Logo
আজঃ Monday ০৮ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড নিখোঁজ সংবাদ প্রধানমন্ত্রীর এপিএসের আত্মীয় পরিচয়ে বদলীর নামে ঘুষ বানিজ্য

অর্থায়নে পিছু হটা বিশ্বব্যাংক অভিনন্দন জানালো বাংলাদেশকে

প্রকাশিত:Saturday ২৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৪৫জন দেখেছেন
Image

দেশীয় অর্থায়নে পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্প সঠিকভাবে সম্পন্ন করায় বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক। একই সঙ্গে বাংলাদেশের দারিদ্র্য নিরসন ও প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধিতে পদ্মা সেতু অবদান রাখবে বলেও আশা প্রকাশ করেছে সংস্থাটি।

বাংলাদেশে নিযুক্ত বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মার্সি মিয়াং টেম্বন এসব কথা বলেছেন।

শনিবার (২৫ জুন) পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে তিনি বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন জানান।

মার্সি মিয়াং টেম্বন বলেন, সময় এসেছে বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাংকের মধ্যকার সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার। পদ্মা সেতু বাংলাদেশের জনগণ ও অর্থনীতিতে বহুমাত্রিক সুবিধা বয়ে আনবে। বাংলাদেশের দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে বিশ্বব্যাংক এ স্বীকৃতি দেয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

মার্সি মিয়াং টেম্বন বলেন, এই সেতু দেশের সমন্বিত প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে এবং দারিদ্র্য হ্রাসে অবদান রাখবে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের নকশা চূড়ান্ত হওয়ার পর ২০১১ সালের এপ্রিল থেকে জুনের মধ্যে সেতু প্রকল্পে অর্থায়নের বিষয়ে বিশ্বব্যাংক, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি), জাইকা ও ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংকের (আইডিবি) সঙ্গে ঋণচুক্তি সই করে সরকার। কিন্তু নির্মাণকাজের তদারক করতে পরামর্শক নিয়োগে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনে বিশ্বব্যাংক। এরপর একে একে সব অর্থায়নকারী প্রতিষ্ঠান প্রতিশ্রুত অর্থায়ন স্থগিত ঘোষণা করে।

বিশ্বব্যাংকসহ অন্যরা অর্থায়ন স্থগিত করার পর প্রকল্পে যুক্ত হওয়ার প্রস্তাব নিয়ে আসে মালয়েশিয়ার সরকার। এ নিয়ে কিছুদিন আলোচনা চলার পর তা আর এগোয়নি।

২০১২ সালের ৯ জুলাই মন্ত্রিপরিষদের এক বৈঠকে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আন্তর্জাতিক অর্থলগ্নিকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে পদ্মা সেতুর জন্য অর্থ না নেওয়ার কথা জানিয়ে দেয় সরকার।

অবশ্য ২০১৪ সালে তদন্ত শেষে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) জানায়, দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। ২০১৭ সালে কানাডার টরন্টোর এক আদালত জানায়, পদ্মা সেতু প্রকল্পে দুর্নীতির ষড়যন্ত্রের উপযুক্ত প্রমাণ পাননি তারা।


আরও খবর



বিদেশি লিগ খেলার অনুমতি পাচ্ছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা!

প্রকাশিত:Saturday ২৩ July ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | ৬৭জন দেখেছেন
Image

অবশেষে নিজেদের ক্রিকেটারদের ভিনদেশি লিগে খেলার অনুমতি দিতে চলেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। বিশ্বব্যাপী ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের তুমুল ব্যাপ্তির কথা মাথায় রেখে এ বিষয়ে ভাবতে শুরু করেছে সৌরভ গাঙ্গুলির নেতৃত্বাধীন বিসিসিআই।

এর পেছনে মূলত আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের অনুরোধও বড় প্রভাব ফেলছে। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন টি-টোয়েন্টি লিগে দল কিনেছে আইপিএলের ছয়টি ফ্র্যাঞ্চাইজি। তারা বিসিসিআইকে অনুরোধ করেছে, ভারতীয় খেলোয়াড়দের দক্ষিণ আফ্রিকাসহ অন্যান্য লিগেও খেলার অনুমতি দিতে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইনসাইড স্পোর্টসের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে এমন তথ্য। বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা নিজের পরিচয় গোপন রেখে এ বিষয়ে ভাবনার কথাও স্বীকার করেছে। সেপ্টেম্বরে বোর্ডের আগামী সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে জানিয়েছেন সেই কর্মকর্তা।

তার ভাষ্য, ‘বিদেশি লিগেও মালিকানা থাকা আইপিএলের কয়েকটি দলের পক্ষ থেকে বিসিসিআইয়ে অনুরোধ করা হয়েছে, যেনো ভারতীয় ক্রিকেটারদের খেলতে অনুমতি দেওয়া হয়। তবে এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর আগে বার্ষিক সাধারণ সভায় আলোচনা করতে হবে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আসলে এটি একটি জটিল ইস্যু। কারণ আইপিএলের সফলতার পেছনে কিন্তু এটিও রয়েছে যে, ভারতীয় খেলোয়াড়রা আর কোথাও খেলে না। তো আমরা এই শক্তির জায়গাটি ছাড়তে চাই না। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ যেভাবে বাড়ছে, নতুন কিছু ভাবা হতেও পারে।’

বর্তমানে শুধুমাত্র ভারতের নারী ক্রিকেটাররা বিদেশি টি-টোয়েন্টি লিগে খেলার অনুমতি পেয়ে থাকেন। এর বাইরে অবসর নেওয়া এবং বিসিসিআইয়ের সঙ্গে কোনো চুক্তিতে না থাকা ক্রিকেটাররাও বিভিন্ন লিগে খেলে থাকেন। ভারতের কোনো পুরুষ ক্রিকেটার কোনো বিদেশি টি-টোয়েন্টি লিগে খেলতে পারেন না।

এখন নতুন পরিস্থিতিতে ভারতীয় ক্রিকেটারদের হয়তো এক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হবে। তবু শীর্ষ পর্যায়ের ক্রিকেটার যেমন বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা বা জাসপ্রিত বুমরাহদের বিদেশি লিগে খেলতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিসিসিআই কর্মকর্তা।

তিনি বলেছেন, ‘আমাদের মনে রাখতে হবে, ভারতের খেলোয়াড়দের কারণেই আইপিএল এতো জনপ্রিয়। এখন তারা যদি অন্য লিগেও খেলে, তাহলে আইপিএলের দর্শক চাহিদা স্বাভাবিকভাবেই কমে যাবে। তবে তারকা ক্রিকেটারদের বাইরে এই নিয়মে খানিক ছাড় দেওয়া যেতেই পারে।’


আরও খবর



মিশরের টিকটক তারকাকে গ্রেফতার সৌদি পুলিশের

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ২৯জন দেখেছেন
Image

মিশরের এক জনপ্রিয় টিকটক তারকাকে গ্রেফতার করেছে সৌদি আরব। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অশালীন ভিডিও পোস্ট করায় দেশটির পুলিশ এ পদক্ষেপ নিয়েছে। বুধবার (২৭ জুলাই) কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, তালা সাফওয়ান নামের ওই তারকা মিশরের নাগরিক। তিনি বন্ধুর সঙ্গে করা লাইভ ভিডিও চ্যাট পোস্ট করেছেন। এরপরই সৌদির পুলিশ তাকে রাজধানী রিয়াদ থেকে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মিশরের একজন নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। কারণ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সে যৌনবিষয়ক কনটেন্ট পোস্ট করেছে, যা সমাজে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

এদিকে টুইটারে তালা সাফওয়ানের বিরুদ্ধে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা বলছেন, সে সমাজকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

জানা গেছে, টিকটকে সাফওয়ানের ৫০ লাখ ফলোয়ার রয়েছে। তাছাড়া ইউটিউবে রয়েছে আট লাখের বেশি সাবস্ক্রাইবার।

তবে সাফওয়ান জানিয়েছেন, বিষয়টিকে অন্যদিকে প্রবাহিত করার জন্য মূল বিষয়কে বাদ দেওয়া হয়েছে। কাউকে আঘাত করার জন্য এটি করা হয়নি বলেও জানান তিনি। সমকামিতা সৌদি আরবে নিষিদ্ধ।


আরও খবর



শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ ঝুঁকি আরও ‘কমেছে’

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

গত সপ্তাহে শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তিনদিনই বড় দরপতন হয়েছে। এতে মূল্যসূচকের বড় পতনের পাশাপাশি অনেক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম অস্বাভাবিক হারে কমে গেছে। ফলে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই) এক সপ্তাহের ব্যবধানে আড়াই শতাংশ কমে গেছে।

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ ঝুঁকি নির্ণয়ের অন্যতম প্রধান হাতিয়ার মূল্য আয় অনুপাত বা পিই। সাধারণত ১০-১৫ পিইকে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ঝুঁকিমুক্ত ধরা হয়। আর কোনো কোম্পানির পিই ১০-এর নিচে চলে গেলে, ওই কোম্পানির শেয়ার দাম বিনিয়োগের জন্য নিরাপদ ধরা হয়।

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত অনেক আগেই ১৫-এর নিচে নেমেছে। গত সপ্তাহের লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইর সার্বিক পিই ছিল ১৩ দশমিক ৫৫ পয়েন্ট। গত সপ্তাহের বড় পতনে তা কমে ১৩ দশমিক ২১ পয়েন্টে নেমে গেছে। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে পিই শূন্য দশমিক ৩৪ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৫১ শতাংশ কমেছে।

এদিকে চার খাতের পিই এখনো সার্বিক বাজার পিই’র নিচে রয়েছে। এই চার খাতের মধ্যে রয়েছে- ব্যাংক, ওষুধ, বিবিধ এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি। আগের মতো সব থেকে কম পিই রয়েছে ব্যাংক খাতের। বর্তমানে এই খাতের পিই ৭ দশমিক ৫০ পয়েন্ট, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ৭ দশমিক ৬০ পয়েন্ট।

১০ দশমিক ৮০ পয়েন্ট পিই নিয়ে এর পরের স্থানে রয়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত। এক সপ্তাহ আগে এ খাতের পিই ছিল ১১ দশমিক ৩০ পয়েন্ট। পরের স্থানে থাকা বিবিধ খাতের পিই ১১ পয়েন্ট। এক সপ্তাহ আগে এ খাতের পিই ছিল ১১ দশমিক ৩০ পয়েন্ট। সার্বিক বাজারের তুলনায় কম পিই থাকা আরেক খাত ওষুধের পিই ১২ দশমিক ৯০ পয়েন্ট, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ১৩ দশমিক ১০ পয়েন্ট।

অপরদিকে আগের মতো সব থেকে বেশি পিই রয়েছে জীবন বিমা খাতের। বর্তমানে এ খাতের পিই দাঁড়িয়েছে ৬৫ দশমিক ৬০ পয়েন্টে। এক সপ্তাহ আগে ছিল ৬৭ দশমিক ২০ পয়েন্টে। সর্বোচ্চ পিই’র তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে চামড়া খাত। এ খাতের পিই দাঁড়িয়েছে ৪৬ দশমিক ১০ পয়েন্ট, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ৪৬ দশমিক ৭০ পয়েন্ট। ২৯ দশমিক ১০ পয়েন্ট নিয়ে এ তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে সিরামিক খাত। এক সপ্তাহ আগে এ খাতের পিই ছিল ৩০ দশমিক ১০ পয়েন্ট।

এছাড়া বাকি খাতগুলোর মধ্যে সাধারণ বিমা খাতের পিই সপ্তাহের ব্যবধানে ১৪ দশমিক ১০ পয়েন্ট থেকে ১৩ দশমিক ৯০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রকৌশল খাতের পিই ১৯ দশমিক ৫০ পয়েন্ট থেকে ১৮ দশমিক ৯০ পয়েন্ট হয়েছে। টেলিযোগাযোগ খাতের পিই ১৪ দশমিক ৬০ পয়েন্ট থেকে ১৪ দশমিক ২০ পয়েন্ট হয়েছে।

আইটি খাতের পিই ২৪ দশমিক ৭০ পয়েন্টে থেকে ২৩ দশমিক ৬০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সেবা ও আবাসন খাতের পিই ১৫ দশমিক ৮০ পয়েন্ট থেকে ১৫ দশমিক ৩০ পয়েন্ট হয়েছে। অব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা লিজিং খাতের পিই ১৯ দশমিক ৯০ পয়েন্ট থেকে ১৯ দশমিক ২০ পয়েন্টে নেমেছে। সিমেন্ট খাতের পিই ২৩ দশমিক ৫০ পয়েন্ট থেকে ২২ দশমিক ৫০ পয়েন্ট হয়েছে। আর খাদ্য খাতের পিই ২৩ দশমিক ৫০ পয়েন্ট থেকে ২৩ পয়েন্ট হয়েছে।


আরও খবর



পাকিস্তানের আশা নেই, ফাইনাল খেলবে ভারত-অস্ট্রেলিয়া: পন্টিং

প্রকাশিত:Tuesday ২৬ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ০৪ August ২০২২ | ১৭জন দেখেছেন
Image

 

চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরুর আর তিন মাসও বাকি নেই। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে বিশ্বকাপ নিয়ে নানান আলোচনা। যেখানে অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি অধিনায়ক মত দিয়েছেন, এবারের বিশ্বকাপে সম্ভাবনা কম পাকিস্তানের। তার মতে, ফাইনাল খেলবে ভারত ও অস্ট্রেলিয়া।

আইসিসি রিভিউয়ের সবশেষ এপিসোডে ৪৭ বছর বয়সী পন্টিং জানিয়েছেন, পাকিস্তানের বিশ্বকাপ সম্ভাবনা অনেকটাই নির্ভর করবে দলের অধিনায়ক বাবর আজমের ওপর। এছাড়া তারকা পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি ও ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ানের ওপরেও থাকবে বাড়তি দায়িত্ব।

পন্টিং বলেছেন, ‘বাবর যদি অসাধারণ টুর্নামেন্ট না কাটায়, তাহলে আমার মনে হয় না পাকিস্তান (বিশ্বকাপ) জিততে পারবে। কয়েক বছর আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে আমি বাবরকে কাছ থেকে দেখেছি। তখনই বুঝেছি, আগামী কয়েক বছরে সে অনেক এগিয়ে যাবে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘পাকিস্তানের ওপেনার ও নতুন বলের বোলাররা খুব গুরুত্বপূর্ণ। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে স্পিনারদের ভূমিকা খুব কঠিন হবে, খানিক ভিন্নও হবে। উইকেটে তেমন কোনো সাহায্য থাকায় তাদের জন্য উইকেট নেওয়া একদমই সহজ হবে না।’

এসময় ভারত-অস্ট্রেলিয়া ফাইনালে ভবিষ্যদ্বাণী করে পন্টিং বলেন, ‘আমি মনে করি, ভারত ও অস্ট্রেলিয়া ফাইনাল খেলবে। আমাকে বলতেই হবে, ফাইনালে ভারতকে হারাবে অস্ট্রেলিয়া। বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ঘরের মাঠে খেলবে। যা তাদের সম্ভাবনা অনেক বাড়িয়ে গেছে।’

এছাড়া ইংল্যান্ডকেও বড় দাবিদার হিসেবে উল্লেখ করেছেন অসি কিংবদন্তি, ‘সত্যি বললে, ইংল্যান্ডও সাদা বলের ক্রিকেটে ভয়ানক দল। এই ফরম্যাটে তাদের দারুণ সেটআপ রয়েছে। আমার মতে, কাগজে-কলমে তিনটি দলে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ উইনার রয়েছে- ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড।’

তবে চমকের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তিনি, ‘আমি এই খেলাটি সম্পর্কে ভালোভাবেই জানি এবং নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, এমনকি ওয়েস্ট ইন্ডিজও চমক দিতে পারে। টি-টোয়েন্টিতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সবচেয়ে সাবলীল ক্রিকেট খেলে। তাই এ তিন দলের কেউ ফাইনালে গেলেও আমি অবাক হবো না।’


আরও খবর



চুয়াডাঙ্গায় দুই ফিলিং স্টেশন মালিকের জরিমানা

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় দুটি ফিলিং স্টেশনের মালিককে ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। রোববার (৭ আগস্ট) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে এ রায় দেন অধিদপ্তরের চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহমেদ।

অভিযান সূত্র জানায়, দুপুরে উপজেলার লোকনাথপুরে মেসার্স কেএম ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালানো হয়। তেলের পরিমাণ কম দেওয়ার অপরাধে ওই ফিলিং স্টেশনের মালিককে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়াও দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মেসার্স দামুড়হুদা ফিলিং স্টেশনকে আমদানিকারকের ট্যাগ ও মূল্যবিহীন মবিল বিক্রয়ের অপরাধে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।


আরও খবর