Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

সালাম মুর্শেদীর বাড়ির ভিডিও সরাতে ব্যারিস্টার সুমনকে নির্দেশ

প্রকাশিত:সোমবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩০০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিচারাধীন বিষয় হওয়ায় খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি সংক্রান্ত দুটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে সরাতে ব্যারিস্টার সুমনকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এই মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি নিয়ে কোনো ধরনের ভিডিও তৈরি ও প্রকাশ না করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সালাম মুর্শেদীর আইনজীবীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আজ সোমবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালত এই রিট মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি দিন নির্ধারণ করেছেন।

আদালতে সালাম মুর্শেদীর পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট প্রবীর নিয়োগী, অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা। সঙ্গে ছিলেন সালাম মুর্শেদীর মেয়ে ব্যারিস্টার শেহরিন সালাম ঐশী।

ব্যারিস্টার সুমনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। রাজউকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জাকির হোসেন মাসুদ। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশিদ আলম খান।

এর আগে সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি সংক্রান্ত রাজউকের প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল করা হয়েছে। সোমবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। প্রতিবেদন দাখিল করেন রাজউকের আইনজীবী জাকির হোসেন মাসুদ। 


আরও খবর



মেহেরপুরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর সুবর্ণ জয়ন্তী পালিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৬জন দেখেছেন

Image

মেহেরপুর প্রতিনিধিঃআলোচনা সভা, কেক কাটা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মেহেরপুরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর সুবর্ণ জয়ন্তী পালিত হয়েছে।

সোমবার (গতরাতে) রাতে মেহেরপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমীর উদ্যোগে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মো. শামীম হাসান কেক কেটে বাংলাদেশের শিল্পকলা একাডেমীর সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানের সূচনা করেন। এ সময় সেখানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা শিল্পকলা একাডেমী সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান।

পরে শিল্পকলা একাডেমি শিল্পীদের সমন্বয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। মেহেরপুর জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সহ-সভাপতি নুরুল আহমেদ, শাশ্বত নিপ্পন চক্রবর্তী সহ জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সদস্যরা এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



রামগড় থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেট সহ মো. ইয়াছিন (৩২)নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। 

শুত্রুবার (৯ ফেব্রুয়ারি)রাত ১টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রামগড় থানার উপ-পরির্দশক (এসআই)সেন্টু চন্দ্র দাস সঙ্গীয় ফোর্সসহ রামগড় থানার জি.ডি নং— ৩৯৩, মূলে রামগড় থানা এলাকায় রাত্রিকালীন জরুরী ডিউটি পরিচালনাকালে রামগড় পৌরসভার ০৯ নং ওয়ার্ডস্থ রামগড় বাজারের কাউছার ক্রোকারিজ দোকানের সামনে আসামী মো. ইয়াছিন (৩২)কে তার দেহ তল্লাসী চালিয়ে ৫৪  পিস ইয়াবা ট্যাবলেট  মাদক বিক্রয়ের নগদ ১,১৫০/-সহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী -মো. ইয়াছিন (৩২) ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া উপজেলার জগন্নাথ সোনাপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা কুদ্দুস মিয়ার ছেলে। রামগড় থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে রামগড় থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে আসামীমে যথা সময়ে বিজ্ঞ আদালতে সোর্পদ করা হবে। 

আরও খবর



গাংনীতে যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের কর্মশালা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ,মেহেরপুর প্রতিনিধিঃমেহেরপুরের গাংনীতে যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের উপর কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে পলাশীপাড়া সমাজ কল্যাণ সমিতির হলরুমে অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় প্রধান অতিথী ছিলেন গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রীতম সাহা। কর্মশালার আয়োজ করেন জাতীয় যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী ও ব্রাক।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. আদিলা আজহার আরশীর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথী ছিলেন ডা. আব্দুল্লাহ আল আরাফাত, গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএলসিএ জাহিদুল ইসলাম ও ধানখোলা ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান মফিজুল ইসলাম।

ব্রাকের জেলা সমন্বয়কারী শেখ মনিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা ম্যানেজার অচীন্ত কুমার। প্রজেক্টরের মাধ্যমে যক্ষার বিস্তারিত তুলে ধরেন ডিএসএমও ডা. হুমাইরা আয়েশা। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ, এনজিও প্রতিনিধি ও সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ডাকাতির ঘটনায় আন্ত:জেলা ডাকাত সর্দারসহ ৬ ডাকাত আটক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৪৪জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:দিনাজপুরের সীমান্তবর্তী হিলিতে ইউনাইটেড রাইস মিলে দূধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় ৬ দিন পর আন্ত:জেলা ডাকাত সর্দারসহ ৬ ডাকাতকে আটক করেছে। দিনাজপুর ডিবি পুলিশ ও হাকিমপুর থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে বুধবার রাতভার জেলার ফুলবাড়ি,চিরিরবন্দর, খানসামা ও হাকিমপুরে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এসময় ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি চাইনিজ কুড়াল, একটি গ্রিল কাটার যন্ত্র। দুইটি টর্চ লাইট, দুইটি ট্রাভেল ব্যাগ, তিনটি মোবাইল ফোন ও ৯ হাজার ৩শ’ টাকা উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, ডাকাত সর্দার আলিম হোসেন (৪০)। সে হাকিমপুর উপজেলার মধ্যবাসুদেবপুর মহল্লার ইমান আলীর ছেলে। দিনাজপুরে সদরের করিমুল্লাপুর মহল্লার রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রহিম (৬৮), নিউটাউন উপশহরের দুলাল মিয়ার ছেলে শামিম ওরফে পবন (৩০), কসবা (পুলহাট) মহল্লার আব্দুস জব্বারের ছেলে আব্দুস সোহগ (৩৪), নিমনগড় মহল্লার কান্দু মাসুদের ছেলে বকুল হোসেন (৫০) এবং জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার ভাবকি গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে ফরিদুল ইসলাম (৪৫)।

হাকিমপুর থানা ওসি দুলাল হোসেন জানান, আটককৃত ডাকাত সদস্যরাসহ অন্তত ১২-১৫ জনের একটি ডাকাত দল গত ১৫ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার ) গভীর রাতে সীমান্তবর্তী হিলির মধ্যবাসুদেবপুরে অবস্থিত ইউনাইটেড রাইসমিলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে প্রবেশ করে। এরপর নৈশ্য প্রহরীর হাত-পা ও চোখ বেঁধে অফিসের দরজা ভেঙে প্রবেশ করে। সেভানে ঘুমন্ত কর্মচারীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে লকার ভেঙে ৪ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এরপর তথ্য প্রযুক্তির সহযোগীতায় তাদের আটক করা হয়। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



বিচারকদের প্রতি রাষ্ট্রপতি

"ক্ষমতা প্রয়োগে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেওয়ার আহ্বান"

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বিচারকদের উদ্দেশে বলেছেন, ক্ষমতা প্রয়োগের ক্ষেত্রে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে।

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীতে সুপ্রিম কোর্টের ইনার কোর্ট ইয়ার্ডে দুই দিনব্যাপী ‘একবিংশ শতাব্দীতে দক্ষিণ এশিয়ার সাংবিধানিক আদালত: বাংলাদেশ ও ভারত থেকে শিক্ষা’ শীর্ষক কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ক্ষমতার সঙ্গে দায়িত্ব ওতপ্রোতভাবে জড়িত। দায়িত্ব পালনের জন্য ক্ষমতা প্রয়োগ করতে হবে। আবার ক্ষমতা প্রয়োগের ক্ষেত্রে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে এবং ক্ষমতার যেন অপব্যবহার না হয় সেদিকে কঠোরভাবে খেয়াল রাখতে হবে।

বিচারকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, দেশ, জনগণ ও সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে। বিচার প্রার্থীরা অত্যন্ত কম খরচে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে ন্যায়বিচার পাবে ও বিচারকরা তাদের মেধা এবং মননশীলতার মাধ্যমে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করবেন।

দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় বিচার বিভাগকে সামিল হতে হবে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপ্রধান বলেন, সরকার বিচার বিভাগের স্বচ্ছতা, দক্ষতা এবং জবাবদিহি নিশ্চিতের জন্য দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি বলেন, ১৯৭২ সালের ১৮ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট তার যাত্রা শুরু করেছে এবং প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই এটা মানুষের মৌলিক মানবাধিকার রক্ষা, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং স্বল্প সময়ে বিচার প্রার্থীদের ন্যায়বিচার দিতে কাজ করে যাচ্ছে।

মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, জাতির ক্রান্তিকালে যখনই প্রয়োজন হয়েছে, সুপ্রিম কোর্ট তার ওপরে অর্পিত দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে মানুষের মৌলিক মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা এবং সংবিধানকে রক্ষা করেছে। শান্তি ও সংকটে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট সংবিধানের অভিভাবক ও রক্ষক হিসেবে মর্যাদাপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

রাষ্ট্রপতি আরও বলেন, ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি সোনার বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট ষড়যন্ত্রকারীদের সেই নীল নকশা বাস্তবায়িত হতে দেয়নি। বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট সংবিধানের ৫ম ও ৭ম সংশোধনীকে অবৈধ ঘোষণা করে দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকারকে প্রতিষ্ঠা করেছে।

রাষ্ট্রপ্রধান সুপ্রিম কোর্টের সে সময়ের অকুতোভয় বিচারপতি ও আইনজীবীদের যারা বন্দুকের নলের কাছে নতি স্বীকার করেননি ও বিবেককে কখনো বিকিয়ে দেননি, তাদের ভূমিকাকে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত দক্ষিণ এশিয়ার দুটি বন্ধুপ্রতিম দেশ হিসেবে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, গণতন্ত্রের উন্নয়ন ও সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষায় তাদের নিজ নিজ যাত্রায় অনন্য পথ অতিক্রম করেছে। বাংলাদেশ ও ভারত উভয় দেশই এমন দৃষ্টান্ত প্রত্যক্ষ করেছে যেখানে বিচার বিভাগ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর অধিকার রক্ষায়, পরিবেশগত টেকসই উন্নয়ন এবং সুশাসনের নীতিগুলোকে সমুন্নত রাখতে হস্তক্ষেপ করেছে।

ভারত আমাদের নিকটতম প্রতিবেশী ও বন্ধুপ্রতিম দেশ উল্লেখ করে সাহাবুদ্দিন ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ভারতের সহযোগিতা ও সহমর্মিতার জন্য বাংলাদেশের জনগণের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর থেকেই বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক ক্রমান্বয়ে বাণিজ্য-বিনিয়োগসহ বিভিন্ন খাতে সম্প্রসারিত হচ্ছে। দু’দেশের বিচার বিভাগ, বিচারক ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মধ্যে অভিজ্ঞতা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বিনিময়ের মাধ্যমে উভয় দেশের বিচার বিভাগ, বিচারক ও জনগণ উপকৃত হতে পারে বলে মনে করেন রাষ্ট্রপতি।

বাংলাদেশ ও ভারতের সাংবিধানিক আদালতগুলোকে মামলা জট নিরসন, ন্যায়বিচারে প্রবেশাধিকার এবং বিচারিক জবাবদিহিতার মতো বিষয়গুলোতে মনোযোগ দেওয়ার পাশাপাশি বিচার বিভাগের উন্নয়নে সমন্বিত পদক্ষেপ নেওয়ার কথাও বলেন রাষ্ট্রপ্রধান।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, ভারতের প্রধান বিচারপতি ড. ধনঞ্জয় যশবন্ত চন্দ্রচূড়, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. মোমতাজ উদ্দিন ফকির এবং আপিল বিভাগের বিচারপতি বোরহান উদ্দিন।


আরও খবর