Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

পদ্মা সেতু: শরীয়তপুরে মাছে ৫০০ কোটি টাকার ব্যবসার স্বপ্ন

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
Image

অপেক্ষার প্রহর গুনছেন শরীয়তপুরের মৎস্য খামারিরা। আগে যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে এ অঞ্চলের ব্যবসায়ীদের মাছ ঢাকায় নেওয়া ছিল কষ্টকর ও ব্যয়বহুল। কিন্তু পদ্মা সেতু চালু হলে দেশের অন্যতম মৎস্য উৎপাদনকারী শরীয়তপুর জেলার মৎস্য খাতের সম্ভাবনার দুয়ার খুলে যাবে।

আগামীতে জেলায় এ মৎস্য ব্যবসা প্রায় ৫০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা খামারি ও মৎস্য বিভাগের। এতে মৎস্য উৎপাদনকারীরা শুধু অর্থনৈতিকভাবেই লাভবান হবেন না তৈরি হবে অনেক নতুন উদ্যোক্তা, সৃষ্টি হবে ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ।

জেলার খামারি ও মৎস্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, জেলার ছয়টি উপজেলা থেকেই মাছ সড়ক পথে নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। কিন্তু ফেরিঘাটে যানজটে পড়ে যথাসময়ে গন্তব্যে পৌঁছাতে না পারায় নষ্ট হয় অনেক মাছ, কমে যায় দামও। পদ্মা সেতু উদ্বোধন হলে আমুল পরিবর্তন আসবে মৎস্য ব্যবসায়। বাড়বে মাছের দাম ও সাশ্রয় হবে পরিবহন খরচ। যার সুফল পাবেন পাইকার থেকে শুরু করে প্রান্তিক জেলেরাও।

বর্তমানে ঢাকা, চাঁদপুর, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, কুমিল্লা ও চট্টগ্রামসহ অন্যান্য বাজারে বছরে প্রায় ৩১৫ কোটি টাকার মাছ বিক্রি হচ্ছে। পদ্মা সেতু চালু হলে এরে পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে ৫০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা খামারিদের।

Fish-(3).jpg

শরীয়তপুর সদরের মৎস্য খামারি মো. শাহীন মাদবরসহ অন্যান্য খামারিরা জাগো নিউজকে জানান, রাজধানী ঢাকা থেকে স্থানভেদে শরীয়তপুরের দূরত্ব ৭৩ কিলোমিটার। এরমধ্যে পদ্মা নদী থাকায় ফেরি পার হয়ে ঢাকায় যেতে অনেক সময় লাগে ও দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এ কারণে শরীয়তপুরের মৎস্য খামারিরা তাদের উৎপাদিত মাছ কাঙ্ক্ষিত পরিমাণে ঢাকায় বিক্রি করতে পারছিলেন না। তাই তারা চাঁদপুর, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, কুমিল্লা ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন বাজারে মাছ বিক্রি করে আসছিলেন।

বর্তমানে শরীয়তপুর থেকে ওই বাজারগুলোতে প্রতিদিন গড়ে ৭০ মেট্রিক টন মাছ পাঠানো হয়। প্রতি কেজি ২৫০ থেকে ৪০০ টাকা দরে ওই মাছের বাজারমূল্য এক কোটি ৭৫ লাখ টাকা। বছরে বিক্রি দাঁড়ায় ১২৬ লাখ মেট্রিক টন। যার বাজারমূল্য অন্তত ৩১৫ কোটি টাকা। তবে পদ্মা সেতু চালু হলে উৎপাদন বেড়ে বিক্রি ৫০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে।

শরীয়তপুরের ভোজেশ্বর ইউনিয়নের পাচক গ্রামের মৎস্য খামারি শহিদুল সিকদার জাগো নিউজকে বলেন, ফেরিঘাটের বিড়ম্বনার কারণে আমরা ঢাকায় মাছ পাঠাতে পারছি না। তাই চাঁদপুরে পাঠাই। পদ্মা সেতু চালু হলে আমাদের এ অঞ্চলের মাছচাষিরা ঢাকার বাজার ধরতে পারবেন। এতে করে পরিবহন ব্যয় কমবে ও দাম বেশি পাওয়া যাবে।

auto

নড়িয়া পৌরসভার লোনসিং গ্রামের মাছের খামারি শহিদুল ইসলাম বাবু রাড়ী জাগো নিউজকে বলেন, ঢাকার বাজারে মাছ বিক্রি করতে পারলে আমরা বেশি লাভবান হবো। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর ঢাকায় মাছ পাঠানো সহজ হবে। ফলে এ খাতে বিনিয়োগ অনেকগুণ বাড়বে।

শরীয়তপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রণব কুমার কর্মকার জাগো নিউজকে বলেন, প্রতিবছর জেলায় মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু ভালো বাজারের অভাবে খামারিরা খুব বেশি লাভের মুখ দেখতে পারছেন না। পদ্মা সেতু চালু হলে খামারিরা খুব সহজেই ঢাকার বাজার দখল করতে পারবেন।

শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক মো. পারভেজ হাসান জাগো নিউজকে বলেন, পদ্মা সেতুকে ঘিরে শরীয়তপুরে বিপুল সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। এই সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে জেলায় ব্যাপক শিল্পায়নের প্রস্তুতি চলছে। পদ্মা সেতু চালু হলে সম্ভাবনাময় খাত মৎস্য, গবাদিপশু, পরিবহন, শিক্ষা-সংস্কৃতির ব্যাপক উন্নয়ন হবে।


আরও খবর



রাবির ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম গোমস্তাপুরের মিটুল

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩৩জন দেখেছেন
Image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার ‘গ’ ইউনিটের ফল প্রকাশিত হয়েছে। এতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরের মিটুল।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ‘গ’ ইউনিটের ভর্তির পরীক্ষার সমন্বয়ক এবং বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. সাহেদ জামান ২৩ হাজার ৯৯৫ জন ভর্তিচ্ছু মনোনীত করে এ ফল প্রকাশ করেন।এতে সর্বোচ্চ নম্বর ৯২.৭৫ পেয়ে প্রথম হন মিটুল। তবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়বেন না তিনি। ভর্তি হয়েছেন শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে।

মিটুল উপজেলার গোমস্তাপুর ইউনিয়নের নয়াদিয়াড়ী (নামোটোলা) গ্ৰামের আব্দুল করিমের ছেলে।

ভর্তি পরীক্ষায় সাফল্যের বিষয়ে মিতুল বলেন, প্রতিনিয়ত জীবনের সঙ্গে যুদ্ধ করে পড়ালেখা করেছি। ইচ্ছে ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করার। এই ইচ্ছে আমার পূরণ হয়েছে। এতে আমি খুব আনন্দিত। এ আনন্দের কথা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। তবে আমার লক্ষ্য ছিল‌ ইঞ্জিনিয়ার হওয়া। কিন্তু বিষয় মনের মতো না হওয়ায় এখন ডাক্তারি পড়বো বলে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়েছি।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় ১০৩০, বুয়েটে -১৪৮৪ ও শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পেয়েছি।

মিটুলের বাবা আব্দুল করিম বলেন, আমার ছেলেটা ছোট থেকেই খুব মেধাবী। তাকে লেখাপড়ার জন্য কখনো বলতে হয়নি। আমার চার ছেলে ও এক মেয়ে। তার মধ্যে মিটুল তৃতীয়।

তিনি আরও বলেন, আমি মূর্খ মানুষ। তাই অন্য ছেলে মেয়েদের তেমন লেখাপড়া করাতে পারিনি। এখন শুধু স্বপ্ন দেখি মিটুল বড় হয়ে একটা চাকরি করে সমাজের কাছে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে।

নয়াদিয়াড়ী হাজী ইয়াকুব আলী মন্ডল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাজাহান আলী বলেন, মিটুল ছোট থেকে ভালো ছাত্র ছিল। তার পরিবারের লোকজনও বলতো বাড়িতে সব সময় লেখাপড়া করে মিটুল।

২০১৯ সালে গোমস্তাপুর নয়াদিয়াড়ী হাজী ইয়াকুব আলী মন্ডল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এইচএসসি ও ২০২১ সালে নিউ গভ: ডিগ্রী কলেজ থেকে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিল মিটুল।


আরও খবর



অনুমোদন ছাড়াই ‘সাপ্তাহিক অপরাধ অনুসন্ধান’র নামে প্রিন্ট-অনলাইন

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ৮৭জন দেখেছেন
Image

‘অপরাধ অনুসন্ধান’ নামের একটি সাপ্তাহিক পত্রিকার নাম হুবহু ব্যবহার করে অনুমোদন ছাড়াই ‘দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান’ নামে অনলাইন ও প্রিন্ট প্রকাশ করছে মো. খলিলুর রহমান নামের একজন।

পত্রিকাটির মূল মালিকের দাবি, তিনি সরকারি অনুমোদন নিয়ে সাপ্তাহিক পত্রিকাটি দীর্ঘ নয় বছর ধরে নিয়মিত প্রকাশ করে আসছেন। তার এই পত্রিকাটির রেজিট্রেশন নম্বর ডিএ-৬২৩৬, জেলা প্রশাসকের অনুমোদন নম্বর-১০০, ০৪-০৬-২০১৩।

এ ঘটনায় মতিঝিল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তিনি।

সাপ্তাহিক অপরাধ অসুন্ধান পত্রিকার মূল সম্পাদক ও প্রকাশক মো. রফিকুল ইসলাম কাজল বলেন, ২০১৩ সালের ৪ জুন থেকে ‘সাপ্তাহিক অপরাধ অনুসন্ধান’ পত্রিকা জেলা প্রশাসকের অনুমোদন নিয়ে প্রকাশ ও প্রচার করে আসছি।

jagonews24

তিনি বলেন, মো. খলিলুর রহমান নামে একজন বর্তমানে এই নাম ব্যবহার করে সরকারের কোনো কর্তৃপক্ষ থেকে অনুমতি না নিয়ে সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে ‘দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান’ নামে অনলাইন ও প্রিন্ট প্রকাশ এবং প্রচার করছে। তার এই কর্মকাণ্ডে আমার পত্রিকার সুনাম ক্ষুণ্ন হচ্ছে এবং আমি ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছি।

এ বিষয়ে খলিলুর রহমানকে ফোন করে ‘দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান’ নামে প্রচার থেকে বিরত থাকতে বললেও তিনি তা অব্যাহত রেখেছেন। গত ২৪ জুলাই তাকে ফোনে আবারও অনুরোধ করলে তিনি আমাকে বিভিন্ন ভয়-ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দেন। জীবনের নিরাপত্তার জন্য এ বিষয়ে আমি মতিঝিল থানায় একটি জিডি করেছি।

জানতে চাইলে মো. খলিলুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, আমি এই পত্রিকাটির সম্পাদক নই। তবে আমি এটি চালাই।

তবে পত্রিকাটি প্রিন্ট নয় ‘দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান’ নামে অনলাইনে চালান বলে দাবি তার। এছাড়া তিনি কাউকে হুমকি-ধমকিও দেননি বলে দাবি করেন খলিলুর রহমান।

তিনি বলেন, যদি আমি অন্য কারো নাম ও লোগো ব্যবহার করে থাকি, তাহলে তিনি (পত্রিকার মূল মালিক) আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিক। এতে আমার কোনো সমস্যা নেই।

অনুমোদনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, হাজার হাজার অনলাইন চলছে। এভাবেই চলছে আমাদের পত্রিকা।


আরও খবর



করোনা আক্রান্ত প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ২৩জন দেখেছেন
Image

তৃতীয়বারের মতো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

রোববার (২৪ জুলাই) মন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব (এপিএস) মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, শনিবার রাতে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রীর কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। বর্তমানে তিনি বাসায় অবস্থান করছেন এবং বাসা থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

মন্ত্রী দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন বলেও জানান তার একান্ত সচিব রাশেদুজ্জামান।

২০২০ সালের নভেম্বরে প্রথমবার সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত হন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী। গত বছর দ্বিতীয়বার করোনায় আক্রান্ত হন তিনি।


আরও খবর



ইউক্রেনে রুশ সামরিক লক্ষ্য আরও প্রসারিত হচ্ছে: ল্যাভরভ

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

কিয়েভকে পশ্চিমা দেশগুলোর অবিরাম সমরাস্ত্র সরবরাহের কারণে রাশিয়ার সামরিক লক্ষ্য এখন আর দোনবাস অঞ্চলে সীমাবদ্ধ নেই বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ। রুশ রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা রিয়া নোভস্তিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ল্যাভরভ বলেন, ইউক্রেনের প্রতি পশ্চিমা দেশগুলোর সমরাস্ত্র সরবরাহের কারণে ক্রেমলিনের হিসাব-নিকাশ পাল্টে গেছে।

ল্যাভরভ বলেন, পশ্চিমা দেশগুলো যদি ইউক্রেনকে আরও বেশি সমরাস্ত্র সরবরাহ করার মাধ্যম পরিস্থিতি বেশি ঘোলাটে করে ফেলতে চায়, তাহলে রাশিয়ার লক্ষ্যমাত্রা বর্তমান সীমারেখাও অতিক্রম করে যাবে।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, গত মার্চ মাসে ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার শান্তি আলোচনা ভেঙে যাওয়ার পর মস্কো ভৌগোলিক লক্ষ্যমাত্রা পুনর্বিবেচনা করে। তবে ওই আলোচনায় ইউক্রেন আন্তরিকতা দেখালে রাশিয়া এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে সামরিক অভিযান বন্ধ করে দিত। কারণ, তখন রাশিয়ার একমাত্র লক্ষ্য ছিল দোনেস্ক ও লুহানস্ক নিয়ে গঠিত অঞ্চল দোনবাস।

ল্যাভরভ আরও বলেন, কিন্তু এখন দোনেস্ক ও লুহানস্ক ছাড়াও আরও বেশ কিছু অঞ্চলকে লক্ষ্যবস্তুর মধ্যে নিয়ে আসা হয়েছে। এসব অঞ্চলের মধ্যে রয়েছে খেরসন ও জাপোরিঝা।

ইউক্রেনকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোতে অন্তর্ভুক্ত করার পরিকল্পনার প্রতিবাদে রাশিয়া গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান চালাচ্ছে। রুশ সেনাবাহিনী এরইমধ্যে গোটা দোনবাস এলাকার ওপর প্রায় পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে।

সূত্র: জিও নিউজ, পার্সটুডে


আরও খবর



জ্বালানি সাশ্রয়ে পাজেরো ছেড়ে ভ্যান ধরলেন মেয়র

প্রকাশিত:Wednesday ২০ July ২০22 | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ে সরকারের নির্দেশনা প্রতিপালনে ব্যতিক্রম এক উদ্যোগ নিয়েছেন মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আ. রহমান।

তিনি বলেন, জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য আমি আমার পাজেরো গাড়িতে চড়বো না। হেঁটে বাড়ি থেকে অফিসে যাওয়া আসা করবো। আর পৌর শহরের মধ্যে দূরের পথে ভ্যানে যাতায়াত করবো। পৌরসভার এসি বন্ধ রেখে ও লাইট কম জ্বালিয়ে অফিস পরিচালনার জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বলা হয়েছে।

এছাড়া পৌর কাউন্সিল ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও মোটরসাইকেল ব্যবহার না করে বাইসাইকেল ও ভ্যানে যাতায়াত করবেন। এ সিদ্ধান্ত বুধবার থেকে কার্যকর হয়েছে বলেও জানালেন তিনি।

মেয়র রহমান আরো বলেন, সকালে আমি হেঁটে এবং কাউন্সিলররা বাইসাইকেল ও ভ্যানে অফিসে এসেছেন। মূলত বিদ্যুৎ ও জ্বালানি তেলের সাশ্রয়ে সরকারের বিধি নিষেধ প্রতিপালনে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমাদের এ কার্যক্রমে পৌরবাসী বিদ্যুৎ-জ্বালানি সাশ্রয়ে উদ্বুদ্ধ হবেন বলে আশা করছি।

এছাড়া পৌরবাসীকে বাড়ি, দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ব্যবহারে মিতব্যয়ী হওয়ার আহ্বান জানান মেয়র।


আরও খবর