Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

পেঁয়াজ আমদানি হবে কি না, দু-এক দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত: কৃষিমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২১ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৩০২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাজারে পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিক উল্লেখ করে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‌পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পেঁয়াজ আমদানি হবে কি না, সেটা আগামী দু-এক দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আজ রোববার সচিবালয়ে তার অফিস কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

গতকাল পেঁয়াজের দাম মণপ্রতি ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা দাম কমেছে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, স্থানীয়ভাবে পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে দ্রুত ভারত থেকে আমদানি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ৪৫ টাকার বেশি পেঁয়াজের দাম হওয়া উচিত না। পেঁয়াজ আমদানি করা হলে ৪৫ টাকার নিচে চলে আসবে।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘সবকিছুর একটা ধারাবাহিকতা থাকে। কিন্তু গত এক সপ্তাহে পেঁয়াজের দামে সে ধারাবাহিকতা রাখা যায়নি। সাধারণত বাজার সাপ্লাই এবং ডিমান্ডের ওপর নির্ভর করে। গত বছর পর্যাপ্ত পেঁয়াজ থাকা সত্ত্বেও কিছু অসাধু আড়ৎদারের কারণে গুদামে অনেক পেঁয়াজ পচে গেছে।

বাংলাদেশ দানাদার খাদ্যে স্বয়ংস্পম্পূর্ণ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের মোট ভূখণ্ডের মোট ৬০ ভাগ জমি আবাদ করা হয়। আবার একই জমিতে একাধিক ফসল হচ্ছে। আমাদের দেশের মোট জনসংখ্যার সঙ্গে প্রতিবছর প্রায় ২০ থেকে ২৪ লাখ মানুষ নতুন করে যোগ হচ্ছে। আমরা দানাদার খাদ্যতে স্বয়ংসম্পূর্ণ থাকলেও প্রতিবছর ক্রমবর্ধমান এই জনসংখ্যার কারণেই বাজারে নিত্যপণ্যের দাম কিছুটা বেশি। 

এ সময় পেঁয়াজের দাম ২৫ থেকে ৩০ টাকা হওয়া কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয় বলে জানান ড. আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, ‘আমরা বিষয়টা মনিটরিং করছি। আমাদের অফিসারদের মাঠ পর্যায়ে পাঠিয়েছি। তারা পর্যবেক্ষণ করে দেখেছে, কৃষকদের ঘরে পেঁয়াজ থাকলেও দাম বাড়াবে- এমন আশায় তারা অনেকেই মজুদ করে রেখে দিচ্ছেন। এতে দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে।

কৃষিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘পেঁয়াজের শেলফ লাইফ কম। আলুর মতো না। তবে আমরা কিছু প্রযুক্তি নিয়ে এসেছি, কীভাবে গুদামে রাখা যায়। যদি শেলফ লাইফ বাড়ান যেত, তাহলে আমাদের যে উৎপাদন হচ্ছে, তাতে পেঁয়াজ দিয়ে বাজার ভাসিয়ে দেওয়া যেত।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আতাউর রহমান মিল্টন চেয়ারম্যান নির্বাচিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান মিল্টন (মোটরসাইকেল প্রতীক) ৫৭ হাজার ৬৬২ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। 

তার নিকট তম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৩১ হাজার ৬৪ ভোট। আনারস প্রতীকের অপর প্রার্থী রফিকুল ইসলাম মন্টু পেয়েছেন ২০৬   ভোট।

ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর মো. আল কামাহ তমাল গত বুধবার (৫ জুন) রাত ৯ টায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে উপজেলা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।

এদিকে ফুলবাড়ি উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মামুনুর রশীদ মামুন (তালা প্রতীক) ৩০ হাজার ৩০ ভোট পেয়ে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকট তম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জু রায় চৌধুরী (চশমা প্রতীক) পেয়েছেন ২৭ হাজার ২৬৮ ভোট। অপর দুই প্রার্থীর মধ্যে উড়োজাহাজ প্রতীকের মোকলেছার রহমান ১৬ হাজার ৮৪ ভোট এবং সোলাইমান মন্ডল (টিউবওয়েল প্রতীক) পেয়েছেন ১৩ হাজার ৪৯৮ ভোট। 

অপরদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফুটবল প্রতীকের শিউলী রানী রায় ৩৭ হাজার ৭৭৬ ভোট পেয়ে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নীরু শামসুন্নাহার (কলস প্রতীক) নিয়ে পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৪৩৩ ভোট। অপর প্রার্থী হাজরা বিবি (হাঁস প্রতীক) পেয়েছেন ১২ হাজার ১২১ ভোট।উপজেলার একটি পৌরসভাসহ সাতটি ইউনিয়নে ৬৩ টি ভোট কেন্দ্রর মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। ফুলবাড়ি উপজেলা নির্বাচনে সফল চেয়ারম্যান খেটে খাওয়া মানুষের আস্তার প্রতীক মোঃ আতাউর রহমান মিল্টন দ্বিতীয় বারে বিপুল ভোটে উপজেলা নির্বাচনে জয়ী হন।


আরও খবর



অনন্য স্মার্টফোন অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করবে টেকনো’র যুগান্তকারী এআই ফিচার

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:একটি ঝড়ো সকাল, কাজে তাড়াহুড়ো করে এয়ার কন্ডিশনার বন্ধ করতে ভুলে যান এবং আপনার হাতের কাছে আপনার রিমোট খুঁজে পাচ্ছেন না। এখন আপনার হাতে থাকা টেকনো স্মার্টফোনের আইআর ব্লাস্টার দিয়ে এসি বন্ধ করতে পারবেন। ফলে, আপনি বিদ্যুৎ খরচ আর দুশ্চিন্তা এই দুই থেকেই মুক্ত থাকতে পারবেন। এরকম বহু এআই-নির্ভর প্রযুক্তি আমাদের দেখিয়ে দিচ্ছে আমরা কীভাবে দিনদিন প্রযুক্তি ব্যবহার করে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি এবং এর উপযুক্ত ব্যবহার আমাদের জীবনকে সহজ করে তুলছে।স্মার্টফোন প্রতিনিয়ত পরিবর্তিত হচ্ছে, আর ক্রেতাদের চাহিদাও যেন এর সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে।

টেকনো’র মতো গ্লোবাল ব্র্যান্ডগুলো সর্বাধুনিক এআই সক্ষমতা ব্যবহার করে ক্রেতাদের এসব চাহিদা পূরণ করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। বিশেষ করে, স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে উদ্ভাবনের ছোঁয়া লাগাতে টেকনো এর ক্যামন ৩০ সিরিজের জন্য সনির সাথে কোলাবেরেশন করেছে। এমনকি কম আলোতেও নিখুঁত ও ঝকঝকে ছবি তোলা নিশ্চিত করতে এই সিরিজে সনি সেন্সর ও পোলারএইস এআই ইমেজ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে।

পাশাপাশি, ব্যবহারকারীরা টেকনো’র এআই ইমেজ জেনারেটর (এআইজিসি) কাজে লাগিয়ে ৪৮০টি স্টাইলে ব্যক্তিনির্ভর (কাস্টমাইজড) এআই পোর্ট্রেট তৈরি করতে পারবেন। ব্যবহারকারীদের সমৃদ্ধ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে এলা ভয়েস অ্যাসিসট্যান্ট, এলা ট্রান্সলেটর, আস্ক এআই এবং এআই স্কেচ ড্রয়িংয়ের মত এআই ফিচার সংযুক্ত করা হয়েছে ক্যামন ৩০ সিরিজে।

এআই-নির্ভর স্মার্টফোনের চাহিদা প্রতিদিন বাড়ছে। আইডিসি’র ধারণা অনুযায়ী, ২০২৪ সালে বিশ্বে ১৭০ মিলিয়ন এআই স্মার্টফোন বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর প্রযুক্তিপ্রেমী ব্যবহারকারীদের প্রয়োজন পূরণের উপযোগী ডিভাইস তৈরি করার মাধ্যমে এই পরিবর্তনের নেতৃত্ব দিচ্ছে টেকনো।


আরও খবর



ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ি, দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ বারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল, “হাসপাতালে সন্তান প্রসব করান মা ও নবজাতকের জীবন বাচান”। সারা দেশের ন্যায় গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর সভাকক্ষে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালি শেষে হাসপাতালের সভাকক্ষে আলোচনা সভায় সভাপত্ত্বিত করেন এবং সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা: মশিউর রহমান। আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ডেন্টাল সার্জেন ডা: সাজেদুর ইসলাম, সি.এইচ.সিপি ও পরিসংখ্যানবিদ সঞ্জয় কুমার রায়, মোঃ সাইফুল ইসলাম সহ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সকল ডাক্তার, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ এবং সিনিয়র সকল সেবিকাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আয়োজনে ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ফুলবাড়ি দিনাজপুর।


আরও খবর



ঈদ যাত্রা নির্বিঘ্নে করতে কাজ করছেন পুলিশ

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৫০জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার: মিরপুর ডিভিশনের  এডিসি (প্রশাসন) মাসুক মিয়া পিপিএম জানান  গাবতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ঢাকা বর্হিগামী  যাত্রীরা যাতে নির্বিঘ্নে দেশের নানা প্রান্তে যেতে  কোনো ধরনের হয়রানির  শিকার না হয় সে লক্ষ্যে মিরপুর ডিভিশনের পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে । ঈদ যাত্রা নির্বিঘ্নে  করতে মিরপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট গুলিতে চেকপোস্ট জোরদার করা হয়েছে।

মানুষজন যাতে বিভিন্ন গরুরহাটে নিরাপদে কোরবানির গরু কেনাবেচা করতে পারে,সে জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।বিভিন্ন অংশীজনদের নিয়ে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে হোয়াটস এপ গ্রপ খোলা হয়েছে।ব্যাংক বীমা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে।যে সকল সম্মানিত নাগরিকগণ গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন করতে যাবেন তাদের করণীয় বর্জণীয় সংক্রান্ত লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে।নাগরিকদের যে কোন সমস্যায় লোকাল থানায় কিংবা ৯৯৯ জানানোর অনুরোধ জানান। আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে আলাপকালে  তিনি এ কথা জানান।

এডিসি আরো জানান, আমাদের এখানে ৩ টি গরুর হাট আছে। গরুর হাট গুলোর মধ্যে একটি স্থায়ী আর দুইটি হচ্ছে অস্থায়ী। স্থায়ী হাট হল গাবতলী গরুর হাট, অস্থায়ী ২টিহলো, একটি হল পল্লবী থানাধীন ইস্টার্ন হাউজ  আরেকটি হলো ভাষানটেক থানাধীন ক্যান্টন মেন্ট বোর্ড বাজার। প্রতিটি হাটে সার্বক্ষণিক সিসিটিভি ক্যামেরার পাশাপাশি  পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। 
যাতে ছিনতাই, চাঁদাবাজি সহ যেকোনো ধরণের অপকর্ম রোধ করতে কাজ করছে পুলিশ।

এদিকে কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ফারুকুল আলম জানান, পবিত্র ঈদুল আযহা খুব সন্নিকটে। এই ঈদে অনেক মানুষ ঢাকা ছাড়ে। তাই আমরা কাফরুল থানা পুলিশ সবসময় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সর্তক অবস্থানে রয়েছি।আমরা বিভিন্ন স্থানে রাতের বেলা চেকপোস্ট  করি। যাতে করে কেউ ছিনতাইয়ের  কবলে না পড়ে।

আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




সিরাজগঞ্জে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১২২জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ থেকে:"শিক্ষা - ধর্ম সম্প্রীতি মশিগশি মূলনীতি " এই পতিপাদ্য শ্লোগানকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জন এবং নৈতিক শিক্ষার প্রসারে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম শীর্ষক কর্মশালা ২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ মে) সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর সংলগ্ন অফিসার্স ক্লাবে জেলা প্রশাসন ও মন্দির ভিত্তিকশিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম সিরাজগঞ্জের আয়োজনে মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের ভূমিকা শীর্ষক সিরাজগঞ্জ জেলা কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন ট্রাস্টি হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা স্ত্রী স্বপন কুমার রায় এর সভাপতিত্বে শুরতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী প্রকল্প পরিচালক মোঃ জাকির হোসেন রানা। 

উক্ত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উদ্বোধন ও কর্মশালা দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে  বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) গনপতি রায়, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইসিটি, উন্নয়ন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা রোজিনা আক্তার, কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের সাবেক উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট বিমল কুমার দাস,সিরাজগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সন্তোষ কুমার কানু, সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় সাহা, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট সুকুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক নোটারিয়ান নরেশ চন্দ্র ভৌমিক সহ  অন্যন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মন্দির ভিত্তিক বিভিন্ন কর্মকর্তা সিরাজগঞ্জ, পাবনা,বগুড়া,জয়পুরহাট জেলার সহকারী প্রকল্প পরিচালক এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষিকা,প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ।

উল্লেখ্য: মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম’ ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন একটি প্রকল্প। প্রাক-প্রাথমিক এবং বয়স্ক শিক্ষাকেন্দ্রের মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা প্রকল্পের প্রধান কাজ। এছাড়া নিরক্ষরতা দূরীকরণে, বিদ্যালয়ে গমনোপযোগী ১০০% শিশুকে বিদ্যালয়ে ভর্তিতে এবং ঝড়ে পড়া রোধ করতে প্রকল্পটি কাজ করছে। টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট অর্জন, সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন, নারীর ক্ষমতায়ন এবং সরকারের ‘ভিশন-২০২১’ বাস্তব রূপায়নে প্রকল্পটি কার্যকর ভূদিনব্যপী কর্মশালায় 
কিভাবে নৈতিক শিক্ষা কার্যক্রম ছড়িয়ে দেয়া যায় তা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

আরও খবর