Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

নাসিরনগরে চলছে দেশীয় মিঠা পানির পুঁটি মাছের চ্যাপা শুটকি তৈরীর ধুম

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৩০৯জন দেখেছেন

Image

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা সদরে নদীর পাড়ে এখন  চলছে ভোঁজন রসিক ও রসনা বিলাশীদের জন্য মিঠা পানির দেশীয় পুঁটি মাছের চ্যাপা শুটকি তৈরীর ধুম।

সরেজমিন নাসিরনগর খাদ্য গুদামের পশ্চিমে নদীর পাড়ে গিয়ে দেখা গেছে শুঁটকি শুকানোর দৃশ্য।শুঁটকির জন্য মাছ কুটতে আর শুকাতে জেলে পল্লীর নারী পুরুষদের ব্যস্থ সময় পার করতে দেখা গেছে।


মাছ শুকাতে খাদ্য গুদামের পশ্চিমে,জেলে পল্লীর উত্তরে নদীর পাড়ে গড়ে তোলা হয়েছে প্রায় ১৫ টি বাঁশের মাচা।নদী থেকে আসা পুঁটি মাছ পাইকারী কিনে নিয়ে আসলে মহিলারা এ আসমস্ত মাছ খুটে পানিতে ধুয়ে মাচার উপর শুকিয়ে তৈরী করে শুঁটকি।


ব্যবসায়ীরা জানায়,তারা পুঁটি মাছের শুঁটকি তৈরী করার পর এ শুঁটকি গুলোকে ভৈরব ও হবিগঞ্জ জেলায় পাইকারী বিক্রি করে দেন।আর পাইকাররা এ সমস্ত শুঁটকি থেকে চ্যাপা শুঁটকি তৈরী করে।যা বিভিন্ন দেশে ও রপ্তানী করা হয়ে থাকে।আর অনেক ভোঁজন রসিকরা এ সমস্ত চ্যাপা শুঁটকি দিয়ে রসনার সাধ মিটায়।


কথা হয় শুঁকটি ব্যবসায়ী সখি চরণের সাথে। তিনি বলেন,নদীর পাড়ে শুঁটকি শুকানোর জন্য এখানে ১৫ টির মত বাঁশের মাচা রয়েছে।তিনি আরো বলেন,এ ব্যবসা করতে গেলে যে পুঁজির প্রয়োজন হয়  তা তাদের নেই।তারা বিভিন্ন মহাজনের কাছ থেকে সুদের উপর ধার দেনা করে ব্যবসা করছেন।


সরকার যদি তাদের এ ব্যবসার উপরে সরকারী ঋণের ব্যবস্থা করে দিতেন তাহলে তারা এ ব্যবসা করে বৌ ছেলে মেয়ে নিয়ে চারটি ডাল ভাত খেয়ে একটু সুখে দিন যাপন করতে পারতেন।তাই শুঁটকি ব্যবসায়ীরা এ খাতে সরকারী পৃষ্টপোষকতা চায়।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



তানোরে ছুরিকাঘাত ও জবাই করে হত্যা; শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে লাশ হলেন

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩২জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে বাড়ী যাওয়ার সময় এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে  নিশ্চিত হওয়া গেছে। মঙ্গলবার  রাতে উপজেলা পরিষদ চত্বরের শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে বাড়ি ফেরার সময় ছুরিকাঘাত ও এলোপাতাড়ি কোপে হত্যা করা হয় জিয়ারুল হক নামের এক যুবককে। তার বাড়ি  তালন্দ ইউনিয়নের বিলশহর গ্রামে। সে মৃত মোহর মন্ডলের পুত্র।   

বুধবার ভোরে গ্রামের একটি সড়কের প্রান্ত থেকে তার ক্ষতবিক্ষত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশ কে খবর দিলে উদ্ধার করে পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য জিয়ারুলের লাশ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। জিয়ারুলের মৃত্যুর খবরে স্ত্রী সহ পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্ত্রী সন্তানরা জ্ঞান হারিয়ে ফেলছেন, আর চিৎকার দিয়ে মাটিতে নুয়ে পড়ছেন। সকাল থেকেই কয়েকগ্রামের মানুষ বিলশহরগ্রামে উপস্থিত হয়ে পরিবারের লোকজন দের সান্ত্বনা দিচ্ছেন।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে তানোর উপজেলা সদরে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে শহিদ মিনারে ফুল দিয়ে নিজের মোটরসাইকেলে করে পাঁচ কিলোমিটার দূরে নিজ বাড়ি বিলশহর গ্রামের দিকে চলে যান জিয়ারুল। বুধবার ভোরের দিকে পুকুরে মাছ ধরতে যাওয়া লোকজন সড়কের পার্শ্ববর্তী একটি জায়গায় জিয়ারুলের লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেন। সকাল ৮টায় পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জিয়ারুলের মরদেহ উদ্ধার করে। জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জিয়ারুলকে শক্ত কোনো বস্তু দিয়ে প্রথমে মাথায় আঘাত করা হয়েছে। এরপর মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করার পর পেটে কয়েকবার ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। অন্য কোথাও হত্যা করে জিয়ারুলের মরদেহ বিলশহর গ্রামের উত্তরপ্রান্তে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

জানা গেছে, নিহত জিয়ারুল হক তালন্দ ইউনিয়নের বিলশহর গ্রামের মোহর আলির ছেলে। জিয়ারুল রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি গোলাম রাব্বানীর চাচাতো ভাই। 

গোলাম রাব্বানী অভিযোগে বলেছেন, গত ৭ জানুয়ারির সংসদ নির্বাচনে জিয়ারুল তার পক্ষে ব্যাপকভাবে কাজ করেন। ওই নির্বাচনে জিয়ারুলের ব্যাপক ভূমিকার কারণে লালপুর স্কুল ভোটকেন্দ্রে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাঁচি প্রতীক, নৌকা প্রতীকের চেয়ে ছয় শতাধিক ভোট বেশি পেয়েছিল। ভোটের পর থেকে প্রতিপক্ষরা ব্যাপক হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিলে । স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা জিয়ারুলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে বলে দাবি করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম রাব্বানী। 

এদিকে এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত সংসদ নির্বাচনে তালন্দ ইউপি চেয়ারম্যান নাজিমুদ্দিন বাবু ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান মেম্বারের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা চলে আসছে। নিহত জিয়ারুল ছিলেন বাবু চেয়ারম্যানের পক্ষের লোক। গত সংসদ নির্বাচনে বাবু চেয়ারম্যানসহ তার পক্ষের নেতাকর্মীরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেন। গত ৭ জানুয়ারি ভোটের ফলাফল প্রকাশের পরদিন এলাকার সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরীর ঘনিষ্ঠ হাসান মেম্বারের নির্দেশে নিহত জিয়ারুলের একটি গভীর নলকূপে তালা মেরে দেন। গত কয়েকদিন আগে নিহত জিয়ারুলের একটি কাঁচামালের গুদামে অগ্নিসংযোগ করা হয়। জিয়ারুলকে এলাকা ত্যাগের জন্য হুমকি দিয়ে যাচ্ছিল হাসান মেম্বারের ক্যাডাররা। জিয়ারুল তার নিরাপত্তাহীনতার কথা থানা পুলিশকেও জানিয়েছিলেন।
এদিকে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে হাসান মেম্বারের কীটনাশকের দোকানে আগুন দেয় দূর্বৃত্তরা। এরপর থেকে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল।

এলাকাবাসী আরও জানায়, গত কিছুদিন ধরে হাসান মেম্বারের সশস্ত্র ক্যাডার ফরহাদ, শাওন, মিঠু, ও হাসান মেম্বারের ভাই হাকিম বাবুসহ ক্যাডাররা নিহত জিয়ারুলকে নারায়ণপুর বাজার মোড়ে ঘেরাও করেছিল। কিন্তু জিয়ারুল দ্রুত মোটরসাইকেলে চড়ে স্থান ত্যাগ করায় ওইদিন প্রাণে বেঁচে যান। বুধবার ভোরে পুলিশ ফরহাদ, রাসেল ও হাসান মেম্বারের দ্বিতীয় স্ত্রী তারাবানুকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় নিয়ে আসেন পুলিশ । অন্যদিকে আওয়ামী লীগ নেতা হাসান মেম্বারসহ তার ক্যাডাররা ঘটনার পর থেকে  এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন।হাসান মেম্বারের মোবাইলে ফোন দেয়া হলে বন্ধ পাওয়া যায়।নিহত জিয়ারুলের স্বজনরা জানায়, তার তিন ছেলে সন্তান রয়েছে। বড় ছেলে আওতা অনার্সে পড়ে,  মেজো ছেলে অলি ৪র্থ শ্রেণীতে পড়ে এবং জিহানের বয়স চার বছর।  

ঘটনার বিষয়ে জানতে  থানার ওসির মোবাইলে কল করা হলে এসআই আনোয়ার  বলেন, জিয়ারুল হত্যায় জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শুরু করেছে এবং লাশ ময়না তদন্তের জন্য রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর



আশায় আশায় ৫৩ বছর অতিবাহিত হলেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি এঅঞ্চলে

প্রকাশিত:রবিবার ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | ৫৫জন দেখেছেন

Image

রৌমারী কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:অবৈধ বেগুর দাপটে নষ্ট হচ্ছে ফসলের জমি বেগুর মাটি অবৈধ কাকরায় ভাটায় নিতে খয়ে যাচ্ছে গ্রামীণ রাস্তা অভিযোগেও কোন কাজ হচ্ছে না দেশের উত্তরাঞ্চলীয় কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের সীমান্তঘেষা অঞ্চলটিতে ৫৩ বছরেও উন্নয়ন হয়নি ফলে বিঘ্নিত হচ্ছে এঅঞ্চলের উন্নয়ন। উন্নয়ন না হওয়ার ফলে অন্ধকারে জীবনযাপন করছেন অবহেলিত অঞ্চলের প্রায় পনেরো হাজার মানুষ। যোগাযোগ বিছিন্নতার কারণে এঅঞ্চলের ছেলে, মেয়েকে বিয়ে সাদি দিতেও বিপাকে পড়তে হয় অভিভাবকদের।কারণ এসব রাস্তায় একবার যাওয়া আশা করলে পায়ের ধুলোবালি মাথায় গিয়ে ভাষা বাদে এমন বিঘ্ন দশায় এসব এলাকায় বিয়ে করে কোন শালায়।

যোগাযোগ ব্যবস্থা না থাকায় ফসলের ন্যায্য মূল্য থেকেও বঞ্চিত সীমান্ত অঞ্চলের কৃষির উপর নির্ভরশীল কৃষকরা।যোগাযোগ বিছিন্ন এলাকার সরেজমিন ঘুরে এলাকার বৃদ্ধদের বরাত দিয়ে জানা গেছে এক মন ধান হাটবাজারে বিক্রয় করতে কেয়ারিং খরচা হয় একশোত টাকা। আর যদি যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো থাকতো তাহলে কেয়ারিং খরচ হতো  ২০ টাকা। আর সেখানে প্রতি মনে কেয়ারিং খরচ গুনতে হচ্ছে অতিরিক্ত ৮০ টাকা।অপরদিকে হাটবাজারে কোন কাজে যেতে হলে  পায়ে  হেটে যেতে হয় প্রায় ৮ কিলোমিটার ধুলোবালি রাস্তার উপর দিয়ে। এমন বিঘ্নদশায় জীবনযাপন করছেন প্রায় পনেরো হাজার মানুষ।

অটো ভ্যানে কোন ফসল হাটবাজারে নিতে হলে ৩-৪ জন মানুষের  ধাক্কাধাক্কি করে  পাকারাস্তায় পৌছাতে হয়।এদিকে হাটবাজারে যেতে হলে মানুষ একটু হলেও স্বাভাবিক পোষাক পড়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। সেখানে দেখা গেছে পায়ের ধুলা মাথায় উঠে পরিবেশ কি জিনিস এঅঞ্চলের মানুষ ঠিকমতো রাখতে পারছেনা।

কাচা মাঠির রাস্তার এপাশ ওপাশে  অবৈধ ইটভাটা, এসব ইটভাটায় ফসলি জমির মাটি বেগুতে কেটে কাকরা  যোগে ভাটায় পৌছাতে রাস্তার অবস্থা খানাখন্দে চলাচলে অযোগ্য হয়ে পড়েছে। 
এলাকাবাসীরা সরকারের কাছে জোর দাবী জানিয়েছেন অবৈধ লড়ি কাকরার দাপটে গ্রামীণ অবকাঠামো যোগা খিচুড়িতে পরিনত হয়েছে এগুলো বন্দ করতে হবে। সায়দাবাদ  মহাসড়ক হইতে ভায়া বেকরিবিল হয়ে খেওয়ারচর বাজার পেরিয়ে, সীমান্ত ঘেঁষা আলগারচর ডিঙ্গিয়ে, লাঠিয়াল ডাঙ্গার উপর দিয়ে বালিয়ামারী খেওয়া ঘাট পর্যন্ত প্রায় আট কিলোমিটার কাচা রাস্তায় একটি ইটের খোয়াও পড়েনি। যার ফলে শুস্ক মৌসুমে ধুলাবালিতে অন্ধকার হয়ে থাকে। বৃষ্টি হলে হাটু পর্যন্ত কাদায় পরিনত হয়ে যায়। অপরদিকে বালিয়ামারী পাকারাস্তার মোর হইতে চর লাঠিয়াল ডাঙ্গা হয়ে সায়দাবাদ পর্যন্ত প্রায় ছয় কিলোমিটার কাচা মাটির রাস্তা চলাকালে অনুপযোগী হয়ে মানুষের যাতায়াতে ব্যাপক বিঘ্ন ঘটেছে। এসব এলাকার উন্নয়ন চাইলে টেকসই উন্নয়ন করতে হবে তাহলে যদি এই এলাকার উন্নয়ন হয়। 

আরও খবর



মাগুরার শ্রীপুরে পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭২জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক, শ্রীপুর শাখার দ্বিতল ভবন উদ্বোধন করলেন সাবেক সিনিয়র সচিব ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের  চেয়ারম্যান  আকরাম-আল-হাসান। মঙ্গলবার বিকেলে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ মমতাজ মহলেরর সভাপতিত্বে এ উপলক্ষে আলোচনা সভায়,মাগুরা জেলা আঞ্চলিক কর্মকর্তা অসিম সিংহ, শ্রীপুর শাখা ব্যবস্থাপক  মোঃ ইমন হোসেনসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর

গাংনীতে বালাইনাশক ব্যবহারে উদাসিন কৃষকরা

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জেলেনস্কিসহ ৭ দেশের নেতার সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জার্মানিতে আয়োজিত মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে যাচ্ছেন। সেখানে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিসহ সাত দেশের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে পার্শ্ববৈঠক করবেন তিনি।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অডিটোরিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর মিউনিখ সফরের বিভিন্ন কর্মসূচির তথ্য তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৬ থেকে ১৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ৬০তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিতে আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুওয়ারি) জার্মানির উদ্দেশে রওনা হচ্ছেন।

মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সের সভাপতি রাষ্ট্রদূত ড. ক্রিস্টোফ হিউজেনের আমন্ত্রণে এ সম্মেলনে অংশগ্রহণের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অন্তত সাতটি দেশ ও তিনটি আন্তর্জাতিক সংস্থার শীর্ষনেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, মিউনিখ সম্মেলনে প্রায় ৬০টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থা, মিডিয়া, সুশীল সমাজ, সরকারি এবং বেসরকারি খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রায় ৫শ’ প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করবেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সম্মেলনের উদ্বোধনী আয়োজনে এবং ক্লাইমেট ফিন্যান্স সংক্রান্ত উচ্চপর্যায়ের প্যানেল আলোচনায় অংশ নেবেন।জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশিদের আয়োজিত একটি নাগরিক সংবর্ধনায়ও অংশ নেবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী তার সফরসঙ্গী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন ও উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণসহ আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে বাংলাদেশ বিমানের একটি বাণিজ্যিক ফ্লাইটে ৪ দিনের সরকারি সফরে যাত্রা করবেন। পরে একইদিন সন্ধ্যায় মিউনিখ পৌঁছাবেন তারা।

সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার উদ্দেশ্যে মিউনিখ ত্যাগ করে ১৯ ফেব্রুয়ারি পৌঁছার কথা রয়েছে।

হাছান মাহমুদ জানান, জার্মানির চ্যান্সেলর ওলাফ শোলজ, নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রাটা, ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেতে ফ্রেডেরিকসেন এবং ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন।

পাশাপাশি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন, জার্মানির আন্তর্জাতিক সহযোগিতা এবং উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী ভেনজা শুলজ, বিশ্বব্যাংকের সিনিয়র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এক্সেল ভ্যান ট্রটসেনবার্গ এবং মেটা’র গ্লোবাল এফেয়ার্স প্রেসিডেন্ট স্যার নিক ক্লেগের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

সংলাপের মাধ্যমে বিশ্বে শান্তি আনয়নের মূলমন্ত্র নিয়ে বিগত ১৯৬৩ সাল থেকে জার্মানির মিউনিখে অনুষ্ঠিত হয়ে আসা এ সম্মেলনের ২০১৭ ও ২০১৯ সালের আসরে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জার্মানি ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অন্যতম প্রভাবশালী দেশ। সেইসঙ্গে একক দেশ হিসেবে জার্মানি বিশ্বে বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এবং ইউরোপে সর্ববৃহৎ রপ্তানি বাজার।

তিনি আরও জানান, তারা বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী। রোহিঙ্গা সমস্যা মোকাবিলায় জার্মানি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক এবং মানবিক সহায়তা প্রদান করে যাচ্ছে।


আরও খবর



রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে অভিযানে ৩১ জন গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৩১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মাদকবিরোধী অভিযানে ৩১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ।

মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের হেফাজত থেকে ২০ হাজার ৩৬৯ পিস ইয়াবা, ২৫ কেজি ১৫০ গ্রাম গাঁজা ও ৫১ দশমিক ৬ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টা থেকে বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাদকদ্রব্য উদ্ধারসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ২৫টি মামলা রুজু হয়েছে।


আরও খবর