Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

রূপগঞ্জে পুলিশের অভিযানে সন্ত্রাসীদের বাঁধা, আতঙ্কিত এলাকাবাসী

প্রকাশিত:Saturday ১৬ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ২১৫জন দেখেছেন
Image


রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ-মোঃ আবু কাওছার মিঠু 


রূপগঞ্জ থানা পুলিশের উদ্যোগে মাদক উদ্ধার, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, চাঁদাবাজি রোধ ও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশ গত তিন দিন ধরে ক্রাইম জোন খ্যাত চনপাড়া ও নাওড়া এলাকায় গত বুধবার থেকে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে আসছে। এসময় নাওড়া এলাকার কতিপয় সন্ত্রাসী পুলিশের অভিযানে বাঁধার সৃষ্টি করে। ফলে নাওড়া এলাকাবাসী আতঙ্ক নিয়ে জীবনযাপন করছে।


পুলিশ জানায়, গত বেশ কিছুদিন ধরে নাওড়া এলাকার কতিপয় সন্ত্রাসীরা মোশারফ মেম্বারের বাড়িসহ এলাকার নিরীহ মানুষের বাড়িঘরের হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়। এ ঘটনার পর এলাকাবাসী রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পরে পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নাওড়া এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেন। 


নাওড়া এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সন্ত্রাসী ও ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার করতে পুলিশ অভিযান চালায়। চলমান অভিযানকে বাঁধাগ্রস্থ করতে নাওড়া এলাকার সন্ত্রাসীরা শুক্রবার রাতে পুলিশকে লক্ষ করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে চলমান অভিযানে বাঁধার সৃষ্টি করে।


এলাকাবাসী জানায়, নাওড়া এলাকায় কিছু চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের কারনে তারা বাড়িঘরের থাকতে পারছে না। পুলিশ অভিযান চালিয়ে যাওয়ার পর রাতেই আবার সন্ত্রাসীরা বাড়িঘরের হামলা চালায়। তারা সন্ত্রাসীদের ভয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপনও করতে পারছেনা ।


স্থানীয় প্রশাসনের কাছে নাওড়া এলাকাবাসীর দাবী সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।


রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এ এফ এম সায়েদ বলেন, রূপগঞ্জে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকান্ড হতে দেওয়া যাবে না। সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।


আরও খবর



বনায়ন কর্মসূচিতে দখলদারদের হামলা, রেঞ্জ কর্মকর্তাসহ আহত ১২

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
Image

দিনাজপুরের পার্বতীপুরের মধ্যপাড়া রেঞ্জের বেদখল হওয়া বনভূমিতে বনায়ন করতে গিয়ে অবৈধ দখলদারদের হামলায় রেঞ্জ কর্মকর্তাসহ বনবিভাগের ৯ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং তিনজন গ্রামবাসী আহত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে মধ্যপাড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আব্দুল হাই, কুশদহ বিট কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম এবং চালক রেজাইল ইসলামকে পার্বতীপুর হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি নিয়েছে সামাজিক বনবিভাগ।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে মধ্যপাড়া রেঞ্জের আওতাধীন নবাবগঞ্জ উপজেলার কুশদহ বনবিটের দারিকামারি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ এক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। তবে, শেষ পর্যন্ত দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় বনায়ন কর্মসূচি ভণ্ডুল হয়ে যায়। এ সময় হামলাকারীরা বনবিভাগের ২৫ হাজার গাছের চারা বিনষ্ট করে।

কুশদহ বনবিটের বিট কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, এ বিটের আওতায় ৬০০ একর বনভূমি রয়েছে। এরমধ্যে ৫০০ একর বনভূমি অবৈধ দখলদারদের কবজায়। এসব বনভূমি উদ্ধার করে বনায়ন করার কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। সেখানে গাছ লাগাতে গেলে গ্রামবাসী হামলা করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ এক রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

পার্বতীপুরের মধ্যপাড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা আব্দুল হাই বলেন, চলতি মৌসুমে চার দিনে এক লাখ কাঠের চারা লাগানোর কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে বেলা ১১টার দিকে চারটি পিকআপ ভ্যানে করে ২৫ হাজার আকাশমনি গাছের চারা রোপণের জন্য কুশদহ বনবিটের দারিকামারি বনভূমিতে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় বনবিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বনরক্ষী, নবাবগঞ্জ থানা ও আফতাবগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির চার কর্মকর্তাসহ ১৪ পুলিশ সদস্যের সহযোগিতায় প্রায় ২০০ শ্রমিক বনায়ন কাজ শুরু করেন।

বনায়ন কর্মসূচিতে দখলদারদের হামলা, রেঞ্জ কর্মকর্তাসহ আহত ১২

খবর পেয়ে পার্শ্ববর্তী হাদিসপাড়া, কুষ্টিয়াপাড়া, মনসুরপাড়া, এরফানপাড়া, বটতলা ও লালঘাটপাড়ার কুশদহ বনবিটের বনভূমি দখলকারী পরিবারের দুই শতাধিক নারী-পুরষ লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালান। তারা রোপণ করা চারা তুলে ফেলে ও রোপণের জন্য মজুত ২৫ হাজার চারা বিনষ্ট করেন।

তবে হাদিসপাড়া গ্রামের বাসিন্দা কালনি (৫০) অভিযোগ করে বলেন, তাদের রোপণ করা আমন ক্ষেত নষ্ট করে গাছের চারা লাগানো হচ্ছিল। এজন্য তারা বাধা দিতে গিয়েছিলেন। এ সময় বনবিভাগের কর্মচারীদের মারধরে তিনিসহ গ্রামের তিনজন আহত হয়েছেন।

কুশদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল আযম আনু বলেন, বনবিভাগের বনায়ন কর্মসূচিতে অবৈধ দখলদাররা বাধা দিয়েছেন বলে শুনেছি। এ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে মারধরের ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় লোকজন আমাকে জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত আফতাবগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার হোসেন বলেন, বনবিভাগ গাছ লাগাবে, অন্যদিকে গ্রামবাসী লাগাতে দেবে না। এনিয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। তবে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুলি ছোড়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন ওই কর্মকর্তা।


আরও খবর



রায়হান হত্যা: হাইকোর্টে জামিন পাননি বরখাস্ত এসআই আকবর

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ৩০জন দেখেছেন
Image

সিলেটে পুলিশের হেফাজতে রায়হান আহমদ (৩৪) হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাময়িক বরখাস্ত পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভূঁইয়ার জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) বিচারপতি এসএম কুদ্দুস জামান ও বিচারপতি জাহিদ সারওয়ার কাজলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আসামির জামিন আবেদন খারিজ করে আদেশ দেন।

এদিন আদালতে আসামিপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট এম মাসুদ রানা আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কে এম মাসুদ রুমী।

২০২০ সালের ১০ অক্টোবর দিনগত মধ্যরাতে সিলেট মহানগর পুলিশের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে রায়হান আহমদকে নির্যাতন করা হয়। পরদিন ১১ অক্টোবর তিনি মারা যান। এ ঘটনায় পুলিশ হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইনে রায়হানের স্ত্রী মামলা করেন। পরে তদন্তে পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে রায়হানকে নির্যাতনের সত্যতা পায় অনুসন্ধান কমিটি।

এ ঘটনায় ফাঁড়ির ইনচার্জের দায়িত্বে থাকা এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ চারজনকে একই বছরের ১২ অক্টোবর সাময়িক বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করা হয়। এরপর পুলিশি হেফাজত থেকে কনস্টেবল হারুনসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মামলার প্রধানি আসামি আকবরকে ৯ নভেম্বর সিলেটের কানাইঘাট সীমান্ত থেকে গ্রেফতার করা হয়।

২০২১ সালের ৫ মে এ মামলার অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেয় পিবিআই। এতে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে (৩২) প্রধান অভিযুক্ত করা হয়। মামলার অন্য অভিযুক্তরা হলেন- পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক আশেক এলাহী (৪৩), কনস্টেবল মো. হারুন অর রশিদ (৩২), টিটু চন্দ্র দাস (৩৮), এসআই মো. হাসান উদ্দিন (৩২) ও এসআই আকবরের আত্মীয় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সংবাদকর্মী আবদুল্লাহ আল নোমান (৩২)।

অভিযোগপত্রভুক্ত ছয় আসামির মধ্যে পাঁচ পুলিশ সদস্য কারাাগারে। অন্য আসামি আবদুল্লাহ আল নোমান পলাতক। বর্তমানে মামলাটি সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে।


আরও খবর



রিয়ালের হয়ে খেলার কোনো সম্ভাবনা নেই রোনালদোর

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৮৩জন দেখেছেন
Image

হন্যে হয়ে একটি ক্লাব খুঁজে বেড়াচ্ছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। কিন্তু সেটি অবশ্যই রিয়াল মাদ্রিদ নয়। তবে, তিনি যেভাবেই হোক চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলতে চান। সে সঙ্গে ৬ষ্ঠ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপাটাও জয় করতে চান তিনি। শুধু তাই নয়, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজের গোল (মেসির চেয়ে ১৫ গোল এগিয়ে রোনালদো) এবং ম্যাচের (ক্যাসিয়াসের চেয়ে ৬ ম্যাচ এবং মেসির চেয়ে ২৭ ম্যাচ বেশি) রেকর্ডটাও বাড়িয়ে নিতে চান।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তিনি যদি খেলতে নাও পারেন এই মৌসুমে, আশা করা যায় রোনালদোকে আপাতত এই মৌসুমে কেউ পেছনে ফেলতে পারবে না।

আগামী ফেব্রুয়ারিতে ৩৮ বছরে পা দেবেন সিআর সেভেন। ক্যারিয়ারে অনেক ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিতে সই করেছেন। কিন্তু খুব সম্ভবত ২০২১ সালে জুভেন্টাস ছেড়ে ম্যানইউতে চুক্তি করাটা তার জন্য অনেক বড় ভুল ছিল। সবাই জানে, দ্বিতীয়ার্ধ খুব একটা সুখকর হয় না। রোনালদোর ক্ষেত্রে এটা রীতিমত প্রমাণিত।

রোনালদো এখনও পর্যন্ত ম্যানইউর সাইডলাইনেই রয়েছেন। যেখানে ম্যানইউ সফর করছে থাইল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়া। নতুন কোচ রায়ান টেন হাগের অধীনে নতুন মৌসুমের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে ম্যানইউ।

বুধবার দুপুরের পরে কিছু নিউজ মিডিয়ায় চাউর হয়ে যায়, রোনালদোর সঙ্গে বৈঠক হয়েছে ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের। কিন্তু স্প্যানিশ পত্রিকা মার্কা রিপোর্ট করেছে, এটা কোনো সময়ই ঘটেনি। অর্থ্যাৎ নিউজগুলো ভুয়া।

মার্কা বলছে, রিয়াল মাদ্রিদ আগামী মৌসুমের জন্য যে রোডম্যাপ তৈরি করেছে, সেটা আপাতত পরিবর্তন হবে না। সুতরাং, তারা ম্যানইউ থেকে পূনরায় রোনালদোকে এনে দলের সঙ্গে অন্তর্ভূক্ত করবে না।

মাদ্রিদিস্তারা মাঠে নামার অপেক্ষায়। মাঠে নামার পর খেলোয়াড়দের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করবে ক্লাবটি। এরপর তারা হয়তো কোনো সিদ্ধান্ত নেবে। হয়তো বা কোনো খেলোয়াড়কে বিক্রি করবে না। তবে, প্রয়োজন হলে অবশ্যই দলবদলের বাজারে নজর দেবে। তবে, সেখানে অবশ্যই থাকবেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

মাদ্রিদে ২দিন কাটিয়েছেন রোনালদো। এটা ঠিক। তবে পেরেজ কিংবা অন্য কারো সঙ্গে তার কোনো বৈঠক হয়নি। যদিও তিনি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলা একটি ক্লাবের খোঁজে রয়েছেন। মার্কা বলছে, এটা নিশ্চিত যে মাদ্রিদ (রিয়াল) কিংবা মিউনিখ (বায়ার্ন)- কোথাও রোনালদোর খেলার সম্ভাবনা নেই। যদিও, ব্যক্তিগতভাবে রিয়ালের সঙ্গে রোনালদোর সম্পর্ক খুবই দারুণ। বিশেষ করে, তার বড় ছেলে যখন মাদ্রিদে ক্যাম্পাস অব দি ফাউন্ডেশনের জুনিয়র দলের ফুটবলার।


আরও খবর



মার্কিন বিনিয়োগ রিপোর্টে ‘ইতিবাচক পয়েন্ট’ দেখছেন পররাষ্ট্র সচিব

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সম্প্রতি প্রকাশিত বিনিয়োগ রিপোর্টে বাংলাদেশের জন্য অনেক ‘ইতিবাচক পয়েন্ট’ আছে। তথ্যপ্রযুক্তিতে মার্কিন বিনিয়োগ বাংলাদেশের জন্য ভালো হবে।

সোমবার (১ আগস্ট) বিকেলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

সচিব বলেন, তাদের মূল আগ্রহ জ্বালানি ও আইটিতে। জ্বালানিতে তাদের অনেক বিনিয়োগ আছে। আইটিতেও তাদের বিনিয়োগ এলে সেটা আমাদের জন্য ভালো হবে।

যেসব বিষয় (প্রতিবন্ধকতা) নিয়ে সবাই কথা বলছে সেটি নিয়ে কাজ করতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

আগামী সপ্তাহে ঢাকা সফরে আসতে পারেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। এ সফরের প্রসঙ্গ টেনে সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের বহুমাত্রিক সম্পর্ক রয়েছে। তার সফরে রোহিঙ্গা ইস্যু, চীনের সহায়তায় বিভিন্ন চলমান এবং ভবিষ্যৎ প্রকল্প নিয়ে আলোচনা হতে পারে।


আরও খবর



হোজ্জার মজার ঘটনা: কাকের গোসল

প্রকাশিত:Monday ২৫ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০১ August ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
Image

হোজ্জা, নাসির উদ্দীন হোজ্জা কিংবা মোল্লা বিভিন্ন নামে পরিচিত তিনি। তবে তার পুরো নাম নাসির উদ্দীন মাহমুদ আল খায়ী। চীনে তিনি পরিচিত ‘আফান্টি’ নামে। মোল্লা নাসিরুদ্দিন হোজ্জা মূলত পরিচিত তার সুক্ষ্ম রসবোধের কারণে। তার সময়ে যেমন জনপ্রিয় ছিলেন এখনো তেমনি আছেন। এখনো তার মজার সব ঘটনা আনন্দ দেয় পাঠককে।

একদিন নাসির উদ্দীন কূয়ার পাশে বসে গোসল করছিলেন। পাশে রাখা সাবানদানিতে নতুন সাবান রাখা। হোজ্জা ভাবছিলেন, আজ ভাল করে সাবান মেখে গোসল করবেন। এই মনে করে তিনি সাবানটা হাতে নিতে গেলেন কিন্তু তার আগেই একটি কাক এসে সাবানটি নিয়ে উড়ে চলে গেলো।

নাসির উদ্দীন হতভম্বের মতো কিছুক্ষণ চেয়ে থেকে চিন্তা করলেন। তারপর তার মুখ হাসিতে ভরে উঠলো। এক প্রতিবেশী তা দেখতে পেয়ে জিজ্ঞেস করলো, কী ব্যাপার মোল্লা সাহেব, সাবান কাকে নিয়ে যাবার পরও আপনি হাসছেন কেন?

নাসির উদ্দিন অম্লান বদনে উত্তর দিলেন দেখুন, কাকটা আমার চেয়েও কালো কুৎসিত। আমার মনে হয় সাবানটা আমার চেয়ে ওরই বেশি দরকার।

লেখা: সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত

প্রিয় পাঠক, আপনিও অংশ নিতে পারেন আমাদের এ আয়োজনে। আপনার মজার (রম্য) গল্পটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়। লেখা মনোনীত হলেই যে কোনো শুক্রবার প্রকাশিত হবে।


আরও খবর