Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

নবীনগরে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৭৩জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ  নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার কাইতলা উত্তর ইউনিয়ন বার আউলিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রারাসার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

 বুধবার সকাল ১১ থেকে দিনব্যাপ অত্র  মাদ্রারাসার মাঠে অত্র এলাকার মান্যবর ব্যাক্তিবর্গগণের উপস্থিতিতে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে এই বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা , আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান এক মনোরম পরিবেশ  অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

এসময়, অত্র মাদ্রারাসার গভর্নিং বডির সভাপতি ফকির মোঃ কামাল উদ্দিন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, স্পাইডার গ্রুপের এম ডি বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সমাজ সেবক মোঃ রিপন মুন্সি। সাগত বক্তব্য রাখেন অত্র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মোঃ জাহেদুল ইসলাম লিটন, ইউপি সদস্য মোঃ মমিন মুন্সি, ইউপি সদস্য মোঃ মুসা মিয়া, অত্র মাদ্রাসার গভর্নিং বডির সদস্য ও গ্রাম কমিটির সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম, অভিভাবক সদস্য মোঃ আবু হানিফ,অভিভাক সদস্য সৈয়দ খালেদ হোসেন, অভিভাবক সদস্য মোঃ আব্দুস সাত্তার, ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রাজিব মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা সজিব মিয়া প্রমুখ। 

অনুষ্ঠিত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রথম পুরুষ্কার সমূহ স্পন্সর করেন, সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংক ব্রাহ্মণহাতা নারুই চকবাজার এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট এর স্বত্বাধিকারী মোঃ আবু হানিফ ভূঁইয়া ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




খাগড়াছড়িতে ব্যাংকের আত্মসাৎকৃত টাকাসহ আসামী গ্রেফতার

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০১জন দেখেছেন

Image
জসীম উদ্দিন জয়নাল, পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়িতে মামলা রুজুর ২৪ ঘন্টার মধ্যেই খাগড়াছড়ি নতুন কুড়ি ক্যান্টনমেন্ট হাই স্কুলের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায়কৃত প্রায় পৌনে ১০ লাখ টাকা মাসিক ফি জমা না দিয়ে পালিয়ে যাওয়া খাগড়াছড়ি ট্রাস্ট ব্যাংকের পিয়ন শৌখিন চাকমাকে (৩০) ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৬ফেব্রুয়ারি)দুপুরের দিকে খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রেসব্রিফিং-এ  খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার) জানান সোমবার রাতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঢাকা জেলার গেন্ডারিয়া থানা থেকে তাকে আটক করা হয়। সে জেলার পানছড়ি উপজেলার বড় কলক ধন্য চন্দ্র পাড়ার বাসিন্দা রঙ্গলাল চাকমার ছেলে।

জানা গেছে, খাগড়াছড়ি নতুন কুঁড়ি ক্যান্টনমেন্ট হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরা তাদের মাসিক ফি ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডে জমা দেন। প্রতি মাসে শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে ব্যাংকের একজনকে স্কুলের একটি সুবিধাজনক কক্ষে বসে ফি সংগ্রহ করেন এবং সংগৃহীত টাকা ব্যাংকে জমা করে থাকেন। এরই ধারাবাহিকতায় ব্যাংকের ম্যানেজারের নির্দেশে ব্যাংকের অফিস পিয়ন শৌখিন চাকমা (৩০) চলতি ওই স্কুলের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ৯ লাখ ৬৯ হাজার ১৫০ টাকা সংগ্রহ করে। কিন্তু সে টাকা ব্যাংকে জমা না দিয়ে অজ্ঞাতস্থানে আত্মগোপন চলে যান। এ ঘটনায় খাগড়াছড়ি ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ম্যানেজার বাদী হয়ে গত ৪ ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার মুক্তা ধর জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর খাগড়াছড়ি সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব তৌফিকুল আলমের নেতৃত্বে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ তানভীর হাসান ও তদন্ত কর্মকর্তাসহ অন্যান্য অফিসারদের সমন্বয়ে একটি বিশেষ টিম গঠন করা হয়।

পরে পুলিশ সুপারের তত্ত্বাবধানে ও তদারকিতে বিজ্ঞানভিত্তিক ও আধুনিক তদন্ত কৌশলে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে তদন্ত টিম মামলা দায়ের করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মূল আসামি শৌখিন চাকমাকে (৩০) ঢাকা জেলার গেন্ডারিয়া থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় এবং তার কাছ থেকে ৪ লাখ টাকা জব্দ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শৌখিন চাকমা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে।

গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান খাতে সংঘটিত গুরুতর অপরাধের মূল অভিযুক্তকে দ্রুততম সময়ে গ্রেফতার এবং আত্মসাৎকৃত অর্থ উদ্ধার করতে পেরে খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ স্বস্তি বোধ করছে। ভবিষ্যতে অনুরূপ যেকোনো অপরাধের ক্ষেত্রে যথাযথ আইন প্রয়োগের মাধ্যমে অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে  খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সর্বদাই সচেষ্ট থাকবে বলে জানিয়ে তিনি আরো বলেন  গ্রেফতারকৃত সৌখিন চাকমাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে অবশিষ্ট টাকা উদ্বার ও এ ঘটনা আরো কেউ জড়িত কিনা বা কারো প্ররোচণা আছে কিনা সে রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে বলে জানান খাগড়াছড়ি জেলার  পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)

আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিজিবি মহাপরিচালক পদে মেজর জেনারেল আশরাফুজ্জামানের যোগদান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) নতুন মহাপরিচালক হিসেবে যোগদান করেছেন।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বিদায়ী মহাপরিচালক মেজর জেনারেল এ কে এম নাজমুল হাসানের কাছ হতে বিজিবি মহাপরিচালকের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।

বিজিবিতে যোগদানের আগে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদর দপ্তর, ঢাকায় সামরিক প্রশিক্ষণ পরিদপ্তরের পরিচালক ও সেনা ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী ২৭তম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদী কোর্সের সাথে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে যোগদান করেন এবং ১৯৯২ সালের ২০ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আর্টিলারি কোরে কমিশন লাভ করেন।

মেজর জেনারেল আশরাফ দেশে-বিদেশে বিভিন্ন পেশাগত প্রশিক্ষণ কোর্স সম্পন্ন করেছেন। তিনি স্কুল অব আর্টিলারি, ফোর্ট সিল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ, মিরপুর, ঢাকা, ডিফেন্স সার্ভিসেস স্টাফ কলেজ, ওয়েলিংটন, তামিলনাড়–, ভারত এবং ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ, নয়াদিল্লি থেকে প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স অব ডিফেন্স স্টাডিজ (এমডিএস), ভারতের মাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএসসি ও এমফিল এবং বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনাল (বিইউপি) থেকে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন।

মেজর জেনারেল আশরাফ দেশে-বিদেশে বিভিন্ন নিযুক্তিতে বিভিন্ন কমান্ড, স্টাফ ও প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ৫টি আর্টিলারি ইউনিটে দায়িত্ব পালন করেন এবং ১টি আর্টিলারি রেজিমেন্ট ও ২টি আর্টিলারি ব্রিগেড কমান্ড করেছেন। তিনি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমির ইনস্ট্রাক্টর, একটি পদাতিক ডিভিশনের স্টাফ অফিসার গ্রেড-৩, একটি পদাতিক ব্রিগেডের ব্রিগেড মেজর এবং একটি পদাতিক ডিভিশনের কর্নেল স্টাফ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফোর্সেস ইন্টেলিজেন্স (ডিজিএফআই) এর ইন্টারনাল অ্যাফেয়ার্স ব্যুরো এর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মেজর জেনারেল আশরাফ জাতিসংঘ শান্তি মিশন ইথিওপিয়া এবং সুদান এ অংশগ্রহণ করে অত্যন্ত সফলতার সাথে মিশন সম্পন্ন করেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সচিবালয়ে শান্তিরক্ষী মিশন অপারেশন্স এ ফোর্স জেনারেশন অফিসার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।


আরও খবর



মাটিরাঙ্গায় যৌথ অভিযানে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গায়  পুলিশ ও সেনাবাহিনীর যৌথ অভিযানে দুই রাউন্ড কার্তুজসহ একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টার দিকে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মোহাম্মদপুর-বরঝালা এলাকা থেকে এসব উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মোহাম্মদপুর-বরঝলা এলাকায় একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল চাঁদাবাজির উদ্দ্যেশ্যে অবস্থান করছে এমন গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সেনাবাহিনী ও পুলিশ যৌথ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় সেনাবাহিনী-পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালানোর সময় একটি ব্যাগ ফেলে যায়। পরে ব্যাগটি তল্লাশি করে দুই রাউন্ড কার্তুজসহ একটি দেশে তৈরি পিস্তল উদ্ধার করা হয়।

মাটিরাঙ্গা জোনের জোন অধিনায়ক লে. কর্ণেল কামরুল হাসান  জানান, উদ্ধার করা দুই রাউন্ড কার্তুজসহ পিস্তলটি মাটিরাঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে মাটিরাঙ্গা জোনের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বাংলাদেশে ফ্লাইট চলাচল সীমিত করল ওমান এয়ার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ওমানের জাতীয় বিমান সংস্থা ওমান এয়ার,অর্থনৈতিক সক্ষমতা বৃদ্ধির পরিকল্পনার অংশ হিসেবে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাতে ফ্লাইটের সংখ্যা এবং গন্তব্য কমিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে। যার অংশ হিসেবে এখন থেকে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম থেকে উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ রাখবে সংস্থাটি, তবে ঢাকা থেকে নিয়মিত চলাচল করবে।

সোমবার (২৯ জানুয়ারি) ওমান এয়ারের বিবৃতির বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে খালিজ টাইমস। এতে বলা হয়েছে, ইসলামাবাদ, লাহোর, কলম্বো এবং চট্টগ্রামে ফ্লাইট পরিচালনা কার্যক্রম বাতিল করেছে ওমান এয়ার। তবে তাদের নেটওয়ার্কে নতুন করে পাকিস্তানের শিয়ালকোট শহর যুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ওমান এয়ার।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ভারতীয় রুটেও নির্দিষ্ট কিছু গন্তব্যে ফ্লাইটের সংখ্যা হ্রাস করা হবে। তবে বর্তমানে চালু থাকা ভারতীয় দুই গন্তব্য- লক্ষ্ণৌ এবং থিরুবনন্তপুরমে ফ্লাইট বৃদ্ধি করা হবে।

এর আগে, গত বছরের নভেম্বরে ওমানের সালামএয়ার পাঁচটি ভারতীয় প্রধান শহর- হায়দ্রাবাদ, কালিকট, জয়পুর, ত্রিবান্দ্রম এবং লক্ষ্ণৌতে ফ্লাইট পুনরায় চালু করার ঘোষণা দিয়েছিল। ভারতে ফ্লাইট পরিচালনার অধিকার সংক্রান্ত বরাদ্দের সীমাবদ্ধতার কারণে এসব শহরে কার্যক্রম বন্ধ করেছিল সালামএয়ার।

কম দূরত্বের কারণে উপসাগরীয় অঞ্চলের বিভিন্ন দেশ এবং ভারতীয় উপমহাদেশের মধ্যে চালু থাকা বিমানের রুটগুলো বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত। এ ছাড়া আরব উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোতে প্রচুর সংখ্যক দক্ষিণ এশীয় প্রবাসী কর্মরত আছেন।

ওমান এয়ার বলেছে, তিনটি গন্তব্যে মৌসুম ভিত্তিতে পরিচালিত হবে। চাহিদা অনুযায়ী গ্রীষ্মকালে উত্তর-পূর্ব তুরস্কের কৃষ্ণসাগর উপকূলের ট্রাবজোন, শীতকালে সুইজারল্যান্ডের জুরিখ এবং মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে যাত্রী পরিবহন করা হবে।


আরও খবর



গাংনীতে বালাইনাশক ব্যবহারে উদাসিন কৃষকরা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৬জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃমেহেরপুরের গাংনীর কৃষকেরা বছরে তিনটি মৌসুমে সবজি উৎপাদন করেন। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে সবজির একটি বড় অংশ পাঠানো হয় রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন শহরে। কৃষি বিভাগ থেকে বিষমুক্ত সবজি চাষের কথা ও পরামর্শ দেয়া হলেও সেটি মানা হচ্ছে না। উৎপাদন থেকে শুরু করে ভোক্তার খাবার টেবিলে পৌঁছানো পর্যন্ত সহনীয় মাত্রার চেয়ে বেশি সার ও বালাইনাশকসহ ব্যবহার করা হয়। তবে কৃষি অফিস বলছে চাষিদেরকে পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বালাই নাশক ব্যবহারে সহনীয় মাত্রায় নিয়ে আসার।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, গাংনী উপজেলায় চলতি মৌসুমে ৫০০ হেক্টর বাঁধাকপি, ৫৫৫ হেক্টর ফুলকপি, ১১৫ হেক্টর পালং শাক, ১১০ হেক্টর সীম, ১৬০ হেক্টর বেগুনসহ ২ হাজার ১০০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের সবজি রয়েছে। সাধারণত রোগবালাইয়ের ধরন বুঝে শাকসবজিতে বিভিন্ন ধরনের বালাইনাশক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। মোড়কের গায়ে জমি ও ফসল অনুযায়ী পরিমাপ লেখা থাকে। সে অনুযায়ি তা ব্যবহার করতে হবে। নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে বালাইনাশক প্রয়োগের পর খাওয়ার জন্য অন্ততঃ এক সপ্তাহ থেকে ১৫ দিন পর ক্ষেত থেকে সবজি তুলতে হয়।

কৃষি বিভাগের এই পরামর্শ মানছেন না কৃষকরা। তারা বিকেলে ক্ষেতে বালাইনাশক ছিটিয়ে পরদিন সকালেই সবজি বাজারে নিয়ে আসেন। অপেক্ষমাণকাল না মানায় শাকসবজির সঙ্গে সরাসরি বিষ শরীরে প্রবেশ করছে, যা আমাদের জীবনকে ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলছে। শুধু ভোক্তা বা ক্রেতা নয়, উৎপাদন কাজে নিয়জিত কৃষকরাও আক্রান্ত হচ্ছেন নানা ধরনের রোগে। তবুও দেখা দেখি ছাড়াও বিভিন্ন বিষ কোম্পানী ও কীটনাশক বিক্রেতাদের পরামর্শে কৃষকরা বালাইনাশক ব্যবহার করছেন মাত্রাতিরিক্ত।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক এমকে রেজা জানান, এমন কতগুলো বালাইনাশক বা রাসায়নিক পদার্থ আছে যা শাক সবজিতে স্প্রে করার পর ভালো করে ধুলেও সবজি শতভাগ পরিষ্কার ও নিরাপদ হয় না। ওই সবজি খেলে কিডনি, লিভার, স্তন, ফুসফুস, পাকস্থলী, প্রস্টেট, অগ্নাশয় ও ব্লাড ক্যানসারের ঝুঁকিও বেড়ে যায়। খাদ্য উৎপাদনের সঙ্গে যাঁরা যুক্ত, তাঁদের রাসায়নিক ব্যবহারের ক্ষতিকর দিক নিয়ে সচেতন করতে হবে। অর্গানিক উপায়ে খাবার উৎপাদনে গুরুত্ব দিতে হবে। ভোক্তাদেরও সচেতন হতে হবে।

গাংনীর সহড়াবাড়িয়া মাঠে শনিবার সন্ধ্যায় কথা হয় বেগুন চাষি আব্দুর রশিদের সাথে। তিনি দেড় বিঘা জমিতে বেগুন চাষ করেছেন। বেগুন ক্ষেতে বালাই নাশক স্প্রে করছিলেন তিনি। পরদিন সকালে বেগুন তুলে বাজারে আনবেন বলে জানান। দুই ধরনের বালাই নাশক ছিটিয়েছেন বেগুন ক্ষেতে। এগুলো ব্যবহারে তেমন ক্ষতি নেই এবং সকলেই বালাইনাশক ব্যবহার করছেন বলেও জানান তিনি।

কৃষক রফিকুল ইসলাম জানান, তিনি ২৫ কাঠা জমিতে শিম চাষ করেছেন। পাঁচ দিন আগে চার ধরনের বালাইনাশক মিশিয়ে ক্ষেতে দিয়েছেনতার দাবী, বালাইনাশক ক্ষেতে দিলে কোন ক্ষতি হয় না।রাতে শিশির পড়ে তা ধুয়ে যায়। একই কথা জানালেন যুগিরগোফা গ্রামের সবজি চাষি আবু বকর ও আলম। দুজনই কফি চাষ করছেন।

গাংনী উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুর রউফ জানান, বীজ থেকে শুরু করে বীজতলা এবং পরবর্তী অন্য সব পরিচর্যায় বালাইনাশক ব্যবহারের যে ক্ষতিকর দিকগুলো আছে সে বিষয়ে সচেতন করতে কর্মকা- পরিচালনা করা হচ্ছে। বালাইনাশকের প্যাকেটে একটি ওয়েটিং পিরিয়ড (ব্যবহারের সময়সীমা) লেখা থাকে। অনেক ক্ষেত্রে কৃষক তা যথাযথভাবে মানেন না। তাই উৎপাদন থেকে ভোক্তাপর্যায়ে সবাই যদি সচেতন না হলে নিরাপদ সবজি পাওয়া যাবে না। তাই কৃষক ভাইদের পরামর্শ অনুসরণ করে ফসল ফলানোর অনুরোধ জানান তিনি।


আরও খবর