Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

পিরোজপুরে অপরাধ বিষয়ক সংবাদে নির্দোষ ব্যক্তির ছবি নিয়ে তোলপাড়

প্রকাশিত:Monday ০৯ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৮৪জন দেখেছেন
Image

বজলুর রহমানঃ


পিরোজপুরে অপরাধ বিষয়ক সংবাদ প্রকাশে নির্দোষ ব্যক্তির ছবি দিয়েছে স্থানীয় কিছু পত্রিকা। বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় চলছে এলাকায়।



জানা যায় পিরোজপুর জেলাধীন  সদর থানার কুমিরমারা গ্রামের  প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা, ২১ আগস্ট বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল ফকিরের দ্বিতীয় পুত্র পিরোজপুর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রচার সম্পাদক  মোঃ মমিনুল ইসলাম রাজার ছবি ব্যবহার করে উদ্দেশ্যমূলকভাবে সংবাদ প্রচার করেছে দৈনিক গ্রামের সমাজ, আজকের সময় সহ বেশ কয়েকটি পত্রিকা, তারা তাদের পত্রিকার ওয়েবসাইট গতকাল! পিরোজপুরে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজির সময় যুবক গ্রেপ্তার " শিরোনামে একটি সংবাদ প্রচার করে। প্রকাশিত সংবাদে অপরাধীর ছবির বদলে নিরপরাধ মমিনুল ইসলামের ছবি ব্যাবহার করা হয়।





ও কে এম সাঈদ নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে এই সংবাদটি শেয়ার করে।বিষয়টি দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় মমিনুল ইসলামের পরিবারের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন।




ভুক্তভোগির বড় ভাই ঢাকা থেকে প্রকাশিত জাতীয় দৈনিক জাগোকন্ঠের বরিশাল বিভাগীয় আঞ্চলিক  প্রতিনিধি ,বাংলাদেশ রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাঙ্গঠনিক সম্পাদক ( বরিশাল বিভাগের দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত) মোঃ আমিনুল ইসলামের নজরে পড়লে তিনি কাউখালী থানার প্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেন। 


পরবর্তীতে কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিশ্চিত করেন  গ্রেপ্তারকৃত জুয়েল রানার ছবি এটি নয়।তিনিও বিষয়টি নিয়ে বিষ্ময় প্রকাশ করেন।এদিকে মমিনুলের ছবি প্রকাশিত হওয়ায় বিপাকে পড়েছে তার পরিবার। তার পিতার দাবি তিনি ও তার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে উদ্দেশ্যমূলক ভাবে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।


তিনি আরো বলেন,তার নির্দোষ ছেলেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখে অপরাধী বানানোর উদ্দেশ্যে এ হীন কাজ করা হয়েছে। এ বিষয়ে পিরোজপুর  প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও পিরোজপুর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের বর্তমান সভাপতি  জহিরুল হক টিটু বলেন,এমন কাজ অবশ্যই উদ্দেশ্য প্রণোদিত, কোনো পেশাদার সাংবাদিক নিশ্চিত না হয়ে নির্দোষ ব্যাক্তির ছবি ব্যবহার করে ক্রাইম নিউজ করবেন এটা বেমানান। 

তিনি বিষয়টিকে অপ-সাংবাদিকতা বলে অভিহিত করেন।



বিষয়টি খতিয়ে দেখে এদের বিরুদ্ধে  আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ বলে মনে করেন তিনি।উল্লেখ্য পিরজপুর জেলার কাউখালী থানাধীন  বেকুটিয়া ফেরী ঘাট এলাকা থেকে ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে টাকা নেয়ার সময় ট্রাফিক রফিকুল ইসলাম জুয়েলকে  চ্যালেঞ্জ করে।পরবর্তীতে কাউখালি থানায় তার বিরুদ্ধে একটি প্রতারণা মামলা দিয়ে পুলিশ তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।


এঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তির ছবির স্থলে উদ্দেশ্যমূলকভাবে মুমিনুল এর ছবি ব্যবহার করে স্থানীয় দুই তিনটি পত্রিকার ওয়েবসাইটে  খবর প্রকাশ করে। 



আরও খবর



মারিউপোলের পর ইউক্রেনের আরও এক শহর রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ গড়িয়েছে পঞ্চম মাসে। দীর্ঘ সময় ধরে চলা যুদ্ধে রাশিয়ান সেনারা ইউক্রেনের মারিউপোলের পর এবার আরেকটি শহর পুরোপুরি দখলে নিয়েছে। ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের এই শহরটি রুশ সেনারা নিয়ন্ত্রণে নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন মেয়র অলেক্সান্ডার স্ট্রিউক।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ইউরোপের সবচেয়ে বড় ভূমি সংঘাতের কারণে শনিবারও ইউক্রেনের পশ্চিম, উত্তর ও দক্ষিণ অংশে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এক সময় এই শহরটিতে এক লাখের বেশি মানুষ বসবাস করতেন। সেটি এখন ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। গত মাসে মারিউপোল বন্দর দখল করার পর থেকে এটি মস্কোর সবচেয়ে বড় বিজয় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জাতীয় টেলিভিশনে দেওয়া এক বক্তব্যে মেয়র অলেক্সান্ডার স্ট্রিউক বলেন, শহরটি এখন রাশিয়ার দখলে। তারা এখন সেখানে তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনা বাস্তবায়নের চেষ্টা চালাচ্ছে। তিনি বলেন, সেভেরোদোনেস্কে কর্তৃপক্ষও নিয়োগ দিয়েছে মস্কো।

লুহানস্ক ও দোনেস্ক এই দুই মিলে ডনবাস। লুহানস্কে অবস্থিত সেভেরোদোনেস্ক শহরে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রুশ ও ইউক্রেনীয় বাহিনীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী লড়াই চলছিল। শহরটি দখলে নিতে সর্বশক্তি নিয়ে হামলা চালায় রাশিয়া।

jagonews24

ডনবাসের নিয়ন্ত্রণ মস্কোর জন্য কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এর নিয়ন্ত্রণ নিলে ২০১৪ সালে রাশিয়ার দখলকৃত ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সঙ্গে করিডর তৈরি সম্ভব হবে।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যখন ডনবাস বলেন, তখন তিনি বোঝান ইউক্রেনের পুরোনো ইস্পাত ও কয়লা উৎপাদনকারী এলাকাটিকে। যার অর্থ দাঁড়ায় সমগ্র দোনেৎস্ক ও লুহানস্ক মিলিয়ে একটি বড় অঞ্চল। প্রধানত রুশ-ভাষী এই এলাকাটিকে 'মুক্ত করার' কথা বার বার বলে আসছেন পুতিন।

পূর্ব ইউক্রেনে সেনা পাঠানোর নির্দেশের আগে রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের নিয়ন্ত্রিত দুটি অঞ্চলকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। গত ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে পুতিন ইউক্রেনকে রাশিয়ার ইতিহাসের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, পূর্ব ইউক্রেন এক সময় রাশিয়ার ভূমি ছিল। পুতিনের এ ঘোষণার পরপর শুরু হয় ইউক্রেন আগ্রাসন।

সূত্র: আল-জাজিরা


আরও খবর



মৌলবাদের উত্থানের আশঙ্কা হাফিজের

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত না হলে ধর্মীয় মৌলবাদীদের উত্থান হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেছেন, আমরা যারা আধুনিক রাজনীতি করি। যারা বহির্বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশকে একটি উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চাই। আমরা যদি ব্যর্থ হই তাহলে এ দেশে ধর্মীয় মূল্যবোধের উত্থান হবে। ভারতে হয়েছে হিন্দুত্ববাদীদের উত্থান আর বাংলাদেশে যদি সুশাসন না হয় তাহলে এখানে ধর্মীয় মৌলবাদীদের উত্থান হবে।

শনিবার (১৮ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে ‘ভয়েস ফর ডেমোক্রেসি অ্যান্ড ভোটার রাইটস’ উদ্যোগে দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট পার্লামেন্ট শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

হাফিজ উদ্দিন বলেন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলন যদি সফল হয় এবং বর্তমান বিরোধী দল যদি ক্ষমতায় আসে তাহলে কীভাবে দেশ পরিচালনা করা হবে এ বিষয়ে আলোচনা করা দরকার। লিখিত একটা চুক্তি হওয়া উচিত যে প্রকৃতভাবে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে। জনগণ সুস্থভাবে জীবনযাপন করতে পারবে। বিচার বিভাগ স্বাধীন থাকবে। দেশ থেকে টাকা পাচার হবে না। আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি বলেন, দেশের বিরোধী দলগুলো যদি ঐক্যবদ্ধ হতে না পারে এবং ভবিষ্যতে এ রাষ্ট্র কীভাবে চলবে সেই রূপরেখা প্রণয়ন করতে ব্যর্থ হয়। তাহলে কী এই আওয়ামী লীগ সরকার চিরকাল ক্ষমতায় থাকবে? তারাও থাকবে না। বাংলাদেশের মানুষ যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছে। এখন চুপ করে থাকলেও আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলবে তারা। হয়তো এই আন্দোলনের সুফল এই তথাকথিত রাজনৈতিক দলগুলো পাবে না। হয়তো ধর্মীয় মূল্যবোধের উত্থান হবে এ দেশে।

অনুষ্ঠানে দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট পার্লামেন্ট পরিপ্রেক্ষিত বাংলাদেশ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডক্টর আব্দুল লতিফ মাসুম।

আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক সাংবাদিক মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে সাংগঠনিক সদস্যসচিব হুমায়ুন কবির বেপারীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক নুরুল আমিন বেপারী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ডক্টর তারেক ফজল, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ডঃ শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।


আরও খবর



দোকানের ক্যাশ কাউন্টারে লুকিয়ে মালিক বাঁচলেও ঝলসে যান ২ ক্রেতা

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

শনিবার (৪ জুন) রাত ৮টার দিকে নিজের দোকানে বসেছিলেন মো. রাজু আহমেদ (৩৫)। সেখান থেকে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন দেখতে পান তিনি। ডিপোর মূল ফটকের সামনের দিকে তার দোকান। ঘটনাস্থল থেকে দোকানটি আধা কিলোমিটার দূরে। রাত ১১টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দে সেখানে বিস্ফোরণ হয়। এসময় তার দোকানের সামনের অংশে দাঁড়িয়েছিলেন দুজন ক্রেতা।

বিস্ফোরণের শব্দে দোকানি রাজু দ্রুত ক্যাশ কাউন্টারের আড়ালে বসে পড়েন। এতে তার কোনো ক্ষতি না হলেও সামনে থাকা দুজন ক্রেতার পুরো শরীর ঝলসে যায়। দুমড়ে-মুচড়ে গেছে দোকানের শাটার। পুরো এলাকা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়। ভেঙে গেছে আশপাশের অসংখ্য ঘরবাড়ি।

বিএম কনটেইনার ডিপোতে ঘটা ভয়াবহ বিস্ফোরণের খুব কাছে থেকেও অক্ষত অবস্থায় ফেরা মুদিদোকানি রাজু আহমেদ মঙ্গলবার (৭ জুন) জাগো নিউজকে এভাবেই সেদিনের ঘটনার বর্ণনা দেন।

jagonews24বিস্ফোরণে আশপাশের বাড়ির কাঁচের গ্লাস ভেঙে পড়ে/ছবি: জাগো নিউজ

রাজু আহমেদ বলেন, ‘দোকানের কাছাকাছি আমার দোতলা বাড়ি। বাসায় ১৪টি কাঁচের জানালা ছিল। সবগুলোর গ্লাস ভেঙে গেছে। ভাঙা কাঁচ ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকায় ঘরে পা ফেলার উপায় নেই। ঘরে কাঠের যে দরজা ছিল, সেটাও ভেঙে দ্বিখণ্ড হয়ে গেছে। রাতে বাড়িতে নারী-শিশুরা ঘুমাচ্ছিল। তাদের ওপর ভাঙা কাঁচ ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়েছে।’

ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের জন্য মালিকপক্ষ দায়ী বলে মনে করেন দোকানি রাজু আহমেদ। তিনি বলেন, ‘মালিকের ভুলের কারণে এতবড় দুর্ঘটনা ঘটেছে। তারা যদি সুরক্ষিতভাবে সবকিছুর ব্যবস্থাপনা করতেন, তাহলে এতবেশি ক্ষতি হতো না।’

বিস্ফোরণের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আরেক ব্যবসায়ী তাজুল ইসলাম। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘বিস্ফোরণের তীব্রতা এত বেশি ছিল যে, তিন কেজিরও বেশি ওজনের লোহা প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে উড়ে গিয়ে একটি বাড়ির জানালার ওপর পড়েছে। জানালার গ্লাস ভেঙে আমার মেয়ের পা কেটে গেছে। বিস্ফোরণে আমার বাড়ির ভবনটি কেঁপে ওঠে।’

jagonews24দুমড়ে-মুচড়ে যায় দোকানের শাটার/ছবি: জাগো নিউজ

বিএম কনটেইনার ডিপোর উত্তর পাশে ফার্মেসির মালিক সুমন কুমার নাথ জাগো নিউজকে বলেন, ‘বিস্ফোরণে দোকানের তাকে সাজিয়ে রাখা সব ওষুধ তছনছ হয়ে যায়। কাঁচের বোতলের সিরাপগুলো নিচে পড়ে ভেঙে যায়।’

এদিকে, সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে চরম আতঙ্কে দিনাতিপাত করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ফের বিস্ফোরণের আশঙ্কায় অনেকেই এলাকা ছাড়ছেন। বিস্ফোরণ আতঙ্কে শিশুদের অন্য এলাকায় স্বজনদের কাছে পাঠিয়ে দিয়েছেন অনেক বাসিন্দা।

শনিবার (৪ জুন) রাতে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগে। আগুন লাগার পর কেমিক্যাল থাকা কনটেইনারে একের পর এক বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে আশপাশের কয়েক কিলোমিটার এলাকা কেঁপে ওঠে।

jagonews24ভেঙে পড়া কাঁচের টুকরো/ছবি: জাগো নিউজ

প্রায় ৬১ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার (৭ জুন) বেলা ১১টার দিকে বিএম কনটেইনার ডিপোতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ১৮ ব্রিগেডের কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফুল ইসলাম হিমেল এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘ডিপো থেকে বড় ধরনের কোনো বিপদ হওয়ার আশঙ্কা নেই।’

ভয়াবহ এ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণে এ পর্যন্ত ৪৩ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছে জেলা প্রশাসন।


আরও খবর



সীতাকুণ্ডে নিহত ৮ দমকলকর্মীর একজন রাঙ্গামাটির

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪৯জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কন্টেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত আটজন দমকলকর্মীর মধ্যে একজন রাঙ্গামাটির বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

নিহতের নাম মিঠু দেওয়ান (৫০)। তিনি ফায়ার সার্ভিস কুমিরা শাখায় লিডার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

শনিবার (৪ জুন) দিনগত রাতে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পর্যায়ক্রমে ফায়ার সার্ভিসের চট্টগ্রাম ও আশপাশের সব ফায়ার স্টেশন ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। দুর্ঘটনার একপর্যায়ে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটলে ফ্রন্টলাইনে কাজ করা কর্মীরা গুরুতর আহত হন। এরমধ্যে আটজন দমকলকর্মী নিহত হন। আরও বেশ কয়েকজন কর্মী চট্টগ্রাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালসহ (সিএমএইচ) বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

মিঠু দেওয়ানের ভাই টিটু দেওয়ান বিকেল ৪টায় বলেন, ফায়ার সার্ভিস অফিস থেকে খবর দেওয়ার পর রোববার সকালে আমার ছোটভাই ও খালা চট্টগ্রাম মেডিকেলে গেছে। ফায়ার সার্ভিসের এক সদস্য আমাকে একটি ছবি পাঠিয়েছে, আমি বলেছি এটাই আমার ভাই। হাসপাতালে যাওয়া আমার ছোটভাইও তাকে শনাক্ত করতে পেরেছে। পরবর্তী কার্যক্রম শেষে তাকে রাঙ্গামাটি নিয়ে আসা হবে।

এদিকে, এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নিপন চাকমা নামে রাঙ্গামাটির আরও এক দমকলকর্মী নিহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আগুন নেভানোর কাজে যোগ দেওয়ার পর থেকে তার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করতে পারেননি সহকর্মীরা। তবে তার কোনো স্বজন এখনো ঘটনাস্থলে না যাওয়ায় ওই আটজনের মধ্যে থেকে মরদেহ শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

রাঙ্গামাটি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারী পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, এই ঘটনায় আমাদের মারা যাওয়া সদস্যরা পুড়ে যাওয়ায় কারও মরদেহ শনাক্ত করা যাচ্ছে না। তবে আগুন নেভানোর কাজে মিঠু দেওয়ান ও নিপন চাকমা দায়িত্বরত ছিলেন। তাদের সঙ্গে কোনো ধরনের যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই ধারণা করা হচ্ছে, উদ্ধার হওয়া মরদেহগুলোর মধ্যে তারাও রয়েছেন। হয়তো ডিএনএ পরীক্ষা শেষে তাদের শনাক্ত করা সম্ভব হবে এবং তারা মারা গেছেন কি না তাও নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

রফিকুল ইসলাম জানান, মিঠু দেওয়ান ফায়ার সার্ভিস কুমিরা শাখা আর নিপন চাকমা সীতাকুণ্ড শাখায় লিডার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মিঠু রাঙ্গামাটি জেলা শহরের পশ্চিম ট্রাইবেল এলাকার বাসিন্দা ও নিপন কলেজ গেট এলাকার বাসিন্দা।


আরও খবর



বিস্ফোরণে আহতদের দেখতে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভূমিমন্ত্রী

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কনটেইনার বিস্ফোরণের ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের দেখতে সোমবার রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে যান ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম ভূমিমন্ত্রীকে আহত ব্যক্তিদের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানান। এ সময় ভূমি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব প্রদীপ কুমার দাস উপস্থিত ছিলেন।

আহত ব্যক্তিদের খোঁজ নেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন ভূমিমন্ত্রী।

সীতাকুণ্ডের মর্মান্তিক ঘটনায় নিহতদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে ভূমিমন্ত্রী বলেন, অনেকেই প্রিয়জন হারিয়েছেন। অনেকের নিকটজন আজ চিকিৎসাধীন। এই মুহূর্তে আমাদের প্রথম লক্ষ্য সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা, যেন আহতরা দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন। এই ব্যাপারে সর্বোচ্চ চেষ্টা হচ্ছে।

jagonews24

সাইফুজ্জামান চৌধুরী আরও বলেন, বিস্ফোরণ পরবর্তী আগুন নিয়ন্ত্রণে এবং আহতদের উদ্ধারে ফায়ার ফাইটার, সেনাসদস্যসহ উপস্থিত অনেকেই জীবনবাজি রেখে কাজ করে গেছেন। আহতদের চিকিৎসায় ডাক্তার ও স্বাস্থকর্মীরা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। স্বেচ্ছাসেবকরা জীবন রক্ষায় রক্ত সংগ্রহসহ নানা ধরনের সহায়তামূলক কাজ করে যাচ্ছেন। এই সংকটকালীন দলমত নির্বিশেষে আমাদের এভাবে কাজ করে যেতে হবে।

এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে ভূমিমন্ত্রী বলেন, দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে তদন্ত কমিটি রিপোর্ট না দেওয়া পর্যন্ত দুর্ঘটনার কারণের ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করা সমীচীন হবে না। আপাতত আমাদের মূল লক্ষ্য আহত ব্যক্তিদের সুস্থতা নিশ্চিত করা এবং তাদের সহায়তা করা।


আরও খবর