Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য
ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে

রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল

প্রকাশিত:Monday ২৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১৩৪জন দেখেছেন
Image

সোহরাওয়ার্দীঃ

স্ব‌প্নের পদ্মা সেতু উ‌দ্বোধন উপল‌ক্ষে মাতুয়াইল মুস‌লিম নগর এলাকায় দেশরত্ন শেখ হাসিনার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া মাহ‌ফিল অনু‌ষ্ঠিত হয়েছে।


সোমবার ২৭ জুন দুপুরে রাজধানীর ডেমরা থানা এলাকার মাতুয়াইল মুসলিম নগর এলাকায় এ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।


উক্ত অনুষ্ঠা‌নে প্রধান অ‌তি‌থি হি‌সে‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন ঢাকা-০৫ নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য মনোনয়ন প্রত্যাশী ডেমরা থানা এলাকার মা‌টি ও মানু‌ষের নেতা, ডেমরা থানা আওয়ামী লী‌গের সভাপ‌তি জন‌নেতা এ‌্যাডঃ র‌ফিকুল ইসলাম খান মাসুদ।


এতে বি‌শেষ অ‌তি‌থি হি‌সে‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন ব‌রিশাল মহানগর তাঁ‌তী লী‌গের সভাপ‌তি ‌মো: ই‌লিয়াস ফরা‌জি।


দোয়া মাহফিলে আরো উপ‌স্থিত ছি‌লেন মাতুয়াইল ইউ‌নিয়ন আওয়ামী লীগ ৮নং ওয়ার্ড এর সা‌বেক সাধারন সম্পাদক ও ৬৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ আ‌নোয়ার হোসেন মোল্লা।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাহবুব হাসান ফরিদ, আবুল কালাম আজাদ পান্নু , শুকুর মিয়া, মিলন, সিরাজ মিয়া, আনোয়ার প্রধান, মুক্তার হোসেন, রাজু খন্দকার এবং এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।


দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে সভাপ‌তিত্ব ক‌রেন সামসুল হক খান স্কুল এন্ড ক‌লেজ ইউ‌নিট আওয়ামী লী‌গের সভাপ‌তি মনিরুজ্জামান ম‌নির মাস্টার। 


অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ ইউনিট আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক নুরুল আমীন।


আরও খবর



বাবা খেলেছেন ভারতের হয়ে, ছেলে ডাক পেলেন ইংল্যান্ড যুব দলে

প্রকাশিত:Friday ০৫ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১৩জন দেখেছেন
Image

ভারতের সাবেক তারকা পেসার রুদ্র প্রতাপ (আরপি) সিংয়ের ছেলে হ্যারি সিংকে নিজেদের অনূর্ধ্ব-১৯ দলে নিয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। শ্রীলঙ্কা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে আসন্ন হোম সিরিজের দলে ডাক পেয়েছেন হ্যারি সিং।

বাবা ভারতের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেললেও, অনূর্ধ্ব-১৯ দলে ডাক পাওয়ার মাধ্যমে ছেলে হ্যারি ইংল্যান্ড জাতীয় দলে খেলার পথেও অনেকটা এগিয়ে গেলেন। ইংলিশ যুবাদের ব্যাটিং ডিপার্টমেন্টে গুরুত্বপূর্ণ একজন হ্যারি।

ইংল্যান্ডের ঘরোয়া ক্রিকেটে ল্যাঙ্কাশায়ারের দ্বিতীয় একাদশের হয়ে ওপেনিং করেন হ্যারি। ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের সুবাদে ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলে ডাক পেলেও, সামনের পথ যে সহজ হবে না তা মনে করিয়ে দিতে ভোলেননি আরপি সিং।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে আরপি সিং বলেছেন, ‘এটি মোটেও সহজ নয়। খানিক ভাগ্য এবং অনেক বেশি রান করলেই সর্বোচ্চ পর্যায়ে যাওয়া যাবে। নব্বইয়ের দশকে আমি অনেক ক্রিকেটারকে দেখেছি যারা ঘরোয়াতে ভালো করলেও ভারতের হয়ে হতাশ করেছে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘হ্যারি যত বড় হবে, আমাদেরকে তার টেকনিক্যাল সমস্যাগুলো তত দ্রুত সারিয়ে তুলতে হবে। সে আগে ফাস্ট বোলিং করতো। কিন্তু ফাস্ট বোলিংয়ের সঙ্গে ইনিংস সূচনা করা খুব কঠিন। তাই তাকে ব্যাটিংয়ে মন দিতে বলা হয়েছে। এখন খানিক অফস্পিনও করে।’

২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন আরপি সিং। ২০০৫ সালে শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ১৪ টেস্ট, ৫৮ ওয়ানডেও ১০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ২০০৭ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ১২ উইকেট নিয়ে দলকে শিরোপা জেতাতে ভূমিকা রাখেন আরপি সিং।


আরও খবর



ডিজিটাল আইনে মামলা দিয়ে সাংবাদিকদের হয়রানি করা হচ্ছে: বিএফইউজে

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

দেশের পেশাদার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে তাদের হয়রানি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)।

একই সঙ্গে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের যেসব ধারা স্বাধীন সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে বাধা হিসেবে কাজ করছে, অবিলম্বে সেসব ধারা বাতিল ও সাংবাদিকদের নামে এ আইনে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

রোববার (৩১ জুলাই) বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. হেদায়েৎ হোসেন মোল্লা এক বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে সাংবাদিক হত্যা ও নির্যাতন এবং তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার ঘটনাগুলো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। এতে বলা হয়, গত ৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে পত্রিকা অফিসে কাজ করার সময় কুষ্টিয়া জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি হাসিবুর রহমানের মুঠোফোনে একটি কল আসে। এরপর তিনি অফিস থেকে বেরিয়ে যান। পাঁচদিন নিখোঁজ থাকার পর গত ৮ জুলাই তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। বিএফইউজে এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের বিচার করার দাবি জানায়।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, সংবাদ প্রচার করার কারণে বরগুনার ইমরান হোসেন (একাত্তর টেলিভিশন ও রাইজিংবিডি ডটকম), চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার মাহবুবুর রহমান (দৈনিক যুগান্তর ও দৈনিক আজাদী), এনায়েত হোসেন (দৈনিক কালের কণ্ঠ ও দৈনিক পূর্বকোণ), মোহাম্মদ ইউসুফ (বাংলা ট্রিবিউন, দৈনিক ইত্তেফাক ও দৈনিক সাঙ্গু), নয়ন কান্তি (দৈনিক ভোরের পাতা), মো. জাভেদ (দৈনিক স্বদেশ প্রতিদিন), সেকান্দর হোসাইন (দৈনিক সমকাল) ও মো. জহিরুল ইসলামের (আমার সংবাদ) বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে।

এছাড়া কুষ্টিয়ায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় বাংলা টিভির ভেড়ামারা প্রতিনিধি মো. ওমর ফারুককে গ্রেফতার করা হয় এবং গত ২১ জুলাই ঢাকা পোস্টের কক্সবাজার প্রতিনিধি সাইদুল ফরহাদকে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অশালীন ভাষায় গালমন্দ করেন বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।


আরও খবর



ইমোশন কাজে লাগিয়ে নড়াইলের ঘটনা সৃষ্টি করেছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:Wednesday ২০ July ২০22 | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৩৭জন দেখেছেন
Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বাংলাদেশে সব ধর্মের প্রাধান্য রয়েছে। মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবমিলিয়ে বাংলাদেশ। আমরা জাতি হিসেবে অত্যন্ত ইমোশনাল। মাঝে মধ্যে যেকোনোভাবেই দু'একটি উক্তি চলে আসে এবং এগুলোকে পুঁজি করে ঘটনা ঘটে যায়। ইমোশন কাজে লাগিয়ে একটি গোষ্ঠী দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায়।

বুধবার (২০ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লুতে আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। ‘রোহিঙ্গা ও নার্কো টেরোরিজম’ শীর্ষক এ সেমিনারের আয়োজন করে ডিপ্লোমেটস পাবলিকেশন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নড়াইলসহ এর আগেও কিছু ঘটনা ঘটেছে। সবগুলো ঘটনাতেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তৎক্ষণাত পদক্ষেপ নিয়েছে।নড়াইলের ঘটনা যখনই ঘটেছে তখনই ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া ছেলেটির বাড়ি প্রটেকশনে ছিল এবং তাকে খোঁজা হচ্ছিল। কিন্তু ছেলেটির ফেসবুকের পোস্ট দেখে একটি গোষ্ঠী ইমোশনাল হয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে।

তিনি বলেন, ইমোশনকে কাজে লাগিয়ে যারা পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চায় তারা সব জায়গাতেই এ ধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছে। নাহলে ঘটনা ঘটিয়েছে একটি ছেলে এতে বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়ার কোনোই প্রয়োজন নেই। আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাৎক্ষণিকভাবে ছেলেটির বাড়ি প্রটেকশন দেয় এবং যারা যারা ঘটনাটি ঘটিয়েছে তাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নড়াইলের ঘটনায় সবগুলো বিষয় সামনে এনে ইনভেস্টিগেশনে চলছে। কে কতখানি সম্পৃক্ত ছিল তা তদন্তে বেড়িয়ে আসবে।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে ২ সপ্তাহে শুকনা মরিচের কেজিতে বেড়েছে ৭০ টাকা

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ৩১ July ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

সিরাজগঞ্জে বেড়েই চলেছে খুচরা ও পাইকারি বাজারে শুকনা মরিচের দাম। গেল দুই সপ্তাহে পণ্যটির কেজিতে দাম বেড়েছে ৭০ টাকা।

আড়ত মালিক ও খুচরা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বর্তমানে ভারতের বাজারে শুকনা মরিচের দাম বাড়তি থাকায় আমদানি কম হচ্ছে। যে কারণে দেশি শুকনা মরিচ দিয়ে চাহিদা পূরণ না হওয়ায় দাম বাড়ছে।

বুধবার (২৭ জুলাই) সিরাজগঞ্জের বড় বাজারসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি শুকনা মরিচ ৪২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। দুই সপ্তাহ আগে এই মরিচই বিক্রি হয়েছে ৩৫০ টাকা দরে। সেই হিসাবে কেজিতে ৭০ টাকা টাকা বেড়ে গেছে দাম। আর এতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা।

শুকনা মরিচের খুচরা বিক্রেতা আফছার আলী বলেন, বর্তমানে শুকনা মরিচের বাজারে আগুন ধরেছে। ঈদের আগে শুকনা মরিচের প্রতি কেজি ছিল ৩৫০ টাকা। আর এখন সেই মরিচ খোলা বাজারে খুচরা বিক্রি করছি ৪০০-৪২০ টাকায়। মরিচের দাম বাড়তি অব্যাহত আছে।

jagonews24

তিনি আরও বলেন, শুকনা মরিচের দাম বাড়লেও পেঁয়াজ, আদা, রসুনসহ অন্য পণ্যের দাম খুব একটা বাড়েনি। তবে চিনির দাম বাড়ছে। এক সপ্তাহে চিনির বস্তাপ্রতি ১০০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

মরিচের পাইকারি বিক্রেতা আব্দুল করিম বলেন, শুকনা মরিচের দাম বেড়েছে। এর পেছনে অন্যতম কারণ হলো ভারতের বাজারে শুকনা মরিচের দাম বেড়েছে। যার কারণে এদেশের পাইকাররা শুকনা মরিচ কম আমদানি করছে। তাই দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা এখন বেশিরভাগ দেশি শুকনা মরিচ মোকাম থেকে কিনে খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করছি। ভারতের শুকনা মরিচ আমদানি শুরু হলে আবার দাম কিছুটা হলেও কমে যাবে।


আরও খবর



কাগজের উভয় পৃষ্ঠায় প্রিন্ট করার নির্দেশনা এনবিআরের

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

করোনা মহামারির ধকল সামলে ওঠার আগেই রাশিয়া-ইউক্রেন চলমান যুদ্ধ পরিস্থিতিতে বৈশ্বিক জ্বালানি সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। এতে সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছে আমদানিনির্ভর দেশগুলো। সংকট মোকাবিলায় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে জোর দিচ্ছে বিভিন্ন দেশ। বাংলাদেশ সরকারও সংকটকালীন দেশের মানুষকে কৃচ্ছতা সাধনের আহ্বান জানাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে গত এক সপ্তাহ ধরে রাজধানীসহ সারাদেশে শিডিউল করে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং চলছে। জ্বালানি সংকটের কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে এ পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার।

শুধু বিদ্যুৎই নয়, জ্বালানির্ভর অন্য সব ক্ষেত্রে সাশ্রয়ী হতে ১৪ দফা নির্দেশনা দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। নির্দেশনায় অপ্রয়োজনে বৈদ্যুতিক পাখা, বাতি, এসি, টেলিভিশন ব্যবহার বন্ধ করাসহ অনলাইন প্ল্যাটফর্মে সভা, বিদেশ ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করা এবং কাগজের উভয় পৃষ্ঠায় প্রিন্ট করার বিষয়গুলো উঠে এসেছে।

এনবিআর ও এর অধীন সব দপ্তরকে গতকাল সোমবার (২৫ জুলাই) এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত এক আদেশে এনবিআর বলেছে, চলমান বৈশ্বিক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার আলোকে বিদ্যুৎ খাতে ২৫ শতাংশ এবং জ্বালানি খাতে ২০ শতাংশ খরচ সাশ্রয়ে এই মিতব্যয়িতা চর্চার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

১৪ নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে- অফিস কক্ষে অবস্থান না করলে কক্ষের বৈদ্যুতিক পাখা, বাতি, এসি, টেলিভিশন ইত্যাদি যন্ত্র বন্ধ নিশ্চিত করা; বৈদ্যুতিক বাতি ব্যবহারে সর্বোচ্চ মিতব্যয়িতা নিশ্চিত করা; অফিস কক্ষ, অফিস করিডর, সম্মেলনকক্ষসহ অন্যান্য স্থানে অনাবশ্যক বাতি না জ্বালানো; এসির তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে না রাখা; অপ্রয়োজনীয় আলোকসজ্জা পরিহার করা; গাড়ির জ্বালানি খরচ কমানোর জন্য গাড়িতে এসির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা; গাড়ির অপ্রয়োজনীয় ব্যবহার পরিহার করা; গাড়ির জ্বালানি বাবদ খরচ বিদ্যমান খরচ থেকে ২০ শতাংশ কমানোর লক্ষ্যে অফিস প্রধানের নিয়মিত তদারকি করা; সব সভা যত দূর সম্ভব অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে করা; এনবিআরের কর্মচারীদের অত্যাবশ্যক না হলে বিদেশে ভ্রমণ নিরুৎসাহিত করা; দাপ্তরিক কাজে কাগজসহ সরঞ্জামাদির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করা (যেমন- কাগজের উভয় পৃষ্ঠায় প্রিন্ট করতে হবে এবং অপ্রয়োজনীয় প্রিন্ট পরিহার করতে হবে)।


আরও খবর