Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

অ্যাতলেটিকোকে উড়িয়ে টেবিলের দুইয়ে উঠল বার্সেলোনা

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ১৭৩জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক;অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ ঘরের মাঠেও কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারল না। মেট্রোপলিটানো স্টেডিয়ামে বার্সার কাছে উড়ে গেল সিমিওনের দল।

রোববার (১৭ মার্চ) লা লিগার ম্যাচে বার্সেলোনার কাছে ৩-০ গোলে হেরেছে অ্যাতলেটিকো। বার্সার হয়ে গোল করেছেন জোয়াও ফেলিক্স, রবার্ট লেভানডোভস্কি ও ফার্মিন লোপেজ।

এই জয়ে জিরোনাকে হটিয়ে টেবিলের দুইয়ে উঠে এলো জাভির দল। ম্যাচটি বার্সা সহজভাবে জিতলেও ম্যাচের প্রথম সুযোগ তৈরি করে অ্যাতলেটিকো। ম্যাচের সপ্তম মিনিটে পাবল ব্যারিওসের শট পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। শুরুতে আক্রমণে এগিয়ে ছিল অ্যাতলেটিকো। তবে ম্যাচের প্রথম গোলটা আদায় করে নেয় বার্সা।

৩৮ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। ডি-বক্সের ভেতরে লেভানডোভস্কির বাড়ানো পাস থেকে গোল করেন ফেলিক্স। প্রথমার্ধে এই এক গোলে লিড নিয়েই বিরতিতে যায় সফরকারি বার্সেলোনা।

দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটে চমৎকার ফিনিশিংয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লেভানডোভস্কি। তবে প্রতিপক্ষের ভুল পাসে বল পেয়ে রাফিনিয়া তা বাড়িয়ে দেন বক্সে। বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে গোলটি করেন পোলিশ স্ট্রাইকার।

৬৫ মিনিটে স্কোরলাইন ৩-০ করে ফেলে বার্সেলোনা। বক্সের ডান দিক থেকে লেভানডোভস্কির ক্রস হেড করে জাল খুঁজে নেন ফার্মিন লোপেস। এরপর বেশকিছু সুযোগ পেয়েছিল অ্যাতলেটিকো। তবে তা কাজে লাগাতে পারেনি।

চলতি মৌসুমে অ্যাতলেটিকোর মাঠে প্রথম দল হিসেবে কোনো দল জয়ের মুখ দেখল। এর আগে ১৩ ম্যাচ খেলে অপরাজিত ছিল সিমিওনের দল।

২৯ ম্যাচে ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুইয়ে উঠে এলো বার্সেলোনা। আর সমান ম্যাচে ৭২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। ৫৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচে অ্যাতলেটিকো।


আরও খবর



মিরসরাই সমিতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ এপ্রিল ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৭৩জন দেখেছেন

Image

এম আনোয়ার হোসেন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:মিরসরাই সমিতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ঘোষিত কমিটির আহবায়ক মনোনীত হয়েছেন মহিউদ্দিন নশু ও সদস্য সচিব মনোনীত হয়েছেন মনিরুজ্জামান মনির। ২০২২-২০২৩ কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পর ৩ মাসের জন্য মিরসরাই সমিতি সংযুক্ত আরব আমিরাত কার্যকরী কমিটির পৃষ্ঠপোষক, উপদেষ্ঠা, সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সকল সদস্যের উপস্থিতিতে ১৮ সদস্যের আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। ২০২২-২৩ কার্যকরী পরিষদের সভাপতি এমএ তাহের ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক মোরশেদ আজম স্বাক্ষরিত ঘোষিত কমিটির অন্যান্যরা হলেন যুগ্ম আহবায়ক আজিমুল বাহার, মুসলিম উদ্দিন ভূঁইয়া, মোহাম্মদ ইয়াছিন, আবু জাফর, নুরুল ইসলাম, নুরুল আমিন, নাসির হোসেন, সদস্য রাকিব উদ্দিন চৌধুরী কানন, আনোয়ার হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম শামীম, সৌরভ মাজেদ ভূঁইয়া, মামুন মোরশেদ, হাশেম লিটন, নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ সেলিম ও নুরের নবী।


আরও খবর

হোমনায় ছেলের হাতে মা খুন, ঘাতক ছেলে আটক

বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪




"মোটরসাইকেলে বাড়িতে যেতে ডিএমপির নিষেধ"

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ এপ্রিল 2০২4 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৮২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশে সড়ক দুর্ঘটনার অর্ধেকের বেশি মোটরসাইকেলে হয়,বলেছেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান । তাই ঈদে মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়িতে যাওয়ার ব্যাপারে নিষেধ করা হয়েছে। আমরা আমাদের পুলিশ সদস্যদেরও নিজেদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে মোটরসাইকেলে বাড়ি যাওয়ায় নিষেধ করেছি।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) রাজধানীর পান্থপথ মোড়ে শপিংমল ও বাজার পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ঈদের সময় গাড়ির চাপ থাকে অনেক বেশি। তাই এসময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই ঈদে সবাইকে মোটরসাইকেলে যাতায়াত না করার অনুরোধ করা হয়েছে।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ফিটনেসবিহীন যানবাহন যেন রাস্তায় না চলে সেদিকে সর্বোচ্চ সতর্কতা নেয়া হয়েছে। বাস মালিকদের নিষেধ করা হয়েছে যেন ফিটনেসবিহীন গাড়ি বের না করে। যদি কেউ অমান্য করে তাহলে ট্রাফিক আইনে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ সময় ঈদের কেনাকাটায় ঢাকার তীব্র যানজট নিয়ে প্রশ্ন করা হলে কমিশনার বলেন, ঢাকায় যে পরিমাণ মার্কেট ও যানবাহন রয়েছে সেই তুলনায় পর্যাপ্ত বৈধ পার্কিংয়ের ব্যবস্থা নেই। তাই বলে যেখানে-সেখানে গাড়ি পার্কিং করা যাবে না, করলে ট্রাফিক আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে। মার্কেট কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে যেন তারা তাদের করিডরে পর্যাপ্ত পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রাখেন।


আরও খবর



রূপগঞ্জে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রী খুন\স্বামী গ্রেফতার

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ এপ্রিল ২০২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image

মোঃআবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতাঃ-

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের মাঝিনা নদীরপাড় এলাকায় বসবাসকারী গৃহবধূ ফারজানা আক্তারকে(৩০) গতকাল ২৪ মার্চ রবিবার ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী তারিকুল ইসলাম মন্ডল এ ঘটনা ঘটায়। তারা মাঝিনা নদীরপাড় গ্রামের মহিবুর রহমানের বাড়ীর ভাড়াটিয়া।  প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হত্যাকান্ডের পর স্বামী তারিকুল ইসলাম মন্ডল হতবাক হয়ে লাশের পাশেই অবস্থান করছিলেন।


খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে তারিকুল ইসলাম আতœসমর্পণ করেন। লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্ত্রী ফারজানা আক্তার ও স্বামী তারিকুল ইসলামের বাড়ী গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার হাজীপাড়া দক্ষিণ দোমাইচারী গ্রামে। তারিকুল ইসলাম মন্ডল শীতলক্ষ্যা নদীর তীরবর্তী মাঝিনা নদীরপাড় এলাকার মীর সিরামিক্স কম্পানীতে চাকুরি করে আসছিলেন।


রূপগঞ্জ থানার এসআই নজরুল ইসলাম বলেন, স্ত্রী ফারজানার বুকে ছুরিকাঘাত করা হয়। ছুরিটি উদ্ধার করা হয়েছে।  ঘটনার পর ঝামেলা এড়াতে বাড়ীর মালিক মহিবুর রহমান স্বপরিবারে পালিয়ে গেছেন।রূপগঞ্জ থানা ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, স্ত্রী ফারজানা আক্তার হত্যাকান্ডের ঘটনায় স্বামী তারিকুল ইসলাম মন্ডলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে। লাশ নারায়ণগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



মেহেরপুরে দাম কমিয়েও রক্ষা হচ্ছে না তরমুজ ব্যবসায়ীদের

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ মার্চ 20২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ১৯৫জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃথরে থরে সাজানো রয়েছে রসালো তরমুজ। তরমুজের বুক চিরে লাল অংশ দেখানো হচ্ছে ক্রেতাদের। রমজানের শুরুতে যে দর ছিল তা থেকে কমানো হয়েছে অনেকখানি। তবুও মিলছে না কাঙ্খিত তরমুজ ক্রেতা। গেল শনিবার ও আজ রোব্বার সকালে এ দৃশ্য মেহেরপুরের হাট-

বাজারগুলোতে। বলা যেতে পারে- তরমুজের বাজারে ধ্বস নেমে এসেছে। বাজার অনুসন্ধানে জানা গেছে, রমজানের এক দিন আগে থেকে মেহেরপুরের বাজারে আসে সবুজ রংয়ের তরমুজ। মূলতঃ এই তরমুজের জাত গ্রীষ্মকালেই ফলন দেয়। অন্যান্য বছর  এপ্রিলের শেষের দিকে বাজারে এ তরমুজ পাওয়া গেলেও এবার কিছুটা ব্যতিক্রম। রোজায় বেশি দর পাওয়ার জন্য কৃষকরা কিছুটা আগাম আবাদ করেছেন বলে দাবি করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। অন্যান্য সময় পিচ হিসেবে তরমুজ বিক্রি হলেও গেল কয়েক বছর রমজান  থেকে কেজি দরে তরমুজ বিক্রি শুরু হয়।

রোজার শুরুতে হাট-বাজারে প্রতিটি তরমুজের দর ছিল ২৫০-৮০০ টাকা পর্যন্ত। প্রথম  দু’দিন তরমুজ বেচাকেনায় স্বস্তিতে ছিলেন ব্যবসায়ীরা। কিন্তু ক্রেতাদের অভিযোগ ছিল অনেক। অস্বাভাবিক মূল্য, অপরিপক্ক ও অপুষ্ট তরমুজ এবং কেজিতে বিক্রির বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও আলোচিত ছিল বেশ। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সাড়া পড়ে। কেউ কেউ রমজানে তরমুজ বয়কটের ডাক দেয়।  বয়কটের প্রভাব খোঁজ নিতে গিয়ে ব্যবসায়ীদের দেওয়া তথ্যের সত্যতা মিলেছে। গাংনী

প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি মজনুর রহমান আকাশ জানান, অনেকেই তরমুজ বর্জন করেছে। আমার জানামতে সচেতন মহলের একটি বড় অংশই বয়কট বর্জন করে এখনও দৃঢ় অবস্থানে রয়েছেন। ফলে বাজারে প্রভাব পড়বেই। আর এটাই স্বাভাবিক। একই খথা  জানিয়েছেন গাংনীর ভিটাপাড়ার তরমুজ ক্রেতা আলেয়া বেগম ও মালেকা খাতুন।বাজার ঘুরে জানা গেছে, গেল দুদিন হাট-বাজারগুলোতে প্রতি পিস তরমুজ বিক্রি হচ্ছে ১৫০-৪০০ টাকা পর্যন্ত। আবার কেজিতেও দাম কমানো হয়েছে। আগে যেখানে ৮০

টাকায় বিক্রি হচ্ছিল এখন তা কমিয়ে ৫০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।তরমুজ ক্রেতারা জানান, গেল কয়েকদিন ধরে তরমুজের দর নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে। যার প্রেক্ষিতে বেশিরভাগ মানুষ তরমুজ কেনা থেকে বিরত রয়েছেন। তাছাড়া উচ্চমূল্য দিয়ে তরমুজ কেনা সবার পক্ষে তো আর সহজ নয়।গাংনী বাজারের তরমুজ বিক্রেতা শাহীন মিয়া জানান, তরমুজ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হওয়ায় ক্রেতা শূন্য বলা যেতে পারে। এতে লাভের বদলে লোকসান গুনতে হচ্ছে ব্যবসায়ীদের। খুলনা মোকাম থেকে যে দরে তরমুজ কেনা হয়েছে তা থেকে অনেক কম দামে বিক্রি করতে  হচ্ছে। কাঁচামাল তাই ধরে রাখলে নষ্ট হবে বিধায় লোকসান দিয়ে বিক্রি করা হচ্ছে।

ব্যবসায়ী বাবুল জানান, এবার একেবারে বাড়তি দাম। তরমুজের দাম শুনেই ক্রেতারা চলে যাচ্ছেন। ৫০ টাকা কেজির নিচে দাম হলে ভালো হতো। তাহলে ক্রেতারাও কিনে খেত, বিক্রি বাড়ত। তিনি আরো জানান, ভোলা ও বরগুনা জেলায় উৎপাদিত তরমুজ খুলনা মোকাম হয়ে মেহেরপুর জেলায় আসে। মোকামে দর অস্বাভাবিক তাই খুচরা বাজারেও প্রভাব পড়ছে। মোকামে দর নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে খুচরা পর্যায়ে কমানো সম্ভব না।

জেলা ভোক্তা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সজল আহমেদ জানান, দাম বেশি নেয়ায় রমজানের শুর থেকে তরমুজের বাজার মনিটরিং করা হয়েছে। কয়েকজন তরমুজ ব্যবসায়ীকে জরিমানা করা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের কেজি দরে নয়,পিচ হিসেবে তরমুজ বিক্রির জন্য বলা হচ্ছে। দাম নাগালের বাইরে থাকায় অনেকেই তরমুজ কিনতে চাইছেন না।


আরও খবর



জয়পুরহাটে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আব্দুর রহিম হত্যা মামলায় সেনাবাহিনী ও বিজিবি সদস্যসহ ৭ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ মার্চ 20২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ২৩৬জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে চাঞ্চল্যকর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র আব্দুর রহিম হত্যা মামলায় সেনাবাহিনী ও বিজিবি সদস্যসহ ৭ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে ২ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে ৫ জন আসমী পলাতক রয়েছেন।

রবিবার দুপুরে অতিরিক্ত দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক নুরুল ইসলাম এ রায় দেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার বেগুনবাড়ি গ্রামের মৃত হযরত আলী সরদারের ছেলে ফরহাদ আলী সরদার ওরফে ঝন্টু, দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মাহমুদ তারিক ওরফে তারিক, ওসমান আলী সরদারের আ: গফুর, মামুনুর রশিদের ছেলে সোহাগ,  জাহাঙ্গীর আলম মন্ডলের ছেলে তৌফিকুল ইসলাম,  মৃত মনির উদ্দিন সরদারের ছেলে সেনা সদস্য জুয়েল ওরফে বখতিয়ার, দেলোয়ার হোসেনের ছেলে হাসিবুল হাসান ওরফে হাসিবুল। 

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ঢাকার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আব্দুর রহিম ২০০০ সালের ৭ জানুয়ারি ঈদ উদযাপনে নিজ বাড়ি জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার দক্ষিণ কানুপুর গ্রামে আসেন। সে ১১ জানুয়ারি বিকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে গভীর রাত পর্যন্ত আর বাড়ি ফিরেননি। পরদিন সকালে দক্ষিণ কানুপুর গ্রামের পাশে একটি পুকুরপাড় থেকে তার রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই আসাদুল ইসলাম বাবুল বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালত আজ এ রায় দেন।

আরও খবর