Logo
আজঃ Monday ২৭ June ২০২২
শিরোনাম

‘র‌্যাগিং কালচার’ শিক্ষা জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে

প্রকাশিত:Friday ১৮ March ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩০০জন দেখেছেন
Image

সিলেট প্রতিনিধিঃ

সিনিয়র-জুনিয়র পরিচিত পর্ব ‘র‌্যাগিং ক্যালচার’কে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যান্সার বলে মন্তব্য করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।  


বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের মিনি অডিটোরিয়ামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।


উপাচার্য বলেন, তরুণ শিক্ষার্থীরা অনেক স্বপ্ন-আকাঙ্ক্ষা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন। তবে ক্যাম্পাসে এসে সিনিয়র-জুনিয়র পরিচিতির নামে র‌্যাগিংয়ের শিকার হতে হয় নবীনদের। যা তাদের স্বপ্নকে দুর্বিষহ করে তোলে। এমনকি অনেকে র‌্যাগিং সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা পর্যন্ত করে বসেন।


র‌্যাগিংয়ের বিষয়ে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় একটি র‌্যাগিং মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। কয়েক বছর ধরে আমাদের ক্যাম্পাসে কোনো ধরনের র‌্যাগিং নেই। তবে নবীন শিক্ষার্থীদের আগমনকে কেন্দ্র করে র‌্যাগিংয়ের মতো কোনো ধরনের ঘটনা যেন না ঘটে, সেজন্য আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। আবার কিছু জ্ঞানপাপী আছেন, যারা বলেন- সিনিয়রদের সঙ্গে জুনিয়রের পরিচিত হওয়ার জন্য হলেও র‌্যাগিং দরকার! এর থেকে লজ্জার ব্যাপার আর থাকতে পারে না। তাই সবাইকে র‌্যাগিংয়ের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহ্বান রইলো।


বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক নির্মূল প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে উল্লেখ করে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, বর্তমানে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় মাদকমুক্ত। কয়েক বছর ধরে আমরা নতুন শিক্ষার্থীদের ডোপ টেস্ট করিয়ে ভর্তি করছি, যা এখন সরকারি কর্ম কমিশন থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় অনুসরণ করে। তাই ক্যাম্পাসে কেউ যেন মাদক সেবন ও ব্যবসা করতে না পারে সেজন্য আমাদের সজাগ থাকতে হবে।


আলোচনা সভায় বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. এস এম সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গবেষণা সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. আব্দুল গনির সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মস্তাবুর রহমানসহ বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধানরা, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ছাত্রলীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

   


আরও খবর



অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার নেবে এসিআই

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

 

অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে (এসিআই) ‘অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার’ পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ২২ জুন পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: অ্যাডভান্সড কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড (এসিআই)
বিভাগের নাম: ভ্যাট

পদের নাম: অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার
পদসংখ্যা: নির্ধারিত নয়
শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর/স্নাতক
অভিজ্ঞতা: ০৩-০৫ বছর
বেতন: আলোচনা সাপেক্ষে

চাকরির ধরন: ফুল টাইম
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: ৩০-৩৫ বছর
কর্মস্থল: গাজীপুর

আবেদনের নিয়ম: আগ্রহীরা https://jobs.bdjobs.com এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

আবেদনের শেষ সময়: ২২ জুন ২০২২

সূত্র: বিডিজবস ডটকম


আরও খবর



প্রেমিকাকে খুশি করতে ব্যাংক থেকে ৭ কোটি টাকা ‘চুরি’ ম্যানেজারের!

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ২৬জন দেখেছেন
Image

কথায় বলে, ভালোবাসা অন্ধ। কিন্তু অন্ধপ্রেম যে কত বড় বিপদ ডেকে আনতে পারে, তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন ভারতের এক ব্যাংক ম্যানেজার। প্রেমিকার জন্য বিরাট অংকের আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে জেলে রয়েছেন তিনি।

পুলিশের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, অভিযুক্তের নাম হরি শংকর। বেঙ্গালুরুর হনুমন্তনগরের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকের ম্যানেজার তিনি। সম্প্রতি ডেটিং অ্যাপে এক তরুণীর সঙ্গে আলাপ হয়েছিল শংকরের। ধীরে ধীরে তাদের সম্পর্ক গভীর হয়। আর তারপরই ব্যাংক থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে প্রেমিকার সামনে ‘হিরো’ হওয়ার চেষ্টা করেন সেই ব্যক্তি।

ওই ব্যাংকের জোনাল ম্যানেজারের অভিযোগ, আর্থিক অনিয়মের মাধ্যমে ৫ কোটি ৭০ লাখ রুপি (৬ কোটি ৭৬ লাখ টাকা প্রায়) তুলে নিয়েছেন ব্যাংক ম্যানেজার শংকর। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৩ থেকে ১৯ মে’র মধ্যে। এতে শংকর একা নয়, সাহায্য করেছেন ব্যাংকের দুই সহকর্মী কৌশল্যা এবং মুনিরাজুও।

ব্যাংক থেকে অর্থ লোপাটের অভিযোগে এরই মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে শংকরকে। আপাতত ১০ দিনের জন্য পুলিশি হেফাজতে রয়েছেন অভিযুক্ত। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তার দুই সহকর্মীকেও।

পুলিশ জানিয়েছে, এক নারী গ্রাহক ওই ব্যাংকে ১ কোটি ৩০ লাখ রুপি ফিক্সড ডিপোজিট করেছিলেন, যা দেখিয়ে ৭৫ লাখ রুপি লোন নেন। এর জন্য প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র ব্যাংকে জমা দিয়েছিলেন তিনি।

অভিযোগ, সেই কাগজপত্র এবং ফিক্সড ডিপোজিটকে কাজে লাগিয়েই প্রতারণার ছক কষেন শংকর। গ্রাহকের ওই অর্থকে সিকিউরিটি হিসেবে রেখে ৫ কোটি ৭০ লাখ রুপি তুলে নেওয়া হয় ওই ব্যাংক থেকে। এই অর্থ কয়েক ভাগে ভাগ করে পশ্চিমবঙ্গ-কর্ণাটকের বিভিন্ন শহরের মোট ২৮টি আলাদা আলাদা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রেখে দেওয়া হয়।

পুলিশ জানতে পেরেছে, এই বিপুল অর্থ সরাতে মোট ১৩৬ বার ব্যাংক লেনদেন করা হয়েছিল। আর সেই কাজে শংকরকে সাহায্য করেন ওই দুই সহকর্মী। তবে তাদের জোর করে এ কাজ করানো হয়েছে কি না, তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন শংকর। তার দাবি, ডেটিং অ্যাপে তরুণীর সঙ্গে আলাপের লোভ দেখিয়ে তার থেকে এই বিরাট অংকের অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে সাইবার অপরাধীরা। অভিযুক্তের এই বয়ানও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন


আরও খবর



ঢাবির সিনেট অধিবেশনে আসছেন না নুর

প্রকাশিত:Thursday ১৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
Image

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিনেট অধিবেশনে যোগ দিচ্ছেন না ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে তিনি এ কথা জানান। পরে ফেসবুক পোস্টের সত্যতাও জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন নুরুল হক নুর।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশন শুরু হতে যাচ্ছে। এ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন সিনেটের চেয়ারম্যান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান।

ফেসবুক পোস্টে নুরুল হক নুর লেখেন, ‘ডাকসুবিহীন ডাকসুর প্রতিনিধি হয়ে সিনেটের কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করা নৈতিকতাবিরোধী। যে কারণে গত এক বছর সিনেট সদস্য হিসেবে বিভিন্ন মিটিংয়ে আমন্ত্রণ পেলেও আমি সেসব মিটিংয়ে অংশ নেয়নি। আগামীকালের বাজেট অধিবেশনেও অংশ নিচ্ছি না। অনতিবিলম্বে ডাকসু নির্বাচন দিয়ে সিনেটে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করা হোক। ভালো থাকুক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ভালো থাকুক দেশ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভালো থাকলে ভালো থাকবে দেশ।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্টে বিষয়ে পরে নুরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের জন্য কথা বলার মূল প্ল্যাটফর্ম ডাকসু নেই। সেখানে শুধুমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে সিনেটে কথা বলতে যাওয়া অনৈতিক। আমরা চাই, ডাকসুতে নির্বাচিত হয়ে শিক্ষার্থী প্রতিনিধিরাই সিনেটে প্রতিনিধিত্ব করুক। সিনেট অধিবেশন ছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সিনেট সদস্য হিসেবে ডাকা হলেও আমি সেসব অনুষ্ঠানে যাইনি। ডাকসুর মেয়াদ শেষ হয়েছে। এখন ডাকসুর ভিপি হিসেবে সিনেটে যাওয়া নৈতিকতাবিরোধী বলে মনে করি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি ডাকসু নির্বাচনের মাধ্যমে সিনেটে ছাত্র প্রতিনিধি আনার জন্য একাধিকার বলেছি। বর্তমান প্রশাসন আমাদের কথায় কর্ণপাত করেননি। আমি চাই, সিনেটে শিক্ষার্থীদের প্রকৃত প্রতিনিধিরাই শিক্ষার্থীদের দাবি-দাওয়া, অধিকার নিয়ে কথা বলুক।’

এদিকে, অধিবেশনে ২০২২-২৩ অর্থবছরের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯২২ কোটি ৪৮ লাখ টাকার বাজেট উপস্থাপন করা হবে। সিনেটে আলোচনার পর নতুন অর্থবছরের বাজেট ও চলতি অর্থবছরের (২০২১-২২) সংশোধিত বাজেট চূড়ান্ত হবে।


আরও খবর



জেলায় জেলায় বিজয় আনন্দ

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ১৩জন দেখেছেন
Image

খুলল স্বপ্নের দুয়ার। উদ্বোধন হলো সক্ষমতার পদ্মা সেতু। শনিবার (২৫ জুন) দুপুর ১২টার দিকে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে সুধী সমাবেশের পর সেতুর ফলক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনকে ঘিরে সেতুর দুই প্রান্তে উৎসবমুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। উৎসবে মেতে ওঠে পুরো দেশ। জেলায় জেলায় র্যালি, আলোচনা সভা ও অনুষ্ঠানসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়।

জাগো নিউজের নিজস্ব প্রতিবেদক, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক, জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

খুলনা: জেলা স্টেডিয়ামে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠান বড় পর্দায় সরাসরি প্রদর্শিত হয়। এসময় সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. শহিদুল ইসলাম, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাসুদুর রহমান ভূঞা, রেঞ্জ ডিআইজি ড. খ. মহিদ উদ্দিন, কেডিএর চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এসএম মিরাজুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার, জেলা পরিষদের প্রশাসক শেখ হারুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

jagonews24

ঝিনাইদহ: পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে ঝিনাইদয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে শহরের প্রেরণা একাত্তর চত্বর থেকে শোভাযাত্রাটি বের করা হয়ে বিভিন্ন সড়ক ঘুরে পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বরে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় শৈলকূপা-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল হাই, জেলা প্রশাসক মনিরা বেগম, পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলাম, জেলা পরিষদের প্রশাসক কনক কান্তি দাস, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মকবুল হোসেনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গোপালগঞ্জ: পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় আনন্দ শোভাযাত্রা করেছে উপজেলা প্রশাসন। সকাল ১০টায় শোভাযাত্রাটি উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে বের হয়ে কেড়াইলকোপা অডিটরিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আল মামুনের নেতৃত্ব দেন। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

jagonews24

যশোর: বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে যশোরে। সকাল থেকে শহরের টাউন হল মাঠে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত হন। পরে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান। এসময় পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা পরিষদের প্রশাসক সাইফুজ্জামান পিকুল, পৌরসভার মেয়র মুক্তিযোদ্ধা হায়দার গণি খান পলাশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কক্সবাজার: পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে কক্সবাজারে নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বড় পর্দার মধ্যদিয়ে সেতুর উদ্বোধনের অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার দেখানো হয়। এসময় সেতুর ছবি সম্বলিত টি-শার্ট, ক্যাপ মাথায় দিয়ে শত শত মানুষ সেখানে উপস্থিত হন।

অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান, কক্সবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন, সরকারি মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ মো. সোলেমান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মাহবুবুল হক মুকুল, জেলা যুবলীগ সভাপতি সোহেল আহমেদ বাহাদুর, জেলা শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারী ও জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

jagonews24

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়: সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ মিলনায়তনে বড় পর্দায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন সরাসরি প্রদর্শনসহ র্যালি ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েরর্য র্যালিটি ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ থেকে শুরু হয়ে ড. এ আর মল্লিক প্রশাসনিক ভবনের সামনে শেষ হয়।

এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এসএম মনিরুল হাসান, উপ-উপাচার্য (অ্যাকাডেমিক) অধ্যাপক বেনু কুমার দে, প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. সেলিনা আখতার ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. সজীব কুমার ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী): পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় রাখাইন পাড়াগুলোতে পিঠা উৎসবসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সকালে জেলার মিশ্রিপাড়া বৌদ্ধ বিহারে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

jagonews24

মেহেরপুর: জেলায় বর্ণাঢ্য শোভযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। শোভাযাত্রাটি জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ড. শহীদ সামসুজ্জোহা পার্কে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক ড. মুনছুর আলম খান পুলিশ সুপার রাফিউল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক, সহ-সভাপতি অ্যাডভোটেট ইয়ারুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নরসিংদী: শোভাযাত্রা, বড় পর্দায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন প্রদর্শনসহ দিনভর নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে। জেলা প্রশাসন প্রাঙ্গণ থেকে শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে মুসলেহ উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক আবু নঈম মোহাম্মদ মারুফ খান, পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজিম, সিভিল সার্জন নুরুল ইসলাম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোতালিব পাঠান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নড়াইল: র‌্যালি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আতশবাজির মধ্যদিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন পালিত হয়। র‌্যালিটি জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বর থেকে শুরু হয়ে বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহম্মদ স্টেডিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। এসময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়, আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

jagonews24

পঞ্চগড়: পদ্মা সেতুর প্রতিকৃতি ও শোভাযাত্রার মধ্যদিয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উৎসবে অংশ নেয় মানুষ। জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সামনে থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রায় হাজার হাজার মানুষ অংশ নেয়। পরে শেরে বাংলা মুক্তমঞ্চ ও সরকারি অডিটোরিয়ামে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

রাজবাড়ী: বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উৎসবের শামিল হয় মানুষ। এর আগে বড় পর্দায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শিত হয়। এ সময় জেলা প্রশাসক আবু কায়সার খান, পুলিশ সুপার এমএম শাকিলুজ্জামান, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম টিটোন, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক এসএম শহীদ নূর আকবর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। পরে সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়: বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসন ভবন থেকে শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে শেষ হয়।

jagonews24

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার, উপ-উপাচার্য চৌধুরী মো. জাকারিয়া ও অধ্যাপক মো. সুলতান-উল-ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক (অব.) মো. অবায়দুর রহমান প্রামাণিক, প্রক্টর অধ্যাপক মো. আসাবুল হক, ছাত্র উপদেষ্টা এম তারেক নূর, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

টাঙ্গাইল: সকালে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি শোভাযাত্রা বের হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. ফরহাদ হোসেনের নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি প্রশাসনিক ভবনের সামনে বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো. সিরাজুল ইসলামসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

কিশোরগঞ্জ: দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালিত হয়। সকালে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শহরের গুরুত্বপূর্ণ ভবনে আলোকসজ্জা করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের মূল সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুরাতন স্টেডিয়ামে গিয়ে শেষ হয়।

jagonews24

এসময় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ, জেলা পরিষদের প্রশাসক অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম. এ আফজল, কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহমুদ পারভেজ, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মামুন আল মাসুদ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পিরোজপুর: জেলায় আনন্দ মিছিল ও বড় পর্দায় সরাসরি পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে দেখানো হয়। মিছিলটি শহরের বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে শুরু হয়ে স্টেডিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে জেলা প্রশাসক মো. জাহেদুর রহমান, পুলিশ সুপার মো. সাইদুর রহমান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খানম, জেলা যুবলীগের সভাপতি আখতারুজ্জামান ফুলু, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আহসান প্রমুখ অনুষ্ঠানে উপভোগ করেন।

রাঙ্গামাটি: পদ্মা সেতুর মাহেন্দ্রক্ষণ উপভোগে বর্ণিল শোভাযাত্রা বের হয়। জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জিমনেশিয়াম মাঠে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে বড় পর্দায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের অনুষ্ঠান দেখেন সবাই। পরে সন্ধ্যায় আতজবাজি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


আরও খবর



বিদেশে বাংলাদেশের দূতাবাসগুলোতে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উদযাপন

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশের সবগুলো জেলাই শুধুমাত্র পদ্মা সেতু উদ্বোধনী আমেজে মজেনি, বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসগুলোতেও জমকালোভাবে এই অনুষ্ঠান উদযাপন করেছে। ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জাতির দীর্ঘ প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উদযাপন করেছে ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাস।

শুক্রবার (২৪ জুন) রাতে ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, পদ্মা সেতু আমাদের অহংকার। এটি আমাদের গৌরব ও আত্মমর্যাদার প্রতীক।

তিনি বলেন, দেশ-বিদেশে ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী ও বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত ও নেতৃত্বের পাশাপাশি দৃঢ় সংকল্প ও মনোবলের কারণে দেশের বৃহত্তম অবকাঠামো প্রকল্প বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে। এর আগে ডেপুটি চিফ অব মিশন ফেরদৌসী শাহরিয়ার স্বাগত দেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট জুনাইদ আহমেদ বলেন, নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ দেশের জন্য বিশাল গৌরবের ব্যাপার। গত কয়েক বছরে দেশের যোগাযোগ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। পদ্মা সেতু এই খাতকে আরও শক্তিশালী করেছে।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, পদ্মা সেতু বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশের মর্যাদা অর্জনের পাশাপাশি উচ্চ আয়ের দেশে পরিণত করায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

নিউইয়র্কস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধনের ঐতিহাসিক মুহূর্ত উদযাপন করা হয়। এজন্য কনস্যুলেটে বাংলাদেশ সময়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে এক বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনসাল জেনারেল ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম পদ্মা সেতু নির্মাণে প্রবাসীদের অবদানের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন। নিউইয়র্কে বসবাসকারী বীর মুক্তযোদ্ধা, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিসহ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশির অংশগ্রহণে কনস্যুলেটে এক আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

ভিয়েতনামের বাংলাদেশ দূতাবাসেও পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উদযাপন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে ভিয়েতনামে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত সামিনা নাজ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী ও বলিষ্ঠ পদক্ষেপ এবং যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণের ফলে বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের ফলে রাজধানীর সঙ্গে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার নিরবচ্ছিন্ন, সাশ্রয়ী ও দ্রুত যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হলো। অন্যদিকে, এই সেতুর ফলে সার্বিকভাবে দেশের উৎপাদন ১ দশমিক ২৩ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। প্রতি বছর ০.৮৪ শতাংশ হারে দারিদ্র্য নিরসনের মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এ সেতু অনন্য অবদান রাখবে।

এদিকে, লেবাননের বৈরুতে বাংলাদেশ দূতাবাস ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের দীর্ঘ প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উদযাপন করেছে। শনিবার দূতাবাসের হলরুমে রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান, প্রথম সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ দূতাবাসের সব কর্মকর্তা ও প্রবাসী বাংলাদেশিরা টেলিভিশনে পদ্মা সেতুর জাঁকজমকপূর্ণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সরাসরি সম্প্রচার প্রত্যক্ষ করেন।

jagonews24

অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশ থেকে পাঠানো রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ এবং পদ্মা সেতুর ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। রাষ্ট্রদূত বলেন, পদ্মা সেতু আমাদের সবার অহংকার। এটি আমাদের গৌরব ও আত্মমর্যাদার প্রতীক। ঐতিহাসিক পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালী সম্পৃক্ত হতে পেরে আমরা সত্যিই আনন্দিত।

jagonews24

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জন্য আজ একটি গর্বের দিন, একটি ঐতিহাসিক দিন। পদ্মা সেতু আমাদের দেশের জন্য একটা বিশাল চ্যালেঞ্জ ছিল, যেটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রহণ করে শেষও করেছেন। বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে প্রধানমন্ত্রী কোটি কোটি মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু দেশের নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়িত করেছেন। এই সেতু দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের আশার প্রতীক ও তাদের জীবনমান অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত বাংলাদেশিরা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদসহ সেতুর সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান।

পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ। মূল সেতুর দৈর্ঘ্য ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার। এর অ্যাপ্রোচ সড়ক ১২ দশমিক ১১৭ কিলোমিটার।


আরও খবর