Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত
অসম প্রেমের কারণে সিরাজদিখানে যুবকের উপর বর্বরোচিত নির্যাতন

অসম প্রেমের কারণে সিরাজদিখানে যুবকের উপর বর্বরোচিত নির্যাতন

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ১২১২জন দেখেছেন
Image


স্টাফ রিপোর্টারঃ

মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখানের বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়িতে অসম প্রেম করার অপরাধে সাইফুল ইসলাম রাজন নামে এক যুবককে অমানুষিক নির্যাতন করায় দুদিন ধরে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ঐ যুবক।


মোবাইল ফোনে গত ৭ জানুয়ারী বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়িতে সাইফুলকে ডেকে নিয়ে চালানো হয় বর্বরোচিত নির্যাতন।বর্তমানে ছেলেটি ইছাপুরা হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভর্তি আছেন।


স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বালুচর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডে জয়নাল মেম্বারের বাড়ির মেয়ের সাথে  প্রেমের সম্পর্ক হয় সাইফুলের। ৩ বছরের প্রেমের সম্পর্ক যখন গভীরতর হলে তারা দুজনে পালিয়ে যায়। তখন বাধা হয়ে দাঁড়ায় প্রেমিকার পরিবার।সাইফুলের লেখাপড়া ও পরিবারিক অবস্থা ভালো না থাকায় আপত্তি ওঠে প্রেমিকার পরিবার থেকে।


গত ৮জানুয়ারি মোবাইল ফোনে ডেকে নেয় প্রেমিকার আত্মীয় আলমগীর হোসেন পিতা জয়নাল,মনির পিতা নুর আলি,জাহাঙ্গীর পিতা জামাল মিয়া। সরল বিশ্বাসে সাইফুল যায় ঐ বাড়িতে। পূর্বপরিকল্পনা মতো উপরোল্লিখিত ব্যাক্তিরা গাছের সাথে বেঁধে আদিযুগের বর্বরোচিত কায়দায় অমানুষিক বিচার  করা হলো তার প্রতি।


আরও খবর



পবিত্র জুমার দিনের ফজিলত

প্রকাশিত:Friday ২৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

সপ্তাহের মধ্যে সর্বাপেক্ষা ফজিলতপূর্ণ ও সেরা দিন পবিত্র জুমার দিন। আল্লাহতায়ালার কাছে অন্য সব দিনের মধ্যে সর্বাপেক্ষা সম্মানিত দিন জুমার দিন। এ দিনকে আল্লাহতায়ালা সীমাহীন বরকত দ্বারা সমৃদ্ধ করেছেন।
এদিনের গুরুত্ব ও ফজিলত তুলে ধরে পবিত্র কোরআনে সূরা জুমা নামে একটি সূরাও বিশ্বনবি ও শ্রেষ্ঠনবি হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর ওপর আল্লাহতায়ালা নাজিল করেছেন।

আল্লাহতায়ালা পবিত্র কুরআনে ইরশাদ করেন-‘হে ঈমানদারগণ! জুমার দিনে যখন নামাজের জন্য ডাকা হয় তখন তোমরা আল্লাহর স্মরণে ধাবিত হও এবং কেনা-বেচা ত্যাগ কর, এটাই তোমাদের জন্য সর্বোত্তম, যদি তোমরা জানতে।' (সূরা জুমুআ : আয়াত ৯) জুমার নামাজের তাগিদ শুধু কুরআনেই নয়, হাদিসেও এসেছে। হজরত তারিক ইবনে শিহাব (রা.) থেকে বর্ণিত হয়েছে। মহানবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘ক্রীতদাস, মহিলা, নাবালেগ শিশু ও অসুস্থ ব্যক্তি এ চার প্রকার মানুষ ছাড়া সব মুসলমানের ওপর জুমার নামাজ জামাতে আদায় করা অপরিহার্য কর্তব্য।’ (আবু দাউদ) হাদিস শরিফে আরো এসেছে, মহানবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যে ব্যক্তি জুমার দিন গোসল করল, আগে আগে মসজিদে গমন করল, হেঁটে মসজিদে গেল, ইমামের কাছাকাছি বসল, মনোযোগ দিয়ে খুতবা শুনল, কোনো কথা বলল না, আল্লাহতায়ালা তাকে প্রতি কদমে এক বছরের নফল ইবাদতের সওয়াব দান করবেন। (মুসনাদে আহমাদ) নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, 'যে ব্যক্তি জুমার দিনে জানাবত তথা অপবিত্র অবস্থা থেকে পবিত্র হওয়ার মতো গোসল করবে, এরপর (প্রথম সময়ে) মসজিদে হাজির হবে সে যেন একটি উট কোরবানি করলো। আর যে ব্যক্তি দ্বিতীয় সময়ে মসজিদে গেল সে যেন একটি গরু কোরবানি করলো। যে তৃতীয় সময়ে গেল সে যেন শিংওয়ালা ছাগল কোরবানি করলো। যে চতুর্থ সময়ে গেল সে যেন একটি মুরগী উৎসর্গ করলো। যে পঞ্চম সময়ে গেল সে যেন ডিম উৎসর্গ করলো। এরপর যখন ইমাম বের হয়ে যায় তখন ফেরেশতারা (লেখা বন্ধ করে) ইমামের কাছে হাজির হয়ে জিকির (খুতবা) শুনতে থাকে।' (বুখারি) এছাড়া জুমার দিনগুলোতে এমন বিশেষ মুহূর্ত আসে যখন বান্দার দোয়া আল্লাহ গ্রহণ করে নেন।

জুমার গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে হাদিসে উল্লেখ রয়েছে, হজরত আবু হুরাইরা (রা.) হতে বর্ণিত, মহানবি (সা.) বলেছেন, ‘যার ওপর সূর্য উদিত হয়েছে তার মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ দিন হল জুমার দিন। এই দিনে আদমকে সৃষ্টি করা হয়েছে, এই দিনে তাকে জান্নাতে স্থান দেওয়া হয়েছে এবং এই দিনেই তাকে জান্নাত থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে’ (সহিহ মুসলিম)। জুমার ফজিলত সম্পর্কে মহানবি (সা.) আরো বলেছেন, ‘মুমিনের জন্য জুমার দিন হলো সাপ্তাহিক ঈদের দিন’ (ইবনে মাজাহ)। হাদিসে আরো উল্লেখ আছে মহানবি (সা.) বলেন, ‘মহান আল্লাহর কাছে জুমার দিনটি ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহার দিনের মতো শ্রেষ্ঠ দিন। এ দিনটি আল্লাহর কাছে অতি মর্যাদাসম্পন্ন’ (ইবনে মাজাহ)।

একটু ভেবে দেখুন, মহান আল্লাহপাক পবিত্র জুমার দিনকে আমাদের জন্য সাপ্তাহিক ঈদের দিন হিসেবে গোষণা করেছেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, আমরা কি এই দিনের যথাযথ মূল্যায়ন করছি? আমরা কি আমাদের জাগতিক কাজকর্ম বন্ধ করে আজানের সাথে সাথে মসজিদে গিয়ে খুতবা, নামাজ আদায় এবং দিনের অন্যান্য সময় আল্লাহর স্মরণে অতিবাহিত করি?

তাই এদিকে আমাদের বিশেষভাবে দৃষ্টি দিতে হবে। বিশ্বনবি (সা.) আরো বলেছেন, ‘হে মুসলমানগণ, তোমরা এ দিন মিসওয়াক করো, গোসল করো ও সুগন্ধি লাগাও’ (মিশকাত)। পবিত্র জুমার দিনের ফজিলত সম্পর্কে হাদিসে আরো উল্লেখ রয়েছে যে, হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে কোনো মুসলমান জুমার দিনে কিংবা জুমার রাতে মৃত্যুবরণ করে। নিশ্চয়ই আল্লাহতায়ালা তাকে কবরের ফিতনা হতে নিরাপদ রাখেন’ (মুসনাদে আহমদ, তিরমিজি, বাইহাকি, মিশকাত) মুসলিম উম্মাহ হিসেবে আমরা অত্যন্ত সৌভাগ্যবান, কেননা আল্লাহতায়ালা আমাদেরকে সপ্তাহে বিশেষ একটি দিন নির্ধারণ করে দিয়েছেন, আমরা যেন এই দিনে বিশেষভাবে তার ইবাদতে রত হই। এছাড়া এ দিনে আমরা যেন বেশি বেশি দরুদ শরিফ পাঠ করি।

হাদিসে উল্লেখ আছে, হজরত আওস ইবনে আওস (রা.) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, মহানবী (সা.) বলেছেন, ‘তোমাদের দিনগুলির মধ্যে সর্বোত্তম একটি দিন হচ্ছে জুমার দিন। সুতরাং ঐ দিনে তোমরা আমার ওপর বেশি বেশি দরুদ পাঠ কর। কেননা, তোমাদের পাঠ করা দরুদ আমার কাছে পেশ করা হয়’ (আবু দাউদ)।
জুমার দিনের গুরুত্ব ও তাৎপর্য বিবেচনা করে প্রতিটি মুসলিমের উচিত দিনটিকে কাজে লাগানো। আল্লাহতায়ালা আমাদেরকে জুমার গুরুত্ব অনুধাবন করার এবং সে অনুযায়ী আমল করার তৌফিক দান করুন, আমিন।


আরও খবর



সফলতার সঙ্গে জলবায়ু সংকট মোকাবিলা করছে বাংলাদেশ: স্পিকার

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী লন্ডনস্থ ওয়েস্টমিনিস্টার ভবনে স্পিকারের কার্যালয়ে হাউস অব কমন্সের স্পিকার লিন্ডসে হোয়েলের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

সোমবার (১ আগস্ট) ব্রিটিশ পার্লামেন্টে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সফর উপলক্ষে ওয়েস্টমিনিস্টার প্রাঙ্গণে ব্রিটিশ পতাকার পাশাপাশি বাংলাদেশের পতাকাও উত্তোলন করা হয়।

সাক্ষাৎকালে তারা জলবায়ু পরিবর্তন, দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন, রোহিঙ্গা ইস্যু ও সামাজিক উন্নয়নসহ কমনওয়েলথভুক্ত পার্লামেন্টসমূহের ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সমস্যা মোকাবিলা, দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়নসহ সামাজিক উন্নয়ন নিশ্চিতকরণে ওয়েস্টমিনিস্টার ও কমনওয়েলথভুক্ত পার্লামেন্টসমূহ একসঙ্গে কাজ করতে পারে।

এর আগে সিপিএ’র চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে কমনওয়েলথভুক্ত পার্লামেন্টসমূহ ও আইপিইউসহ অন্যান্য পার্লামেন্টারি সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে তিনি অবদান রেখেছেন বলে উল্লেখ করেন। এসব ক্ষেত্রে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সহযোগিতা ও সমর্থন কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন স্পিকার।

তিনি বলেন, কমনওয়েলথ দেশসমূহের কনফারেন্স কমনওয়েলথ হেডস অব গভর্নমেন্ট মিটিংয়ে সরকারি পর্যায়ে আলোচনার পাশাপাশি পার্লামেন্টসমূহের সঙ্গে বিদ্যমান ও উদীয়মান ইস্যু নিয়ে মতবিনিময় করা যেতে পারে। বর্তমানে জাতিসংঘ, বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ-সহ বিশ্বের বিভিন্ন সংস্থা পার্লামেন্টগুলোর সঙ্গে বিভিন্ন ইস্যুতে মতবিনিময় করে যাচ্ছে। কমনওয়েলথও এই পদক্ষেপ অনুসরণ করতে পারে।

স্পিকার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে যেসব দেশের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে তন্মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। তবে, সরকারের যুগোপযোগী উদ্যোগ গ্রহণের কারণে বাংলাদেশ সফলতার সঙ্গে সংকট মোকাবিলা করছে। পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার পাশাপাশি বাংলাদেশ দীর্ঘমেয়াদি পার্সপেক্টিভ প্লান ও ডেল্টা প্লান গ্রহণ করেছে। এসব ক্ষেত্রে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের বিষয়টি তুলে ধরেন।

ব্রিটিশ স্পিকার লিন্ডসে হোয়েল জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপ ও উদ্যোগসমূহের প্রশংসা করে করেন। ব্রিটিশ পার্লামেন্টসহ স্থানীয় সরকার ব্যবস্থায় ব্রিটিশ বাংলাদেশিরা নিষ্ঠার সঙ্গে ব্রিটেনের উন্নয়নে অবদান রেখে যাচ্ছেন। একইসাথে তারা বাংলাদেশের উন্নয়নেও ভূমিকা রাখছেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে ব্রিটেনের অব্যাহত সমর্থন কামনা করেন। বাংলাদেশ পার্লামেন্টের পঞ্চাশ বছর পূর্তিতে সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে তিনি ব্রিটিশ স্পিকারকে আমন্ত্রণ জানান। স্পিকার লিন্ডসে হোয়েলে আমন্ত্রণ গ্রহণ করেন এবং সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

এ সময় ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইদা মুনা তাসনিম ও যুগ্মসচিব এম এ কামাল বিল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



মৌলভীবাজারের বাসিন্দার জাতীয় পরিচয়পত্রে জন্মস্থান ভেনেজুয়েলা!

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ১৬ August ২০২২ | ৪৪জন দেখেছেন
Image

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার বাসিন্দা রোমানা বেগম। জাতীয় পরিচয়পত্রে তার নামের দ্বিতীয় অংশ ‘বেগম’ এর জায়গায় ভুল করে ‘আক্তার’ লেখা হয়। এটি সংশোধন করতে দিয়েছিলেন তিনি। তবে নাম সংশোধন হয়েছে ঠিকই। তবে ফের হয়েছে আরেকটি ভুল। তার জন্মস্থান লেখা হয়েছে দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুধু রোমানা বেগম নন; মৌলভীবাজারে বসবাসকারী ১২ জনের জাতীয় পরিচয়পত্রে জন্মস্থান দক্ষিণ আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলা লেখা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বিব্রত তারা।

যোগাযোগ করা হলে উপজেলার তালিমপুর গ্রামের বাসিন্দা রোমানা বেগম বলেন, ‘অবাক করার বিষয় হলো আমার জন্ম বাংলাদেশের মৌলভীবাজারের বড়লেখায়। কিন্তু আমার জন্মস্থান লেখা হলো আমেরিকার দেশ ভেনেজুয়েলা। আমি পাড়াগায়ের মানুষ। এমন দেশের নাম আমার জানা ছিল না। এই দেশ কোথায় তাও আমি জানতাম না। অথচ জন্মস্থান হয়ে গেছে ভেনেজুয়েলা।’

চলতি বছরের মে মাসে নাম সংশোধন করার জন্য উপজেলা নির্বাচন অফিসে আবেদনপত্র জমা দিয়েছিলেন রোমানা বেগম। কয়েকদিন আগে ‘জাতীয় পরিচয়পত্র হয়ে গেছে’ মোবাইল ফোনে এমন মেসেজ পান। তারপরই অবাক করার এ বিষয়টি জানতে পারেন।

এ বিষয়ে বড়লেখা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাদিকুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমরা এরই মধ্যে বিষয়টি জানতে পেরেছি। মৌলভীবাজার সদর, বড়লেখা ও জুড়ী উপজেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া সিলেটের সুনামগঞ্জেও এ ধরনের ভুল পাওয়া গেছে। কী কারণে এটা হয়েছে, ত্রুটিটা কোথায় আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি। প্রধান কার্যালয়ে সিস্টেম ম্যানেজারকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগে জাতীয় পরিচয়পত্র করা থাকলে ডাটাবেজে যে তথ্য থাকে ভুল সংশোধনের সময় সেটাই স্বয়ংক্রিয়ভাবে নতুন কার্ডে চলে আসে। এক্ষেত্রে সার্ভারে কোনো ভুল না প্রযুক্তিগত কোনো সমস্যা হয়েছে সেটা দেখা হবে। দ্রুত সবার জাতীয় পরিচয়পত্রের ভুল সংশোধন করে দেওয়া হবে।’


আরও খবর



ইউরিয়া সারের দাম বাড়ায় প্রতিবাদ

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ৫১জন দেখেছেন
Image

ইউরিয়া সারের দাম কেজিপ্রতি ছয় টাকা বাড়ানোয় প্রতিবাদ জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়।

এতে বলা হয়, সারের দাম বাড়ানোর কারণ হিসেবে ইউরিয়া সারের যৌক্তিক ব্যবহার ও চলমান বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে সারের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির কথা বলা হয়েছে। অথচ সরকারি হিসেবে, আমন মৌসুম (জুলাই-সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত দেশে ইউরিয়া সারের চাহিদা ছয় লাখ ১৯ হাজার মেট্রিক টন। বিপরীতে মজুত রয়েছে সাত লাখ ২৭ হাজার মেট্রিক টন, যা প্রয়োজনের তুলনায় এক লাখ মেট্রিক টনের বেশি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সরকারি উদ্যোগে কৃষকের ইউরিয়া সারের ব্যবহার কমানোর জন্য সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা না করে যৌক্তিক সার ব্যবহারের জন্য দাম বাড়ানো কোনোভাবে গ্রহণযোগ্য সিদ্ধান্ত নয়। এমনিতেই সব কৃষি উপকরণের দাম বাড়ার কারণে কৃষি ফসলের উৎপাদন খরচ অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে। প্রতি মৌসুমে কৃষকরা ধানের ন্যায্যমূল্য পায় না বলে রাস্তায় ধান ফেলে বিক্ষোভ করতে করছে। কৃষি ঋণ শোধ করতে পারে না বলে কৃষকরা আত্মহত্যা করছে। ফলে সারের দাম বাড়ানোয় কৃষিপণ্যে এর প্রভাব পড়বে।

অবিলম্বে সারের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।


আরও খবর



‘সাকিবকে মিসগাইড করেছিল বেটউইনার’

প্রকাশিত:Saturday ১৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ১৪ August ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

বেটউইনারের সঙ্গে সাকিব আল হাসান চুক্তির কারণে বেশ তোলপাড় হয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটে। চুক্তি বাতিল না করলে তার সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সম্পর্ক ছিন্ন করারও হুমকি দিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। শেষ পর্যন্ত চুক্তি বাতিল করেই ফিরে এসেছেন সাকিব।

আজ বিকেলে গুলশানস্থ বিসিবি সভাপতির কার্যালয়ে এশিয়া কাপ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অধিনায়ক ঘোষণা অনুষ্ঠানে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস অধিনায়ক হিসেবে আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত সাকিব আল হাসানের নাম ঘোষণা করেন।

এ সময় সাংবাদকিদের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়, একটি বেটিং প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সাকিব আল হাসানের নাম আসার পর কিভাবে তাকে অধিনায়ক হিসেবে বেছে নেয়া হলো? জবাবে জালাল ইউনুস বলেন, ‘এটা নিয়ে অনেক আলাপ হয়েছে। সাকিব তার ভুল বুঝতে পেরেছে। এটা করা তার ঠিক হয়নি। সাকিব আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। সাকিবকেই অধিনায়ক করার পরিকল্পনা ছিল। তাকে আমাদের প্রয়োজন। নিজের ভুল স্বীকার করে যখন সে ফিরে এসেছে, তখন এটাকেই আমরা সঠিক ধরে নিয়েছি এবং তাকে দায়িত্ব দিয়েছি।’

জালাল ইউনুস আরো বলেন, ‘সে কোনো ভুল করেনি। অনলাইন নিউজ পোর্টাল মনে করে সে চুক্তি করেছিল।’

জানতে চাওয়া হয়, যারা তাকে চুক্তিতে সাইন করিয়েছিল সেই বেটউইনার নিউজ তো বেটউইনার নামক বেটিং সাইটেরই অঙ্গ প্রতিষ্ঠান। তাহলে তারা কী সাকিবকে মিসগাইড করেছিল? জালাল ইউনুস বলেন, ‘হ্যাঁ, তার (সাকিব) কাছে মনে হয়েছিল হয়তো মিসগাইড এটা।’

বিস্তারিত আসছে....


আরও খবর