Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

নতুন ব্র্যান্ড চালু করলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
Image

বলিউড ও হলিউড দুদিকেই খ্যাতি প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার। অভিনেয়র দক্ষতা দিয়ে দুদিকেই এগিয়ে রয়েছেন। তার রয়েছে অসংখ্য ভক্ত এবং ইনস্টাগ্রামে রয়েছে অনেক ফ্যান ফলোয়ার। তিনি অভিনেত্রীর পাশাপাশি ভালো উদ্যোক্তাও। তার একটি প্রোডাকশন হাউস রয়েছে এবং তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ‘সোনা’ নামে একটি ভারতীয় রেস্তোরাঁ খুলেছেন।

এরইমধ্যে তিনি আরও নতুন উদ্যোগ শুরু করেছেন। প্রিয়াঙ্কা ‘সোনা হোম’ নামে একটি হোমওয়্যার ব্র্যান্ড চালু করেছেন।

প্রিয়াঙ্কা তার ব্যবসায়িক অংশীদার মনীশ গোয়ালের সঙ্গে এই নতুন হোম ডেকোর ব্র্যান্ড চালু করেছেন। যা তিনি ২০২১ সালে উদ্বোধন করেছিলেন।

অভিনেত্রী একটি ভিডিও শেয়ার করে তাতে বলেছেন, ‘ভারতে আমাদের সংস্কৃতির বিষয় হলো পরিবার, সম্প্রদায়, মানুষকে একত্রিত করা এবং এটাই আমার কাছে সোনা হোমের নীতি। তবে ভারত থেকে নিউইয়র্ক এসে থাকাটা আমার জন্য এত সহজ ছিল না। এখন এটিও আমার আরেকটি বাড়ি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এটি পরিবার এবং বন্ধুদের একত্রিত হতে সহায়তা করার জন্য তৈরি করা হয়েছে। এটি আমার মতো একজন অভিবাসীর কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

এদিকে প্রিয়াঙ্কা তার আসন্ন ওয়েব সিরিজ ‘সিটাডেল’র শুটিং শেষ করেছেন যা অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে প্রিমিয়ার হবে। তাকে পরবর্তীতে আলিয়া ভাট এবং ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে ‘জি লে জারা’-তে দেখা যাবে।


আরও খবর



ইঞ্জিন বিকল, ৩৬ কর্মকর্তা-ক্রু নিয়ে সাগরে ভাসছে মাছ ধরার জাহাজ

প্রকাশিত:Friday ১৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাতজন কর্মকর্তা ও ২৯ ক্রু নিয়ে তিন দিন ধরে বঙ্গোপসাগরে ভাসছে ফিশিং ভেসেল (মাছ ধরার বড় জাহাজ) এফ ভি জোয়ান ডেভার। সাগরে ভাসতে থাকা এ ফিশিং ভেসেলটি উদ্ধারের চেষ্টা করছে নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড।

চট্টগ্রামের কন্টিনেন্টাল গ্রুপের মেরিন ফিসারিজ লিমিটেডের ইনচার্জ আ. সালাম মজুমদার জানান, বুধবার দুপুর ১টার দিকে চট্টগ্রামের সদর ঘাট থেকে ১৮০ টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন এফ ভি জোয়ান ডেভার গভীর বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এরপর ওইদিনই ভেসেলটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে সাগরে ভাসতে থাকে। জাহাজটিতে সাতজন কর্মকর্তা ও ২৯ জন ক্রু রয়েছেন। খবর পেয়ে শুক্রবার দুপুরে ওই জাহাজটি উদ্ধারে মোংলা কোস্ট গার্ড ও নৌবাহিনীর কাছে সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, জাহাজটি থেকে ভিএইচএফ’র মাধ্যমে মোংলা বন্দরের হিরণপয়েন্ট পাইলট স্টেশনেও যোগাযোগও করা হচ্ছে। জাহাজটি বঙ্গোপসাগরের পায়রা বন্দর এলাকা থেকে ভাসতে ভাসতে মোংলা বন্দরের ফেয়ারওয়েবয়া-আউটারবার এলাকায় চলে এসেছে।

না প্রকাশ না করার শর্তে মোংলা কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, শুক্রবার দুপুরে খবর পাওয়ার পর বিষয়টি নৌবাহিনীকে জানানো হয়। এরপর নৌবাহিনীর একটি জাহাজ ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্য রওনা হয়। সাগর প্রচণ্ড উত্তাল রয়েছে, এরপরও ফিশিং ভেসেলটি উদ্ধারে নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের তৎপরতা চালানো হচ্ছে।


আরও খবর



৭ ঘণ্টার বৃষ্টিতে ২০ বছরের রেকর্ড ভাঙলো পাকিস্তানে

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

মাত্র সাত ঘণ্টা বৃষ্টিতেই ২০ বছরের পুরোনো রেকর্ড ভাঙলো পাকিস্তানের লাহোরে। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহরে সর্বোচ্চ ২৩৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। খবর ডনের।

এদিন লাহোরে প্রবল বর্ষণের পাশাপাশি বজ্রবৃষ্টি দেখা দেয়। বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায় শহরের নিম্নাঞ্চলের বহু বাড়িঘর। ডুবে যায় রাস্তাঘাট, বিঘ্নিত হয় গাড়ি চলাচল। অনেক এলাকায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বিদ্যুৎসংযোগ। ভারি বৃষ্টি ও তীব্র বাতাসে বিদ্যুতের লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় অন্ধকারে ডুবেছে শহরের প্রায় অর্ধেক এলাকা।

পাকিস্তানি দৈনিক দ্য নিউজ জানিয়েছে, এদিন বৃষ্টিপাতে ছাদ ধসে লাহোরে তিনজন নিহত ও আরও তিনজন আহত হয়েছেন।

পাকিস্তানের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (এনডিএমএ)-এর হিসাবে, গত চার সপ্তাহে দেশটিতে বৃষ্টিপাত সম্পর্কিত বিভিন্ন দুর্ঘটনায় অন্তত ২৮২ জন নিহত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ১৬০ জনই নারী ও শিশু। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও অন্তত ২১১ জন।

সবচেয়ে বেশি মারা গেছেন পাঞ্জাবে, ৫৭ জন। এছাড়া খাইবার পাখতুনখাওয়ায় ৫৬ ও দেশটির অন্যান্য অংশে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বৃষ্টি সংক্রান্ত দুর্ঘটনায়।

এনডিএমএ জানিয়েছে, বৃষ্টিতে সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি বাড়ি এবং কয়েকটি সেতু আংশিক বা পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।


আরও খবর



দিন ও রাতের তাপমাত্রা বাড়তে পারে

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

একদিন বৃষ্টি বাড়ছে তো পরের দিন আবার কমে যাচ্ছে। শ্রাবণে এসেও অনেকটাই এভাবে লুকোচুরি খেলছে বৃষ্টি। বৃষ্টির প্রবণতা ফের কমের দিকে। এজন্য বুধবার দিন ও রাতের তাপমাত্রা বাড়তে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এতে কিছু কিছু অঞ্চলে ফের তাপপ্রবাহ দেখা দিতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে বুধবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের সব বিভাগেই বৃষ্টি হয়েছে। তবে বেশিরভাগ স্থানেই হালকা বৃষ্টি হয়েছে। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ৪৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে সিলেটে।

বুধবার বর্ষার দ্বিতীয় মাস শ্রাবণের ১২ তারিখ। এবার বর্ষার শুরুতে কিছুটা বৃষ্টির দেখা মেলে। আষাঢ়ের শেষ ভাগ থেকে বর্ষার বৃষ্টিতে অস্বাভাবিকতা।

মঙ্গলবার প্রায় সারাদিনই ঢাকার আকাশ ছিলো মেঘের দখলে দফায় দফায় হয়েছে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি। মঙ্গলবার ঢাকায় মাত্র ১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। তবে বুধবার সকাল থেকে ঢাকার আকাশে রোদ। মেঘের আনাগোনা খুবই কম।

বুধবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাস তুলে ধরে আবহাওয়াবিদ এ কে এম নাজমুল হক বলেন, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিচ্ছিন্নভাবে মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।

এ সময়ে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে বলেও জানান তিনি।

মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র দুর্বল অবস্থায় রয়েছে জানিয়ে নাজমুল হক বলেন, ‘আগামী দুদিন পর বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে।’

মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিলো চুয়াডাঙ্গায়। ঢাকায় ছিলো ৩১ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিলো তেঁতুলিয়ায়।


আরও খবর



ডায়াগনস্টিকে পরীক্ষার সময় বৃদ্ধার হাত ভাঙার অভিযোগ

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Monday ১৫ August ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
Image

ঝিনাইদহে পরীক্ষার জন্য রক্ত নিতে গিয়ে আমেনা খাতুন (৮০) নামের এক বৃদ্ধার হাত ভেঙে ফেলার অভিযোগ উঠেছে একটি বেসরকারি হাসপাতালের আয়া ও টেকনিশিয়ানের বিরুদ্ধে। আমেনা খাতুন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মোমেনা খাতুনের মা। এ ঘটনায় জেলা সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বৃদ্ধার স্বজনরা।

আমেনা খাতুনের নাতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র নাহিদ আনোয়ার বলেন, গত ২৩ জুলাই দাদির পেট ব্যথা ও বমি হচ্ছিল। পরে ২৫ জুলাই বিকেলে তাকে ঝিনাইদহ মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোকাররম হোসেনকে দেখালে তিনি দাদিকে কিছু পরীক্ষা করতে দেন।

পরীক্ষা করানোর জন্য দাদিকে ইসিজি কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। সে সময় ওই কক্ষে একজন নারী আয়া ও একজন পুরুষ টেকনিশিয়ান ছিলেন। একপর্যায়ে ইসিজি কক্ষে আমার দুজন ফুপুকে রেখে আমি বাইরে চলে আসি। এরপর ওই আয়া ফুপুদের একজনকে ইসিজি কক্ষ থেকে বের করে দেন।

নাহিদ বলেন, এর আগে দাদির ডান হাতে ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়। সে কারণে তিনি রক্ত নেওয়ার সময় ব্যথার কারণে আয়াকে হাত সোজা করতে দিচ্ছিলেন না। কিন্তু আয়া ও টেকনিশিয়ান দুজন মিলে দাদির ডান হাতে এতটাই টান দেন যে, হাতের ওপরের দিকের হাড় (হিউমেরাসের উপরের অংশ) ফেটে আলাদা হয়ে যায়। পরে ২৫ জুলাই এক্স-রে করার পর হাত ভাঙার বিষয়টি নিশ্চিত হতে পারি।

টেকনিশিয়ান পাঁচ সিসি রক্ত নিতে দাদির হাতে তিনবার সিরিঞ্জ ঢোকান জানিয়ে নাহিদ বলেন, শারীরিকভাবে অনেক দুর্বল থাকায় হাড় ভাঙার যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে দাদি অজ্ঞান হয়ে যান। তার হৃৎস্পন্দন ছিল না কয়েক সেকেন্ড। এটা বোঝার পরপরই আমি নিজে তাকে সিপিআর দিই। প্রায় এক মিনিট পর তার পালস ফিরে আসে ও শ্বাস নিতে শুরু করেন। এর কিছুক্ষণ পরই দাদি আবার অজ্ঞান হয়ে যান।

‘সঙ্গে সঙ্গে ওই আয়া ও টেকনিশিয়ান ইসিজি কক্ষ থেকে পালিয়ে যান। আমি জরুরি অক্সিজেন দিতে বললেও তারা দেননি। এরপর ডা. মোকাররম এসে কোনো জরুরি সেবা ছাড়াই রোগীকে সদর হাসপাতালে নিতে বলেন। পরে দাদিকে সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারের পরিচালক সজীব বলেন, রক্ত নিতে গিয়ে হাত ভেঙে ফেলার অভিযোগ ভিত্তিহীন। আমাদের এখানে তার হাত থেকে রক্ত নেওয়া হয়েছে, তবে সে সময় তার হাত ভাঙেনি।

ডায়াগনস্টিকের চিকিৎসক মোকাররম হোসেন বলেন, রক্ত নিতে গিয়ে বৃদ্ধার হাত ভেঙে ফেলার মতো কোনো ঘটনা ঘটেছে বলে আমার জানা নেই।

ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডা. শুভ্রা রানী বলেন, এ বিষয়ে আমরা একটা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত সময়ের মধ্যে আমরা সেখানে অভিযান চালাবো।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, ঝিনাইদহ মডার্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টার সম্পর্কে অনেক অভিযোগ রয়েছে। এর আগেও আমরা বিভিন্ন কারণে ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি বন্ধ করে দিয়েছিলাম। তিন মাসের মতো বন্ধ থাকার পর লাইসেন্স নবায়ন করে আবারও চালু করা হয়েছে।


আরও খবর



ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা কমেছে, আয়ে বড় ধাক্কা

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ৩৮জন দেখেছেন
Image

বিশ্বের আলোচিত ও বহুল ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম হলো ফেসবুক। সম্প্রতি এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে মেটা। বিশ্বের অন্যতম ধনী মার্ক জাকারবার্গ ফেসবুক প্রতিষ্ঠা করেছেন। চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির আয় কমেছে। এসময় আয় হয়েছে ২৮ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় এক শতাংশ কম। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) সিএনএনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, এসময়ে কোম্পানির নেট লাভ কমেছে অনেক বেশি। বছরের ভিত্তিতে নেট আয় ৩৬ শতাংশ কমে প্রায় ছয় দশমিক সাত বিলিয়ন ডলারে দাঁড়িয়েছে। প্রতি বিজ্ঞাপনের গড় মূল্যে ১৪ শতাংশ কমেছে বলে জানিয়েছে মেটা। বর্তমান সময়ের অর্থনৈতিক নিম্নমুখিতার কারণে অনলাইনে বিজ্ঞাপনের চাহিদা কমেছে। তাতেই এমন পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।

তাছাড়া ২০২২ সালের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় ফেসবুকের মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যাও কমেছে। ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২ দশমিক ৯৩৬ বিলিয়ন থেকে কমে ২ দশমিক ৯৩৪ বিলিয়নে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ বলেছেন, পতন প্রত্যাশিত ছিল ও এটি ইউক্রেনের যুদ্ধের সঙ্গে সম্পর্কিত ইন্টারনেট ব্লকের জন্য দায়ী।

এর আগে জুকারবার্গ জানান, কোম্পানি ইঞ্জিনিয়ারদের ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশ জব কমানোর পরিকল্পনা করেছে। এসময় তিনি বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কথাও উল্লেখ করেন।


আরও খবর