Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নাসিরনগরে স্কুল ছাত্রীকে ইভটিজিংযের অভিযোগ তুলে নিতে বাদিকে প্রাণনাশের হুমকি

প্রকাশিত:Wednesday ২২ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৬৮জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নানঃ

ব্রাক্ষণবাড়িযা জেলার নাসিরসগরে এক স্কুল ছাত্রীর সাথে ইভটিজিংয়ের ঘটনা ঘটেছে।ওই ঘটনায় ছাত্রীর ভাই রফিকুল ইসলাম বাদি হয়ে ইভটিজারের বিরোদ্বে নাসিরনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে প্রভাবশালী ইভটিজারের লোকজন অভিযোগ উঠিয়ে নিতে বাদি ও তার লোকজনকে হুমকি ও চাপ প্রয়োগ করছে বলে বাদি রফিকুল ইসলাম এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছে।


ঘটনাটি ঘটেছে ১০ ডিসেম্ভর ২০২১ দুপুর অনুমান ১ ঘটিকার সময় জেলার নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের তুল্লাপাড়া গ্রামে বাদির বাড়ির দক্ষিনে একটু দুরে।বাদির লিখিত অভিযোগে জানা যায় বাদির বোন নবম শ্রেণী পড়ুয়া একজন ছাত্রী।


ঘটনার সময়ে ওই ছাত্রী তার বান্ধবীর বাড়ি থেকে গাইড বই আনতে যায়। ওই ছাত্রীকে তার প্রতিবেশী জেনু পাঠানের বখাটে যুবক তোফাজ্জল পাঠান( ১৮) রাস্তা ঘাটে চলার পথে প্রায়ই উত্যক্ত করে প্রেম নিবেদন করতো।ওই ছাত্রী তাতে সাড়া না দিলে তার কাছে মোবাইল নাম্ভার চাইতো।


ওই ছাত্রী তার কোন মোবাইল নাম্ভার নেই ও সে মোবাইল ব্যবহার করেনা জানালে ঘটনার সময়ে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা বখাটে তোফাজ্জল তার ভাই মোয়াজ্জিম পাঠানকে নিয়ে ওই ছাত্রীর গতিরোধ করে লাঠি দিযে ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে টেনে হ্যাচড়ে কাপড় চোপড় ছিঁড়ে শ্রীলতাহানি করে।পরে ওই ছাত্রীকে নাসিরনগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এনে চিকিৎসা শেষ চিকিৎসা সনদ সংগ্রহ করে তার ভাই বাদি হয়ে নাসিরনগর থানা লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাসিরনগর থানার এস আই শ্রীবাস দাস জানা ইভটিিংয়ের তেমন কোন আলামত পাওয়া যায়নি।বিষয়টি উভয় পক্ষকে নিয়ে সমঝোতার চেষ্টা করা হচ্ছে।


আরও খবর



একই রুমের ফেনে ঝুলছিল নারী-পুরুষের মরদেহ

একই রুমের ফেনে ঝুলছিল নারী-পুরুষের মরদেহ

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১০৮জন দেখেছেন
Image


গাজীপুর প্রতিনিধিঃ

গাজীপুরের গাছা এলাকার একটি বাড়ি থেকে গলায় ফাঁস লাগানো দুই নারী-পুরুষের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে জাঝর উত্তর পাড়া এলাকার শাহীন মিয়ার বাড়ির দ্বিতীয় তলার রুম থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।


নিহতরা হলেন, গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ থানার বেতয়া গ্রামের মিজানুর রহমানের মেয়ে লিমা রহমান (২৫) ও সিলেট সদর এলাকার বোরাইয়া এলাকার রঞ্জিত চৌধুরীর ছেলে রজত কান্তি চৌধুরী । লিমা মোটেক সোয়েটার কারখানার মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে চাকুরি করতেন এবং রজত গাজীপুর সদর এলাকার সিগমা ডায়েগনষ্টিক সেন্টারের পরিচালক। 


বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের গাছা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নন্দলাল চৌধুরী।


তিনি জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে কর্মস্থল মোটেক সোয়েটার কারখানা থেকে বাসায় ফিরে লিমা রহমান। শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় শনিবার কর্মস্থলে যাওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু শনিবার কর্মস্থলে না যাওয়ায় কারখানার মালিক পক্ষ দুপুরের খাবারের বিরতিতে লিমার বাসায় লোক পাঠায়।

বাসায় ডাকাডাকি করে কোন সারাশব্দ না পেয়ে দরজা ধাক্কা দিয়ে দেখতে পান লিমা রহমান ও রজত কান্তি চৌধুরী গলায় ওরনা পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের হুকের সাথে ঝুলে আছে। পরে গাছা থানা পুলিশকে খবর দিলে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়।


গাছা জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার আহসানুল হক জানান, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে পূর্বে সিগমা ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট পদে চাকুরী করতেন লিমা। চাকুরীর সুবাদে প্রতিষ্ঠানের পরিচালক রজত কান্তি চৌধুরীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় তার।


মাস দুয়েক আগে লিমা চাকুরী ছেড়ে সোয়েটার কারখানায় চাকুরী নেন। লিমা ওই বাড়িতে একাই ভাড়া থাকতেন। পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে রজত ওই বাড়িতে নিয়মিত যাতায়ত করতেন। তবে তাদের মধ্যে কি সম্পর্ক এবং কেন আত্মহত্যা করেছে সেটি জানা যায়নি।



আরও খবর



রাজধানীর গ্রিন রোডের আরএস টাওয়ারে আগুন

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১০৫জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর গ্রিন রোডের আরএস টাওয়ারে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই ভবনে আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। 

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাশেদ বিন খালিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘সকাল সাড়ে ১০টায় গ্রিন রোডের আরএস টাওয়ারে আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস। খবর পেয়ে দ্রুতই ঘটনাস্থলে গিয়ে চারটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি। এছাড়া


আরও খবর



জাতীয় সংসদে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:Sunday ১৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ৮৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশন বসছে আজ রবিবার। মহামারীকালের অন্য অধিবেশনগুলোর মতো এবারও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে সংসদের বৈঠক। করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণরোধে বাড়তি কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। বিকাল ৪টায় সংসদের বৈঠক শুরু হবে। বছরের প্রথম এই অধিবেশনে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

সংসদ অধিবেশনকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতোই ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কয়েকটি বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। গতকাল শনিবার ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংসদ এলাকায় শনিবার রাত ১২টা থেকে সকল প্রকার অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং যে কোনো প্রকার সমাবেশ, মিছিল, শোভাযাত্রা, বিক্ষোভ প্রদর্শন করা যাবে না।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, অধিবেশন শুরুর দিন কোভিড-১৯ পরীক্ষায় নেগেটিভ সনদ পাওয়া সংসদ সদস্যরা অংশ নেবেন। এরপর থেকে তালিকা অনুযায়ী সাংসদরা যোগ দেবেন। এবার গণমাধ্যমকর্মীদের শুধু প্রথম দিন অধিবেশনের খবর সংগ্রহের জন্য সংসদ ভবনে ঢুকতে দেওয়া হবে। শুক্রবার তাদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা নেওয়া হয়।

আজ সংসদের বৈঠকের শুরুতে শোকপ্রস্তাব উত্থাপন ও সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়নের পর স্পিকার রাষ্ট্রপতিকে ভাষণ দেওয়ার আহ্বান জানাবেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণের পর অধিবেশন মুলতবি করার রেওয়াজ আছে। এর পর বৈঠক আবার বসলে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব আনা হবে। অধিবেশনজুড়ে সেই প্রস্তাবের ওপর আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা।

সরকারি দলের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, এবার অধিবেশনে সংসদ কক্ষে বাড়তি কর্মচারীও রাখা হবে না।

ঠিক যে কয়জন দরকার, সেই অনুযায়ী রাখা হবে। সংসদ সদস্যরা যারাই বৈঠকে যোগ দেবেন তাদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করাতে হবে। অধিবেশন ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত চলতে পারে।

জানা গেছে, এবার কয়েকটি আইন প্রণয়নের কাজ রয়েছে। নতুন চারটি খসড়া আইন সংসদে তোলার জন্য জমা পড়েছে। সেগুলো হলো- বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ ও ডেন্টাল কলেজ বিল, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল, বাণিজ্য সংগঠন বিল এবং পেমেন্টস অ্যান্ড সেটেলমেন্টস বিল। এ ছাড়া আগের সাতটি বিল সংসদীয় কমিটিতে পরীক্ষাধীন রয়েছে।


আরও খবর



প্রতারক লিটনের বিরোদ্ধে রবিউলের ১২ লক্ষ টাকা আত্মসাতের আরো এক মামলা

প্রতারক লিটনের বিরোদ্ধে রবিউলের ১২ লক্ষ টাকা আত্মসাতের আরো এক মামলা

প্রকাশিত:Saturday ২২ January 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১১৫জন দেখেছেন
Image

পর্ব -৩

মোঃ আব্দুল হান্নানঃ৷

ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা সদরের বাসিন্দা মৃত আব্দুল গাফ্ফারের ছেলে Rab এর হাতে গ্রেপ্তার হওয়া প্রতারক মোঃ লিটন (৩৫) এর বিরোদ্ধে ১২ লক্ষ টাকা আত্মসাতের আরো একটি প্রতারনার মামলার সন্ধান পাওয়া গেছে।বাদী গুনিয়াউক ইউনিয়নের চিতনা গ্রামের প্রবাসী মোঃ রবিউল মিয়া।

বাদী ও মামলা সুত্রে জানা গেছে,প্রতারক লিটন ২০১৫ সালের ২৩ আগষ্ট প্রবাসী রবিউলের নিকট নাসিরনগর সদরে ৩ শতাংশ জায়গা ১৫ লক্ষ টাকা বিক্রি করে উপস্থিত স্বাক্ষীদের সামনে ৩ শত টাকা মুল্যের ননজুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে ১২ লক্ষ টাকা গ্রহন করে।বাকী ৩ লক্ষটাকা জমি রেজিষ্টারির দিনে বুঝে নিয়ে রেজিষ্টারী করে দেয়ার কথা হয়।পরবর্তীতে রবিউল জমি রেজিষ্টারী করার কথা বললে দেম দিচ্ছি বলে ঘুড়াইতে থাকে।এক পর্য্যায়ে রবিউলের কাছে জমি বিক্রি করছে না বলে জানিয়ে দেয়।একপয্যার্য়ে লিটন ও তার ছোটভাই সাংবাদিক মনির মিলে রাস্তায় ফেলে রবিউলকে মারপিট করে।এমনকি রবিউলের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে রবিউলকে জেলেও পাঠায়।


অবশেষে নিরুপায় হয়ে রবিউল প্রতারক লিটনের বিরোদ্ধে ব্রাক্ষণবাড়িয়ার বিজ্ঞ আদালতে অর্থ আত্মসাতের মামলা দায়ের করে।বর্তমানে লিটনের বিরোদ্ধে রবিউলের দায়ের করা মামলাটি আদালতে  বিচারাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা              


আরও খবর



নাসিরনগরে পৌষসংক্রান্তির মেলায়,গায়ে ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে মারামারি পুলিশসহ আহত অর্ধশত।

প্রকাশিত:Saturday ১৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ২১৯জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নানঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার কুন্ডা ইউনিয়নের কুন্ডা স্কুল মাঠে প্রসাশনের বাঁধা উপেক্ষা করে পৌষসংক্রান্তির মেলা বসিয়ে দুই পক্ষের মারামারির ঘটনা ঘটেছে। 


ওই ঘটনায় পুলিশসহ অর্ধশতাধিক লোক আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।আহতদের কয়েকজনকে হাসপাতালে বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।


জানাযায়, প্রতিবছর ১৩ জানুয়ারি পৌষসংক্রান্তির দিনে  কুন্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ওই মেলা অনুষ্টিত হয়। এবারের মেলায় স্থানীয় কোনাপাড়ার আজিজুল মিয়া ও পশ্চিমপাড়ার জয়নালের মধ্যে শরীরে ধাক্কা লাগার জেরে উভয় পক্ষের লোকজন মাইকে ঘোষনা দিয়ে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।


সংঘর্ষেরর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে এ  সময় হামলাকারীদের হাতে পুলিশসহ উভয় পক্ষের প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ দুই রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে।আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন,পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত আ,স,ম আতিকুর রহমান,এস আই আরিফুর রহমান সরকার,সারোয়ার আলম,জাকির হোসেন,কনষ্টেবল ফিরোজ হায়দার। মারামারির সময় কুন্ডা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েকটি কক্ষে ভাংচুর চালানো হয় বলেও জানা গেছে।


নাসিরনগর থানা পুলিশ পরিদর্শক আ স ম আতিকুর রহমান বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়েছে।


সরাইল সার্কেলের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান জানায়, মেলায় কোনাপাড়া ও পশ্চিমপাড়ার দুই যুবকের মধ্যে তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে তা দু'পক্ষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে পুলিশ সদস্যদের মধ্যে ৫জন আহত হন। আহতদের মাঝে এস আই আরিফ গুরুতর আহত হয়েছেন। তার মাথায় তিনটি সেলাই দিতে হয়েছে।ওই ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ১২৯ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করা হয়েছে।পুলিশ ৮ জনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা



আরও খবর