Logo
আজঃ Wednesday ০৫ October ২০২২
শিরোনাম

রেকর্ড দুই মেয়াদে ডি-৮ সভাপতির দায়িত্বে বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ০৫ October ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

অর্থনৈতিক ফোরাম ডি-৮-এর সভাপতি হিসেবে আরও এক বছর দায়িত্ব পালন করবে বর্তমান সভাপতি দেশ বাংলাদেশ। সভাপতির দায়িত্ব পাওয়ার ক্ষেত্রে টানা দুই বছর এ দায়িত্ব পালনের রেকর্ড এখন কেবল বাংলাদেশরই। এরআগে ডি-৮ ভুক্ত আর কোনো দেশ টানা দুই বছর সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেনি।

বুধবার (২৭ জুলাই) বিকেলে ঢাকায় হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিয়ম অনুযায়ী বুধবারই ডি-৮-এর সভাপতির দায়িত্ব মিশরের কাছে হস্তান্তরের কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু এ বছর মিশরে জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন (কপ) হতে যাচ্ছে। বিশ্বের ১৯৬টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান বা তাদের প্রতিনিধিরা এতে অংশ নেবেন। এজন্য দেশটি ব্যস্ত সময় পার করছে জানিয়ে কায়রো ঢাকাকে আরও এক বছর দায়িত্ব পালনের অনুরোধ জানিয়েছে।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য আনন্দের খবর। কোনো কাঠখড় না পুড়িয়েই আমরা আরও এক বছর ডি-৮-এর সভাপতির দায়িত্ব পালন করবো। এটা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গর্বের।’

ডি-৮ একটি অর্থনৈতিক ফোরাম উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘১৪ বিলিয়ন ডলার থেকে আট দেশের আন্তঃবাণিজ্য ১২৯ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। আমি আশা করি, আগামী ১০ বছরে এর পরিমাণ ১০ গুণ বাড়বে, যা দাঁড়াবে ট্রিলিয়ন ডলারেরও বেশি। বাংলাদেশ সবসময়ই এ ফোরাম থেকে লাভবান হয়ে আসছে। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ অনেক কিছু অর্জন করবে।’

চলতি বিশ্বে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি ও অস্থিরতার বিষয় উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ডি-৮-এর দুই দেশ ইরান ও নাইজেরিয়া যথাক্রমে বিশ্বের পঞ্চম ও ১১তম জ্বালানি রপ্তানিকারক দেশ। দেশে দেশে জ্বালানি নিরাপত্তা নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ছে। বুধবারের বৈঠকেও বিষয়টি আলোচনা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘জ্বালানি সংকটে সহযোগিতা বাড়াতে এনার্জি মিনিস্ট্রিয়াল মিটিং করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইরানের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের একটা নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। অনেকেই এসব নিষেধাজ্ঞা মানছে না। তারা শক্তিশালী দেশ। কিন্তু আমরা দুর্বল। আমরা ইরান থেকে তেল আনবো না। তবে ফোরামের মধ্যে সিদ্ধান্ত হলে আমরা ভেবে দেখবো কীভাবে কী করা যায়।’

এক প্রশ্নের জবাবে মোমেন বলেন, ‘আজকের (বুধবার) সামিটে হালাল মার্কেট নিয়ে কথা না হলেও বাই-লিটারেলি আলোচনা হয়েছে। ইন্দোনেশিয়া ও ব্রুনাই সফরকালেও আমি বিষয়টি তুলে ধরেছি। সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, হালাল মার্কেটের বাজার যারা দখল করে আছে, তাদের একটিও মুসলিম দেশ নয়। আমি বিষয়টিতে সবাইকে গুরুত্ব দেওয়ার কথা বলেছি।’


আরও খবর