Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

রূপগঞ্জের গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে থৈ থৈ পানি ॥ পাঠদান ব্যাহত ॥ উপস্থিতি কম

প্রকাশিত:Sunday ১৯ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩৯৫জন দেখেছেন
Image

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ মোঃ আবু কাওছার মিঠু 


নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া ইউনিয়নের গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে থৈ থৈ পানি। সামান্য বৃষ্টিতে মাঠে হাঁটু পানি জমে থাকে। তাতে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে যাচ্ছে। 


সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিদ্যালয় মাঠে পানি থৈ থৈ করছে। শিক্ষার্থীরা প্যান্ট হাঁটু পর্যন্ত গুটিয়ে শ্রেণিকক্ষে যাওয়া আসা করছে। কারো কারো কাপড় ভিজে গেছে। বিদ্যালয়ের তিন দিকে বহুতল ভবন। পশ্চিম দিকে রূপসী-মুড়াপাড়া-কাঞ্চন সড়ক। তাতে পানি বের হওয়ার ব্যবস্থা নেই। নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সারা বছরই মাঠে পানি জমে থাকে। মাঝে মধ্যেই মাঠে হাঁস সাঁতার কাটে। 


বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসিমা সুলতানা বলেন, ১৯৭৩ সালে গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপিত হয়। বর্তমানে এখানে ২৭৪ জন শিক্ষার্থী লেখাপাড়া করছে। পাঠদানের জন্য রয়েছে ৬ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা। ফলাফলও ভালো।  জলাবদ্ধতা দূর করতে  মাঠে মাটি ভরাট করা হলেও পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা স্থায়ী রূপ নিচ্ছে।


তাতে বিদ্যালয়ের নিয়মিত শিক্ষার্থীদের সমাবেশ কিংবা অ্যাসেম্বলি হয় না । খেলাধুলাসহ স্বাভাবিক হাঁটা চলা করতে পারে না তারা। স্কুলের শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করে শিক্ষার্থীদের বন্দি হয়ে থাকতে হয়। জলাবদ্ধতার কারণে শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা ও অ্যাসেম্বলী থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এছাড়া বিদ্যালয়ের ভবন অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ। ভবনের দেয়াল ও ছাদ থেকে পলেস্তেরা খসে পড়ছে। দুর্ঘটনার ভয়েও শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে উপস্থিতি দিনদিন কমে যাচ্ছে। 


বিদ্যালয়ের ২৩ শতাংশ জমির অধিকাংশই এখন বেদখল হয়ে গেছে। বিদ্যালয়ের নামে নামজারি করা ১২ শতাংশ জমিই এখন দখলে রয়েছে। এ বিদ্যালয়টি স্থানীয় ও সংসদ নির্বাচনী ভোট কেন্দ্র। সেই হিসেবে আগামী নির্বাচনের আগেই নতুন ভবন নির্মাণ করার প্রয়োজন বলে এলাকাবাসী মনে করছে। রূপগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে ম্যানেজ করতে না পারায় দীর্ঘ দিনেও গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণে বরাদ্দ পাওয়া যাচ্ছে না। অগ্রিম অর্থ নিয়ে নতুন ভবন নির্মাণের তালিকা করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। 


রূপগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার জায়েদা আখতার তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয় ভবনটি পুরাতন এবং জরাজীর্ণ হওয়ায় কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। শিগগিরই নতুন ভবন নির্মাণ ও জলাবদ্ধতা নিরসনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অহীন্দ্র কুমার মন্ডল বলেন, সরেজমিন পরিদর্শন করে কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। অগ্রাধীকার ভিত্তিতে গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ করা হবে। 


আরও খবর



যাত্রাবাড়ীতে পিকআপে করে ফেনসিডিল বিক্রি, গ্রেফতার ২

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে ২৪৪ বোতল ফেনসিডিলসহ দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এ সময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি পিকআপও জব্দ করা হয়।

শনিবার (১৮ জুন) র‌্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) এনায়েত কবির সোয়েব জাগো নিউজকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানার রায়েরবাগ এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ২৪৪ বোতল ফেনসিডিলসহ মো. কামরুল হাসান (২৮) ও মো. শামীম আহমেদ (৪২) নামের দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি পিকআপ, দুটি মোবাইল ফোন ও নগদ ৫০০ টাকা জব্দ করা হয়।

jagonews24

এনায়েত কবির আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা নিজেদের পেশাদার মাদক কারবারি বলে জানিয়েছে। কিছুদিন ধরে তারা দেশের সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ফেনসিডিলসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে যাত্রাবাড়ীসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে আসছিল।

গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে বলেও জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



ফিক্সিং কাণ্ডে প্রোটিয়া পেসারের ছয় বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২১ June ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
Image

দক্ষিণ আফ্রিকার র‍্যাম স্ল্যাম টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের ২০১৫ সালের আসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে ছয় বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে দেশটির পেসার পুমেলেলা মাৎশিকের। তবে এই ছয় বছরের মধ্যে পাঁচ বছর স্থগিত সাজা দেওয়া হয়েছে ৩৭ বছর বয়সী এ ডানহাতি পেসারকে।

২০১৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের (সিএসএ) অ্যান্টি করাপশন ইউনিটের পক্ষ থেকে ছয়জন খেলোয়াড়কে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল। তন্মধ্যে অন্যতম ছিলেন এই পুমেলেলা মাৎশিকে। তখন তাকে সবধরনের ক্রিকেট থেকে দশ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছিল প্রোটিয়া বোর্ড।

গোলাম বদির পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে এই ঘটনায় কারাদণ্ড পেলেন মাৎশিকে। ২০০০ সালে হানসি ক্রুনিয়ের ফিক্সিং কাণ্ডের পর ২০০৪ সালে এ বিষয়ক আইন তৈরি করে দক্ষিণ আফ্রিকা। সেই আইনে দীর্ঘদিন মামলা লড়ার পর শুক্রবার ছয় বছর (পাঁচ বছর স্থগিত) কারাদণ্ড পান মাৎশিকে।

তাকে চারটি অপরাধে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালাত। যেগুলো হলো- ২০১৫ সালের র‍্যাম স্ল্যামে টাকা নিয়ে এক বা একাধিক ম্যাচ পাতানো; খেলাটির ওপর দাগ লাগানোর মতো অর্থের আদানপ্রদান; বোর্ডের অ্যান্টি করাপশন ইউনিটের কাছে অর্থ লেনদেনের যথাযথ হিসেব দিতে ব্যর্থ হওয়া এবং ফিক্সিংয়ের প্রস্তাবের বিস্তারিত তথ্য না দেওয়া।

বোদি-মাৎশিকে ছাড়া ২০১৬ সালে নিষেধাজ্ঞা পাওয়া অন্য ক্রিকেটাররা হলেন থামি সোলেকিলে, জিন সাইমস, এথি বালাতি ও আলভিরো পিটারসেন। ২০১৯ সালে দুর্নীতির আটটি অভিযোগে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হয়েছিল গোলাম বদির। বাকিরা দুই থেকে ১২ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, কখনও জাতীয় দলের হয়ে খেলা হয়নি মাৎশিকের। ২০০৯ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত ৭৭টি প্রথম শ্রেণি, ৫৭টি লিস্ট 'এ' ও ২৪টি কুড়ি ওভারের ম্যাচ খেলেছেন ৩৭ বছর বয়সী এ পেসার। সবমিলিয়ে স্বীকৃত ক্রিকেটে ১৫৮ ম্যাচে মাৎশিকের উইকেটসংখ্যা ২৫০টি।


আরও খবর



শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পিন্টু কারাগারে

প্রকাশিত:Monday ২৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২০জন দেখেছেন
Image

ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও বতর্মান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে হামলা ও গুলিবর্ষণে হত্যাচেষ্টা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি জাকারিয়া পিন্টুকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (২৭ জুন) দুপুরে পাবনা জেলা গোয়েন্দা কার্যালয় থেকে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম জানান, ১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ট্রেনযোগে খুলনা থেকে সৈয়দপুর যাওয়ার পথে ঈশ্বরদী রেলস্টেশনে পৌঁছালে সন্ধ্যা ৬টার দিকে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বগিকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। ওই ঘটনায় ঈশ্বরদীর জিআরপি থানায় বিস্ফোরক দ্রব্যাদি আইন ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা করা হয়।

দীর্ঘ বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে ২০১৯ সালের ৩ জুলাই জাকারিয়া পিন্টুসহ ৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড, ২৫ জনকে যাবজ্জীবন এবং ১৩ জনকে ১০ বছর কারাদণ্ড দেন আদালত।

শনিবার (২৫ জুন) রাতে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ এলাকায় অভিযান চালিয়ে পিন্টুকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।


আরও খবর



বাড়ির পাশের পুকুরে ভেসে উঠলো শিশুর মরদেহ

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

গাইবান্ধায় বাড়ির পাশের পুকুরে ডুবে তাহশীন (৭) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রোববার (২৬ জুন) বিকেলে সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের আরিফ খা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তাহশীন ওই গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে।

রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোছাউব্বির হোসেন জানান, তাহশীন বাড়ির অন্য শিশুদের সঙ্গে খেলা করছিল। একপর্যায়ে সে নিখোঁজ হয়। পরে স্বজনরা তাকে খুঁজতে খুঁজতে বাড়ির পাশের পুকুরে ভাসতে দেখেন। তাকে উদ্ধার করে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।


আরও খবর



ফ্রান্সে সোহেল রানা হত্যার প্রতিবাদে বাংলাদেশিদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৯২জন দেখেছেন
Image

শাহ সুহেল আহমদ, ফ্রান্স (প্যারিস) থেকে

প্রবাসী সোহেল রানা হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচি করেছেন বাংলাদেশিরা। রোববার (৫ জুন) রাজধানী প্যারিসে ‘জাস্টিজ পুখ’ ‘সোহেল হত্যার বিচার চাই’ স্লোগানে প্রতিবাদ করেন প্রবাসীরা। বাংলাদেশ কমিউনিটির আয়োজনে মিছিলটি মার্চ প্লাস দ্য বাস্তিল থেকে শুরু হয়ে রিপাবলিক চত্বরে শেষ হয়।

সোহেল রানা যেখানে হামলার শিকার হন সেই জায়গায় ‘প্লাস দ্য বাস্তিল’ দুপুর থেকেই জড়ো হতে থাকেন বাংলাদেশিরা। প্যারিসে এ পর্যন্ত বাংলাদেশিদের উদ্যোগে হওয়া কোনো ঘটনায় এটাই সবচেয়ে বড় মিছিল। এসময় বিভিন্ন দেশের অভিবাসীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে হত্যার প্রতিবাদে সামিল হন।

আন্দোলনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশি হাফিজুর রহমান বলেন, এ প্রতিবাদে আমিসহ আরও অনেকেই নিজ দায়িত্বে এসেছি। কয়েকদিন ধরেই আসছি কারণ, আমরা যদি আজ প্রতিবাদ না করি তাহলে এমন ঘটনা কাল আমার বেলায়ও ঘটতে পারে। আগামীতে যেন কোনো বাংলাদেশির ওপর হামলার ঘটনা ঘটে সেটি নিশ্চিত করতে হবে প্রশাসনকে সোহেলের হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে।

প্রবাসী রাব্বানী খান জানান, নিহত সোহেল রানা হত্যার বিচার চাই। ইদানীং প্রবাসী বাংলাদেশিরা বিভিন্নভাবে আক্রমণের শিকার হচ্ছে। এদেশের সরকারের কাছে এখন একটায় দাবি সোহেল রানা হত্যার বিচার চাই ও তার পরিবারকে যেন বৈধতা দেওয়া হয়।

সোহেল রানার এক আত্মীয় জানান, সোহেল একজন সহজ-সরল মানুষ ছিলেন। কারও সঙ্গে তার বিরোধ থাকার কথা না। আফ্রিকানরা সন্ত্রাসীরা উদ্দেশ্যেই হামলা করেছে বলে আমাদের ধারণা। এ ঘটনায় রেস্টুরেন্টের মালিক বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

বাংলাদেশিরা জানান, সোহলে রানা প্যারিসের ঐতিহাসিক স্থাপনা বাসতিলের একটি রেস্টুরেন্টে রাতে কাজ করতেন। কাজ শেষে শনিবার ভোর ৫টার দিকে বাড়ি ফেরার উদ্দেশে বের হন। এ সময় রেস্টুরেন্টের সামনে সন্ত্রাসীরা তার ওপর হামলা করে। মাথায় আঘাত পেয়ে জ্ঞান হারান। পরে পুলিশ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। ভর্তির পর থেকে তার আর জ্ঞান ফেরেনি।

প্যারিসে বাংলাদেশ দূতাবাসের দ্বিতীয় সেক্রেটারি মো. ওয়ালিদ বিন কাশেম বলেন, সোহেল রানার হত্যাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও শাস্তির জন্য বাংলাদেশ দূতাবাস গুরুত্ব সহকারে কাজ করছে।

কাজ থেকে রাতে বাসায় ফেরার পথে গত ২১ মে দুর্বৃত্তের হামলায় গুরুতর আহত হন সোহেল রানা। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৫ মে না ফেরার দেশে পাড়ি জমান। সোহেল রানা মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদীখান উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামের মো. আজিজুল হকের ছেলে।

সোহেলের স্ত্রী ও তিন বছরের একটি ছেলে রয়েছে।

সোহেল রানার মৃত্যুতে ফ্রান্স প্রবাসীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বাংলাদেশিরা তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন। এছাড়াও প্রবাসী বাংলাদেশিরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হ্যাশ ট্যাগের মাধ্যমে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। তারা ফেসবুকে পুলিশ প্রসাশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে #JusticePourSohelRana, এবং #PréfecturedePolice লিখে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন।


আরও খবর