Logo
আজঃ বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

নাসিরনগর থেকে তিন ডাকাত ও এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৩৯জন দেখেছেন

Image

মোঃ আব্দুল হান্নান,নাসিরনগরঃ- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর থানা পুলিশ গত দুই দিনে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে উপজেলা বিভিন্ন জায়গা থেকে তিন ডাকাত ও এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।জানা গেছে নাসিনগর থানা পুলিশের এস আই রূপন নাথ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে আনন্দপুর রাস্তার ডাকাতির মামলার প্রধান আসামী শুক্কুল আলীকে পার্শ্ববর্তী মাধবপুর থানাধীন রতনপুর থেকে গ্রেপ্তার করে।


সেই সাথে ডাকাত নাসিরনগর সদরের মহর রাজার ছেলে ডাকাত সর্দার  তাবাকর  রাজাকে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।অপরদিকে ডাকাত সর্দার কালন ও গুনিয়াউক ইউনিয়নের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী  সাহেদ মিয়ার ছেলে মোঃ আলাউদ্দিন (২৬) কে ৫০ পিস ইয়াবা সহ গ্রেপ্তার করেছে নাসিরনগর থানার মেধাবী ও চৌকশ পুলিশ অফিসার এস আই রূপন নাথ।

এস আই রূপন নাথ জানায়,তাদের প্রত্যেকের বিরোদ্ধে একাদিক মামলা চলমান রয়েছে।আদালতের মাধ্যমে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২৬

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




কুড়িগ্রামে জমি নিয়ে বিরোধে এক জনকে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image
বাবুল, কুড়িগ্রাম ব্যুরো চিফ :কুড়িগ্রামের উলিপুরে জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে নুর হোসেন (৫৫) নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে, আজ শনিবার ৩ ফেব্রুয়ারী সকাল ১০ টার দিকে কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার মালতী বাড়ি দিগর বাড়াই পাড়া গ্রামে। 

সরেজমিন ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত জোনাকু শেখের পুত্র নুর হোসেন ও বড় কাচুর পুত্র জাফর আলীর মধ্যে জমি জমা নিয়ে দীর্ঘ দিনধরে বিরোধ চলে আসছিলো। ওই বিরোধকে কেন্দ্র করে আজ সকালে উভয় পক্ষের লোকজন লাটি নিয়ে সংঘর্ষে জড়ায়। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজন নুর হোসেনকে নিজ বাড়ি হতে টেনে হেঁচড়ে বের করে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে। আহত নূর হোসেনকে স্বজনরা উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নুর হোসেনকে মৃত ঘোষণা করে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উলিপুর থানার ওসি গোলাম মর্তুজা জানান, ঘটনায় জড়িত থাকায় জাফর আলী (৫২) নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার প্রক্রিয়া চলছে।উলিপুর সার্কেলের এএসপি মহিবুল হাসানও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




সুন্দরগঞ্জে বিশেষ পদ্ধতিতে রবি শষ্যেক্ষেত জাল দিয়ে ঢেকে রাখছেন চাষিরা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৬৮জন দেখেছেন

Image
সুদরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:চলতি রবি মৌসুমে কাচা তরি/ তরকারির বাজার দাম ভালাে থাকায়, সব্জিক্ষেত গুলো রক্ষণাবেক্ষণে গ্রহন করা হয়েছে নানান কৌশল,  কনকনে শীত, ঘন কুয়াশা ও ক্ষতিকারক পাখির হাত থেকে রবি শষ্যের ক্ষেত রক্ষা করার জন্য গাইবান্ধার সুদরগঞ্জ উপজলায় সর্বত্রই  জাল দিয়ে ঢেকে রাখছেন চাষিরা। গত কয়েক সপ্তাহ থেকে উপজলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া হিমেল হাওয়া, ঘনকুয়াশা ও কনকনে শীত বইছে। প্রচন্ড ঠান্ডায় মানুষজনের জীবন যাত্রা হয়ে পড়েছে বিপর্যস্ত। একই সাথে সব্জি হিসেবে বেগুন ক্ষেত,  আলু,ও মরিচসহ রবি ফসলের  ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি শুরু হয়েছে। এছাড়া বাজারে প্রতি কেজি বেগুনের দাম ৬০থেকে ৭০ টাকা, আলু ৪০/৪৫ টাকা ও কাচা মরিচ ৭০/৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এত করে চাষিরা বেশ লাভবান হচ্ছেন। এ অবস্হায় চাষিরা রবি ফসলের ক্ষেতগুলাে ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষার জন্য জাল দিয়ে ঢেক রাখছেন। এদিকে উপজেলায় চলতি রবি মৌসুমে ১৪০ হেক্টর বেগুন, ১৪০ হেক্টর আলু সিম চাষ হয়েছে ৫০ হেক্টর ও ১৫০ হেক্টর জমিতে কাচা মরিচের চাষ হয়েছে বলে কষি অফিস সূত্রে জানায়। উপজেলা কষি কর্মকর্তা কষিবিদ রাশিদুল কবির জানান, চলতি বছর বেগুন, আলু ও কাচা মরিচের বাম্বার ফলন হওয়ায় ও রােগ বালাই তেমন একটা না থাকায় বেশি লাভবান হচ্ছেন চাষিরা। রবি ফসলের এগুলাে ক্ষেত শীত, ঘনকুয়াশা ও পাখির হাত থেকে রক্ষার জন্য চাষিরা যে উদ্যােগ গ্রহণ করেছেন তা অত্যান্ত প্রশংসনিও। 

আরও খবর

গাংনীতে বালাইনাশক ব্যবহারে উদাসিন কৃষকরা

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বেনাপোল বন্দর কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনালের ভারতীয় বিএসএফ’র বাঁধায় নির্মান কাজ বন্ধ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২৬জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:বেনাপোল স্থলবন্দর কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনালের একাংশের নির্মান কাজ বন্ধ হয়েগেছে। গত ২৫ জানুয়ারি, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)’র বাঁধার মুখে এ নির্মান কাজ বন্ধ হয়ে যায়। বিষয়টি নিরসনে উর্দ্ধতন কর্তপক্ষসহ বিভিন্ন মহলে অবগত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) রেজাউল করিম। তবে, সেথেকে অদ্যবধি বিষয়টির সমাধান না হওয়ায় এ সীমান্ত এলাকায় চরম আতঙ্ক ও চাঁপা উত্তেচনা বিরাজ করছে।

জানা যায়, গত ২২ জানুয়ারি-২৪ তারিখে, বিএসএফ’র গুলিতে রইস উদ্দীন নামে এক বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্য নিহত হওয়ার পর থেকে যশোরের শার্শা উপজেলার এ সীমান্ত এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। সেথেকে বিএসএফ সদস্যরা বৈরি আচরণ করছে বাংলাদেশের এ সীমান্ত এলাকার মানুষের সাথে।

বেনাপোল স্থলবন্দর কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনালের নির্মান শ্রমিকরা জানান, বন্দরের অধিগ্রহণকৃত নতুন ৪১ একর জমির মধ্যে ১৬ একর জমিতে ইয়ার্ড নির্মানের কাজ চলছিলো। হঠাৎ গত এক সপ্তাহ পূর্বে চলমান কাজে বাঁধা দেয় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) সদস্যরা। তারা হুমকি দিয়ে নির্মানাধীন সকল কাজ বন্ধ করে দেয় এবং বিভিন্ন নির্মান যন্ত্রসামগ্রী আটকে দেয়। পরে, ভারত সীমান্তের শুন্যরেখা থেকে ১৫০ গজ জায়গা ছেড়ে কাজ করার নির্দেশনা দেয়। এক পর্যায়ে অসহায়ের মতো ১৫০ গজ জায়গা ছেড়ে লাল পতাকা উড়িয়ে দিয়ে নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছে ঠিকাদার কর্তৃপক্ষ। তাতে, বেনাপোল বন্দর কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনালের ৩৯ হাজার ৬২২ স্কয়ার মিটার ইয়ার্ড নির্মানের জায়গা হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে।

জানা যায়, বেনাপোল স্থলবন্দরে স্থান সংকুলান হওয়ায় ২০২২ সালে ৩৪০ কোটি টাকা ব্যয়ে ভেহিক্যাল টার্মিনালের নির্মান শুরু করে বাংলাদেশ সরকার এবং চলতি ২০২৪ সালের জুনের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা ছিলো। যার, এ পর্যন্ত নির্মান কাজ সম্পন্ন হয়েছে ৬৫ শতাংশ।

বন্দর সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। তবে এখনো পর্যন্ত জটিলতা না কাটায় নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে নকশা অনুযায়ী কাজ শেষ করা নিয়ে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

বন্দর সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোলের বিপরীতে অবস্থিত ভারতের পেট্রাপোল বন্দর। দু’দেশের ব্যবসায় সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ওই বন্দরের আধুনিকায়নে ভারত সরকার ২০১৬ সালে বাংলাদেশ সীমান্ত ঘেঁষে মাত্র ১০ মিটার জায়গা ছেড়ে ১৫০ গজের মধ্যেই ৪২ একর জমিতে সংহত চেকপোষ্ট নির্মান কাজ শেষ করে। সেখানে বানিজ্য নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছে শতাধীক সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। দু’দেশের আলোচনা স্বাপেক্ষে ৮ বছর পর ২০২২ সালে একই নিয়মে ১০ মিটার জায়গা ছেড়ে বাংলাদেশ অংশে ৪১ একর জমিতে কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনালের নির্মান কাজ শুরু করে বেনাপোল স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ।


হঠাৎ ৪১ একরের মধ্যে ১৬ একর জমিতে ইয়ার্ড নির্মানের চলমান কাজে ভারতীয় বিএসএফ বাঁধা দেওয়ায় ১৫০ গজ জায়গা ছেড়ে কাজ করতে হলে এই টার্মিনালের ৩৯ হাজার ৬২২ স্কয়ার মিটার জায়গা হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া, নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ সম্পন্ন করা ও নকশা অনুযায়ী কাজ বাস্তবায়ন করা নিয়ে বন্দর কতৃপক্ষের মধ্যে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

বেনাপোল কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনাল নির্মান কাজের সাব-ঠিকাদার মোজাম্মেল হোসেন জানান,  ভারতের বিএসএফ সদস্যরা গুলি করার ভয় দেখিয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। তারা নির্মান সামগ্রীও আটকে দিয়েছিলো।

বেনাপোল কার্গো ভেহিক্যাল টার্মিনাল নির্মানের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এস.এস.আর গ্রুপের প্রজেক্ট ম্যানেজার মন্নু বিশ্বাষ জানান, ভারত ১০ মিটার জায়গা ছেড়ে পেট্রাপোল বন্দরের স্থাপনা নির্মান করেছে। আমরা পেট্রাপোল বন্দরকে অবগত করে ১০ মিটার জায়গা ছেড়ে কাজ করছিলাম। হঠাৎ বিএসএফের বাঁধায় কাজ বন্ধ আছে। এতে  নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে উন্নয়ন কাজ শেষ করা ও নকশার কাজ বাস্তবায়ন নিয়ে শঙ্কার মধ্যে আছি।

বেনাপোল আমদানি-রপ্তানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক জানান, প্রতিবছর দু’দেশের বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকার আমদানি ও ৮ হাজার কোটি টাকার রপ্তানিমুখী বানিজ্য হয়ে থাকে। দুই দেশের বানিজ্য সম্প্রসারণে বন্দরের দু’পাশে উন্নয়ন কাজ হবে। এখানে বাঁধা আসা দুঃখ জনক।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সুলতান মাহামুদ বিপুল জানান, ভারত’ অবাধে বাংলাদেশ সীমান্তের মাত্র ১০ মিটারের মধ্যে তাদের নির্মান কাজ সম্পন্ন করেছে। সেখানে একই সীমান্ত রেখায় বাংলাদেশ’ ভারত সীমান্তের ১৫০ গজ ছেড়ে কাজ করতে হবে কেনো? এটি বিএসএফ’র অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত বিএসএফের। দু’দেশের বন্দরের উন্নয়ন কাজের স্বার্থে চলমান সংকট নিরসনের আশা করেন তিনি। বলেন, চলমান সংকট নিরসনে ভারত’ অতিতের মতো বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধুত্বের পরিচয় দিবে।

বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) রেজাউল করিম জানান, বর্তমানে বিএসএফের বাঁধায় চলমান ১৬ একরের কাজ বন্ধ আছে। আইনী প্রক্রিয়ায় যাতে নির্মান কাজ শেষ করতে পারি তার সহযোগীতার জন্য বিজিবিসহ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে চিঠিতে অবগত করা হয়েছে।বেনাপোলের সীমান্তবাসী জানান, বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় বিএসএফ কাউকে যেতে দিচ্ছেনা। এতে বর্তমান অবস্থা নিয়ে আমরা গ্রামবাসীরা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি।


আরও খবর



মেহেরপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অভিযানে দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে জরিমানা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫২জন দেখেছেন

Image

মেহেরপুর প্রতিনিধি: মেহেরপুরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর অভিযান চালিয়ে দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করে। আজ মঙ্গলবার শহরের বড়বাজার এলাকায় অভিযান চলাকালীন এ জরিমানা করা হয়। এসময় বড়বাজারে মেসার্স মেহেরপুর মিষ্টি মুখ নামক প্রতিষ্ঠানে অভিযানে কারখানায় অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে মিষ্টি তৈরি, ফ্রিজে বাসি-পচা মিষ্টি সংরক্ষণ, কর্মচারিদের স্বাস্থ্যবিধি না মানা, দইয়ে মেয়াদ মুল্য ইত্যাদি না দেয়া, মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়সহ নানা অনিয়মের অপরাধে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার মো: আব্দুর রশিদকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৩ ও ৫১ ধারায় ২০,০০০/- টাকা, মেসার্স অসিফ ফল ভান্ডার এর মালিক মো: আহসান খানকে ফ্রিজে ও র‍্যাকে প্রচুর মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য সংরক্ষণ ও বিক্রয়ের অপরাধে ৫,০০০/- টাকা জরিমানাসহ অভিযানে ০২টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ২৫,০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়। 

  ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সজল আহমেদের নেতৃত্বে অভিযানে প্রতিষ্ঠান দুটিতে নিয়ম বহির্ভূত কার্যক্রম পরিচালনায় প্রমাণ মেলে৷ জেলা কৃষি বিপণন কর্মকর্তা জনাব মো: আব্দুর রাজ্জাক অভিযান পরিচালনা কালীন সময়ে উপস্থিত ছিলেন। মুল্যতালিকা প্রদর্শন ও ক্রয় বিক্রয় ভাউচার সংরক্ষণ করা এবং অতিরিক্ত দাম নেয়া থেকে বিরত থাকার জন্য সতর্ক করা হয়।

 এসময় এলাকার বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তদারকি করা হয়। সরকারি নির্দেশনা পালনের জন্য প্রতিষ্ঠান মালিকদের সতর্ক করা হয়। মেহেরপুর সদর থানা পুলিশের একটি টিম অভিযানের সহযোগিতা করে ।জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানাই ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। 


আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আক্কেলপুরে রাতের আঁধারে গভীর নলকূপের ৩টি ট্রান্সফরমার চুরি

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image
আক্কেলপুর(জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে একাধিক মালিকানার গভীর নলকূপের ৩টি বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারের তামার অংশ চুরির অভিযোগ ওঠেছে। ঘটনাটি উপজেলার সোনামুখী ইউনিয়নের তালঘড়িয়া মাঠে ঘটেছে।

স্থানীয় ও নলকূপ মালিকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, শুক্রবার দিবাগত রাতে ওই গভীর নলকূপের পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি থেকে ক্রয়কৃত ৩টি বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারের তামার অংশ চুরি হয়। শনিবার সকালে স্থানীয় এক কৃষক ট্রান্সফরমারের ভাঙ্গা অংশ বৈদ্যুতিক খুটির নিচে ও পাশের একটি জমিতে বিক্ষিপ্ত অবস্থায় দেখে নলকূপের মালিকদের খবর দেয়। এ ঘটনায় আক্কেলপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ হয়েছে। ওই নলকূপের পানি দিয়ে আশেপাশের প্রায় ১৯৫ বিঘা ফসলী জমিতে সেচ দেওয়া হয়। 

স্থানীয় বাবু নামের এক কৃষক বলেন, আজ সকালে আমার জমিতে সেচ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ট্রান্সফরমার চুরি হওয়ার কারণে সেচ দিতে পারছিনা। ফসলের অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে।
ওই নলকূপের একাংশের মালিক ছানোয়ার হোসেন বলেন, এই ঘটনায় আমাদের প্রায় ২ লক্ষ ১০ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে। সেচের অভাবে মাঠের ফসলগুলোরও অনেক ক্ষতি হবে। 
ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনায় আক্কেলপুর থানায় অভিযোগ হওয়ার বিষয়ে অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান নিশ্চিত করেছেন।

আরও খবর

সন্দ্বীপ থানার ওসি কবীর পিপিএম পদকে ভূষিত

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪