Logo
আজঃ Monday ০৩ October ২০২২
শিরোনাম

পাহাড়-পুকুর দখল, চট্টগ্রামে পরিবেশ অধিদপ্তরের তিন মামলা

প্রকাশিত:Monday ০৮ August ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৩ October ২০২২ | ৭৪জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রাম মহানগরীতে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের নামে পাহাড় কেটে স্থাপনা নির্মাণ করে দখলের অভিযোগে বায়েজিদ বোস্তামী থানায় পৃথক দুটি মামলা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। এছাড়া উত্তর আগ্রাবাদ এলাকায় পুকুর ভরাটের অভিযোগে সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর জাবেদ নজরুল ইসলামসহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে ডবলমুরিং থানায় মামলা করেছে অধিদপ্তর।

রোববার (৭ আগস্ট) বিকেলে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল মতিন এবং মহানগর কার্যালয়ের পরিদর্শক মো. সাখাওয়াত হোসাইন বাদী হয়ে মামলাগুলো করেন।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার দুই মামলাতেই পটিয়ার খলিল মীর ডিগ্রি কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক উপানন্দ মহাথেরোকে আসামি করা হয়। একটি মামলায় উপানন্দ মহাথেরোর পাশাপাশি প্রণয়ন চাকমা ওরফে আদিরত্য ভান্তেকে আসামি করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বায়েজিদ থানার ২ নম্বর ওয়ার্ডের জালালাবাদ মৌজার মাঝেরঘোনা এলাকায় অবৈধভাবে সরকারি পাহাড় কেটে ‘বুদ্ধাংকুর বিহার ও বিদর্শন কেন্দ্র’ এবং ‘জুম্ম চাদিগাং সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহার’ নামক বৌদ্ধ বিহারের স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ পেয়ে গত ৩১ জুলাই পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পাহাড় কাটার সত্যতা পায়। এখানে ‘বুদ্ধাংকুর বিহার ও বিদর্শন কেন্দ্র’ বিহারের স্থাপনা নির্মাণের জন্য প্রায় ২৪ হাজার ঘনফুটের বেশি এবং ‘জুম্ম চাদিগাং সার্বজনীন বৌদ্ধ বিহারে’র স্থাপনা নির্মাণের জন্য ৬০ হাজার ঘনফুট পাহাড় কাটা হয়। পটিয়া খলিল মীর ডিগ্রি কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক উপানন্দ মহাথেরোর নির্দেশনায় পাহাড়গুলো কাটা হয়েছে বলে পরিবেশ অধিদপ্তরের টিম জানতে পারেন। এর উপানন্দ মহাথেরোকে ৪ আগস্ট শুনানিতে ডাকা হয়। কিন্তু ওইদিন উপানন্দ মহাথেরো শুনানিতে হাজির হননি। পরবর্তীতে ৭ আগস্ট তাকে আসামি করে মামলা করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের পরিচালক হিল্লোল বিশ্বাস জানান, বায়েজিদের মাঝেরঘোনা পাহাড়ে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের নামে সরকারি পাহাড় কেটে সাবাড় করে ফেলা হচ্ছে। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্মাণের আবরণে সরকারি খাস জমি দখল করা হচ্ছে। এখানে সবুজ পাহাড় কেটে পরিবেশ ও প্রতিবেশের মারাত্মক ক্ষতিসাধণ করা হচ্ছে। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তাদের শুনানিতে ডাকলেও তারা হাজির হননি। যে কারণে পরিবেশ আইনে তাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, রোববার বিকেলে পরিবেশ অধিদপ্তর দুটি মামলা করেছে। মামলা দুটি পরিবেশ অধিদপ্তর তদন্ত করবে। তারা পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেবেন।

এদিকে পুকুর ভরাটের ব্যাপারে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মিয়া মাহমুদুল হক জাগো নিউজকে বলেন, উত্তর আগ্রাবাদে একটি পুকুর ভরাটের অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা পাওয়া যায়। এরপর ভূমি অফিস থেকে পুকুরের মালিকানার বিষয়ে তথ্য নেওয়া হয়। এরপর পুকুরের মালিকানা যাদের রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে রোববার রাতে ডবলমুরিং মডেল থানায় পরিবেশ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলায় সিটি করপোরেশনের সাবেক কাউন্সিলর জাবেদ নজরুল ইসলামসহ ১৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।


আরও খবর