Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪
শিরোনাম

নাসিরনগরে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দুর্গে হানার চেষ্টা বিএনপির

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১০২৩জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নান,নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃস্বাধীনতার পর দীর্ঘদিন  ঘুড়ে ফিরে জাতীয় পার্টি আর আওয়ামীলীগের দখলে থাকা নাসিরনগরের আওয়ামীলীগের দূর্গে এবার হানা দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন বি,এন,পি।বর্তমানে নাসিরনগরের বিএনপি আগের চেয়েও এখন বেশ শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছেন।আওয়ামীলীগের অন্তঃকোন্দল,দলীয় ফাঁটলের  সুষ্ট সমাধান না হলে এবার এ আসনটি প্রায় নিশ্চিত চলে যেতে পারে বিএনপির দখলে।আর একবার এ আসটি বিএনপির দখলে নিতে পারলে তা আর পুনঃরোদ্ধার করা অসম্ভব এমন ধারনাই করছে সাধারণ মানুষ। আসছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সিইসির ঘোষনা অনুযায়ী ২০২৪ সালের জানুয়ারীর প্রথম সপ্তাহেই অনুষ্ঠিত হতে পারে এ   নির্বাচন।জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মাঠ চষে বেড়াচ্ছে আওয়ামীলীগ,বিএনপি জাতীয় পার্টি সহ বিভিন্ন দলের প্রার্থীরা। দেশের বড় দুই দল আওয়ামীলীগ ও জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি থেকে এবারের নির্বাচনে একাদিক প্রার্থী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।তবে বিএনপি থেকে দুইজনের নাম শোনা গেলেও আওয়ামীলীগে একাদিক প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে।তাছাড়াও ইসলামীফ্রন্ট,নেজামে ইসলাম,বাসদ আর জাতীয় পার্টি থেকে একক প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। 

একদিকে আওয়ামীলীগের বর্তমান সংসদ সদস্য বি,এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম এমপির পাশাপাশি আওয়ামীলীগের বা নৌকার প্রার্থী হিসেব কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মোঃ নাজির মিয়া ও তার সহধর্মীনী নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি রোমা আক্তার দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে সভা, সভা সমাবেশ,পথসভা,উঠান বৈঠক করে দলীয় কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

 অপর দিকে এক সময়ের প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা  সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার উপজেলা সদরে তার ব্যাক্তিগত কার্যালয়ে অফিস খোলে ও বিভিন্ন গ্রামগঞ্জের সাধারণ মানুষের সাথে দলীয় কাজকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন ।তাছাড়াও  আওয়ামীরীগের প্রার্থী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি এ কে এম আলমগীর, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতা এম এ করিম,নুরপুর গ্রামের প্রভাষক ইমরান হাই জাবেদ,ইঞ্জিনিয়ার এম আই কামাল নৌকার প্রার্থী হিসেবর প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির দুর্দিনের কান্ডারী। যিনি দীর্ঘদিন যাবৎ মেজর জিয়া,দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া,তারণ্যের অহংকার তারেক জিয়া সহ জাতীয়তাবাদী আদর্শকে বুকে লালন করে দল ও নাসিরনগর বাসীকে ভালবেশে দলীয় কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন বিশিষ্ট শিল্পপতি হিসেবে খ্যাত ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা সৈয়দ একরামুজ্জামান সুখন বিএনপির প্রার্থী ছাড়াও সম্প্রতি নাসিরনগর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে  মত বিনিময় করে বিএনপি থেকে নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন এডঃ কামরুজ্জামান মামুন।

বাংলাদেশ ইসলামীফ্রন্ট থেকে নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন,কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সচিব কাজী ও এডঃ মোঃ ইসলাম উদ্দিন দুলাল। নেজামে ইসলাম পার্টি থেকে  প্রার্থীতা ঘোষনা করেছেন দলের নির্বাহী সভাপতি বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি ও প্রধান সমন্বয়কারী জাতীয় সংহতি মঞ্চ মাওলানা এ কে এম আশরাফুল হক ও বাসদ থেকে মোঃ বকুল খান।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষনা দিয়েছেন, মুহাম্মদ শাহনুল করিম গরীবুল্লাহ সেলিম।তিনি আহবায়ক জাতীয় পার্টি ও নাসিরনগর উপজেলা শাখার সভাপতি। এক সময়ে জাতীয় পার্টির ঘাঁটি হিসেবে খ্যাত নাসিরনগরে এখন জাতীয় পার্টি পড়েছে অস্থিত্ব সংকটে।সাবেক সাংসদ মোজাম্মেল হক কাপ্তান মিয়া,সৈয়দ মোর্শেদ কামাল,রেজোয়ান আহম্মদ, কামাল চৌধুরী,মোঃ শাহ আলম চেয়ারম্যান,উবায়দুল হক রেনুর মত জাতীয় পার্টির নেতাদের শুন্যতার কারনে নাসিরনগরে জাতীয় পার্টি আজ পড়েছে অস্তিত্ব সংকটে।এখন জাতীয় পার্টির শেষ ভরসা শাহানুল করিম গরীবুল্লাহ সেলিম।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



হাতিরঝিলে যান চলাচল বন্ধ থাকবে শুক্রবার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে জয় বাংলা ম্যারাথন উপলক্ষে শুক্রবার ভোর ৩টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত হাতিরঝিল এলাকার সব সড়ক বন্ধ থাকবে। সাময়িক অসুবিধায় দুঃখ প্রকাশ করে এ সময়ের মধ্যে বিকল্প সড়ক ব্যবহারের অনুরোধ জানিয়েছে ডিএমপি।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার লিটন কুমার সাহা এই তথ্য জানান।

তিনি বলেন, হাতিরঝিলে ম্যারাথন সুন্দরভাবে শেষ করতে ভোর থেকেই যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে। তাই যারা নিয়মিত হাতিরঝিল সড়ক দিয়ে যাতায়াত করেন তাদেরকে বিকল্প পথ ব্যবহারের অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

এছাড়া ম্যারাথনে অংশগ্রহণকারী ও দর্শনাথীদের নিরাপত্তায় ৬৫০ পুলিশ সদস্য সর্বোচ্চ তৎপর থাকবে। এর বাইরেও ড্রোন ক্যামেরা দিয়ে সব কিছু পর্যবেক্ষণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ম্যারাথনে অংশগ্রহণকারী ও সম্মানিত অতিথিদের গাড়ি পার্কিং এবং পার্কিং স্পেসের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। তাছাড়া ম্যারাথনে অংশগ্রহণকারী ও অতিথিদের রুটের পাশাপাশি ঢাকা শহরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হবে।


আরও খবর

মেট্রোরেল ঈদের দিন বন্ধ থাকবে

বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪




অসামাজিক কার্যকলাপে দায়ে ৩৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে কাফরুল থানা পুলিশ

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ১৫৮জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার , স্টাফ রিপোর্টার:২২ জন মহিলা ও ১১ জন পুরুষসহ মোট ৩৩ জনকে অসামাজিক কার্যকলাপের দায় গ্রেফতার  করেছে কাফরুল  থানা পুলিশ ।১ শুক্রবার সন্ধ্যায়  এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। কাফরুল  থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ফারুকুল আলম তথ্য জানান। 

আটকৃতরা হলেন, মোছা:  স্বপ্না (২৭),সুরাইয়া (২০),কুলসুম বেগম (৩১),জান্নাতুল ফেরদৌস (২০),মোছা: ফারজানা (২৭),লাকি আক্তার (২০),মোছা: রাজিয়া (২৫),মোছা রিয়া(২১),মো: মোশারফ (৪৫),মো: আলী (৪৫),মো: আরিফ(৩৫),মো: হোসেন (২৩),বকুল(৩৫),মো: সজীব (১৯),মো: রিপন হোসেন(১৮),শাহাদাত হোসেন (২৪)সহ আরো অনেকে। 

মিরপুর জোনের এডিসি মাসুক মিয়া পিপিএম জানান,  বিভিন্ন আবাসিক হোটেল গুলি ব্যবসার নামে অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত। এছাড়াও বিভিন্ন অপরাধী বিশেষ করে মাদক সেবনকাররি রা হোটেল কক্ষকে নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে ব্যবহার করতো। স্থানীয় গণ্যমান্য লোকজনের কাছ থেকে এ ধরনের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা অভিযান পরিচালনা করে বেশ কিছু মহিলা এবং পুরুষকে আটক করি। যে সকল হোটেল এ ধরনের কার্যকলাপ পরিচালিত হচ্ছে স্থানীয় জন প্রতিনিধির উপস্থিতিতে তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে ভবিষ্যতেও মিরপুর এবং কাফরুল এলাকার আবাসিক হোটেল গুলিতে এ ধরনের অভিযান পরিচালনা করা হবে।

ওসি ফারুকুল আলম বলেন,  আমাদের থানার নিয়মিত অভিযানে তাদের গ্রেফতার  করা হয়েছে। এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন ওসি অপরেশন মো: আব্দুল বাতেন।

ওসি অপরেশন মো: আব্দুল বাতেন বলেন, কাফরুল থানার ওসি স্যারের  নির্দেশনায় ও এডিসি  স্যারের তত্ত্বাবধানে আমরা এতজনকে একসাথে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি এবং হোটেল তালাবদ্ধ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাফরুল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নাম্বার হলো ০১।

আরও খবর



আক্কেলপুরে মুক্তিযোদ্ধা গেজেট বাতিল চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

নিশাত আনজুমান, আক্কেলপুর(জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে রায়কালী ইউনিয়নের আমির উদ্দীনকে অ-মুক্তিযোদ্ধা দাবী করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল কর্তৃক তাকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেট প্রদানের প্রতিবাদে ও গেজেট বাতিল চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। সোমবার বেলা ১১ টায় রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  আয়োজনে এই সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জয়পুরহাট জেলা ইউনিট কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন, উপজেলা বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নবীবুর রহমান, রেলওয়ে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিট কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারি, রায়কালী ইউনিয়ন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামছুল আজম, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আজাদ আশাদুজ্জামান সহ আরো অনেক বীরমুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা। এসময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রায়কালী ইউনিয়ন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামছুল আজম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমির উদ্দীনের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে উপজেলা যাচাই-বাছাই কমিটির নিকট আমরা একটি অভিযোগ করি, সেই কমিটিতে আমির উদ্দীন কোন স্বাক্ষী ও কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। সেই সময় তাকে বাতিল বলে গণ্য করা হয়। পরবর্তীতে সে যোগসাযোজ করে জা,মু,কা (জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল) থেকে গেজেট পাশ করে নিয়ে আসে। তার গেজেট বাতিলের জন্য আমরা জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালক বরাবর ও আক্কেলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিতও দিয়েছিলাম। আসলে সে কোন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নয়, তিনি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা ভারতে কোন ক্যাম্পেই ভর্তি হননি। আমরা রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সকলেই চাই অবিলম্বে তার এই গেজেটটি বাতিল করা হোক।  

সংবাদ সম্মেলন শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধারা রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  সামনে আমির উদ্দীনের গেজেট বাতিলের জন্য স্লোগান দিয়ে মানববন্ধন ও র‌্যালি করেছেন।
উপজেলার বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নবীবুর রহমান বলেন, তিনি কোন যুদ্ধেই অংশগ্রহণ করেননি। তিনি অপচেষ্টার মাধ্যমে গেজেটে নাম ঢুকিয়েছেন। আমারা তার গেজেট বাতিল চাই। 

অভিযুক্ত অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আমির উদ্দীন উপজেলার রায়কালী ইউনিয়নের চিয়ারিগ্রামের বাসিন্দা এবং ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য।অভিযুক্ত আমির উদ্দীন বলেন, ১৯৭১ সালে ১৫ সেপ্টেম্বর ভারতের ত্রিমুনী ক্যাম্পে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের জন্য ভর্তি হই এবং আমার রেজি নং: ৪১৬। সেখোন থেকে এসে আমি চিয়ারিগ্রাম, গুডুম্বা, ঢেকুঞ্চা মাঠে হানাদার বাহিনীর সাথে মুখোমুখী যুদ্ধ করি। সেই যুদ্ধ দুপচাঁচিয়া গিয়ে শেষ হয়। আমার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ সত্য নয়। আমার কাছে এক মুক্তিযোদ্ধা ৫ লক্ষ টাকা দাবী করেছিল, সেই টাকা না দেওয়ায় তারা একত্রিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে আভিযোগ করছে।

আরও খবর



কুয়েতে ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৩৫

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৭০জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:কুয়েতের দক্ষিণাঞ্চলে একটি ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ৩৫ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অনেক মানুষ।

বুধবার (১২ জুন) দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় মানগাফ শহরে এই অগ্নিকাণ্ড ও হতাহতের ঘটনা ঘটে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। তাদের নিকটবর্তী বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কুয়েতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভবনে অগ্নিকাণ্ডে আহতদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য মেডিকেল দলগুলো তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।

এছাড়া অগ্নিকাণ্ডে আহতদের যথাযথ চিকিৎসা সেবা দেওয়ার জন্য মেডিকেল দলগুলো তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে বলেও মন্ত্রণালয় আশ্বস্ত করেছে।


আরও খবর



কালিয়াকৈরে প্রকাশ্যে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা,আহত-১

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | ৬০জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে সরকারী এক কলেজের এইচএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের এক নেতাকে প্রকাশ্যে এলোপাথারি কুপিয়ে হত্যা করেছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় কুপিয়ে অপর এক ছাত্রলীগ নেতাকে গুরুতর জখম করা হয়। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার চন্দ্রা ডাইনকিনি এলাকায় ওই কলেজের পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হলো, কালিয়াকৈর উপজেলার বরিয়াবহ এলাকায় মোতালেব হোসেনের ছেলে আল আমিন হোসেন (১৯)। সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারী কলেজের ডিগ্রী ১ম বর্ষের ছাত্র ও ওই কলেজের দ্বাদশ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিল। অপর আহত হলো, ওই শাখা ছাত্রলীগের সদস্য কামরুল হাসান (১৯)। তাৎক্ষনিকভাবে তার ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

এলাকাবাসী, সহকর্মী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার কালিয়াকৈর উপজেলার জাতির বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের এইসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান ছিল। ওই বিদায় বেলার অনুষ্ঠানে সাউন সিস্টেমকে কেন্দ্র করে ওই সরকারী কলেজ শাখার সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান গ্রুপের সঙ্গে দ্বাদশ শ্রেনী শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আল আমিন গ্রুপের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ছাত্রলীগের সিনিয়র নেতৃ বৃন্দ ও কলেজ কর্তৃপক্ষ মিলে ওই দু-গ্রুপের মধ্যে বিষয়টি মিমাংসার কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ওই ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই সরকারি কলেজের ছাত্রলীগের দু- গ্রুপ নিয়ে বসার কথা ছিল। কিন্তু এর আগেই বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার চন্দ্রা ডাইনকিনি এলাকায় ওই কলেজের পাশে দ্বাদশ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আল আমিন ও কামরুলকে পেয়ে প্রকাশ্যে এলোপাথারী কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। তাদের গ্রুপের সদস্যদের অভিযোগ, বিদায়ী অনুষ্ঠানের সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে কালিয়াকৈর ছাত্রলীগের সভাপতি ও ওই কলেজের ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ইমন খান ও ওই কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হাসানের নেতৃত্বে সাকিব, হৃদয়, আকাশ, কাউসার, আলামিনসহ বেশকিছু ছাত্রলীগের নেতাকর্মী দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপারী কুপিয়ে তাদের জখম করে।

পরে আহতদের ফেলে রেখে হামলাকারী ছাত্রীলীগের নেতাকর্মীরা একটি বাসে উঠে সাভারের দিকে চলে যায়। এসময় ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে গিয়ে গুরুতর অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই ছাত্রলীগ নেতা আল আমিনকে মৃত ঘোষণা করেন। এছাড়াও গুরুতর আহত কামরুল হাসানকে উন্নত চিকিৎসক জন্য টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে নেওয়া হয়। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানার ওসি এএফএম নাসিম ও তদন্ত ওসি তরিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। তবে এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

ওই সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সুফিয়া বেগম জানান, শিক্ষার্থীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিদায় অনুষ্ঠান করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কোন ধরণের র‌্যাগ-ডে পালনের অনুমতি দেওয়া হয়নি। সেই অনুষ্ঠানে কিছু অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনার জেরে একটি পক্ষ হামলা চালিয়ে এক ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়াও অপর এক ছাত্রকে আহত করা হয়।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ এফ এম নাসিম ওই নিহতের লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চি করে জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারী কলেজের এইএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে দুই গ্রুপের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে তাদের সিনিয়র ও কলেজের শিক্ষকরা বিষয়টি মিমাংসা করার কথা ছিল। তবে তদন্ত শেষে হত্যাকান্ডের প্রকৃত কারণ উদঘাটন হবে। এছাড়াও এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর