Logo
আজঃ Monday ২৯ November ২০২১
শিরোনাম
নৌকা পরাজিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান হলো তৃতীয় লিঙ্গের ঋতু! তৃতীয় ধাপে ইউনিয়ন নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ, চলছে গণনা কুমিল্লায় নৌকা পেয়েও সরে দাড়ালেন বাহালুল, প্রাথমিক সদস্য না হয়েও মনোনীত নূরুল! মাতুয়াইলে সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্ধোধন করলেন সংসদ সদস্য কাজী মনু পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা গাজীপুরে ৩০ সেকেন্ডেই মা-মেয়ের জীবন শেষ করল দুই খুনি হয়নি হাফ পাসের সিদ্ধান্ত,টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব আলেম-ওলামাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা-ভক্তি রয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রংপুরের তারাগঞ্জে ট্রাকচাপায় তিন নারী শ্রমিক নিহত কুমিল্লার তিতাস ও মেঘনা উপজেলায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী যারা !
প্রায় ৪ হাজার বিঘা ৩ ফসলি জমি বছরের ৮/৯ মাস জলাবদ্ধ

নাটোর বড়াইগ্রামে দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:Sunday ১৭ October ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ২৩২জন দেখেছেন
Image


 

নাটোর প্রতিনিধি :

 

নাটোরের বড়াইগ্রামে দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।রবিবার সকালে উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের ভেদাগাড়ি বিলের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে চামটা,বর্নি এবং জোনাইল গ্রামের প্রায় ৪ শতাধিক জনসাধারণ অংশগ্রহণ করেন।

 

এ সময় অত্র এলাকার প্রবীণ ব্যক্তিত্ব মোঃ রওশন আলীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন - জোনাইল ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মো: ইমদাদুল হক, মো: তরিকুল ইসলাম, ফ্রান্সিস রোজারিও, মো: জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

 

 

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন- প্রায় ৪ হাজার বিঘা ৩ ফসলি জমি বছরের ৮/৯ মাস জলাবদ্ধ হয়ে থাকায় কোন ফসল ফলানো সম্ভব হয় না, ফলে এই এলাকার কৃষিভিত্তিক অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ভেঙে পড়ায় সাধারণ মানুষ দারিদ্রতার দিকে ধাবিত হচ্ছে। চামটা-দিয়ারপাড়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা, মসজিদ, কবরস্থান সহ প্রায় ৪০ শতাংশ বাড়িতে দির্ঘ সময় জলাবদ্ধতা থাকে, এতে বয়োবৃদ্ধ ও শিশুরা সংক্রমিত হয় পানিবাহিত ও চর্ম রোগে। ২৫/৩০ বছরের সমস্যার স্থায়ীভাবে সমাধান চেয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন এলাকাবাসী।

 

 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মো: খলিলুর রহমান, মোঃ নজিমুল্লা, জুব্বার ফকির, সুনিল গোমেজসহ অত্র এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল

পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১০৪জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

মাছ ধরা বা মাছ শিকার করা বিলাঞ্চলের মানুষদের আজন্ম শখ। বিশেষ করে চলন বিল এলাকায় বর্ষা মৌসুমে নিম্নাঞ্চলের খাস বা সরকারি জলাভূমিতে পানি অল্প থাকাকালে মাছ শিকারিরা দল বদ্ধ হয়ে পলো, ছোট জাল নিয়ে একটি নিদিষ্ট দিনে মাছ শিকার করে থাকে। এলাকায় এটি পলো উৎসব বা বাউত উৎসব নামের পরিচিত।

 

শনিবার পাবনার ভাঙ্গুড়ার উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপির বিল রুহুলে এমনই এক শৌখিন মাছ শিকারিদের মিলন মেলা হয়েছে। এতে সবার কাছে মাছ ধরা পড়ুক বা না পড়ুক এক সঙ্গে বছরের এই দিনে মাছ ধরতে আসার মজাই যেন অন্য রকম।

 

সরেজমিন শনিবার উপজেলার বিল রুহুল এলাকা ঘুরে দেখা যায় , পাবনাসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে শৌখিন মাছ শিকারিরা ভোর বেলার কুয়াশা ভেদ করেই বিভিন্ন যানবাহন বাস, নছিমন, আটো ভ্যান, ভটভটি যোগে এই বিল পাড়ে আসতে থাকে। তাদের হাতে পলো, জাল ঠেলাজাল, ধর্মখরাসহ মাছ ধরার বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বিলের পাড়ে এসে হাজির হয়ে এক সঙ্গে মাছ ধরতে পানিতে নামে। তারা মাছ ধরার সময় বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। কেউ মাছ পেলে সবাই মিলে তাকে আরো উৎসাহ দিতে থাকে।

 

এদিনে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে বিলপাড়ে বিস্কুট রুটি ও চায়ের দোকান নিয়েও বসেছে। মাৎস শিকারিদের কেউ কেউ পেয়েছে সোল, বোয়াল, রুই, গজার । আবার অনেকেই মাছ পায় নি। তবে প্রায় সবার মুখেই ছিল মাছ ধরতে আসতে পারায় আনন্দের ছোয়া।

শিশু, কিশোর, যুবক, বৃদ্ধসহ সব ধরণের হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ।

জানা গেছে, ভাঙ্গুড়া উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপি ও পার্শ্ববর্তী চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউপির কিছু অংশ নিয়ে কয়েক হাজার একর জমি নিয়ে রয়েছে রুহুল বিল। বিশেষত বর্ষার পানি চলে যাওয়ার পর কয়েক শ’ একর জমিতে বিভিন্ন গভীরতায় পানি থাকে। সেখানে বর্ষার পানিতে আটকে থাকা বোয়াল, সোল, গজার, পুঁটি, সিং সহ দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন মাছ।

 

বছরের একটি নিদিষ্ট দিনে একে অন্যেরে সঙ্গে মোবাইল ফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ করে নাটোর, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল থেকে বাস, ভটভটি, নছিমন যোগে ভোরে এই বিলে মাছ ধরার জন্য এসে হাজির হয়। এদিনে তাদের হাতে ধরা পড়ে নানা ধরণের মাছ। বেলা বাড়ার  সঙ্গে সঙ্গে মাছ শিকারির সংখ্যাও কমতে থাকে।

মাছ ধরতে আসা নাটোরের পঞ্চাশোর্ধ আলম হোসেন বলেন, এই দিনটিতে রহুল বিলে মাছ ধরার জন্য প্রতি বছর অপেক্ষা করে থাকি। লোক মুখে খবর পেয়ে মাছ ধরতে এসেছি।

টাঙ্গাইলের বাছের উদ্দীন বলেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মাছ ধরার খবর পেয়ে তারা একাধিক বাস রিজার্ভ করে পলো ও মাছ ধরার উপকরণ নিয়ে কয়েকশ শৌখিন মাৎস শিকারি মাছ ধরতে এসেছেন।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



ত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় দুই সহোদর নিহত

ময়মনসিংহের ত্রিশালে সড়ক দূর্ঘটনায় দুই ভাই নিহত

প্রকাশিত:Tuesday ০২ November 2০২1 | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৯৯জন দেখেছেন
Image



 

মতিউল আলম, ময়মনসিংহ : 


ময়মনসিংহের ত্রিশালে এক সড়ক দূর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই সহোদর ভাই নিহত হয়েছেন। সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কাজীর শিমলায় এই মর্মান্তিক দূর্ঘটনা ঘটে।

ত্রিশাল থানার অফিসার ইনচার্জ মো মাইন উদ্দিন জানান, সকালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ত্রিশাল উপজেলার কাজীর শিমলা নামক স্থানে মোটরসাইকেল আরোহীকে বাংলাদেশ পার্সেল এন্ড কুরিয়ার সার্ভিসের কাভার্ড ভ্যান পেছন থেকে ধাক্কা দিলে মোটরসাইকেল আরোহী ফিরোজ মোর্শেদ ও তৌহিদুল ইসলাম ঘটনাস্থইে নিহত হয়।

নিহতরা জামালপুর সদরের নান্দিনা খড়খড়িয়া গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে। গাজীপুরের নয়াপুর থেকে গ্রামের বাড়ী যাচ্ছিল। ফিরোজ মোর্শেদ গাজীপুরে ডিবিএল সিরামিক্স কারখানায় চাকুরী করতেন। তার ছোট ভাই তৌহিদুল চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও বিসিএস পরীক্ষার্থী ছিলেন।

 

নিহতদের লাশ উদ্ধার এবং পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। কাভার্ড ভ্যান চালককে আটক করা হয়েছে।

-খবর প্রতিদিন /সি.বা

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দূর্ঘটনা

আরও খবর



জেল হত্যা দিবস

আজ কলঙ্কজনক জেল হত্যা দিবস

প্রকাশিত:Wednesday ০৩ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৫২জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


আজ ৩ নভেম্বর; জেল হত্যা দিবস। বাঙালি জাতির জীবনে এক কলঙ্কময় দিন। কলঙ্কজনক কালো ছায়ার দিন। পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর দ্বিতীয় কলঙ্কজনক অধ্যায় এই দিনটি।

 

১৫ আগস্টের নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর তিন মাসেরও কম সময়ের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী ও চার জাতীয় নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, এএইচএম কামারুজ্জামান এবং ক্যাপ্টেন মনসুর আলীকে এই দিনে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। কারাগারের মতো কঠোর নিরাপত্তাবেষ্টিত জায়গায় এ ধরনের নারকীয় হত্যাকাণ্ড পৃথিবীর ইতিহাসে নজিরবিহীন।

 

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালো রাত্রিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যার পর খুনি মোশতাক-জিয়াচক্র কারান্তরালে এই জাতীয় চার নেতাকে বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে হত্যা করে। এই জাতীয় চার নেতাকে হত্যার উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় ও চেতনাকে নির্মূল করা। কিন্তু বাংলাদেশের মুক্তিকামী মানুষ সুদীর্ঘ লড়াই-সংগ্রাম আর আত্মত্যাগের বিনিময়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর খুনিচক্র এবং তাদের হত্যার রাজনীতিকে পরাজিত করেছে।

 

জাতি আজ মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বীর সেনানী ও চার জাতীয় নেতাকে যথাযথ শ্রদ্ধা প্রদর্শনের মাধ্যমে দেশের ইতিহাসের অন্যতম বর্বরোচিত এই কালো অধ্যায়টি স্মরণ করবে। আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠনের উদ্যোগে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সারাদেশে পালিত হবে শোকাবহ এই দিনটি।

 

 খবর প্রতিদিন /সি.বা 

নিউজ ট্যাগ: জেল হত্যা দিবস

আরও খবর



লোহার বাঁধেও কাজ হবে না : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

বালু উত্তোলন বন্ধ না হলে, লোহার বাঁধেও কাজ হবে না : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:Monday ০১ November ২০২১ | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১২৯জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


যতই আমরা প্রকল্প করি না কেন, যদি বালু উত্তোলন বন্ধ করতে না পারি তাহলে লোহার বাঁধেও কাজ হবে না বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক । সোমবার দুপুরে জামালপুরের ইসলামপুরে কুলকান্দি হার্ডপয়েন্টে বাঁধের ভাঙন অংশ পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ফরিদুল হক খান দুলাল, মহিলা এমপি হোসনে আরা, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রোকন উদ-দৌলা,পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাসচিব ফজলুর রশিদসহ আরো অনেকে।

 

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাজে একটু ধৈর্য ধরতে হয়, এক বছর স্ট্যাডি করতে হয়, কারণ শুষ্ক মৌসুম ও মৌসুম দুটিই দেখতে হয় টেকসই বিষয়ে।

 

৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে যমুনার ভাঙন রোধে ইসলামপুরের কুলকান্দি হার্ডপয়েন্ট থেকে গুঠাইল হার্ডপয়েন্টে আড়াই হাজার মিটার বাঁধ নির্মাণ করা হয়। বাঁধটি ২০২০ সালের জুন মাসে কাজ শেষ হয়। গত বৃহস্পতিবার সকালে ৯০ মিটার বাঁধ ধসে যায়।

 

-খবর প্রতিদিন /সি.বা  


আরও খবর



সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রে করে হামলা

জগন্নাথপুরে হামলা-সংঘর্ষ-গুলি, আটক ১৪

প্রকাশিত:Tuesday ০২ November 2০২1 | হালনাগাদ:Monday ২৯ November ২০২১ | ১৮৩জন দেখেছেন
Image


 

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

 

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রে করে হামলা-সংর্ঘষের ঘটনায় গুলিবদ্ধসহ ছয় জন আহত হয়েছেন। এরমধ্যে দু'জনকে সিলেট ওসমানিতে ও অপরজনরা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

 

গত সোমবার রাতে জগন্নাথপুর পৌরসভার ইসহাকপুর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে। এঘটনায় পুলিশ ১৪জনকে আটক গতকাল মঙ্গলবার আদালতে পাঠিয়েছে।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ইসহাকপুরের যুক্তরাজ্য প্রবাসী উস্তার গণি ও একই এলাকার যুক্তরাজ্য প্রবাসী সুরুজ আলী পক্ষের লোকজনের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রে করে দীর্ঘদিন করে পূর্ববিরোধ চলছিল। যার জের করে সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে দু'পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

 

এতে গুলিবিদ্ধসহ ছয়জন আহত হন। এরমধ্যে নোমান আহমদ (২৪)  ও আব্দুস সালাম (৪৫)কে সিলেট ওসমানি হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আহতদের স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

 

এদিকে সংঘর্ষচলাকালে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুঁড়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উভয়পক্ষের ১৪জনকে আটক করেছে। এসময় সংঘর্ষে ব্যবহিত বিপুল পরিমান দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

 

-খবর প্রতিদিন /সি.বা

 

নিউজ ট্যাগ: হামলা আধিপত্য

আরও খবর