Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

রাণীশংকৈলে স্কাউট ইউনিট লিডার বেসিক কোর্স সম্পন্ন ও আলোচনা সভা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৪৬জন দেখেছেন

Image
রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি:'স্কাউটিং করবো স্মার্ট বাংলাদেশ গড়বো'এই  প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে গতকাল বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার সীমান্ত কুমার বসাকের সভাপতিত্বে কাবিং কার্যক্রম উন্নয়ন ও সম্প্রসারণের লক্ষ্যে স্কাউট ইউনিট লিডার বেসিক কোর্স সম্পন্নকারী সকল শিক্ষকবৃন্দকে নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুল হাসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার রাহিম উদ্দীন। এছাড়াও প্রধান শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

সীমান্ত কুমার বসাক তাঁর বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার্থীদের উন্নত জীবন গড়তে কাব স্কাউটিং কার্যক্রমের ভূমিকা অপরিসীম।কাবিং কার্যক্রমের সাথে জড়িত শিক্ষার্থীদের বিপথে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। সেই লক্ষ্যে তিনি ক্লাস্টারের সকল বিদ্যালয়ে দুইটি করে কাব ইউনিট গঠন সহ প্রত্যেক বিদ্যালয়ে একজন করে কাব ইউনিট লিডার বেসিক কোর্স সম্পন্নকারী শিক্ষক নিশ্চিত করেছেন।এমতাবস্থায়  স্কাউটিং কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত রাখার জন্য সকল কার্যক্রম নিয়মিত পরিদর্শন তথা রেজিস্ট্রার হালফিল রাখায় বিশেষ ভূমিকা পালন করে আসছেন।

আরও খবর



মেহেরপুরে আশংকাজনক হারে বাড়ছে যক্ষা রোগ

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭২জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃস্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে যক্ষা নির্মূলে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা সত্ত্বেও মেহেরপুরে ক্রমশঃবাড়ছে যক্ষারোগীর সংখ্যা। সাধারণ যক্ষার পাশাপাশি মারাত্মক ঝুঁকিপুর্ণ যক্ষা হিসেবে খ্যাত এমডিআর টিবি রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ১২ জন। ইতোমধ্যে ওই সব রোগিদের বাড়িকে রেডজোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এমনি উদ্বেগজনক তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিভাগ।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারী গাংনীতে যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী ও বেসরকারী সংস্থা ব্রাক আয়োজিত কর্মশালায় এমনি তথ্য জানানো রোগ নির্ণয়ে শতভাগ নির্ভুল পদ্ধতি অবলম্বন এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হলে যক্ষারোগী শনাক্তের সংখ্যাও বৃদ্ধি পাবে। তবে চিকিৎসকরা বলছেন, চিকিৎসায় যক্ষা ভাল সময় মতো পরীক্ষা নিরীক্ষা করে নিয়মিত ওষুধ সেবন ও স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে হবে।

মেহেরপুর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচীর সহায়ক সংস্থা ব্রাকের তথ্যমতে, গেল ২০২৩ ইং সালে মেহেরপুরে যক্ষা রোগির সংখ্যা ছিল ১০২৫ জন। এর মধ্যে মেহেরপুর সদর উপজেলায় ৫১২ জন, গাংনীতে ৪০৮ জন ও মুজিবনগরে ১০৫ জন। গত ডিসেম্বরে সদর উপজেলায় ১০৮ জন, গাংনীতে ৪৩ জন ও মুজিবনগরে ১৮ জনকে সনাক্ত করা হয়। চলতি বছরের জানুয়ারিতে মেহেরপুর সদরে ১০৮ জন, গাংনীতে ৪৪ জন ও মুজিবনগরে সনাক্ত করা হয় ১৬ জনকে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যা ৪ জন। তবে এমআরটিবি সনাক্ত করা হয় ১২ জনকে। এরা হচ্ছে- গাংনীর কাজিপুর ইউনিয়নের হাড়াভাঙ্গা গ্রামের বুলুয়ারা(৪৫), বেতবাড়িয়ার রওশনারা(৯০), লিয়াকত আলী(৬৫), তেতুঁলবাড়িয়া ইউনিয়নের রামদেবপুরের কাশেম আলী(৭৮), রামনগরের নাজির মন্ডল(৬০), পলাশী পাড়ার তহমিনা(৪৫), কাথুলি ইউনিয়নের গাড়াবাড়িয়ার বজলুর রহমান(৬০) ও রাইপুর ইউনিয়নের ঝোড়পাড়া গ্রামের জহুরা খাতুন(৬৫)। সদর উপজেলার কুতুবপুরের সাকিব(১৯) , আমঝুপির মিকাইল(৫০) ও মুজিবনগর শহরের নেপাল মল্লিক(৬০)। এসব আক্রান্ত রোগিরা শুধু নয়, গোটা পরিবারকে রেডজোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএলসিএ জাহিদুল ইসলাম জানান, যক্ষায় আক্রান্ত ও মৃত্যুহার কমাতে সময়মতো রোগ শনাক্তের বিকল্প নেই। তাই পরিবারের একজনের যক্ষা হলে সবার পরীক্ষা করার করার পরামর্শ দেন তারা। তবে যক্ষা হলে মানুষ সহজে প্রকাশ করতে চায় না। এর মূলে রয়েছে লোকলজ্জা, রোগের ব্যাপারে অবহেলা, সচেতনতার অভাবের মতো বিষয়। তা ছাড়া কর্মজীবীরা কাজ বাদ দিয়ে সহজে রোগনির্ণয়ের জন্য চিকিৎসকের কাছে যেতে চান না। যদিও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যক্ষা রোগ নির্নয়ের প্রয়োজনিয় সরঞ্জামাদি রয়েছে। তার পর কেহ আসতে চান না পরীক্ষার জন্য।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. আব্দুল্লাহ আল আরাফাত জানান, যক্ষায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে থাকা পরিবারের সদস্যরা, শিশু, বয়োবৃদ্ধ, বিশেষ করে যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম এবং যাদের অন্য সমস্যা যেমন ডায়াবেটিস, এইচআইভি, কিডনির জটিলতা, ইত্যাদি রয়েছে- এরা যক্ষায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে থাকেন বেশি। আবার, নতুন করে সুপ্ত যক্ষার জীবাণুর প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। যক্ষা প্রধানত ফুসফুসকে প্রভাবিত করে, তবে এটি কিডনি, মেরুদ- এবং মস্তিষ্ককেও প্রভাবিত করতে পারে। যখন একজন সংক্রামিত ব্যক্তি কাশি বা হাঁচি দেয়, তখন টিবি বাতাসের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

জাতীয় যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচীতে সহযোগী সংস্থা ব্রাকের মেহেরপুর জেলা সমন্বয়কারী মনিরুল ইসলাম জানান, যক্ষার ঝুঁকিতে থাকা জনগোষ্ঠীকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। মাইকোব্যাকটেরিয়াম টিউবারকিউলোসিস ব্যাকটেরিয়া এই রোগের জন্য দায়ি। এই রোগটিতে মূলত ফুসফুস আক্রান্ত হয়৷ যক্ষা রোগীদের সাধারণ যেমন কিছু উপসর্গ রয়েছে। তেমন এই ভাইরাস মূলত কাশি, হাঁচি থেকে বায়ুর মাধ্যমে ছড়ায়৷

মেহেরপুর ডিএসএমও হুমাইরা আয়েশা জানান, বাংলাদেশে সর্বত্র বিনামূল্যে যক্ষা রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসা দেয়া হয়। তাই এই রোগের উপসর্গ দেখা দিলে দ্রুত তা শনাক্ত করে চিকিৎসা নেয়ার প্রয়োজন। কারণ, যক্ষা হলে শরীরে ক্ষয় বেশি হয়। মৃত্যুর সম্ভাবনা থাকে। তাই দ্রুত শনাক্তের পর চিকিৎসা নেয়া অনেক বেশি জরুরি। যক্ষার এখন চিকিৎসা ব্যবস্থা অনেক উন্নত।


আরও খবর



শিবপুর সুর সম্রাট আলাউদ্দিন খাঁ ডিগ্রি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৩৫জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ  নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধিঃ- ব্রাক্ষণবাীয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর সুর সম্রাট আলাউদ্দিন খাঁ ডিগ্রি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান  অনুষ্ঠিত হয়েছে ।


মঙ্গলবার সকাল ১১ থেকে দিনব্যাপী অত্র ডিগ্রি কলেজ মাঠে অত্র এলাকার মান্যবর ব্যাক্তিবর্গগণের উপস্থিতিতে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের ও গীতা পাঠের মাধ্যমে এই বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এক মনোরম পরিবেশ  অনুষ্ঠিত হয়েছে ।


উক্ত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে অত্র  ডিগ্রী কলেজ ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ তথ্য ও গভেষণা উপকমিটির সদস্য আরিফুল ইসলাম ভূইয়া টিপুর সভাপতিত্বে ও প্রভাষক গোলাম কিবরিয়ার সঞ্চালণায় অত্র অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ নবীনগর সংসদীয় সদস্য নবীনগরের সর্বস্তরের মানুষের ভালোবাসার কান্ডারি এবং জননন্দিত জননেতা ফয়জুর রহমান বাদল এমপির পক্ষে ও উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন শিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, ও সমাজসেবক, মোঃ শাহীন সরকার ।

অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব‍্যুরোর এমপি  এইচ, উপ-পরিচালক মহিউদ্দিন আহমেদ সুমন ।

এছাড়াও বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মাষ্টার ওয়ালীউর রহমান ভূইঁয়া ,ডা: আবু জাফর জামাল , হোসেন আহমেদ ,শিবপুর ইউনিয়ন ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কবির আহমেদ , অত্র  ডিগ্রি কলেজ গভর্নিং বডির সদস্য আশ্রাফ হোসেন আকছির ,

উক্ত ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ মোহসীন সরকার,শিবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ সৈয়দ আহম্মেদ ,অত্র ডিগ্রী কলেজের বিদ্যুৎসাহী সদস্য বাবু সুবোধ চন্দ্র চৌধুরী ,মোঃ সোহরাউয়ার্দী চৌধুরী , যুবায়েরুল হক মৃমা, দ্বাতা সদশ্য মহসীন সরকার, মোঃ আনোয়ার হোসেন, সদস্য মোখলেছুর রহমান   সহ- উপস্থিত ছিলেন গভর্নিং বডির সদস্য ও শিক্ষক শিক্ষার্থী সহ এলাকার মান্যবর ব্যাক্তিবর্গগণ ।


উক্ত  অনুষ্ঠানে  বার্ষিক  ক্রীড়া প্রতিযোগিতায়  বিভিন্ন ইভেন্টে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল বিজয়ীদের কে ,অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ী পুরস্কার তুলে দেন সকল অতিথীগণ ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ডেমরায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৭জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃডেমরা নলছাটা এলাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফাতেমা রশিদ আইডিয়াল স্কুল -এ যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২৪ পালন করা হয়েছে।আজ বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাংলা ভাষার জন্য অকাতরে প্রাণ বিলিয়ে দেওয়া ভাষা-শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শোক র‌্যালি ও সকল ভাষা শহিদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন জানাতে ফাতেমা রশিদ আইডিয়াল স্কুল এর শহিদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়।শোক র‌্যালি শেষে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার প্রদান করা হয়। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার প্রদান করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা হাজী মোঃ মনিরুজ্জামান।।এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি’সহ স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কমকর্তা,  কমচারী প্রমুখ।ফাতেমা রশিদ আইডিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক এর সমাপনী বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।প্রধান অতিথির বক্তব্যে হাজী মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, “ফেব্রুয়ারি মাস আমাদের জাতিসত্তার বিকাশে এক অনবদ্য সংযোজন। অসাধারণ আত্মত্যাগের এক বিশাল অর্জন। পৃথিবীর ইতিহাসে বাঙালি এক অনন্য জাতি। পৃথিবীতে খুব কম জাতি আছে যারা ভাষা, সংস্কৃতি রক্ত দিয়ে রক্ষা করেছে। 

“রক্ত দিয়ে বাঙালি নিজের রাষ্ট্র তৈরি করেছে, তার নিজস্ব সংস্কৃতিকে বিকশিত করছে, অসম্প্রদায়িক চেতনা তুলে ধরছে। একুশের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। একুশের চেতনা হারিয়ে ফেলা যাবে না। বিশেষ করে তরুণ সমাজকে একুশের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করতে হবে।”

এছাড়াও ডেমরা এলাকার নবমল্লিকা একাডেমী, এবং ডেমরা আইডিয়াল কলেজে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসূচি পালিত হয়।

প্রসঙ্গত, রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ১৯৫২ সালে ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগের দিনটি বাংলাদেশের ইতিহাসে মহান শহীদ দিবস হিসেবে পালন হয়ে আসছে। তবে দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে অমর একুশে এখন পালিত হচ্ছে সারা বিশ্বে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে। ১৯৯৯ সালে ইউনেসকো একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জ্বালানি তেলের দাম বিশ্ব বাজারে কমেছে

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বিশ্ব বাজারে আরও এক ধাপ কমেছে জ্বালানি তেলের দাম। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সুদের হার অন্তত আরও দুই মাসের মধ্যে কমাবে না এমন ইঙ্গিত মেলায় কমেছে তেলের দাম।

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলের দিকে ব্যারেলপ্রতি ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ১ দশমিক ৩৫ ডলার বা ১ দশমিক ৬ শতাংশ কমে ৮২ দশমিক ৩২ ডলারে দাঁড়িয়েছে। ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটের দাম ব্যারেলপ্রতি ১ দশমিক ৩৫ ডলার বা ১ দশমিক ৭ শতাংশ কমে ৭৭ দশমিক ২৬ ডলারে দাঁড়িয়েছে।

সপ্তাহের ভিত্তিতেও কমতে যাচ্ছে উভয় বেঞ্চমার্কের দাম। এর আগের দুই সপ্তাহ দাম বাড়তির দিকে ছিল। তবে চাহিদা ও সরবরাহ উদ্বেগের কারণে শিগগিরই দাম আরও বাড়তে পারে।

অপরদিকে বৃহস্পতিবার মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর জানিয়েছেন, নীতি নির্ধারকরা সুদের হার কমানোর ক্ষেত্রে অন্তত আরও দুইমাস সময় নিতে পারেন। তাদের এ সিদ্ধান্তে প্রবৃদ্ধি ধীর হওয়ার পাশাপাশি তেলের চাহিদা কমতে পারে।

তবে কিছু বিশ্লেষকরা মনে করছেন, উচ্চ সুদের প্রভাবের মধ্যে এখনো তেলের দাম বেশি রয়েছে।


আরও খবর



মিরসরাইয়ে বসন্ত উৎসবে ব্যতিক্রমী আয়োজন ক্যাফের বিক্রির টাকা খরচ হবে এতিমদের পড়াশোনায়

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

এম আনোয়ার হোসেন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:২০২২ সালের ১০ অক্টোবর মিরসরাইয়ে ব্যতিক্রমধর্মী ক্যাফে মিরসরাই ক্যাফে চালু হয়। ক্যাফেটি চালু হওয়ার পর থেকে নানা ব্যতিক্রমী আয়োজন করে উপজেলাজুড়ে সুনাম কুড়িয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় এবার বসন্ত উৎসবকে ঘিরে তরুণ উদ্যোক্তা মেলার আয়োজন করা হয়। উদ্যোক্তা মেলায় উদ্যোক্তরা পসরা সাজায় বাঙালির চিরায়ত রসনা অনুষঙ্গ পিঠা’র পাশাপাশি গ্রামীণ ঐতিহ্যের নানা পণ্য। ক্যাফে কর্তৃপক্ষ ইতিপূর্বেই ঘোষণা দেন বসন্ত উৎসরের দিন যত টাকা ক্যাফেতে বিক্রি হবে তার সবই খরচ করবে এতিমদের পড়াশোনায়। এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান ক্যাফেতে আসা দর্শনার্থী ও ক্রেতারা।

বুধবার দিনভর স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘মিরসরাইয়ান’র সার্বিক সহযোগিতায় মিরসরাই ক্যাফেতে সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত আয়োজিত বসন্ত উৎসব ও তরুণ উদ্যোক্তা মেলা পরিদর্শন করেন মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজা জেরিন, মিরসরাই প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি শারফুদ্দীন কাশ্মীর, মিরসরাই ক্যাফের সত্বাধিকারী সাফাত ইশতিয়াক, মিরসরাইয়ান’র অন্যতম পরিচালক কন্ঠশিল্পী মহিবুল আলম আরিফ।

বসন্ত উৎসবে ১১ টি স্টলে সর্বনিম্ন ৫ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩০০ টাকা দামের পিঠা মিলে। উল্লেখযোগ্য পিঠার মধ্যে ছিল ডিম সুন্দরী, পদ্ম ফুল, তিচুর লাড্ডু, পানতোয়া, বেণী, মাছ পিঠা, নকশি, সূর্যমুখী পিঠা, ঝিনুক পিঠা, পাটিসাপ্টা, নারিকেল পুলি, শিমের ফুল, পাতা পিঠা, মধু ভাত, নকশি পিঠা, জালা পিঠা, ক্ষিরের নাড়ু, তিলের পিঠা, আনন্দ বিলাস, কলা পাতার টুই, লাউ ও গোলাপ পিঠাসহ প্রায় দেশ শতাধিক পিঠা। এছাড়া গ্রামীণ ঐতিহ্যের নানা ব্যবহৃত অনুষঙ্গও মিলে এই উৎসবে।

মিরসরাই ক্যাফের সত্বাধিকারী শাফাত ইশতিয়াক জানান, গ্রাম বাংলার ঘরে ঘরে একসময় যেসব পিঠা তৈরি করা হতো সেসব পিঠা কালের আবর্তে হারিয়ে গেছে। হারিয়ে যাওয়া সেসব পিঠাগুলো বর্তমান প্রজন্মকে পরিচয় করিয়ে দিতে এই আয়োজন করা। দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন করা হয় বসন্ত উৎসবের। এই উৎসব উপলক্ষে ক্যাফেতে বিক্রির সব টাকা এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে বিলিয়ে দেওয়া হবে।

মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহফুজা জেরিন বলেন, ছোটবেলায় যেসব পিঠা খেয়েছিলাম, সময় সুযোগের কারণে এখন তা আর খাওয়া হয় না। এখানে এসে অনেকগুলো পিঠার পাশাপাশি গ্রামীণ অনেক কিছু দেখতে পেলাম। বসন্ত উৎসব ও তরুণ উদ্যোক্তা মেলা আয়োজন করার জন্য মিরসরাই ক্যাফে ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মিরসরাইয়ান গ্রুপকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।


আরও খবর

বিনামূল্যে বই পেল ২৬৬ কলেজ শিক্ষার্থী

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪