Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ২৩৫জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ৩ জন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

 

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার ঘোনিরামপুর এলাকায় ব্রাদার্স কোল্ড স্টোরেজ সংলগ্ন রংপুর-সৈয়দপুর মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন তিন নারী শ্রমিক। ব্রাদার্স কোল্ড স্টোরেজের সামনে পৌঁছলে বিপরীত থেকে আসা একটি ট্রাক তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তিন শ্রমিকই নিহত হন।

 

তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি নুরুন্নবী প্রধান জানান, তিন নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

-খবর প্রতিদনি/ সি.বা


আরও খবর



নাসিরনগরের বিভিন্ন স্থানে আবারো নতুন করে জমে উঠেছে মাদকের বাজার

প্রকাশিত:Monday ০৩ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১৫৮জন দেখেছেন
Image
নাসিরনগরের বিভিন্ন স্থানে আবারো নতুন করে জমে উঠেছে মাদকের বাজার


মোঃআব্দুল হান্নানঃ

 ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরের বিভিন্ন গ্রামে আবারাে নতুন করে খোলতে শুরু করেছে মাদকের বাজার।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এ সমস্ত মাদকের মধ্যে রয়েছে বাংলা মদ,গাঁজা,ইয়াবা,ফেনসিডিল,উইসকি সহ ইন্ডিয়ান নামী দামী ব্র্যান্ডের আরো অনেকনাম না জানা মাদক।


আর এ সমস্ত মরণ নেশা মাদকের কবলে পড়ে ধবংস হতে চলেছে এলাকার যুব সমাজ।যুব সমাজে নেমে এসেছে নৈতিক অবক্ষয়।অনেক মাদক সেবীরা মাদকের টাকা সংগ্রহ করতে না পেরে লিপ্ত হতে চলেছে চুরি,ডাকাতির মত বিভিন্ন অপরাধ মুলক কাজে।

এতে করে বাড়তে শুরু করেছে নানা অপরাধ প্রবনতা।মাদকের টাকার জন্য অনেকেই আবার মা বাবার সাথে করছে অমানবিক ব্যবহার।কেহ কেহ আবার মা বাবাকে করছে শারীরীক ও মানষিক ভাবে লাঞ্চিত।লোক লজ্জার ভয়ে অনেক মা বাবাই নীরবে সহ্য করে যাচ্ছে মাদকসেবী সন্তানেন এমন অমানবিক অত্যাচার নির্যাতন।


নাসিরনগরের উল্লেখ যোগ্য যে সমস্ত ইউনিয়নে মাদকের মাদকের সবচেয়ে বেশী ছড়াছড়ি রয়েছে সে গুলোর মধ্যে  নাসিরনগর সদর,হরিপুর,গুনিয়াউ,ফান্দাউক,ধরমন্ডল,গোকর্ণ,কুন্ডা,ভলাকুট,গোয়াল নগর ও চাতলপাড়।খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এক ইউনিয়ন পরিষদের  কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ও নব নির্বাচিত ইউপি সদস্যকে নাসিরনগর সদরের এক মাদক ব্যবসায়ী মহিলা ও চট্রগ্রামের এক মাদক ব্যবসায়ী পুরুষ প্রতিনিয়ত প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে মরণনেশা ইয়াবার চালান সরবরাহ করে যাচ্ছে।মাদক ব্যবসায়ীরা ভয়ংকর বলে কেউ তাদের বিরোদ্ধে মুখ খোলে কথা বলার সাহস পাচ্ছে না।


ভুক্তভোগীরা এলাকার তালিকা ভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে বিচারের কাঠগড়ায় দাড় করাতে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি জোরদাবী জানিয়েছে।মাদক নিয়ন্ত্রনে থানা পুলিশের কি ভুমিকা রয়েছে জানতে চাইলে,নাসিরনগর থানার পুলিশ পরিদর্ক তদন্ত এস,এস আতিক বলেন জনগণের সাথে মিশে সহজে খোজ খবর নেয়ার উদ্দেশ্যেই বিট পুলিশিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।মাদক নিয়ন্ত্রনে পুলিশ সব সময় তৎপর রয়েছে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।



আরও খবর



বালু নদে নাব্যতা সংকটে আটকে আছে অসংখ্য বালুবাহী বালুভর্তি বাল্কহেড, কোটি কোটি টাকার লোকসান।

প্রকাশিত:Saturday ১৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৯৪জন দেখেছেন
Image


মো. বজলুর রহমানঃ

রাজধানীর কোলঘেষা বালু নদে নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে চরম আকারে। এ কারণে প্রতিনিয়ত ওই নদে আটকে যাচ্ছে বালুবাহী মাঝারি ও বড় বালুভর্তি বাল্কহেড। গত ৫ দিন ধরে ঢাকার ভাটারা থানাধীন বালু নদের বেরাইদ এলাকায় মক্কা মদিনা ৫, টিউলিপ ও অঞ্জুমান-২ নামে ২৬ হাজার ফুটের ৩ টি বড় বড় বাল্কহেড নাব্যতা সংকটে আটকে যাওয়ায় দীর্ঘ প্রায় ২ কিলোমিটার  বাল্কহেড যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।


আর শুস্ক মৌসুমে প্রায়ই এ ধরণের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ রয়েছে। এতে শীতকালে শত শত কোটি টাকার বাল্কহেড বিনিয়োগকারীদের কোটি কোটি টাকার লোকসান গুণতে হয় বলেও অভিযোগ রয়েছে। একই সঙ্গে বাল্কহেড শ্রমিকের মজুরিতেও চরম ভাটা পড়ে বলে পারিবারিকভাবে তারা অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটায়। এদিকে আটকে পড়া বাল্কহেডের লাখো শ্রমিকরা বিগত করোনাকালীন পরিস্থিতি মোকাবেলায় এখনো ঋণের বোঝা বইছেন বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।


সরজমিন দেখা গেছে,শুক্রবার বিকেলেও বেরাইদ বাজার এলকায় নাব্যতা সংকটে বালু নদের পানি কম থাকায় ৪ দিন ধরে আটকে আছে বালুভর্তি ৩ টি বড় বাল্কহেড। এতে করে অন্যান্য শতাধিক বাল্কহেড ওই নদে আটকে গিয়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে শ্রমিকরা নদের পঁচা পানির মধ্যেই বন্ধ বাল্কহেডে দিনাতিপাত করছেন। খাওয়া দাওয়া ও নামাজ পড়ছেন বাল্কহেডেই। জটে আটকা পড়ে শ্রমিকরা অলস সময় পাড় করছেন।


এ বিষয়ে রমজান আলী নামে সাদিয়া ২ নামের এক বাল্কহেড শ্রমিক বলেন, গত ৫ দিন ধরে বালু নদের পঁচা পানিতে আটকে মশার কামড় খাচ্ছি। খোরাকির টাকাও নাই হাতে।মালিক বিকাশে টাকা পাঠাচ্ছে আর খাচ্ছি কিন্তু টাকার অভাবে বাড়ির লোকেরা খাওয়ায় কষ্ট করছে। নদিটা গভীর থাকলে সমস্যায় পড়তামনা।


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, খনন বা ড্রেজিংয়ের অভাবে গত কয়েক বছর ধরে বালু নদে ফকিরখালি, বেরাইদ, নাওড়া ও নগরপাড়া এলাকায় নাব্যতা সংকট দেখা দিয়েছে। এ সব এলাকায় অন্তত ১২ হাত পানির প্রয়োজন হয় বাল্কহেড চলাচল করতে। এক্ষেত্রে এসব এলাকায় এখন ৭ হাত পানি পাওয়া যাচ্ছে। তবে এ নদের ৩১ টি মৌজায় বিআইডাব্লিউটিএ কর্তৃক ২০১৩-১৪ সালে রক্ষণাবেক্ষণ (মেইনট্যানেন্স) ড্রেজিং করা হয়েছে। তারপর আর কোন খনন বা ড্রেজিং করা হয়নি বলে নদের তলদেশ অনেক ভরাট হয়ে গেছে। আর এ নদ দিয়ে বাল্কহেডের মাধ্যমে বালু বহন করে শহরের নি¤œাঞ্চলগুলো ভরাট করে আধুনিক নগরে রূপান্তর করা হচ্ছে। অথচ নাব্যতা সংকটে তা ব্যহত হচ্ছে চরমভাবে। তবে শুস্ক মৌসুমে নাব্যতা সংকটে এ নদ দিয়ে ১২শ’ থেকে ১৬শ’ ফুটের বেশি বড় বাল্কহেড চলাচল করতে পারেনা।  

 

সরেজমিন দেখা গেছে, ঢাকার ক্ষিলগাঁও থানাধীন বালু নদের ইটাখোলা থেকে ইদারকান্দি, ফকিরখালি ও ভাটারা থানাধীন বেরাইদ বাজার এলাকা পর্যন্ত বালুভর্তি বাল্কহেডের দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আর নাব্যতা সংকটেই গত ৪ দিন ধরে এ যানজট সৃষ্টি হয়েছে বলে তা অপসারণ করা যাচ্ছেনা। এক্ষেত্রে জোয়ারের পানির অপেক্ষায় রয়েছে দীর্ঘ প্রায় দুই মাইলের বাল্কহেড যানজট। তাছাড়া প্রতিবছরই ঢাকার বালুরপাড়, ফকিরখালি, ইদারকান্দি, বেরাইদসহ বালু নদের অধিকাংশ এলাকায় নাব্যতা সংকট দেখা দেয়। নদের তলদেশ ইতিমধ্যে ভরাট হয়ে গেছে।


এ বিষয়ে বেরাইদ বাজার এলাকার বাল্কহেড ব্যবসায়ী আকবর হোসেন বলেন, বড় ৩ টি বাল্কহেড বালু নদে প্রবেশ করায় এ দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তারা জানা সত্বেও কেন এত বড় লোড জাহাজ এ নদ দিয়ে আনল বুঝলামনা। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।


এ বিষয়ে বেসরকারি সংগঠন বাংলাদেশ পরিবেশ ও নদী রক্ষা উন্নয়ন ফাউন্ডেশন (ইআরপিডিএফ) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান  এইচ এম সুমন বলেন, বালু নদে নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে বৃহৎপরিকল্পনা প্রয়োজন যা নিয়ে আমরা কাজ শুরু করেছি। একই সঙ্গে নদী বাঁচাতে জলাবায়ু ঝুঁকি রাশের লক্ষ্যেও কাজ করছি। সরকারের একার পক্ষে সম্ভব নয় বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষদের নিয়ে দ্রুত জরুরী এসব কাজ সমাধানে সবার এগিয়ে আসতে হবে।


এ বিষয়ে ঘটনাস্থলে টঙ্গী নদী বন্দরের সহকারী সমন্বয় কর্মকর্তা সমর কৃষ্ণ সরকার বলেন, নাব্যতা সংকট বালু নদে চরম। জরুরী ভিত্তিতে খনন প্রয়োজন, প্রয়োজন বৃহৎ পরিকল্পনারও। এত বড় বাল্কহেড যানজট লাগার একমাত্র কারণই হচ্ছে নাব্যতা সংকট।

আর জোয়ারের পানি না আসা পর্যন্ত এ যানজট নিরসন সম্ভব নয়। রোইদ এলাকায় অনেকভাবে চেষ্টা করা হচ্ছে যানজট নিরসনে। এখানে ১২ হাত গভীর পানির প্রয়োজন,অথচ পাওয়া যাচ্ছে ৭ হাত।


আরও খবর



অসম প্রেমের কারণে সিরাজদিখানে যুবকের উপর বর্বরোচিত নির্যাতন

অসম প্রেমের কারণে সিরাজদিখানে যুবকের উপর বর্বরোচিত নির্যাতন

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৮৫৮জন দেখেছেন
Image


স্টাফ রিপোর্টারঃ

মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখানের বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়িতে অসম প্রেম করার অপরাধে সাইফুল ইসলাম রাজন নামে এক যুবককে অমানুষিক নির্যাতন করায় দুদিন ধরে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ঐ যুবক।


মোবাইল ফোনে গত ৭ জানুয়ারী বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়িতে সাইফুলকে ডেকে নিয়ে চালানো হয় বর্বরোচিত নির্যাতন।বর্তমানে ছেলেটি ইছাপুরা হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভর্তি আছেন।


স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়ির মেয়ের সাথে  প্রেমের সম্পর্ক হয় সাইফুলের। ৩ বছরের প্রেমের সম্পর্ক যখন গভীরতর হলে তারা দুজনে পালিয়ে যায়। তখন বাধা হয়ে দাঁড়ায় প্রেমিকার পরিবার।সাইফুলের লেখাপড়া ও পরিবারিক অবস্থা ভালো না থাকায় আপত্তি ওঠে প্রেমিকার পরিবার থেকে।


গত ৮জানুয়ারি মোবাইল ফোনে ডেকে নেয় প্রেমিকার আত্মীয় আলমগীর হোসেন পিতা জয়নাল,মনির পিতা নুর আলি,জাহাঙ্গীর পিতা জামাল মিয়া। সরল বিশ্বাসে সাইফুল যায় ঐ বাড়িতে। পূর্বপরিকল্পনা মতো উপরোল্লিখিত ব্যাক্তিরা গাছের সাথে বেঁধে আদিযুগের বর্বরোচিত কায়দায় অমানুষিক বিচার  করা হলো তার প্রতি।


আরও খবর



মাদ্রাসাছাত্রকে রুমে ডেকে নিয়ে বলাৎকার

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১২৯জন দেখেছেন
Image

ফেনীর দাগনভূঞায় এক মাদ্রাসাছাত্রকে রুমে ডেকে নিয়ে বলাৎকার করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় তিন শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার মাদ্রাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রের মা বাদী হয়ে মাদ্রাসার প্রিন্সিপালসহ চার শিক্ষককে আসামি করে দাগনভূঞা থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ভুক্তভোগী মাদ্রাসার হেফজ বিভাগের ছাত্র। সে মাদ্রাসার আবাসিকে থেকে পড়ালেখা করত। গত ৩০ ডিসেম্বর বিকেলে হেফজ বিভাগের শিক্ষক মো. কাউসার ওই ছাত্রকে মসজিদে যাওয়ার আগে রুমে যেতে বলে। ছাত্রটি যখন তার কক্ষে আসে তখন তাকে মাদ্রাসার টয়লেটে নিয়ে বলাৎকার করে।

পরবর্তীতে ছাত্র বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে ছাত্রের অভিভাবকেরা মাদ্রাসার প্রিন্সিপালকে জানায়। কিন্তু তারা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বৃহস্পতিবার ওই ভুক্তভোগী ছাত্রের মা বাদী হয়ে দাগনভূঞা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি মো. কাউসার ছাড়া অপর তিন আসামিকে মাদ্রাসা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আসামিরা হলেন- মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল আব্দুস সত্তার (৪০), শিক্ষক জাকিরুল ইসলাম (৩৯) ও শিক্ষক আফতাব উদ্দিন (৪০)।

দাগনভূঞা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) পার্থ প্রতিম দেব গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘গ্রেপ্তার আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’


আরও খবর



বই উৎসব শুরু

প্রকাশিত:Thursday ৩০ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৬৩জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণের উদ্বোধন করেন তিনি। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবারও নিজের হাতে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিতে না পারার দুঃখটা রয়েই গেল।’

নতুন শিক্ষাবর্ষের প্রথম দিন বই উৎসব করার কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় এ বছর তা হচ্ছে না। তবে বছরের প্রথমদিন থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বই বিতরণ কার্যক্রম চলবে।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যের পাঠ্যবই তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী। এ ছাড়া দুই মন্ত্রণালয়ের সচিব, সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর