Logo
আজঃ শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

নবীনগর প্রেসক্লাবের ৩৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর 20২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ২৮৩জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মাদ হেদায়েতুল্লাহ্ ,নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে ঐতিহ্যবাহী নবীনগর প্রেসক্লাবের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে।বুধবার সন্ধ্যায় স্থানীয়  গণ-পাঠাগারে  আলোচনাসভা, কেক কাটা ও দোয়া  মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।প্রেসক্লাব সভাপতি শ্যামা প্রসাদ চক্রবর্তী শ্যামল এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুল আলম সোরাফের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর ফরহাদ শামীম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা জাহান, নবীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহাবুব আলম,   ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক বাহারুল ইসলাম মোল্লা, কোষাধ্যক্ষ মোশারফ হোসেন বেলাল, সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আরজু প্রমুখ। বক্তব্য রাখেন, নবীনগর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবু কামাল খন্দকার, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কান্তি কুমার ভট্টাচার্য্য।

সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কল্লোল, সিনিয়র সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলাম ভূইয়া মিনাজ, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ জহিরুল হক (জ ই বুলবুল), মোহাম্মদ হোসেন শান্তি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মোঃ আব্দুল হাদী, মিঠু সূত্রধর পলাশ, এসএ রুবেল প্রমুখ।প্রধান অতিথি নবীনগর প্রেসক্লাবকে ফাদার সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করে তাদের গতিশীল কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে আহ্বান জানান এবং প্রেসক্লাবের জায়গা সম্প্রসারিত করতে সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দেন। এসময় নবীনগর প্রেসক্লাবের সদস‍্যবৃন্দসহ সুশীল সমাজের ব‍্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



মার্টিনেজের জয়সূচক গোলে শিরোপা আর্জেন্টিনার

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:সোমবার (১৫ জুলাই) মায়ামির হার্ড রক স্টেডিয়ামে ২৩ বছর পর ফাইনালে ওঠা কলম্বিয়াকে ১-০ গোলে হারের তিক্ত স্বাদ দিলো আলবিসেলেস্তেরা। জয়সূচক একমাত্র গোলটি করেন লাউতারো মার্টিনেজ।

এর আগে, নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলায় কোনো গোল আসেনি। এতে অতিরিক্ত সময়ে গড়ায় কোপা আমেরিকার ৪৮তম আসরের ফাইনাল।

বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় শুরুর কথা থাকলেও কলম্বিয়ান দর্শক-সমর্থকদের সঙ্গে নিরাপত্তাকর্মীদের অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির কারণে প্রায় এক ঘণ্টা ১৫ মিনিট পর মাঠে গড়ায় ফাইনাল।

এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই আর্জেন্টিনাকে চাপে রাখে কলম্বিয়া। বলের দখল, লক্ষ্যে শট, কর্নার-সবদিক দিয়েই আধিপত্য বজায় রেখেছিল রদ্রিগেজরা।

তবে ম্যাচের প্রথম মিনিটে দুর্দান্ত এক সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা। মন্টিয়েলের ক্রস থেকে পা ছোঁয়ালেও কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পাননি আলভারেজ।

ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে প্রথমবার আক্রমণে উঠে কলম্বিয়ানরা। তবে লুইস ডিয়াজের মাটি কামড়ানো শট ঠেকিয়ে দেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। পরের মিনিটেই বারের পাশ দিয়ে চলে যায় রদ্রিগেজের বাড়নো বলে করডোভা শট।

এরপর ম্যাচের ১৩তম মিনিটে ফের আক্রমণে যায় কলম্বিয়া। রদ্রিগেজের বাড়ানো বলে কুয়েস্টার হেড সহজেই মুঠোবন্দি করেন আর্জেন্টাইন কিপার।

ম্যাচের ৩৩তম মিনিটে দারুণ এক শট নিয়েছিলেন লারমা। তবে আর্জেন্টাইন বাজপাখির হাত ছুঁয়ে মাঠের বাইরে চলে যায় বল। ম্যাচের বাকি সময়ে আর তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে না পারায় শেষমেষ গোলশূন্য বিরতি নিয়েই মাঠ ছাড়ে দল দুটি।

বিরতি থেকে ফিরেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ চালায় দল দুটি। ম্যাচের ৪৮তম মিনিটে দারুণ এক সুযোগ পেয়েছিলেন ম্যাক অ্যালিস্টার। তবে তাকে হতাশ করেন কলম্বিয়ার রক্ষণভাগ।

ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে ডি মারিয়াও সুযোগ পেয়েছিলেন। তবে তার দুর্দান্ত শট ঠেকিয়ে দেন কামিলো ভার্গাস।

৮ মিনিট পরই দুঃখে ভাসে পুরো হার্ড রক স্টেডিয়াম। চোটে পড়ে ছাড়েন লিওনেল মেসি। এরপর সাইডবেঞ্চে বসেইকান্নায় ভেঙে পড়েন বিশ্বকাপজয়ী এই অধিনায়ক।

২ম্যাচের ৭৫তম মিনিটে জালে বল জড়িয়েছিল আর্জেন্টিনা। জালের নাগাল পেয়েছিলেন মেসির বদলি নামা গঞ্জালেস। তবে অফসাইডের ফাঁদে পড়ে সেটি বাতিল হয়ে যায়।

এরপর ম্যাচের ৮৮তম মিনিটে আরও একটি বড় সুযোগ হাতছাড়া করে আর্জেন্টিনা। ডি মারিয়ার ক্রসে সামনে বাড়িয়েছিলেন গঞ্জালেস। তবে ঠিকঠাক টাইমিংয়ে সুযোগ লুফে নিতে পারেননি আলভারেজ। এতে নির্ধারিত সময়ে গোলশূন্য থাকে ম্যাচ। অতিরিক্ত সময়ে গড়ায় ম্যাচ।


আরও খবর



সরকারি ব্যয়ে কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ ও গাড়ি কেনা বন্ধ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১৩১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সরকারি কর্মকর্তাদের বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে বিদেশ ভ্রমণ ও গাড়ি কেনাসহ আরও কিছু ক্ষেত্রে নতুন দিক নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। ব্যয় সংকোচনে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩ জুলাই) এ বিষয়ে একটি পরিপত্র জারি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, সরকারের নিজস্ব অর্থে সব ধরনের বৈদেশিক ভ্রমণ, ওয়ার্কশপ ও সেমিনারে অংশগ্রহণ বন্ধ থাকবে। তবে এ ধরনের ভ্রমণ অত্যাবশ্যকীয় হলে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে কিছু ক্ষেত্রে বিদেশে ভ্রমণ করা যাবে।

যেসব ক্ষেত্রে বিদেশভ্রমণ করা যাবে সেগুলো হলো- পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটের আওতায় সরকারি অর্থায়নে বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা, বিশ্ববিদ্যালয় ও দেশের দেওয়া স্কলারশিপ বা ফেলোশিপের আওতায় বৈদেশিক অর্থায়নে মাস্টার্স ও পিএইচডি কোর্সে অংশ নেওয়া।

এ ছাড়া বিদেশি সরকার বা প্রতিষ্ঠান কিংবা উন্নয়ন সহযোগীর আমন্ত্রণে এবং সম্পূর্ণ অর্থায়নে আয়োজিত বৈদেশিক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করা যাবে। সেই সঙ্গে প্রিশিপমেন্ট ইন্সপেকশন (পিএসআই) বা ফ্যাক্টরি অ্যাকসেপট্যান্স টেস্টের (এফএটি) আওতায় বিদেশভ্রমণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পাবলিক প্রকিউরমেন্ট অথরিটির ২ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখে জারি করা পরিপত্র কঠোরভাবে অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। একান্ত অপরিহার্য হলে পিএসআই বা এফএটির আওতায় বিদেশভ্রমণের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পূর্বানুমোদন নিতে হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরিপত্রে কৃচ্ছ্রসাধনে আরও কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। চলতি ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে পরিচালন বাজেটের আওতায় বিভিন্ন অর্থনৈতিক কোড থেকে কত অর্থ ব্যয় করা যাবে, তার দিকনির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে পরিপত্রে।

বলা হয়েছে, সব ধরনের থোক বরাদ্দ থেকে ব্যয় বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া বিদ্যুৎ, পেট্রল, অয়েল ও লুব্রিকেন্ট এবং গ্যাস ও জ্বালানি খাতে বরাদ্দকৃত অর্থের সর্বোচ্চ ৮০ শতাংশ ব্যয় করা যাবে।

পরিচালন বাজেটের আওতায় শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষি মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট স্থাপনা ছাড়া নতুন আবাসিক, অনাবাসিক বা অন্যান্য ভবন স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ থাকবে। চলমান নির্মাণকাজ ন্যুনতম ৭০ শতাংশ সম্পন্ন হয়ে থাকলে অর্থবিভাগের অনুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে। পরিপত্রে বলা হয়, সব ধরনের যানবাহন ক্রয় (মোটরযান, জলযান, আকাশযান) খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয় বন্ধ থাকবে। তবে ১০ বছরের অধিক পুরোনো টিওঅ্যান্ডইভুক্ত যানবাহন প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে অর্থবিভাগের অনুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে। ভূমি অধিগ্রহণ খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয় বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

পাশাপাশি চলতি ২০২৪-২৫ অর্থবছরের উন্নয়ন বাজেটে যেভাবে ব্যয় করা যাবে, পরিপত্রে সে বিষয়েও দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ভূমি অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে সব আনুষ্ঠানিকতা অনুসরণ করে অর্থ বিভাগের পূর্বানুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে। এ ছাড়া পরিকল্পনা কমিশনের অনুকূলে ‘বিশেষ প্রয়োজনে উন্নয়ন সহায়তা’ খাতে ‘জিওবি বাবদ’ সংরক্ষিত এবং মন্ত্রণালয় বা বিভাগের অনুকূলে ‘থোক বরাদ্দ’ হিসেবে সংরক্ষিত জিওবি’র সম্পূর্ণ অংশ অর্থ বিভাগের পূর্বানুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে।

পরিপত্রে আরও বলা হয়েছে, সরকারি ব্যয়ে কৃচ্ছসাধনে ২০২৪-২৫ অর্থবছরে সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ বা অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এবং আওতাধীন অধিদপ্তর, পরিদপ্তর, দপ্তর, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, পাবলিক সেক্টর করপোরেশন ও রাষ্ট্রমালিকানাধীন কোম্পানির পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটে বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয়ে সরকার এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


আরও খবর



সিদ্ধিরগঞ্জে ব্যবসায়ীর লক্ষাধিক টাকা ও মটোর বাইক ছিনতাই

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১০৭জন দেখেছেন

Image
ইউসুফ আলী প্রধান, নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতাঃদেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ব্যবসায়ীর লক্ষাধিক টাকা সহ মটোর বাইক ও মোবাইল ফোন ছিনতাই করার ঘটনা ঘটেছে।নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মনোয়ারা জুট মিল সংলগ্ন এলাকায় ২ জুলাই রাত আনুমানিক ৯ টা ৩০ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী আকবর হোসাইন নারায়ণগঞ্জের চিটাগাং রোড থেকে সিদ্ধিরগঞ্জ বাজারে তার এক আত্মীয়ের বাসায় যাওয়ার পথে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন তিনি। ব্যবসায়ী জানান তার তিন লাখ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের সুজুকি ইন্ট্রুডার মটোর বাইক নিয়ে ঘটনাস্থল অতিক্রম করার সময় অজ্ঞাত কিছু যুবক এসে তাকে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুটি হেলমেট সহ মটোর বাইক ও মোবাইল ফোন রেখে দেয়। একই সাথে ১৪ হাজার টাকা মূল্যের হাত ঘড়ি, ব্যাংকের কার্ড, বাইকের কাগজ পত্রসহ ব্যবসার কাজে সঙ্গে থাকা নগদ ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা নিয়ে যায় । বিষয়টি সম্পর্কে তিনি ৩ জুলাই বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। থানা সূত্রে জানা যায়, ঘটনার পর ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী তাৎক্ষণিক থানায় উপস্থিত হলে থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে তাৎক্ষণিক অভিযুক্তদের পাওয়া যায় নাই। বিষয়টি সম্পর্কে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, অভিযোগ পর্যালোচনা করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও খবর



বিশ্বমানের এল. জি. টিভি তৈরি করবে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ | ১৬২জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:এবার দেশে টেলিভিশন শিল্পে যোগ হলো আর একটি নতুন অধ্যায়। টেলিভিশন উৎপাদনে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড এর সাথে ফ্যাক্টরি উদ্বোধন করলো এলজি ইলেক্ট্রনিক্স। এখন থেকে এলজি ব্রান্ডের সকল লেটেস্ট মডেলের স্মার্ট টেলিভিশন উৎপাদন হবে গাজীপুরে সাত লক্ষ স্কয়ার ফিট জায়গা জুড়ে গঠিত র‍্যানকন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কে।

টেলিভিশন উৎপাদনে এরই মধ্যে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড তাদের সক্ষমতা প্রমাণ করেছে।প্রতিষ্ঠানটির রয়েছে অত্যাধুনিক টিভি ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্ট। দেশে স্মার্ট টেলিভিশনের বাজারও বড় হচ্ছে। গত ১১ বছর ধরে ওলেড টেলিভিশনের ক্ষেত্রে এলজি সারা বিশ্বে শীর্ষস্থানে রয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়াভিত্তিক এলজি কোম্পানির বিভিন্ন আকারের এবং মডেলের টেলিভশন বাজারজাত করবে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স। জানা গিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি দেশের বাজারে বছরে প্রায় ১ লক্ষ্য গ্রাহক চাহিদা মেটাতে সক্ষ্যম হবে।

এই অনুষ্ঠানে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির গ্রুপ এমডি- রোমো রউফ চৌধুরী, এমডি- ফারহানা করিম, বিভাগীয় পরিচালক- ইমরান জামান এবং নির্বাহী পরিচালক কাজী আশিক উর রহমান। এলজি ইলেকট্রনিক্সের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন আঞ্চলিক সিইও- জা সেউং কিম, সিঙ্গাপুর এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি)- সুংহো চুন এবং বাংলাদেশ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি)- পিটার কো।

অনুষ্ঠানে র‍্যানকন ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের গ্রুপ ম্যানেজিং ডিরেক্টর রোমো রউফ চৌধুরী বলেন, “আমরা সাশ্রয়ী মূল্যে এবং দেশব্যাপী সেবার মাধ্যমে এলজি ব্র্যান্ডটিকে বাংলাদেশের জনগণের মাঝে পৌছে দিতে চাই” ।

এলজি ইলেকট্রনিক্স এর আঞ্চলিক সিইও- জা সেউং কিম বলেন, “বাংলাদেশ মার্কেট আমাদের জন্য অনেক গুরুতপূর্ন এবং প্রতিটি ঘরে ঘরে বিশ্বসেরা প্রযুক্তি পৌঁছে দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য।


আরও খবর



মহাদেবপুর সড়কে আরসিসি ঢালাই কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা,নওগাঁ প্রতিনিধি:নওগাঁর মহাদেবপুরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের সড়কের প্রশস্তকরণ কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা সদরের বক চত্বর এলাকায় পুর্বের পিচঢালা পাকা সড়কের ওপর আর আরসিসি ঢালায়ের সড়কের নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। গত কয়েকদিন আগে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওই এলাকায় পাকা সড়কের ওপর আর আরসিসি ঢালাই সড়ক নির্মাণ কাজ শুরু করে দেন।

সারাদেশের মতো সড়ক ও জনপথ বিভাগ এ উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক পূণ:নির্মাণসহ প্রশস্তকরণ এবং আর আরসিসি সড়কের নির্মাণ কাজ চলমান রেখেছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ নওগাঁ জেলা সদর থেকে আত্রাই, বদলগাছী ও মহাদেবপুর এবং মান্দা থেকে নিয়ামতপুর উপজেলার ছয়টি সড়কে মোট ১৪টি প্যাকেজে ১ হাজার ১শ’ ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। মহাদেবপুর অংশে ব্যয় বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১শ’ ২০ কোটি টাকা। এর মধ্যে রয়েছে নওগাঁ-মহাদেবপুর-পত্নীতলা সড়কের চৌমাসিয়া নওহাটা মোড় থেকে আখেড়া পর্যন্ত, আখেড়া থেকে কালুশহর মোড় পর্যন্ত এবং কালুশহর মোড় থেকে পত্নীতলা বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত প্রতি প্যাকেজে ৯ থেকে ১০ কিলোমিটার। এছাড়া মহাদেবপুর উপজেলা সদরের মাছের মোড় থেকে ছাতুনতলী নতুনহাট পর্যন্ত ০ থেকে ৯ কিলোমিটার।

ইতিমধ্যে এসব প্রকল্পের অধিকাংশ কাজ শেষ করা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বশেষ প্যাকেজ মাছের মোড় থেকে ছাতুনতলী নতুন হাট পর্যন্ত সড়ক হবে ১৮ ফুট চওড়া এবং বাজার এলাকায় হবে ২৪ ফুট আরসিসি ঢালাই। এসব সড়কে প্রয়োজনীয় স্থানে নতুন ব্রিজ ও কালভার্টও নির্মাণ করা হবে। এ প্যাকেজের বিভিন্ন অংশে পুর্বের পাকা সড়ক উঠিয়ে সেখানে মাটি ভরাট, বালি খোয়ার সোলিং দিয়ে কম্প্যাক করার পরে তার উপর আরসিসি ঢালাই দেওয়া হলেও উপজেলা শহরের বক চত্বর এলাকায় পুর্বের পাকা সড়কের ওপর আরসিসি ঢালাই দেওয়া শুরু করেছে। বক চত্বর এলাকায় পুর্বের পাকা সড়ক না উঠিয়ে তার উপর আরসিসি ঢালাই দেওয়া নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এদিকে উপজেলা শহরের এ স্থানে পানি নিস্কাশনের তেমন কোন ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই সড়কের উপর পানি জমা হয়ে থাকে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় মাছের মোড় থেকে বকের মোড় হয়ে নতুন ব্রিজ পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দকের সৃষ্টি হয়েছে।স্থানীয় সচেতন মহলের অভিযোগ, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ পানি নিষ্কাশনের বিষয়টি আমলে না নিয়ে নানা অনিয়মের মধ্য দিয়ে পুরোনো পাকা সড়কের ওপর আরসিসি ঢালাই কাজে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে সহযোগিতা করছেন। এসব নিয়ে সচেতন মহলে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সিডিউল মেনেই এ সড়কের সিসি ঢালাই কাজ করা হচ্ছে দাবি করে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নওগাঁর পত্নীতলা উপ-কার্যালয়ের উপ-সহকারি প্রকৌশলী নুর আহমেদ বলেন, ওই এলাকার সড়কের থিকনেস ভালো থাকাসহ পানি নিস্কাশনের চেম্বার থাকায় পুরোনো পাকা সড়ক উঠানোর প্রয়োজন হচ্ছেনা। তবে একই প্যাকেজের সিডিউলে দুই ধরনের কাজ হতে পারে কি এমন প্রশ্নে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর