবর যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে গাজায় ১৯০ জনেরও বেশি জাতিসংঘ কর্মী নিহত হয়েছেন। ক্যাথরিন রাসেল সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে দেওয়া এক পোস্টে বলেছেন, ‘সেবা করার সময় মানবতাবাদীদের অবশ্যই সবসময় সুরক্ষিত রাখতে হবে।’

মূলত গতকাল ইসরায়েলি সেনাবাহিনী গাজায় যুদ্ধ শুরুর পর জাতিসংঘের প্রথম কোনও বিদেশি কর্মীকে হত্যা করেছে। রাফাতে পরিষ্কারভাবে চিহ্নিত জাতিসংঘের একটি গাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে হত্যা করে ইসরায়েলি সেনারা।


আরও খবর



রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, রানুর ভরাডুবি, বিজয়ী হাবিব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

আবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:দ্বিতীয় ধাপে ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। হাবিবুর রহমান হাবিব (১ লাখ ১৮ হাজার ৬৪১) ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতীকের আবু হোসেন ভুইয়া রানু (২১ হাজার ২৫৪ ) ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন। 

ফলাফল ঘোষণা করেন, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সরকারি রিটার্নিং অফিসার আহসান মাহমুদ রাসেল।

মঙ্গলবার সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট চলাকালীন সময় কোথাও কোন বিশৃঙ্খলা বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এছাড়া কোন প্রতিদদ্বন্ধি না থাকায় বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান পদে রংধনু গ্রুপের পরিচালক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবমহিলা লীগের সভাপতি ফেরদৌসি আক্তার রিয়া।

জানা গেছে, ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করেছে। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী সদস্য আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিব দোয়াত কলম প্রতীকে ও রূপগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু হোসেন ভুইয়া রানু আনারস প্রতীকে নির্বাচন করেছেন। তবে হাবিব সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) সঙ্গে উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত থাকায় এবং সামনে দ্বিগুন উন্নয়নের জন্য এবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিবকেই চেয়েছিলো স্থানীয় ভোটররা। ভোটের দিনও কথা রেখেছে ভোটররা। হাবিবের বিপুল ভোটে জয়ই তার প্রমাণ। 

এদিকে, নির্বাচনে ভোটের মাঠে ভরাডুবির শঙ্কা ছিল আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবু হোসেন ভুইয়া রানু। এ কারণে তিনি নির্বাচনে ভরাডুবির কথা চিন্তা করে প্রচার প্রচারনা চালাননি। সেই শঙ্কাই বাস্তবে রূপ নিলো আবু হোসেন ভুইয়া রানুর ক্ষেত্রে। (৯৭ হাজার ৩৮৭ ) ভোটের ব্যবধানে রানুর পরাজয়ই তার প্রমাণ।

ভোটাররা জানান, সাবেক পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী এবং নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) এর নেতৃত্বে গত ১৫ বছরে রূপগঞ্জে রাস্তাঘাট, ফ্লাইওভার নির্মাণ, সেতু নির্মাণ, স্কুল-কলেজ, মসজিদ মাদ্রাসা, মন্দিরের নতুন ভবন নির্মাণ, নতুন নতুন শিল্প কলকারখানা গড়ে উঠা, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, শিক্ষার মানউন্নয়নসহ নানা উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ড হয়েছে। এতে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে। এ পরিশ্রমের অংশীদার হয়েছেন আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনি গোলাম দস্তগীর গাজীর সঙ্গে থেকে রাত দিন পরিশ্রম করে এ উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এ জন্য এসব উন্নয়নে হাবিবুর রহমান হাবিবের অবদান রয়েছে। তাই হাবিবুর রহমান হাবিবকেই ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসবে বিজয়ী করেছি।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার তাজাল্লী ইসলাম বলেন, কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিপুল পরিমাণ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা ছিলো।

         -খবর প্রতিদিন/ সি.ব

আরও খবর