Logo
আজঃ Monday ২৭ June ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা নাসিরনগরে মুক্তিযোদ্বাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন পদ্মা সেতু দেখানোর কথা বলে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ জুরাইনে পাশের বাড়ির উপড় ধসে পড়েছে সেই ঝুকিপুর্ন ভবনটি
নির্বাচন হাওয়া

রূপগঞ্জে নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
Image



 শাকিল আহম্মেদ  রূপগঞ্জ ( নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধি 

 

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে আসন্ন কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সভা করেছে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ।শুক্রবার সন্ধ্যায় কায়োতপাড়ার নাওড়াস্থ্য চেয়ারম্যানের অস্থায়ী কার্যালয়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুল আলমের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রংধনু গ্রুপ ও কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ানম্যান আলহাজ্ব রফিকুল ইমলাম।

 

 অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ মিজানুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল আউয়াল, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ভূইয়া, সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন মিয়া, যুগ্ন সম্পাদক তারিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, আলী আজগর,  থানা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম্মেল হক মিলন, যুবলীগ নেতা আব্দুল আউয়াল, হাজী সফিকুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা লুৎফর রহমান মুন্না, আশফাকুল ইসলাম তুষার, আশরাফুল হক ভুইয়া জেমিন, মহিলালীগ নেত্রী স্বপ্না আক্তার, ইয়াছমীন আক্তার প্রমুখ।

 

 

সভায় রফিকুল ইসলাম বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে আগামী ১১ নভেম্বর আমাদের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে আপনারা নির্বিগ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। কোন সন্ত্রাসী কায়েতপাড়ার মাটিতে জোর করে আপনাদের ভোট ছিনিয়ে নিতে পারবে না।

 

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



যে কারণে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ হচ্ছে ভারত

প্রকাশিত:Friday ১৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
Image

ভারতের অর্থনৈতিক রূপান্তরে একটি মহাকাব্যিক গুণ রয়েছে, যা ১৯ শতকের আমেরিকার কথাই মনে করিয়ে দেয়।দেশটিতে একটি বড় একক জাতীয় বাজার তৈরি করা হচ্ছে। এতে কোম্পানিগুলোর কার্যক্রম বেড়ে চলেছে। একটি সম্ভাবনাময় নতুন ভোক্তা শ্রেণি প্রসারিত হচ্ছে ও নতুন প্রযুক্তিতে সাম্রাজ্য গড়ে উঠছে। বিনিয়োগে আগ্রহী হয়ে উঠছে ধনীরা।

২০১৪ সালে ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতা গ্রহণ করেন। তখনই ভারত বিশ্বের ১০তম অর্থনীতির দেশে পরিণত হয়। পরবর্তী সাত বছরে দেশটির অর্থনীতি ৪০ শতাংশ বেড়েছে। ভারতের চেয়ে ভালো করেছে চীন। কারণ একই সময়ে চীনের অর্থনীতি সম্প্রসারিত হয়েছে ৫৩ শতাংশ। বড় দেশগুলোর মধ্যে আট শতাংশ প্রবৃদ্ধিই হবে সবচেয়ে বেশি। আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল জানিয়েছে, ২০২৭ সালের মধ্যে ভারত হবে বিশ্বের পঞ্চম অর্থনীতির দেশ। শেয়ারবাজারের হিসাবের দিক দিয়ে ভারতের অবস্থান যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও জাপানের পরেই। স্টার্ট আপের দিক থেকে ভারতে অবস্থান তৃতীয়। এর পরেই রয়েছে ভরত ও চীনের অবস্থান।

যদিও এই পরিসংখ্যানের পিছনে রয়েছে উত্থান-পতন ও তিক্ত বিতর্ক। ২০১৬ সালে নরেন্দ্র মোদী সরকার উচ্চ মূল্যের ব্যাংক নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়। পরের নয় মাসে প্রবৃদ্ধি কমে ১০ থেকে পাঁচ শতাংশ। এতে ২০১৮ সালে দেশটির অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। ২০২০ সালের প্রথম দিকে লকডাউনের ফলে জিডিপি সাময়িকভাবে এক চতুর্থাংশ কমে যায়।

তবে মহামারির প্রকোপ এখন তুলনামূলকভাবে অনেক কমেছে। বেশ কয়েকটি বিষয় দেশটির অর্থনীতিকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে। সেগুলো হলো- একটি একক জাতীয় বাজারের গঠন, নবায়নযোগ্য শক্তিরভিত্তিতে শিল্পের বিকাশ, চীন থেকে সরবরাহ অন্যদিকে চলে যাওয়া ও লাখ লাখ মানুষের জন্য একটি উচ্চ-প্রযুক্তিগত সুরক্ষা ব্যবস্থা।

ভারতের নতুন বৃদ্ধির প্যাটার্নের প্রথম ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ হলো একটি একক জাতীয় বাজারের উত্থান, যেখানে সংস্থাগুলো ও গ্রাহকরা আধুনিক আর্থিক ব্যবস্থা ব্যবহার করে। নগদ অর্থকে কেন্দ্র করে মূলত দেশটির ব্যবসা-বাণিজ্যের ব্যাপক প্রসার ঘটেছে। এ প্রক্রিয়ায় দেশটির দুই-তৃতীয়াংশ উৎপাদন হতো। কর্মসংস্থানে অবদান ছিল ৮৭ শতাংশ। কিন্তু মোদী ক্ষমতায় আসার এগেই এ সবখাতে অনেক সংস্কার হয়। তবে তিনি এসে এ সংস্কারকে ত্বরান্বিত করেছেন।

অর্থনীতিতে অবকাঠমো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ২০১৪ সালে পর দেশটির জাতীয় হাইওয়ে নেটওয়ার্ক ৫০ শতাংশ বেড়েছে, প্লেনে অভ্যন্তরীণ যাত্রীর সংখ্যা বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। মোবাইল ফোনভিত্তিক স্টেশনের সংখ্যা তিনগুণ বেড়েছে। ওয়াল স্ট্রিট প্রাইভেট-ইকুইটি সংস্থাগুলো ভারতজুড়ে নেটওয়ার্ক তৈরি করতে প্রতিযোগিতা করছে।

দেশজুড়ে এরই মধ্যে একটি একক জাতীয় ডিজিটাল অবকাঠামো ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ব্যাংক অ্যাকাউন্টের জন্য সব ভারতীয়র জন্য বায়োমেট্রিক ব্যবস্থা, ইউপিআই নামে জাতীয় পরিশোধ ব্যবস্থা, দূর করা হয়েছে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রতিবন্ধকতা। ফলে দিন দিন বাণিজ্যিক কার্যক্রম প্রসারিত হচ্ছে। আধুনিক ব্যাকিং ব্যবস্থার ব্যবহারও বেড়েছে উল্লেখযোগ্য হারে। বর্তমান ব্যবস্থায় কর ফাঁকি দেশটিতে খুবই কঠিন।

এ বিষয়গুলো ভারতের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে। উচ্চ উৎপাদনশীল সংস্থাগুলোর জন্য সহায়ক ভূমিকা পালন করছে। ডিজিটাল পরিষেবার অর্থ হলো বেশিরভাগ লোকের ব্যবহার আনুষ্ঠানিক অর্থনীতিতে দক্ষতার সঙ্গে ঘটেছে। আধুনিক ব্যাকিং ব্যবস্থার কারণে উৎপাদন বেড়েছে।

তবে ভারতের এ লক্ষ্যের ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক স্থবিরতা মূল সমস্য। ভারত তার চলতি হিসাবের ঘাটতি মেটাতে মূলধনের প্রবাহের ওপর নির্ভরশীল। দেশটিতে জ্বালানি তেলের ব্যবহার বেড়েছে, যার প্রায় পুরোটাই আমদানি করা হয়। সুদের হার ও পণ্যের দাম বাড়লে অর্থনীতিতে অস্থিরতা তৈরি হয়। ভারতে এরই মধ্যে সুদের হার বাড়ার পাশাপাশি দেখা দিয়েছে উচ্চ মূল্যস্ফীতি।

তাছাড়া মোদী সরকারের নীতি নিয়েও অনেক ঝুঁকি তেরি হয়েছে। দেশটিতে ধর্মীয় সহিংসতা নিত্য দিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সাম্প্রতিক ঘটনাগুলো ভারতের জন্য খুবই হতাশাজনক। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বিশেষ করে আরব রাষ্ট্রগুলো ভারতের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে।


আরও খবর



করোনা আক্রান্ত শাহরুখ খান

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খান।

মাত্র একদিন আগেই পোস্টার শেয়ার করে নিজের নতুন সিনেমা ‘জওয়ান’র ঘোষণা দেন তিনি।

এরই মধ্যে শাহরুখের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর এলো।

বলিউড হাঙ্গামা জানায়, করণ জোহরের জন্মদিনের গ্র্যান্ড পার্টিতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে ৫০ থেকে ৫৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

সেই পার্টিতে হাজির ছিলেন শাহরুখও। করণের এই পার্টির খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই শাহরুখের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছে।


আরও খবর



ভারতীয় নারীর সঙ্গে প্রেম, ডেকে নিয়ে ব্যবসায়ীকে অপহরণচেষ্টা

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

বাগেরহাটের মোংলায় ডেকে নিয়ে এক ব্যবসায়ীকে অপহরণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে পিয়াঙ্কা বাইন নামের এক ভারতীয় নারীর বিরুদ্ধে। এ সময় নগদ টাকা ও মোবাইল খুইয়েছেন ওই ব্যবসায়ী।

এ ঘটনায় দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের অপহরণচেষ্টার মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার (১১ জুন) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ঢাকার মোহাম্মাদপুর কাটাসুর এলাকার আ. মান্নান মিয়ার ছেলে স্টেশনারি ব্যবসায়ী রহমান অঙ্কনের (২৬) সঙ্গে দেড় বছর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় ভারতের পশ্চিম বঙ্গের বনগাঁও এলাকার দিপু বাইনের মেয়ে পিয়াঙ্কা বাইনের (২৮)। দীর্ঘদিনের আলাপচারিতায় ভারতীয় ওই নারীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। চলতি বছরের ১৪ এপ্রিল ভালোবাসা দিবসে দুজনের সঙ্গে প্রথম দেখা হয় খুলনার সোনাডাঙ্গায়। একটি আবাসিক হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে পাঁচদিন থাকার পর ওই ভারতে ফিরে যান। দ্বিতীয়বার একই আবাসিক হোটেলে তারা দেখা করেন।

এদিকে মোংলা বন্দরের নিরাপত্তা প্রহরী জাফরের সঙ্গেও পিয়াঙ্কা বাইনের সু-সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তাই দুজনে মিলে ব্যবসায়ী রহমানকে অপহরণের মাধ্যমে অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করেন।

সর্বশেষ শুক্রবার রহমানের সঙ্গে দেখা করার জন্য পিয়াঙ্কা বাইন মোংলায় আসেন। রহমানকেও মোংলায় আসতে বলেন। ওইদিন দুপুরে প্রেমিক রহমান মোংলায় এসে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে দেখা করেন। তবে সেখানে আগে থেকেই বন্দরের পাঁচ নিরাপত্তা কর্মীসহ কয়েকজন যুবককে অপহরণের জন্য প্রস্তুত করে রাখেন প্রেমিকা পিয়াঙ্কা ও জাফর। বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে সুন্দরবন দেখানোর কথা বলে কৌশলে একটি জালিবোট (নৌযান) ভাড়া করেন জাফর।

এ সময় অন্যদের সঙ্গে নিয়ে বন্দরের পশুর নদীর মাঝ পথে রহমানকে হাত-পা বেঁধে মারধর শুরু করেন। তাকে বিবস্ত্র করে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করেন অপহরণকারীরা। ব্যবসায়ীর সঙ্গে থাকা নগদ টাকা, মোবাইল ও মানিব্যাগসহ অন্যান্য মালামাল ছিনিয়ে নেয়। বিষয়টি নদীতে অন্য নৌযানের কর্মীরা দেখে ফেলায় সেখান থেকে দ্রুত তাকে বাসস্ট্যান্ডে নিয়ে একটি মাইক্রোবাসে ওঠানোর চেষ্টা করেন অপহরণকারীরা।

এ সময় ব্যবসায়ী রহমানের চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাকে রক্ষা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে বন্দরের নিরাপত্তা প্রহরী জামাল হোসেন ও বোট চালক ওবায়দুর হোসেনকে আটক করে। কিন্তু কৌশলে ভারতীয় প্রেমিকা পিয়াঙ্কা বাইন ও অন্যরা সেখান থেকে পালিয়ে যান।

শুক্রবার রাতে বন্দরের পাঁচ নিরাপত্তা প্রহরী, বোট চালক ও ভারতীয় প্রেমিকা পিয়াঙ্কা বাইনকে আসামি করে মোংলা থানায় মামলা কনে ব্যবসায়ী রহমান অঙ্কন। শনিবার দুপুরে আটক দুজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মোংলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ মনিরুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, প্রেমঘটিত বিষয়ে ঢাকার ব্যবসায়ীকে অপহরণচেষ্টার ঘটনায় বন্দরের কয়েকজন নিরাপত্তা প্রহরী জড়িত রয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দুজনকে আটক করেছে। এছাড়া ভারতীয় প্রেমিকা ও বন্দরের পাঁচ নিরাপত্তা প্রহরীসহ সাতজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। ওই মামলায় আটক দুজনকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে বাগেরহাট জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



ভাতাসহ বিশেষ সুবিধা পাচ্ছে চব্বিশ লাখ প্রতিবন্ধী

প্রকাশিত:Saturday ০৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
Image

বর্তমানে দেশে ২৪ লাখের বেশি প্রতিবন্ধী নাগরিকদের তালিকাভুক্ত করে ভাতাসহ বিশেষ সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাধারণ মানুষের কল্যাণের পাশাপাশি প্রতিবন্ধীদের কল্যাণে সমাজকল্যাণ বিভাগ গঠন করেছিলেন।

শুক্রবার (৩ জুন) বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কেন্দ্রীয় কচিকাঁচার মেলা মিলায়তনে শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের সংগঠন বধির কাউন্সিলের দ্বিবার্ষিক সম্মেলন ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা-২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভায় প্রধান আলেচক ছিলেন সাবেক তথ্য উপদেষ্টা এবং ডেইলি অবজারভার সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিজেআরএফ সভাপতি ও প্রবীণ সাংবাদিক নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া, সমাজেসেবা অধিদপ্তরের পরিচালক মো.কামরুল ইসলাম চৌধুরী, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শফিকুর রহমান, বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী চৌধুরী মানিক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মহসীন কবির লিমন, শ্রমিক নেত্রী শামীম আরা প্রমুখ।

সভায় শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের উন্নয়ন ও মানবাধিকার সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বধির কাউন্সিলের সভাপতি আতাউর রহমান।

মূল প্রবন্ধে বলা হয়, সমাজসেবা অধিদপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী নারী, পুরুষ ও হিজড়াসহ বাংলাদেশে মোট ১২ থেকে ১৪ ধরনের প্রতিবন্ধী ব্যক্তির সংখ্যা ২৪ লাখ ২৯ হাজার ৮৫৮ জন। বধির কাউন্সিল বাংলাদেশ দেশের ২ লাখ ৫২ হাজার ৩১ জন শ্রবণ ও বাক প্রতিবন্ধী এবং ১০ হাজার ৩৬৬ জন শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধীর কল্যাণে কাজ করছে।


আরও খবর



কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েশনের আবেদনের শুনানি ১৪ জুন

প্রকাশিত:Monday ১৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৪ June ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

ছয় কোটি টাকা কর ফাঁকির বিষয়ে কর আপিল ট্রাইব্যুনালের আদেশের বিরুদ্ধে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েশনের করা আবেদনের বিষয়ে শুনানি শুরু হয়েছে আজ। আংশিক শুনানির পর এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী মঙ্গলবার (১৪ জুন) দিন ঠিক করেছেন হাইকোর্ট।

রোববার (১২ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মোহাম্মদ মাহবুব উল ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েস্টয়ের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান। তাদের সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী তানিম হোসেন শাওন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল প্রতিকার চাকমা।

আইনজীবী তানিম হোসেন শাওন জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আয়কর নিয়ে ট্যাকসেস আপিল ট্রাইব্যুনালের আদেশ চ্যালেঞ্জ করে এ রিট আবেদনটি করেন ড. কামাল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস।

এর আগে গত ৫ জুন শুনানি জন্য তা কার্যতালিকায় আসলেও রিটকারীর এক আবেদনের প্রেক্ষিতে এক সপ্তাহ পিছিয়ে রোববার (১২ জুন) দিন ঠিক করে দেন হাইকোর্ট।

রিট আবেদনে বলা হয়, কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ১ কোটি ৪ লাখ ৩ হাজার ৪৯৫ টাকা আয়কর রিটার্ন দাখিল করে। কিন্তু ওই অর্থবছরে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড তার নামে ২০ কোটি ১১ লাখ চার হাজার ২১৯ টাকার সম্পদ দেখিয়ে ছয় কোটি নয় লাখ ৮৫ হাজার ৩১৫ টাকা আয়কর এবং আরও ৮৭ লাখ ৩৫ হাজার ৬৩৪ টাকা সুদ দাবি করে।

২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বরে রাজস্ব বোর্ডের এক ডেপুটি কমিশনারের ওই আদেশের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট যুগ্ম কমিশনারের কাছে আপিল করেন কামাল হোসেন। ওই আপিল শুনানি শেষে ২০২০ সালের ২৫ জুন তা খারিজ করে আদেশ দেয়।

এরপর যুগ্ম কমিশনারের ওই আদেশের বিরুদ্ধে ড. কামাল হোসেন অ্যান্ড অ্যাসোসিশেন ট্যাক্সেস আপিল ট্রাইব্যুনালে আপিল করেন। আপিল ট্রাইব্যুনাল তার সেই আবেদন খারিজ দেন।


আরও খবর