Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম

মিউজ ডিজাইন অ্যাওয়ার্ডে প্লাটিনাম জিতলো টেকনো ক্যামন ৩০ সিরিজ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৮জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়েছে মিউজ ডিজাইন অ্যাওয়ার্ড। এই সমাদৃত ইভেন্টে পুরস্কৃত হয়েছে শীর্ষস্থানীয় উদ্ভাবনী স্মার্টফোন ব্র্যান্ড টেকনো। এই ব্র্যান্ডের ক্যামন ৩০ সিরিজ বিচারকদের দ্বারা প্রশংসিত হওয়ার পাশাপাশি অর্জন করেছে প্লাটিনাম অ্যাওয়ার্ড। টেক আর্ট লেদার এডিশনের জন্য টেকনো ক্যামন ৩০ সিরিজকে টেলিকমিউনিকেশন ক্যাটাগরিতে এই সম্মানজনক পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।

স্মার্টফোন ডিজাইনে নতুনত্ব ও নান্দনিকতার সম্মিলন ঘটাতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে টেকনো। বিশেষ করে, ডিজাইনে প্রকৃতি এবং নৈসর্গিক সৌন্দর্যের উপাদান একীভূত করতে প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে এই ব্র্যান্ড। নিরন্তর প্রচেষ্টার প্রতিফলন এই পুরস্কার। টেক আর্ট লেদার এডিশনে আছে ইন্ডাস্ট্রি-ফার্স্ট টেক-আর্ট সোয়েড ব্যাক ডিজাইন, যা এই ফোনকে করে তুলেছে আরও মোহনীয় ও স্টাইলিশ। ফ্যাশন সচেতন ব্যবহারকারীদের জন্য দুর্দান্ত একটি ফোন টেক আর্ট লেদার এডিশন। প্লাটিনাম ক্যাটাগরিতে ৮,৫০০টিরও বেশি এন্ট্রি জমা দেওয়া হয়। অসংখ্য এন্ট্রি থেকে বিচারকরা এই বিশেষ এডিশনটি পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করেন।

টেকনো ক্যামন ৩০ সিরিজের টেক আর্ট লেদার এডিশন আলপাইন উইন্ড (পাহাড়ি বায়ু বা হাওয়া) থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে ডিজাইন করা হয়েছে। পেছনের প্যানেলটি অনন্য টেক্সচার সহ উদ্ভাবনী টেক আর্ট লেদার দিয়ে তৈরি, যা নৈসর্গের সৌন্দর্যকে প্রতিফলিত করে। এই ডিভাইস ব্যবহার করার সময় পাওয়া যাবে মনোমুগ্ধকর অনুভূতি। এই ফোনে রয়েছে ক্লাসিক ক্যামেরা ডিজাইন, যা স্মার্টফোন প্রেমীদের মাঝে ফটোগ্রাফির প্রতি আপনার পুরোনো ভালোবাসা জাগিয়ে তুলবে। ক্লাসিক ফ্লেয়ারের মিশ্রন সহ আধুনিকতার ছোঁয়া আছে এই স্মার্টফোনে। নিজের স্বকীয় স্টাইলে নতুন মাত্রা যোগ করতে চান এমন ফ্যাশন সচেতন মানুষদের জন্য উপযুক্ত ডিভাইস টেকনো ক্যামন ৩০ সিরিজ।

সম্প্রতি দেশের বাজারে এসেছে টেকনো ক্যামন ৩০ সিরিজ। লঞ্চ হওয়ার পর থেকেই তরুণ ব্যবহারকারীদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই সিরিজ। নাইট পোর্ট্রেট মাস্টার হিসেবে ব্যাপকভাবে সমাদৃত এই সিরিজে রয়েছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ সহ একটি ৫০ মেগাপিক্সেল ওআইএস ক্যামেরা। অসাধারন ফটোগ্রাফি অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে এই ফোনে আছে বিভিন্ন এআই ফিচার এবং অত্যাধুনিক এআইজিসি পোর্ট্রেট।এছাড়া, এআই ইমেজ প্রসেসর পোলারএইস এর সাহায্যে ব্যবহারকারীরা তুলতে পারবেন দুর্দান্ত এআই পোর্ট্রেট ইমেজ।

উল্লেখ্য, মিউজ ক্রিয়েটিভ এবং ডিজাইন অ্যাওয়ার্ডস সারা বিশ্বে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত একটি প্রতিযোগিতা। এই ইভেন্টের মাধ্যমে ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন অনন্য ডিজাইন ও নান্দনিক কাজকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। এই পুরস্কার ডিজাইন নান্দনিকতা এবং উদ্ভাবনের প্রতি টেকনোর অব্যাহত প্রতিশ্রুতির প্রতিফলন।


আরও খবর



রৌমারীর সাবেক এমপিকে নিয়ে চক্রান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩৯জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:ভুমি দখলের মিথ্যা অভিযোগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ও সাবেক সংসদ সদস্য এবং উপজেলা আ. লীগের সভাপতি জাকির হোসেনের অনুসারিরা বিক্ষোভ মিছিল করেছে কুক্ররের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে বিক্ষোভ মিছিলটি রৌমারী উপজেলার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এসে একটি সভায় মিলিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন মন্ত্রীপুত্র সাফায়াত বিন জাকির, মন্ত্রীর চাচাতো ভাই আকতার আহসান বাবু, মন্ত্রীর চাচাতো মোস্তাফিজুর রহমান রবিন, সুরুজ্জামান, খালেদা নাহিদ প্রমূখ।

বক্তারা প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আনীত সকল অভিযোগ মিথ্যা বানোয়াট ও সড়যন্ত্রমুলক বলে জানান তারা। এছাড়া তারা আরো বলেন, প্রতিমন্ত্রীর কিছুহলে জ¦লবে আগুন ঘরে ঘরে। মন্ত্রীর নামে সড়যন্ত্র বন্ধকরো করতে হবে। 

সম্প্রতি একটি জমিকে কেন্দ্র করে এমপির বিরুদ্ধে পিস্তল উঁচিয়ে প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন তার প্রতিবেশিকে হুমকি দেয়ার ভিত্তিহীন  অভিযোগের প্রকাশিত  খবরেটি মিথ্যা। সাবেক প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমন কোনকার্যক্লা করেননি। এ নিয়ে তার বিরুদ্ধে রৌমারী থানায় একটি অনলাইন জিডি করেছে কুচক্রীমহল। তার বিরুদ্ধে প্রতিমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করেন ওই প্রতিবেশির ভিত্তিহীন অভিযোগের বিরুদ্ধে। গত কয়েকদিন ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এর প্রেক্ষিতে প্রতিমন্ত্রী পাল্টা সংবাদ সম্মেলনসহ অনুসারিরা এ বিক্ষোভ মিছিল করে।


আরও খবর



মধুপুরে দুষ্কৃতকারীদের দেওয়া আগুনে দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৬৩জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরসভাধীন বিপ্রবাড়ি এলাকায় খড়ের গাদা ও গোয়াল ঘর সহ অজ্ঞাত দুষ্কৃতকারীদের দেওয়া আগুনে সাত মাসের গাভিন গরুর ৮০ভাগ শরীর পুড়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

শুক্রবার (২৮জুন) রাত দেড়টার দিকে পৌরসভার বিপ্রবাড়ি গ্রামের ৪নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মৃত্যু আমান আলীর ছেলে আক্তার হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। এতে প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধিত হয়।

ভুক্তভোগী আক্তার হোসেন জানান, আমি রাতে গোয়াল ঘরে ঢুকে আমার ৩টি গরুর ২টি ছেড়ে রাখি এবং ৭মাসের গাভিন গরুটি বেধে রেখে মশারী টানিয়ে শোয়ার ঘরে চলে যাই।

রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে লোকজনের ডাকাডাকিতে ঘর থেকে বেরিয়ে দেখি আমার খড়ের পালায় এবং গোয়াল ঘরে আগুন জ্বলছে।

তিনি আরও জানান, আমার ২টি গরু বাঁধন ছাড়া থাকায় আগুনের তাপে ঘর থেকে বেরিয়ে পড়ে, কিন্তু ৭মাসের গাভিন গরুটি বেধে রাখায় তার ৮০ভাগ শরীর পুড়ে ঝলসে গেছে। 

কি কারনে আগুন লাগতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, কিছু দিন আগে আমার লাউয়ের বাগানের লক্ষাধিক টাকার লাউসহ লাউগাছ দুষ্কৃতকারীরা মাটির নিচ দিয়ে কেটে মেরে ফেলে। 

আমার ধারনা এবারেও সেই র্দুবৃত্তরা আমার খড়ের পালায় ও গরুর গোয়াল ঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। আমি ঘটনাস্থলে ১লিটারের ২টি সেভেনআপের বোতল পড়ে থাকতে দেখি এবং সে বোতল দুটিতে কেরোসিনের গন্ধ পাওয়া যায়। যেকারণে আমার এবং এলাকাবাসীর ধারনা, সুপরিকল্পিত ভাবে কেরোসিন ঢেলে খড়ের গাদা ও গোয়াল ঘরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে র্দুবৃত্তরা। 

প্রত্যক্ষদর্শী আঃ করিম জানান, গোয়াল ঘরের সাথেই আমার ঘর থাকায় রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে হঠাৎ শরীরে প্রচন্ড তাপ অনুভব করি এবং ঘর থেকে বেরিয়ে খড়ের গাদা ও গোয়াল ঘরে আগুন জ্বলতে দেখে ডাক চিৎকার করতে থাকি।

আমার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে পাশাপাশি স্থাপন করা ৩টি পানির মটর দিয়ে ১ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা না থাকলে পুরো এলাকার বসতবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যেতো বলে জানান তিনি।

এ ধরনের দুষ্কৃতকারীদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে হবে তা নাহলে এলাকায় এমন ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটতেই থাকবে। এঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবারে আতংক বিরাজ করছে। 

ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকাবাসী সম্বলিত ভাবে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট এর সু্‌ষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়েছেন। 


আরও খবর



সরকারি ব্যয়ে কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ ও গাড়ি কেনা বন্ধ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সরকারি কর্মকর্তাদের বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে বিদেশ ভ্রমণ ও গাড়ি কেনাসহ আরও কিছু ক্ষেত্রে নতুন দিক নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। ব্যয় সংকোচনে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩ জুলাই) এ বিষয়ে একটি পরিপত্র জারি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়।

পরিপত্রে বলা হয়েছে, সরকারের নিজস্ব অর্থে সব ধরনের বৈদেশিক ভ্রমণ, ওয়ার্কশপ ও সেমিনারে অংশগ্রহণ বন্ধ থাকবে। তবে এ ধরনের ভ্রমণ অত্যাবশ্যকীয় হলে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিয়ে কিছু ক্ষেত্রে বিদেশে ভ্রমণ করা যাবে।

যেসব ক্ষেত্রে বিদেশভ্রমণ করা যাবে সেগুলো হলো- পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটের আওতায় সরকারি অর্থায়নে বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা, বিশ্ববিদ্যালয় ও দেশের দেওয়া স্কলারশিপ বা ফেলোশিপের আওতায় বৈদেশিক অর্থায়নে মাস্টার্স ও পিএইচডি কোর্সে অংশ নেওয়া।

এ ছাড়া বিদেশি সরকার বা প্রতিষ্ঠান কিংবা উন্নয়ন সহযোগীর আমন্ত্রণে এবং সম্পূর্ণ অর্থায়নে আয়োজিত বৈদেশিক প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করা যাবে। সেই সঙ্গে প্রিশিপমেন্ট ইন্সপেকশন (পিএসআই) বা ফ্যাক্টরি অ্যাকসেপট্যান্স টেস্টের (এফএটি) আওতায় বিদেশভ্রমণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পাবলিক প্রকিউরমেন্ট অথরিটির ২ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখে জারি করা পরিপত্র কঠোরভাবে অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। একান্ত অপরিহার্য হলে পিএসআই বা এফএটির আওতায় বিদেশভ্রমণের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পূর্বানুমোদন নিতে হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরিপত্রে কৃচ্ছ্রসাধনে আরও কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। চলতি ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে পরিচালন বাজেটের আওতায় বিভিন্ন অর্থনৈতিক কোড থেকে কত অর্থ ব্যয় করা যাবে, তার দিকনির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে পরিপত্রে।

বলা হয়েছে, সব ধরনের থোক বরাদ্দ থেকে ব্যয় বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া বিদ্যুৎ, পেট্রল, অয়েল ও লুব্রিকেন্ট এবং গ্যাস ও জ্বালানি খাতে বরাদ্দকৃত অর্থের সর্বোচ্চ ৮০ শতাংশ ব্যয় করা যাবে।

পরিচালন বাজেটের আওতায় শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষি মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট স্থাপনা ছাড়া নতুন আবাসিক, অনাবাসিক বা অন্যান্য ভবন স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ থাকবে। চলমান নির্মাণকাজ ন্যুনতম ৭০ শতাংশ সম্পন্ন হয়ে থাকলে অর্থবিভাগের অনুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে। পরিপত্রে বলা হয়, সব ধরনের যানবাহন ক্রয় (মোটরযান, জলযান, আকাশযান) খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয় বন্ধ থাকবে। তবে ১০ বছরের অধিক পুরোনো টিওঅ্যান্ডইভুক্ত যানবাহন প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে অর্থবিভাগের অনুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে। ভূমি অধিগ্রহণ খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয় বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

পাশাপাশি চলতি ২০২৪-২৫ অর্থবছরের উন্নয়ন বাজেটে যেভাবে ব্যয় করা যাবে, পরিপত্রে সে বিষয়েও দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ভূমি অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে সব আনুষ্ঠানিকতা অনুসরণ করে অর্থ বিভাগের পূর্বানুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে। এ ছাড়া পরিকল্পনা কমিশনের অনুকূলে ‘বিশেষ প্রয়োজনে উন্নয়ন সহায়তা’ খাতে ‘জিওবি বাবদ’ সংরক্ষিত এবং মন্ত্রণালয় বা বিভাগের অনুকূলে ‘থোক বরাদ্দ’ হিসেবে সংরক্ষিত জিওবি’র সম্পূর্ণ অংশ অর্থ বিভাগের পূর্বানুমোদন নিয়ে ব্যয় করা যাবে।

পরিপত্রে আরও বলা হয়েছে, সরকারি ব্যয়ে কৃচ্ছসাধনে ২০২৪-২৫ অর্থবছরে সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ বা অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এবং আওতাধীন অধিদপ্তর, পরিদপ্তর, দপ্তর, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, পাবলিক সেক্টর করপোরেশন ও রাষ্ট্রমালিকানাধীন কোম্পানির পরিচালন ও উন্নয়ন বাজেটে বরাদ্দকৃত অর্থ ব্যয়ে সরকার এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছে।


আরও খবর



স্বচ্ছতা ও নজরদারির সঙ্গে বাজেট বাস্তবায়নের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:সোমবার ০১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন নতুন অর্থবছরের (২০২৪-২৫) বাজেট খুবই স্বচ্ছতা, নজরদারি ও যত্নের সঙ্গে বাস্তবায়নের জন্য মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোকে।

সোমবার (১ জুলাই) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনার কথা জানান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন সবাইকে, খুবই যত্নের সঙ্গে, খুবই নজরদারির সঙ্গে, নিপুণভাবে, স্বচ্ছতার সঙ্গে যেন বাজেট বাস্তবায়ন করা হয়। এতে যেন সবাই মনোনবেশ করি।

রোববার (৩০ জুন) সংসদ অধিবেশনে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকার জাতীয় বাজেট পাস হয়েছে।


আরও খবর



কালিয়াকৈরে ট্রেনে কাটা পড়ে নারীর মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৫জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার কালামপুর খাজারডেক এলাকায় বৃহস্পতিবার সকালে ট্রেনে কাটা পড়ে এক নারীর মৃত্যুর হয়েছে।নিহত হলেন, কুড়িগ্রামের রাজিবপুর থানার জোয়ানীপাড়া এলাকার আব্দুর রহমানের স্ত্রী শাহিনা আক্তার (৪৫)।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শাহিনা আক্তার দীর্ঘদিন ধরে মানসিক রোগে ভুগছিলেন। গত চারদিন আগে শাহিনা তার স্বামীর সাথে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে উপজেলার কালামপুর খাজারডেক এলাকায় তার ভাই মোস্তাফিজুর রহমানের বাসায় আসেন। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে তিনি হঠাৎ কাউকে কিছু না জানিয়ে তার ভাইয়ের বাসা থেকে বের হয়ে যান। পরে তিনি ওই এলাকায় জয়দেবপুর-রাজশাহী রেললাইনের উপর দিয়ে হাঁটাহাটি করছিলেন। এ সময় শাহিনা অজ্ঞাত একটি ট্রেনের নিচে কাটা পড়লে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে। জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনের ইনর্চাজ সেতাফুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।


আরও খবর